English Version

আজকের চাকরির খবর লাইভ খেলা দেখুন

খুব সহজে ঘরে বসেই এখন মেনিকিউর-পেডিকিউর

পোস্ট টি ভালো লাগলে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

মুখের ত্বকের যত্নে অনেক কিছু করলেও আমরা বেশিভাগ সময় ভুলে যাই হাত এবং পায়ের কথা। সময় হাত এবং পায়ের যত্নে আমরা কিছুই করি না। কিন্তু হাত এবং পায়ের ত্বক এবং নখের জন্য দরকার বিশেষ যত্নের। সপ্তাহে ১ দিন অন্তত মেনিকিউর-পেডিকিউর করা খুবই দরকার হাত এবং পায়ের ত্বক এবং নখের সৌন্দর্য রক্ষায়।

সৌন্দর্য সচেতন যেকোন নারীই চান দেহের সব অঙ্গের সমান যত্ন নিতে। পায়ের যত্ন নেয়ার অতি পরিচিত পদ্ধতি হচ্ছে পেডিকিউর। হাতের যত্ন নেয়ার অতি পরিচিত পদ্ধতি হচ্ছে মেনিকিউর।মূলত, হাত ও পায়ের নখ, পায়ের পাতা ও গোড়ালি পরিষ্কার করার যে প্রক্রিয়া তাকে মেনিকিউর-পেডিকিউর বলা হয়।

অনেকেই পার্লারে গিয়ে মেনিকিউর-পেডিকিউর করিয়ে থাকেন। একটু সময় করে কিন্তু ঘরে বসেই আপনি এই মেনিকিউর-পেডিকিউরের কাজটি করে ফেলতে পারেন। আজকের এই ফিচারে আপনি জানতে পারবেন কিভাবে ধাপে ধাপে মেনিকিউর-পেডিকিউেরের কাজটি সম্পন্ন করবেন।

কেন করবেন মেনিকিউর-পেডিকিউরঃ

অনেকের মনেই প্রশ্ন হতে পারে যে গোসলের সময় তো এমনি হাত-পা ঘষা হয়। তাহলে বাড়তি মেনিকিউর-পেডিকিউরের কাজ করার দরকার কি!

  1. পেডিকিউর আপনাকে নানাধরনের নখের রোগ থেকে রক্ষা করবে।
  2. আপনার পায়ের নখকে করবে কোমল ও পরিষ্কার।
  3. আপনার পায়ের গোড়ালি থেকে জমে থাকা ফাঙ্গাস দূর করে আপনাকে ত্বকের রোগ থেকে রক্ষা করবে।
  4. সর্বোপোরি, আপনার পায়ের সৌন্দর্য্য বৃদ্ধি করবে।

যা যা লাগবে:

  1. হাত-পায়ের গোড়ালি ডোবে এমন একটি বড় বাটি বা বল,
  2. ব্রাশ,
  3. নেইল কাটার ফাইলার,
  4. বাফার কিউটিকল কাটার,
  5. শ্যাম্পু অথবা তরল সাবান,
  6. নেল পলিশ রিমুভার,
  7. পেট্রোলিয়াম জেলি/ লোশন লেবু এবং চালের গুঁড়া,
  8. শসা গাজরের রস মিশিয়ে বানানো স্ক্রাব।

কিভাবে করবেন মেনিকিউর-পেডিকিউরঃ-

ধাপ ১: নেইলপলিশ পরিষ্কার করা মেনিকিউর-পেডিকিউরের একটি অতি গুরুত্বপূর্ণ ধাপ। আপনার হাত-পায়ের নখে নেইলপলিশ থাকলে তা পরিষ্কার করে ফেলুন। এক্ষেত্রে অবশ্যই ভালো মানের নেইলপলিশ রিমুভার ব্যবহার করবেন।

ধাপ ২: এবার একটি চেয়ারে আরাম করে বসুন। একটি বড় পাত্র বা ছড়ানো বড় বাটিতে হালকা গরম পানি দিন। সাথে একটু লবন মিশিয়ে নিতে পারেন। এবার এই গরম পানিতে আপনার হাত-পা ভিজিয়ে দিন। ১০ মিনিট অপেক্ষা করুন। এই দশ মিনিটে পায়ে জমা হওয়া ফাঙ্গাস, ব্যাকটেরিয়া দূর হবে। নখ, নখের চারপাশ কোমল হবে।

