English Version

আজকের চাকরির খবর লাইভ খেলা দেখুন

মা-বাবাকে সময় দাও, তরুণদের পোপ

পোস্ট টি ভালো লাগলে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

মা-বাবা, দাদা-দাদি ও নানা-নানির সঙ্গে সরাসরি আলাপচারিতা ও দৃঢ় সম্পর্ক স্থাপন করতে তরুণদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন পোপ ফ্রান্সিস। শনিবার ঢাকার নটর ডেম কলেজ মাঠে আয়োজিত যুব সমাবেশে দেয়া ভাষণে এই আহ্বান জানান তিনি।

অনুষ্ঠানে ঢাকার আর্চবিশপ কার্ডিনাল প্যাট্রিক ডি’ রোজারিও, রাজশাহীর বিশপ জেভার্স রোজারিও, যুব প্রতিনিধি আন্তনি তরঙ্গ নকরেক ও উপাসনা রুথ গোমেজ বক্তব্য রাখেন।

ক্যাথলিক খ্রিস্টানদের প্রধান ধর্মগুরু বলেন, ‘আশপাশের পারিবারিক সম্পর্কের প্রতি অমনোযোগী হয়ে ফোনে মত্ত থেকো না। মা-বাবাসহ পরিবারকে সময় দাও। তাদের সঙ্গে দৃঢ় সম্পর্ক স্থাপন করো।’

তিনি বলেন, ‘তোমাদের সঙ্গে যখন সাক্ষাৎ করি তখন মনে হয় যেন আমি যুবক/তরুণ হয়ে গেছি। তোমরা সবাই উদ্দীপ্ত। এই যৌবন-দীপ্ত উদ্দীপনা নতুন অভিযাত্রার চেতনার সঙ্গে সম্পর্ক যুক্ত।’

পোপ ফ্রান্সিস বলেন, ‘আমি আনন্দিত এই জন্য যে, এখানে আমাদের সাথে একত্রে ক্যাথলিক তরুণ-তরুণীদের পাশাপাশি আছে অনেক মুসলিম বন্ধু এবং অন্যান্য ধর্মবিশ্বাসী বন্ধুরা। আজকের এই সমাবেশের মধ্যদিয়ে তোমরা পারস্পরিক সহাবস্থানের পরিবেশকে আরও সমৃদ্ধ করবে, এমন প্রত্যয়ের কথাই প্রকাশ করছ; তোমরা প্রকাশ করছ যে, ধর্মীয় মতপার্থক্য থাকলেও তোমরা অন্যদের নিকটজন হয়ে উঠবে।’

এর আগে পোপ কলেজ প্রাঙ্গণে পৌঁছালে বরিশালের বিশপ লরেন্স সুব্রত হাওলাদার, নটর ডেম কলেজের অধ্যক্ষ ফাদার হেমন্ত পিউস রোজারিও ও নটর ডেম বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস-চ্যান্সেলর ফাদার প্যাট্রিক গাছনী তাকে স্বাগত জানান। এ সমাবেশে বিভিন্ন ধর্মের প্রায় ১০ হাজার তরুণ-তরুণী অংশগ্রহণ করে।

তিন দিনের সফর শেষে বিকেল ৫টার খানিক পর রোমের উদ্দেশ্যে ঢাকা ছাড়েন পোপ ফ্রান্সিস। মিয়ানমার সফর শেষে নেপিদো থেকে তিনি বৃহস্পতিবার শাহজালাল বিমানবন্দরে অবতরণ করেন।

পোপ ফ্রান্সিস সফরের শেষ দিনেও ব্যস্ত সময় কাটান। সকালে তেজগাঁও মাদার তেরেসা ভবন পরিদর্শন করেন। পরে তিনি খ্রিস্টধর্মের নেতাদের সঙ্গে বৈঠক এবং যাজক ও ধর্মীয় নেতাদের উদ্দেশে বক্তৃতা করেন। এরপর চার্চের কবরস্থানও পরিদর্শন করেন পোপ ফ্রান্সিস।