English Version

লাউয়ের ১০টি পুষ্টিগুণ

লাউ বেশ সহজলভ্য এবং উপাদেয় খাবার। গ্রীষ্ম, বর্ষা কিংবা শীত, প্রায় সব সময়ই আমাদের দেশে লাউ পাওয়া যায়। এটা ভেষজগুণসম্পন্ন সবজি। বিভিন্ন রোগ প্রতিরোধের পাশাপাশি লাউ শরীরের শক্তি বৃদ্ধি করে। এছাড়া গরমের সময় লাউ খেলে শরীর ঠাণ্ডা থাকে। লাউয়ের আরো কিছু পুষ্টিগুণ সম্পর্কে চলুন জেনে নেই-

১. লাউ এ প্রচুর পানি থাকে। এটা দেহে পানির পরিমাণ ঠিক রাখতে সাহায্য করে এবং ডায়রিয়াজনিত পানিশূন্যতা দূর করতে সাহায্য করে।

২. লাউ খেলে কিডনির কার্যক্ষমতা বৃদ্ধি পায় এবং প্রস্রাবের সংক্রমণজনিত সমস্যা দূর হয়।

৩. যথেষ্ট পরিমাণে পটাশিয়াম থাকায় লাউ উচ্চ রক্তচাপবিশিষ্ট রোগীদের জন্য খুবই উপকারী। প্রতি ১০০ গ্রাম লাউয়ে প্রায় ৮৭ মি.গ্রা. পটাশিয়াম থাকে। এটা রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখতে সাহায্য করে।

৪. লাউ কোষ্ঠকাঠিন্য, অর্শ বা পাইলস ও পেট ফাঁপা প্রতিরোধে সহায়ক।

৫. লাউ নিদ্রাহীনতা দূর করে। পরিপূর্ণ ঘুমের জন্য লাউ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

৬. লাউতে রয়েছে ক্যালসিয়াম ও ফসফরাস। ১০০ গ্রাম লাউয়ে ২০ মি.গ্রা. ক্যালসিয়াম ও ১০ মি.গ্রা. ফসফরাস। এর মাধ্যমে লাউ দেহের ঘামজনিত লবণের ঘাটতি দূর করে। পাশাপাশি দাঁত ও হাড়কে মজবুত করে।

৭. ক্যালরির পরিমাণ কম থাকায় ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য লাউ যথেষ্ট উপকারী। লাউ ওজন কমাতেও ভূমিকা রাখে।

৮. লাউ টুকরা টুকরা করে কেটে সামান্য পরিমাণে ধইন্না, জিরা, হলুদ ও লবণ দিয়ে সিদ্ধ করে খেলে হৃদরোগের উপশম হয়।

৯. লাউ ত্বকের আর্দ্রতা ঠিক রাখে।

১০. এছাড়া নিয়মিত লাউ খেলে শরীরের শক্তি বৃদ্ধি পায়। ফলে কর্মউদ্দীপনা ও কর্মশক্তিও বাড়ে।

Shares