ধাপ ৩: নেইলকাটার দিয়ে সুন্দর করে আপনার হাত-পায়ের নখগুলো কেটে নিন। চেষ্টা করবেন সব নখ যেন একদিক থেকে কাটা হয়। আর, চতুষ্কোণ আকৃতিতে নখ কাটতে চেষ্টা করবেন। এতে নখ সুন্দর দেখাবে। একেবারে গোল আকৃতিতে কাটলে নখ বেশ বেমানান লাগে।

ধাপ ৪: এই ধাপটি করা না করা আপনার ইচ্ছে। তবে ভালো মেনিকিউর-পেডিকিউরের করতে চাইলে এই ধাপটি করতে হবে। বাজারে নখের ত্বক পরিষ্কারের বিশেষ কাঠি পাওয়া যায় যা অনেক সময় নেইলকাটারের সাথেও থাকে। এই কাঠি দিয়ে নখের ত্বক ঘষে নিন। এতে নখের উপর জমা হওয়া বাড়তি ময়লা আবরন দূর হয়ে নখে গোলাপীভাব আসবে।

ধাপ ৫: এরপর নখে পেট্রোলিয়াম জেলি মেখে আবার ভিজিয়ে রাখুন কিছুক্ষণ। এরপর ম্যাসাজ করে পরিষ্কার করে নিন। একটি শুকনা তোয়ালা দিয়ে পা মুছে ফেলুন।

ধাপ ৬:এরপর আসবে স্ক্রাবের পালা। প্রথমে পায়ে স্ক্রাব মেখে রাখুন তিন মিনিট। তারপর ম্যাসাজ করে নিন দুই মিনিট, তারপর ব্রাশ দিয়ে ঘষে পানিতে ধুয়ে ফেলুন।

ধাপ ৭: আবার পা ধুয়ে এবার নখে ও আঙুলে লেবুর রস মেখে পরিষ্কার করে নিন। নখ চকচকে করতে বাফার ঘষে নিতে পারেন। সবশেষে পা ধুয়ে মুছে ময়েশ্চারাইজার বা লোশন লাগিয়ে নিন।

ব্যাস, সহজ কয়েকটি ধাপে আপনার পায়ের যত্ন নেয়ার কাজটি মানে পেডিকিউরের কাজটি করা হয়ে গেল। এবার থেকে সময় করে ঘরে বসেই তবে পেডিকিউরের কাজটি করে ফেলুন।

খের ত্বকের যত্নে অনেক কিছু করলেও আমরা বেশিভাগ সময় ভুলে যাই হাত এবং পায়ের কথা। সময় হাত এবং পায়ের যত্নে আমরা কিছুই করি না। কিন্তু হাত এবং পায়ের ত্বক এবং নখের জন্য দরকার বিশেষ যত্নের। সপ্তাহে ১ দিন অন্তত মেনিকিউর-পেডিকিউর করা খুবই দরকার হাত এবং পায়ের ত্বক এবং নখের সৌন্দর্য রক্ষায়।

সৌন্দর্য সচেতন যেকোন নারীই চান দেহের সব অঙ্গের সমান যত্ন নিতে। পায়ের যত্ন নেয়ার অতি পরিচিত পদ্ধতি হচ্ছে পেডিকিউর। হাতের যত্ন নেয়ার অতি পরিচিত পদ্ধতি হচ্ছে মেনিকিউর।মূলত, হাত ও পায়ের নখ, পায়ের পাতা ও গোড়ালি পরিষ্কার করার যে প্রক্রিয়া তাকে মেনিকিউর-পেডিকিউর বলা হয়।

অনেকেই পার্লারে গিয়ে মেনিকিউর-পেডিকিউর করিয়ে থাকেন। একটু সময় করে কিন্তু ঘরে বসেই আপনি এই মেনিকিউর-পেডিকিউরের কাজটি করে ফেলতে পারেন। আজকের এই ফিচারে আপনি জানতে পারবেন কিভাবে ধাপে ধাপে মেনিকিউর-পেডিকিউেরের কাজটি সম্পন্ন করবেন।

কেন করবেন মেনিকিউর-পেডিকিউরঃ

অনেকের মনেই প্রশ্ন হতে পারে যে গোসলের সময় তো এমনি হাত-পা ঘষা হয়। তাহলে বাড়তি মেনিকিউর-পেডিকিউরের কাজ করার দরকার কি!

