English Version

আজ থেকে ৫৩০০ বছর আগের মানুষরা কি খেত?

পোস্ট টি ভালো লাগলে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

বিডিটুডেস ডেস্ক: ৫৩০০ বছর আগের মানুষ- ১৯৯১ সাল নাগাদ ইউরোপের আল্পস পর্বতমালার ওটজালে একটি প্রাকৃতিক মমির সন্ধান পাওয়া যায়। ধারণা করা হয় খ্রিস্টপূর্ব ৩৪০০ থেকে ৩১০০ শতাব্দীর মধ্যেই পৃথিবীতে বাস করতো এই প্রাচীন মানব। এই ‘আইসম্যান’ বা প্রাকৃতিক মমিই বিজ্ঞানীদের উৎসাহের অন্যতম কারণ হয়ে উঠেছে বহু বছর ধরে। এই মমির নাম দেয়া হয় ওৎজি আইসম্যান। সেই মমি থেকেই গবেষকরা জানার চেষ্টা করেছিলেন, মমিটির বয়স কত। কী ভাবে মৃত্যু হয়েছিল এই ব্যক্তির। তার পশমের চামড়ার কোট, ছাগলের চামড়ার পোশাক, দাঁতের অংশ, গোড়ালি সবকিছুই নিয়েই শুরু হয় গবেষণা। জানা যায়, মমির বয়স প্রায় ৫৩০০ বছর। ওৎজি দ্য আইসম্যান মারা যান হিমবাহের পাশেই। সেখানেই হাজার হাজার বছর ধরে মৃতদেহ সংরক্ষিত ছিল। এক দল গবেষক দাবি করেন, ওৎজিকে সম্ভবত পরিচিত কেউ খুন করেছিলেন।

২০০১ সালে ওৎজির বাঁ কাঁধে একটি তীরের সন্ধান মিলেছিল, যা দেখে সন্দেহ তাকে খুন করা হয়েছে। তদন্তে জানা যায়, মৃত্যুর ক’দিন আগে ওৎজির ডান হাতে আঘাত লাগে। তবে তাতে তার মৃত্যু হয়নি। যেভাবে তীরটি এসে তার গায়ে লেগেছিল সেটা আকস্মিক ও অনেকটা দূর থেকে। তা থেকে সন্দেহ, হত্যাকারী তার পরিচিত ও বিশ্বাসঘাতক। তার ত্বকের প্রতিটি ভাঁজ পর্যন্ত নথিভুক্ত করা হয়। কিন্তু সমস্যা হয়েছিল অন্য জায়গায়। পাওয়া যাচ্ছিল না পাকস্থলী। পরে সেই পাকস্থলীর অবস্থান নির্ণয় করেন বিজ্ঞানীরা। পাকস্থলীতে পাওয়া পরজীবী থেকে তাদের ডিম নিয়েও প্রাচীন যুগের বাসিন্দাদের খাদ্যাভ্যাস জানার চেষ্টা করা হয়। বিজ্ঞানীরা জানান, তার পাকস্থলীতে বুনো ছাগলের মাংসের চর্বি ছিল। এছাড়া হরিণের মাংস ও প্রাচীন আমলের এক ধরনের খাদ্যশস্য এবং কিছুটা বিষাক্ত ফার্ন জাতীয় গাছের অংশও মিলেছে। আইসম্যানের খাবারে চর্বির পরিমাণ ছিল দেখার মতো, ৫০ শতাংশ। আধুনিক খাদ্য তালিকায় খুব বেশি হলে ১০ শতাংশ ফ্যাট থাকে।

ইতালির বোলজানোর ইউর‍্যাক রিসার্চ ইনস্টিটিউট ফর মামি স্টাডিজের বিজ্ঞানী ড. ফ্রাঙ্ক মেইক্সনার জানান, এই বরফ যুগের মানুষটির বাস যে স্থানে ছিল তা নিয়ে গবেষণা চলছে। তিনি যেখানে শিকার করছিলেন সেখানে দেহের জন্যে বাড়তি শক্তি দরকার। আর তা পেতে বাড়তি ফ্যাটও দরকার। রুক্ষ্ম পরিবেশে বেঁচে থাকতে প্রয়োজনীয় শক্তি একমাত্র ফ্যাটই দিতে পারে। সম্প্রতি কারেন্ট বায়োলজিতে প্রকাশিত গবেষণায় বলা হয়, তাম্র যুগে মানুষ কী খেত, তার ধারণা মেলে এই প্রাকৃতিক মমির থেকে। বছর বছর ধরে তার দেহ প্রাকৃতিকভাবেই মমিতে পরিণত হয়েছে। প্রাকৃতিক কারণেই পাকস্থলী স্থান বদল করেছিল। তবে দেহের ভেতরেই ছিল। গবেষকরা বলেন, খাবারে কার্বোহাইড্রেট, প্রোটিন ও ফ্যাট ছিল। কাজেই তা সুষম বলা যায়। শেষ খাবার ছিল মাংস। ইউরোপিয়ান আল্পসে এক ধরনের বুনো ছাগল ছিল, যার নাম আলপাইন আইবেক্স। খুব সম্ভবত এরই মাংস খেয়েছিলেন এই প্রাচীন মানুষ।

