English Version

আজকের চাকরির খবর লাইভ খেলা দেখুন

নওগাঁয় নদী থেকে অবৈধ ভাবে মাটি কাটতে গিয়ে মাটি চাপায় শ্রমিকের মর্মান্তিক মৃত্যু


জি,এম মিঠন, নওগাঁ জেলা প্রতিনিধি: নওগাঁর (ছোট যমুনা নদী) নদীর বুকে জেগে ওঠা উচু জমি থেকে অবৈধ ভাবে মাটি কাটতে গিয়ে মাটি চাপায় উজ্জল সরদার (৩২) নামের এক শ্রমিকের মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে।
শনিবার সকালে নওগাঁ সদর উপজেলার পার-বাকাপুর নামক স্থানে এই মর্মান্তিক ঘটনা ঘটে। অবশেষে এই মর্মান্তিক মৃত্যুর ঘটনাটি অর্থের মাধ্যমে রফাদফা হলে শনিবার সন্ধ্যায় উজ্জলের লাশ দাফন করা হয়। মৃত উজ্জল সরদার জেলার রাণীনগর উপজেলার উপজেলার কাশিমপুর (উত্তর পাড়া) গ্রামের হাবিব সরদারের ছেলে।
সরেজমিনে জানা যায়, উজ্জল সরদার পেশায় একজন দিনমজুর। সে তার পরিবারের একমাত্র উপার্জনক্ষম ব্যক্তি। তার মোছা: রুবিনা আক্তার (৮) ও মোছা: সুমাইয়া আক্তার (৩) নামের দুইটি নাবালক মেয়ে রয়েছে। সে রাণীনগর উপজেলার এনায়েতপুর গ্রামের আব্দুল সরদারের ছেলে বালু ও মাটি ব্যবসায়ী নয়ন সরদারের দিনমজুরের কাজ করে আসছে দীর্ঘদিন যাবত। নয়ন সরদার প্রশাসনকে ম্যানেজ করে দীর্ঘদিন যাবত আত্রাই নদীর বিভিন্ন অংশ থেকে অবৈধ ভাবে মাটি ও বালু কেটে বিক্রয়ের ব্যবসা করে আসছিল। সে নদীর এই মাটি কেটে বিভিন্ন ইট ভাটায় বিক্রয় করে। ওই দিন সকাল অনুমান ৬টার সময় উজ্জল সরদারসহ নয়ন সরদারের ৮জন মাটি কাটা শ্রমিক পার-বাঁকাপুর এলাকায় নদীর বুকে জেগে ওঠা উচু জমি থেকে অবৈধ ভাবে মাটি কেটে নেওয়ার জন্য কাজ শুরু করে। মাটি কাটার এক পর্যায়ে উচু জমির উপড় থেকে এক বড় মাটির চাপ উজ্জল সরদারের উপর ধসে পড়লে ঘটনাস্থলেই উজ্জলের মর্মান্তিক মৃত্যু হয়। উজ্জলের মৃত্যুর খবরে তার পরিবারে শোকের ছাঁয়া নেমে আসে। খবর পেয়ে রাণীনগর থানার এস আই রতন ও এস আই নুর ইসলাম উজ্জলের বাড়িতে যান। উজ্জলের এই মর্মান্তিক মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়লে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানসহ স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উজ্জলের বাড়িতে তার পরিবারকে সান্ত¦না জানাতে ছুটে যান। এ ঘটনায় ব্যবসায়ী নয়ন সরদার পালিয়ে থাকলেও তার লোকজন উজ্জলের পরিবারের সঙ্গে অর্থের বিনিময়ে বিষয়টি রফাদফা করে ।
ব্যবসায়ী নয়ন সরদার মুঠোফোনে জানান, তিনি অন্যান্য মাটি ব্যবসায়ীদের মতো লিজ ছাড়াই আত্রাই নদীর বিভিন্ন অংশ থেকে বালু উত্তোলন ও উচু জমি থেকে মাটি কেটে বিক্রয়ের ব্যবসা করে আসছে। উজ্জল সরদার তার ৮ জন শ্রমিকের মধ্যে একজন। উজ্জল সরদার তার হয়ে দীর্ঘদিন যাবত এই নদী থেকে এই মাটি কাটার কাজ করে আসছিল। নয়ন সরদার আরো জানান, উজ্জল সরদারের মৃত্যু একটি দূর্ঘটনা মাত্র। তিনি উজ্জলের লাশ দাফন করার যাবতীয় খরচ বহন করেন।
২নং কাশিমপুর ইউপি চেয়ারম্যান মো: মোখলেছুর রহমান বাবু জানান, পারিবারিক ভাবে ঘটনাটি মিমাংসা হওয়ায় উজ্জলের লাশ দাফন করা হয়েছে।
এব্যাপারে রাণীনগর থানার ওসি মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, যেহেতু ঘটনাটি ঘটেছে নওগাঁ সদর থানায়। কিন্তু নিহত উজ্জলের বাড়ি রাণীনগর থানায় । নিহতের লোক নওগাঁ সদর থানায় গিয়ে লাশ দাফনের অনুমতি নিয়ে এসে তারা লাশ দাফন করেছে।