English Version

আজকের চাকরির খবর লাইভ খেলা দেখুন

অভিনব পরকীয়া সাত বছর ধরে!


ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের মহারাষ্টের পুনেতে। পাণ্ডবদেব অজ্ঞাতবাসের জন্য অনেক কিছু সাজতে হয়েছিল। শ্রেষ্ঠ ধনুর্বিদ অর্জুনকেও হতে হয়েছিল বৃহন্নলা। ইনি বন্ধুর স্ত্রীর সঙ্গে অ্যাফেয়ার বজার রাখতে গত ৭ বছর ধরে নারীর বেশে তার বাড়িতে যাতায়াত করতেন। তবে শেষমেশ ধরা পড়ে গেলেন। এখন তার ঠিকানা আপাতত দেশটির পুলিশ লকআপ।

দেশটির পুলিশ জানিয়েছে, ৪৪ বছর বয়সি রাজেশ ঘিসুলাল মেহতাকে গ্রেফতার করা হয়েছে এবং ভারতীয় দণ্ডবিধির বিভিন্ন ধারায় তার বিরুদ্ধে মামলা রুজু করা হয়েছে। এ ঘটনা সামনে আসে গত বুধবার। সে দিনও অন্যান্য দিনের মতো সালোয়ার কমিজ পরে রাজেশ বন্ধুর বাড়িতে প্রবেশ করেন। তবে সে সময় বাড়িতে তার বন্ধু উপস্থিত ছিলেন। পাশের একটি ঘরে ঘুমোচ্ছিলেন তিনি। রাজেশ তার নাকে ক্লোরোফর্ম জাতীয় কোন তরল নাকে চেপে অজ্ঞান করার চেষ্টা করেন। সে সময় হঠাৎ ঘুম ভেঙে যায় রাজেশের বন্ধুর।

বেগতিক দেখে বাথরুমে ঢুকে দরজা বন্ধ করে দেন তিনি। পরে পোশাক পাল্টে বাথরুমের জানালা দিয়ে দৌড়ে পালানোর চেষ্টা করেন রাজেশ। কিন্তু ধরা পড়ে যান তিনি। পালানোর সময় তার বন্ধু চিনে ফেলেন রাজেশকে। এর পরই থানায় গিয়ে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগের ভিত্তিতে রাজেশ মেহতাকে গ্রেফতার করা হয়। যদিও রাজেশের আইনজীবীর বক্তব্য, অভিযোগ ভিত্তিহীন। তবে আদালতে পুলিশ হেফাজতের নির্দেশে রাজেশের ঠাঁই হয়েছে পুলিশ লক-আপে।