  1. পেডিকিউর আপনাকে নানাধরনের নখের রোগ থেকে রক্ষা করবে।
  2. আপনার পায়ের নখকে করবে কোমল ও পরিষ্কার।
  3. আপনার পায়ের গোড়ালি থেকে জমে থাকা ফাঙ্গাস দূর করে আপনাকে ত্বকের রোগ থেকে রক্ষা করবে।
  4. সর্বোপোরি, আপনার পায়ের সৌন্দর্য্য বৃদ্ধি করবে।

যা যা লাগবে:

  1. হাত-পায়ের গোড়ালি ডোবে এমন একটি বড় বাটি বা বল,
  2. ব্রাশ,
  3. নেইল কাটার ফাইলার,
  4. বাফার কিউটিকল কাটার,
  5. শ্যাম্পু অথবা তরল সাবান,
  6. নেল পলিশ রিমুভার,
  7. পেট্রোলিয়াম জেলি/ লোশন লেবু এবং চালের গুঁড়া,
  8. শসা গাজরের রস মিশিয়ে বানানো স্ক্রাব।

কিভাবে করবেন মেনিকিউর-পেডিকিউরঃ-

ধাপ ১: নেইলপলিশ পরিষ্কার করা মেনিকিউর-পেডিকিউরের একটি অতি গুরুত্বপূর্ণ ধাপ। আপনার হাত-পায়ের নখে নেইলপলিশ থাকলে তা পরিষ্কার করে ফেলুন। এক্ষেত্রে অবশ্যই ভালো মানের নেইলপলিশ রিমুভার ব্যবহার করবেন।

ধাপ ২: এবার একটি চেয়ারে আরাম করে বসুন। একটি বড় পাত্র বা ছড়ানো বড় বাটিতে হালকা গরম পানি দিন। সাথে একটু লবন মিশিয়ে নিতে পারেন। এবার এই গরম পানিতে আপনার হাত-পা ভিজিয়ে দিন। ১০ মিনিট অপেক্ষা করুন। এই দশ মিনিটে পায়ে জমা হওয়া ফাঙ্গাস, ব্যাকটেরিয়া দূর হবে। নখ, নখের চারপাশ কোমল হবে।

ধাপ ৩: নেইলকাটার দিয়ে সুন্দর করে আপনার হাত-পায়ের নখগুলো কেটে নিন। চেষ্টা করবেন সব নখ যেন একদিক থেকে কাটা হয়। আর, চতুষ্কোণ আকৃতিতে নখ কাটতে চেষ্টা করবেন। এতে নখ সুন্দর দেখাবে। একেবারে গোল আকৃতিতে কাটলে নখ বেশ বেমানান লাগে।

ধাপ ৪: এই ধাপটি করা না করা আপনার ইচ্ছে। তবে ভালো মেনিকিউর-পেডিকিউরের করতে চাইলে এই ধাপটি করতে হবে। বাজারে নখের ত্বক পরিষ্কারের বিশেষ কাঠি পাওয়া যায় যা অনেক সময় নেইলকাটারের সাথেও থাকে। এই কাঠি দিয়ে নখের ত্বক ঘষে নিন। এতে নখের উপর জমা হওয়া বাড়তি ময়লা আবরন দূর হয়ে নখে গোলাপীভাব আসবে।

ধাপ ৫: এরপর নখে পেট্রোলিয়াম জেলি মেখে আবার ভিজিয়ে রাখুন কিছুক্ষণ। এরপর ম্যাসাজ করে পরিষ্কার করে নিন। একটি শুকনা তোয়ালা দিয়ে পা মুছে ফেলুন।

ধাপ ৬:এরপর আসবে স্ক্রাবের পালা। প্রথমে পায়ে স্ক্রাব মেখে রাখুন তিন মিনিট। তারপর ম্যাসাজ করে নিন দুই মিনিট, তারপর ব্রাশ দিয়ে ঘষে পানিতে ধুয়ে ফেলুন।

ধাপ ৭: আবার পা ধুয়ে এবার নখে ও আঙুলে লেবুর রস মেখে পরিষ্কার করে নিন। নখ চকচকে করতে বাফার ঘষে নিতে পারেন। সবশেষে পা ধুয়ে মুছে ময়েশ্চারাইজার বা লোশন লাগিয়ে নিন।

ব্যাস, সহজ কয়েকটি ধাপে আপনার পায়ের যত্ন নেয়ার কাজটি মানে পেডিকিউরের কাজটি করা হয়ে গেল। এবার থেকে সময় করে ঘরে বসেই তবে পেডিকিউরের কাজটি করে ফেলুন।

 

এই শীতে প্রাকৃতিক উপায়ে চুলের যত্ন!

কোমর হাঁটু ঘাড় এ ব্যাথা/pain হলে কি করবেন বিশেষজ্ঞ ডাক্তার/Specialist Dr. এর পরামর্শ নিন