তবে তিনি ভেষজ খাবারও খেয়েছিল। চিকিৎসার কাজে কিংবা এমনিতেই। তার পাকস্থলীতে পাওয়া গেছে ব্র্যাকেন নামের এক ধরনের ফার্ন। এটা একটু বিষাক্ত। আবার এমনও হতে পারে, এই উদ্ভিদের পাতায় করে খাবার খেয়েছিলেন। আর ভুল করে কিছু ফার্নও তার পেটে চলে যায়। যেভাবে ৩০০ কোটির মালিক হলেন গরিব অটোচালক পাকিস্তানের বাসিন্দা মোহম্মদ রশিদ। পেশায় অটোচালক। টানাটানির সংসার। নিজের অটো নেই, তাই ভাড়ায় একটা অটো চালান। মেয়েকে একটা সাইকেল কিনে দিতে চেয়েছিলেন রশিদ। সামান্য উপার্জন করা অটোচালকের ৩০০ টাকা সঞ্চয় করে যেখানে একবছর সময় লেগেছে একটি সাইকেল কিনে দিতে, সেই লোকটির ব্যাংক অ্যাকাউন্টে হঠাৎ দেখা যায় ৩০০ কোটি রুপি। ব্যাংকের অ্যাকাউন্ট দেখ চমকে ওঠেন রশিদ। ঠিক দেখছেন তো? নিজেকে সামলে নিয়ে তিনি আবার ভাল করে পরীক্ষা করে দেখলেন। ভুল দেখছেন কিনা! কিন্তু নাহ! তিনি ঠিকই দেখেছেন। কিন্তু এটা সম্ভব হল কীভাবে? ভেবে কুল-কিনারা পাচ্ছিলেন না তিনি। এটা দেখে আমি ঘামতে শুরু করি আর প্রচণ্ড ভয় পেয়ে যাই, বলছিলেন রশিদ।

পাকিস্তানের নতুন প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান কালো টাকা খোঁজ নিতে শুরু করলে দেশটির অনেক বাসিন্দাদেরই এরকম সমস্যার সন্মুখীন হতে হয়। এমন ঘটনায় ভয় পেয়ে যাওয়া রশিদের কাছে ফেডারেল ইনভেস্টিগেশন এজেন্সি ফোন আসে। ফোন পাওয়া মাত্রই রশিদ গা ঢাকা দেওয়ার চেষ্টা করেন। কিন্তু বন্ধু-বান্ধব ও পরিবারের লোকেরা তাকে তদন্তকারীদের সহযোগিতা করার জন্য বুঝিয়ে বললে রশিদ রাজি হয়ে যান। রশিদ এক সাক্ষাত্কারে বলেন, কোনও তদন্তকারী সংস্থা যদি আমাকে তুলে নিয়ে যায় সেই ভয়ে অটো চালানো বন্ধ করে দিয়েছিলাম। আতঙ্কে আমার স্ত্রী অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন।

গত কয়েক সপ্তাহ ধরে পাকিস্তানে এমনই ছবি উঠে আসছে। রশিদের মতো বহু গরিব পরিবারের অ্যাকাউন্টে ‘ভুতুড়ে’ টাকা এসে পড়ছে। তার পর সে টাকা গায়েবও হয়ে যাচ্ছে! রশিদের মতো একই অবস্থা হয়েছিল শারওয়াত জেহরা নামে এক ব্যক্তির। তাঁর অ্যাকাউন্টেও কয়েকশো কোটি টাকা জমা পড়েছিল। পাকিস্তানে কালোটাকার কারবারিদের ধরতে নানা রকম পদক্ষেপ করছেন ইমরান খান। গত বুধবারেই তিনি বলেছিলেন, কালোটাকার কারবারিদের কোনোভাবেই রেয়াত করা হবে না। রশিদদের মতো গরিব মানুষদের ব্যাংক অ্যাকাউন্টকে কাজে লাগিয়ে পাকিস্তান থেকে কোটি কোটি টাকা বিদেশে পাচার করা হচ্ছে। দেশের অর্থনীতি ভেঙে পড়ার পিছনে এটাও অন্যতম কারণ বলে মনে করছেন সে দেশের আর্থিক বিশেষজ্ঞরা।

