English Version

অর্থের অভাবে সেলিম কি চির বধির হয়ে যাবে ?


ঝিনাইদহ প্রতিনিধি: মায়ের বিধবা ভাতা ও চেয়েচিন্তে পড়ালেখা করা সেলিম মোল্লার দুই কানের পর্দা ছিদ্র হয়ে গেছে। কান দিয়ে অনবরত পানি ঝরছে। অপারেশন করতে লাগবে প্রায় ৬০/৭০ হাজার টাকা, যা জোগাড় করা হতদরিদ্র এই পরিবারের পক্ষে সম্ভব নয়। যশোরের নাক কান গলা বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক ডা: সালাহ উদ্দীন জানিয়েছেন দ্রুত অপারেশন করতে না পারলে টগবগে তরুন সেলিম চির দিনের জন্য বধির হয়ে যেতে পারে।

সেলিম মোল্লার বাড়ি ঝিনাইদহ সদর উপজেলার বংকিরা গ্রামে। তিনি ওই গ্রামের মরহুম আব্দুল খায়ের মোল্লার ছেলে। ছোটকালেই সেলিম মোল্লার পিতা আব্দুল খায়ের মোল্লা মারা যান। তার বাবা ছিলেন বহুমাত্রিক প্রতিবন্ধি। বাবার মৃত্যুর পর প্রতিবন্ধি মা সেলিনা খাতুন পড়েন অথৈ সাগরে। অভাব আর অসহায়াত্ব নিয়ে চলতে থাকে তাদের সংসার। এক সময় বিধবা ভাতা কপালে জোটে সেলিনার। পাশাপাশি গ্রামের কিছু দানশীল মানুষের সহায়তায় একমাত্র ছেলে সেলিমকে পড়ালেখা করিয়ে যাচ্ছেন। সেলিম মোল্লা এখন বিএ ক্লাসের ছাত্র। পড়েন চুয়াডাঙ্গার বদরগঞ্জ ডিগ্রী কলেজে।

ঘরে অভাব থাকলেও অন্তত ছেলেকে নিরক্ষর করে রাখেননি প্রতিবন্ধি মা সেলিনা। তিনি একমাত্র ছেলের কানের অপারেশনের জন্য সমাজের বিত্তবানদের সহায়তা কামনা করেছেন। বিশেষ করে বংকিরার যে সব বিত্তবান ব্যক্তি ঢাকায় বা দেশের বাইরে আছেন, তারা যদি একটু সহায়তা করতেন তবে সেলিম চির বধির হওয়ার হাত থেকে রক্ষা পেত। ফোনে যোগাযোগ সেলিম ০১৭৭৪-৬৩৩৫৮৭, মা সেলিনা খাতুন ০১৭৯৮-৪২৩৫৭৪।