English Version

গাজীপুর-৩ আসনের নৌকা যাচ্ছে কার ভাগ্যে!

পোস্ট টি ভালো লাগলে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

আনোয়ার হাসান, গাজীপুর: রাজধানীর উপকণ্ঠ গাজীপুরের পাঁচটি আসনই বরাবর আওয়ামী লীগের কব্জায় থাকে। যে কারণে প্রতিবারই জাতীয় নির্বাচনের আগে এই আসনগুলো নিয়ে মনোনয়ন প্রত্যাশী,কর্মী সমর্থক,ভোটারদের মাঝে থাকে ব্যাপক উদ্বেগ উৎকণ্ঠা। গাজীপুরের পাঁচটি আসনের মধ্যে চারটি আসনই আওয়ামী লীগের প্রার্থী মোটামুটি চূড়ান্ত। শুধু গাজীপুর-৩ আসনে ক্ষমতাসীন দলের প্রার্থী চূড়ান্ত হয়নি। গাজীপুর সদরের তিনটি ইউনিয়ন ও শ্রীপুর উপজেলা নিয়ে গঠিত সংসদীয় ১৯৬ তম আসন।

এই আসন থেকে টানা ছয়বার সংসদে আওয়ামী পরিবারের হয়ে প্রতিনিধিত্ব করেছেন অ্যাডভোকেট মো. রহমত আলী এমপি। বঙ্গবন্ধুর শেখ মুজিবুর রহমানের ঘনিষ্ঠ এই নেতা দীর্ঘদিন এই আসনের মানুষের সুখ-দুঃখের সাথী হয়ে কাজ করেছেন। গত প্রায় পাঁচ বছর যাবৎ তিনি বয়সের ভারে বিকল হয়ে পরেছেন। মাঠ পর্যায়ে রাজনৈতিতে অংশ নিতে পারছেন না।

এই অবস্থায় কে ধরবে তার হাল? কে দেখাবে এই আসনের মানুষকে স্বপ্ন? কাকে মনোনয়ন দিলে নৌকা বিপুল ভোটে জয় লাভ করবে? এসব প্রশ্ন প্রতিনিয়ত এই অঞ্চলের ভোটারদের মুখে মুখে। তবে মাঠ ঘুরে দেখা গেছে স্থানীয় সাংসদপুত্র অ্যাডভোকেট জামিল হাসান দুর্জয় ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ ইকবাল হোসেন সবুজ মনোনয়ন প্রত্যাশায় মাঠে কাজ করে যাচ্ছেন। ইকবাল হোসেন সবুজ সাবেক শ্রীপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করেছেন দীর্ঘদিন। আর দুর্জয় জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক হিসেবে মাঠে কাজ করছেন।

আরো পড়ুন: রায় কোথায় থেকে আসে এসকে সিনহা বলে গেছেন – বিএনপি

দীর্ঘদিন আওয়ামী লীগের দখলে থাকা এই আসনে কে পাচ্ছেন নৌকার টিকেট তা নিয়ে সাধারন মানুষের মধ্যে রয়েছে নানা ভাবনা। অবশ্য এক পক্ষ বলছেন র্দীঘদিনের সাংসদ,ত্যাগী আওয়ামী লীগ নেতা রহমত আলীপুত্র জামিল হাসান দুর্জয়ই পাবেন নৌকার মনোনয়ন। তবে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে এই সাংসদপুত্রের বিরুদ্ধে রয়েছে নানা অভিযোগ। অবশ্য এসব অভিযোগগুলো রাজনৈতিক প্রতিহিংসামূলক বলে দাবি করেছেন দুর্জয় সমর্থকরা।

অপরদিকে সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান জেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন সবুজ বিভিন্ন সময়ে তৃণমূল রাজনীতিতে এগিয়ে রয়েছে । এই নেতার গাজীপুর জুড়ে রয়েছ বিশাল কর্মীবাহিনী। এক সময় জেলা ছাত্রলীগের নেতৃত্ব দেওয়া এই নেতা স্থানীয় সাংসদ কর্তৃক অবমূলায়িত হয়ে গড়ে তুলেছেন নিজেস্ব কর্মী-সমর্থক গোষ্ঠি। তার সমর্থকরা বলছেন সবুজ যেভাবে মাঠে আওয়ামী লীগ সরকারের উন্নয়ন বার্তা নিয়ে উঠান বৈঠক করছে,নেত্রী সব কিছু বিবেচনা করে এবার তাকেই এই আসনে মনোনয়ন দিবেন।
কার্যত গাজীপুর ৩ আসনে দু,ভাগে বিভক্ত আ’লীগ । দুই পক্ষেরই বিশাল কর্মী সমর্থক নিয়ে মাঠে শোডাউন ,মিছিল, মিটিং গণসংযোগ করে কেন্দ্রের দৃষ্টি আকর্ষণ করার চেষ্টা করছে দুই মনোনয়ন প্রত্যাশীই। তবে আওয়ামী লীগের একটি সূত্র বলছে এ মাসেই সকল জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে মনোনয়ন চূড়ান্ত করা হবে। বিডিটুডেস/আরএ/১১ অক্টোবর, ২০১৮

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

one × three =