English Version

আজকের চাকরির খবর লাইভ খেলা দেখুন

আমি একজন শিল্পী হিসেবে সবার মনে থাকতে চাই


 গানের কোকিল সুমাইরা আক্তার সংঙ্গী। ছোট বেলায় অনেকটা পরিবারের সবার গানের প্রতি ভালোবাসা থেকে যার গানের জগতে পথ চলা, সেই কিনা এখন সুরের যাদুতে মুগ্ধ করছে দেশের লাখো সঙ্গীত পিপাসু মানুষকে। বিশেষ করে মায়ের আগ্রহ,মায়ের অনুপ্রেরনায় গানের ভুবনে নিজেকে এতদূর নিয়ে এসেছেন। গানকে ভালোবাসা এখন অনেকটা নেশায় পরিনত হয়েছে যার সে হচ্ছে সঙ্গীত শিল্পী সুমাইরা আক্তার সংঙ্গী।

তাদের পরিবারের সবাই কম বেশি গানের সাথে জড়িত। তার বাবা কাছে থেকে প্রথমে গান করার তালিম নেন। পড়ে দেশ বরেন্য ওস্তাত নিয়াজ মুহাম্মদ চৌধুরীর গানের ক্লাসের নিয়মিত ছাত্রী হিসেবে ক্লাস করেন। এখন আরেক গুনী ওস্তাত সঞ্জীব-দের কাছে গানের তালিম নিচ্ছেন সুমাইরা আক্তার সঙ্গী। সুমাইরা আক্তার সংঙ্গী সবচেয়ে বড় গুন হলো সে ওস্তাতের কাছে যতটুকু গান শিখেন তার চেয়ে বেশি বাসায় গান শুনে গানকে রপ্ত করতে পারেন। বাংলাদেশের বেসরকারি চ্যানেল মাছরাঙ্গা টিভির লোক গানের প্রতিযোগিতা ‘ম্যাজিক বাউলিয়ানা’ মাধ্যমে গানে জগতে আসা।‘ম্যাজিক বাউলিয়ানা’তে পঞ্চম অবস্থানে ছিলেন পরে পরীক্ষার কারনে চলে আসতে হয়েছে প্রতিযোগিতা থেকে। মুলত সঙ্গী ফোক গান বেশি করেন। তাছাড়া অন্যান্য গানও রপ্ত করেছেন।

এখন স্টেজ শো নিয়ে বেশি ব্যস্ত আছেন কোকিল কন্ঠী এই গায়িকা। এক হাজারেরও বেশি স্টেজ শো-তে গান করছেন প্রতিভাবান এই সুকন্ঠি গায়িকা। আসলে একজন শিল্পীকে স্টেজে গান করলে সব ধরনের গান করতে হয়। সে লক্ষ্যে সব ধরনের গানের প্রকটিস করছেন সুমাইরা আক্তার সংঙ্গী। এখন পর্যন্ত দুটি মিউজিক ভিডিও করেছেন । জনপ্রিয় কন্ঠশিল্পী হাবিব ওয়াহিদের সাথে একটি গানের কাজের কথা চলছে। সামনে কয়েকটি এ্যালবামের কাজ শুরু হবে। সব মিলিয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন সুমাইরা আক্তার সংঙ্গী।

সুমাইরা আক্তার সংঙ্গী বলেন, আমি একজন শিল্পী হিসেবে সবার মনে থাকতে চাই। সবাই যেন আমাকে সারা জীবন মনে রাখে। একজন গানের মানুষ হিসেবে সব সময় এটাই আমার চাওয়া । আমি হৈমন্তী শুক্লার মত একজন ভালো মানের গায়িকা হতে চাই। এ ছাড়াও আমাদের দেশের অনেক গুনী শিল্পীর গান আমার ভালো লাগে। তারা আমার গানের অনুপ্রেরনা হয়ে থাকবে সারা জীবন।

আমি ভবিষ্যতে নিজ জেলা কুষ্টিয়ায় একটি গানের স্কুল করবো। সেখানে এসে যারা গানকে ভালোবাসেন সুযোগ পাচ্ছেন না। তাদের গান শিখাবো। তাদের সবাত্বক সাহায্যে করবো । আমার ইচ্ছা শক্তির চেয়ে বড় কথা হচ্ছে আমি যে কাজ করি সে কাজটা মানুষের জন্যে। আর মানুষের কাছ থেকে আমি অনুপ্রেরণা পাই বলে আমার অদম্য ইচ্ছাটা এখানে আরো ভালোভাবে কাজে লাগছে।

আসলে দেশের মানুষের ভালোবাসাকে সঙ্গী করে দেশের সঙ্গীত অঙ্গণকে কিছু ভালো মানের গান উপহার দিতে চাই। যে গানগুলোর মধ্যে শ্রোতারা আমাকে মনে রাখবে যুগ থেকে যুগান্তরে। তাহলেই আমি স্বার্থক হবো বলে মনে করি। সব শেষে বলবো শ্রোতারাই আমার প্রাণ। যাই হোক আমি সামনে এগুনোর চেষ্টা করছি। দোয়া করবেন যেন মানুষের আস্থা অর্জন করতে পারি এবং জনপ্রিয়তা অর্জন করতে পারি।আশা করছি সবার দোয়া ভালোবাসাই আমি এগিয়ে যাবো আগামী দিনগুলোতে।