English Version

আজকের চাকরির খবর লাইভ খেলা দেখুন

বাড়িতেই তৈরি করুন পনীর


উপকরণ :

গরুর খাঁটি দুধ- ৮কাপ বা ২ লিটার
লেবুর রস- ১/৪ টেবিল চামচ
লবণ- ১ চা চামচ (মিহি গুঁড়ো),
পাতলা সুতি কাপড়।

প্রণালি :

একটি বড় পাত্রে মাঝারী আঁচে দুধ জ্বাল দিন। জ্বাল দেওয়ার সময় ক্রমাগত নাড়তে হবে না হলে দুধ পুড়ে যেতে পারে।

লেবুর রস দিয়ে দিন এবং চুলার আঁচ কমিয়ে নাড়তে থাকুন। প্রায় সাথে সাথেই দেখবেন দুধ কিছুটা ছাড়া ছাড়া হয়ে গিয়েছে (দুধে যদি কোনো পরিবর্তন না আসে তাহলে আরো কিছুটা লেবুর রস দিন এবং চুলার আঁচ বাড়িয়ে ধীরে ধীরে নাড়তে থাকুন)।

দুধ ছানা হয়ে গেলে চুলা থেকে নামিয়ে ফেলুন। বড় ছাকনির উপর পাতলা সুতি কাপড়ে রেখে দুধ ঢেলে ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ছানাগুলোকে ধুয়ে ফেলুন যেন লেবুর রস ধুয়ে চলে যায়।

এরপর লবণ যোগ করুন আপনার স্বাদমত। (তবে খুব বেশি দেবেন না, কারণ পড়ে আবার দিতে হবে।)

লবণ দিয়ে ছানাকে মাখিয়ে ছানা সহ কাপড়টিকে খুব শক্ত করে পেঁচিয়ে  চিপে নিন যেন সব পানি বের হয়ে যায়।

এরপর কাপড়সহ ছানা সমান কিছুর উপর রেখে চেপে চেপে বসান। তারপর ছানার উপর ভারী কিছু দিয়ে চাপা দিয়ে রাখুন যেন সব পানি ঝরে যায়। ( ভারী কিছু দিয়ে চাপা দিলে পনির শক্ত আকার ধারণ করে) সব পানি ঝরে গেলে ৪/৫ ঘণ্টা পর পনিরের বলটিকে বেড় করে ঠাণ্ডা কোনো স্থানে বা ফ্রিজে রেখে দিন।

এরপর কয়েক ঘণ্টা পর পনিরটি বেশ জমে গেলে ঝুড়ি থেকে বের করে নিয়ে এর গায়ে কাঠি দিয়ে কিছু ছিদ্র করে নিন। তারপর পনিরের সম্পূর্ণ শরীরে ভালো করে লবণ মাখিয়ে আবার ঝুড়িতে ভরে ফেলুন। এখন একটি ঠাণ্ডা স্থানে রেখে দিন। লবণ বেশি খেতে চাইলে পরপর কয়েকদিন এভাবে লবণ মাখান ও উল্টে পাল্টে দিন পনিরকে। (লবণের প্রলেপ পনিরে ফাঙ্গাস জমা থেকে রক্ষা করবে। লবণ দিয়ে মাখিয়ে ফ্রিজেও রাখতে পারেন।) তৈরির ২/৩ দিন পর পরিবেশন করুণ।