ক্ষমতায় এসে তাই ইমরান হুঁশিয়ারি দিয়েছেন, দুর্নীতিগ্রস্ত ব্যক্তিদের উপযুক্ত শাস্তি দেওয়া হবে। সম্প্রতি এক সভায় তিনি দেশবাসীর উদ্দেশে এমন ‘ভুতুড়ে’ টাকার প্রসঙ্গ তুলে বলেন, এটা আপনাদের চুরি যাওয়া টাকা। এই টাকা চুরি করে ব্যাংক অ্যাকাউন্টগুলো কাজে লাগিয়ে বিদেশে টাকা পাচার করা হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রীর সেই কথা শুনেছিলেন রশিদ। তাই ৩০০ কোটি টাকা তাঁর অ্যাকাউন্টে ঢোকার পর থেকেই আতঙ্ক ঘিরে ধরে। টাকাটা অবশ্য রশিদের ভাগ্যে জোটেনি। মুকুট থেকে তিনি যেন ‘মুকুটহীন রাজা’। তাই প্রতিবেশীরা রসিকতা করে তাঁর সম্পর্কে বলেছিলেন, রশিদ তো কপর্দকশূন্য ধনকুবের! ধনকুবের খাতায় নাম লেখানো রশিদরা কখনোই এসব টাকার হদিস সম্পর্কে ওয়াকিফহাল নয়। উত্তাল শ্রীলঙ্কা, জামিনে মুক্ত রানাতুঙ্গা

এখনো উত্তাল শ্রীলঙ্কা। দেশটির রাজনৈতিক অবস্থা অশান্ত। শ্রীলঙ্কার সাবেক অধিনায়ক এবং দেশটির পেট্রোলিয়াম মন্ত্রী অর্জুনা রানাতুঙ্গা জামিনে মুক্তি পেয়েছেন। রাজনৈতিক সঙ্কট চলাকালে রোববার বিক্ষোভের সময় তার দেহরক্ষীর গুলিতে একজন নিহত ও দু’জন আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় সোমবার বিকেলে গ্রেফতার করা হয় রানাতুঙ্গাকে। রানাতুঙ্গা জানিয়েছেন, সিলন পেট্রোলিয়াম কর্পোরেশনের (সিপিসি) অফিসে বিরোধী দলের লোকজন তার ওপর হামলা হয়। তার প্রাণ বাঁচাতেই নিরাপত্তারক্ষী গুলি চালান। তিনি বলেন, ‘তারা আমাকে হত্যা করার জন্য এসেছিল। বিশ্বাস না হলে সিসিটিভি ফুটেজ দেখতে পারেন।’

রোববারের ওই ঘটনার পর শ্রীলঙ্কার বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক রানাতুঙ্গা বলেছিলেন, ‘প্রথমবার নিজের জীবন নিয়ে এতো শঙ্কায় ছিলাম। আমি শুধু আমার সন্তান ও পরিবারের কথা ভাবছিলাম।’ উল্লেখ্য, শ্রীলঙ্কার সাবেক প্রধানমন্ত্রী রনিল বিক্রমসিঙ্গের অত্যন্ত ঘনিষ্টজন হিসাবে পরিচিত রানাতুঙ্গা পেট্রোলিয়াম মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বে আছেন। ২৬ অক্টোবর প্রধানমন্ত্রী বিক্রমসিঙ্গেকে দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দেন রাষ্ট্রপতি সিরিসেনা। শুরু হয় রাজনৈতিক সঙ্কট। সাবেক রাষ্ট্রপতি মাহিন্দা রাজাপাকসেকে প্রধানমন্ত্রী পদে বসিয়ে আঘামী ১৬ নভেম্বর পর্যন্ত পার্লামেন্ট অচল রাখার কথা ঘোষণা করেন সিরিসেনা। এরপর থেকেই বিক্ষোভে উত্তাল শ্রীলঙ্কা। বিডিটুডেস/আরএ/০১ নভেম্বর, ২০১৮

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

5 + 2 =