English Version

জনপ্রিয় প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ পাইথন এর ইতিহাস

পোস্ট টি ভালো লাগলে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

বিডিটুডেস ডেস্ক:

পাইথনঃ

ডাটা থেকে শুরু করে ওয়েব ডেভেলপমেন্ট সব জায়গায় বহুল ব্যবহৃত একটি গুরুত্বপূর্ণ ল্যাংগুয়েজ হল পাইথন। এটি একটি ওপেন সোর্স প্রোগ্রামিং ল্যাংগুয়েজ। পাইথন এর শুরু নিয়ে আলোচন করতে হলে ফিরে যেতে ১৯৮৯ সালের সময়টাতে। এটি ছিল Guido van Rossum এর একটি শখের প্রজেক্ট বলা যায়। Guido van Rossum একজন ডাচ প্রোগ্রামার, যিনি ১৯৫৬ সালে জন্মগ্রহণ করেন। তাকে পাইথন কমিউনিটির Benevolent Dictator For Life বলা হয়। এর মানে কিছুটা এমন যে, তিনি আজীবন এর জন্য পাইথনের পরিচালক হিসেবে থাকবেন এবং পাইথন নিয়ে যে কোনো যুক্তি, বিতর্কে তার কথাই শেষ কথা।

আরো পড়ুন: জনপ্রিয় প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ সি ও পাইথন এর ইতিহাস

পাইথন তৈরিতে ABC ল্যাঙ্গুয়েজ এর প্রভাব আছে। তিনি তখন আমিবা ডিস্ট্রিবিউটেড অপারেটিং সিস্টেম গ্রুপের সাথে কাজ করছিলেন। তিনি সেখানে ABC ব্যবহার করতে চাইলেন না। বিকল্প হিসেবে তিনি নতুন কিছু তৈরির কথা ভাবলেন। যার ফল হিসেবেই পাইথন এর জন্ম।

1991 সালে van Rossum প্রথম পাইথন প্রকাশ করেন। এবং এই পর্যায়েই ক্লাস ইনহেরিটেন্স, এক্সেপশন হ্যান্ডলিং, ফাংশন, ও প্রধান ডাটা টাইপ list, dict, str এসব সংযুক্ত ছিল।

১৯৯৪ সালের জানুয়ারি তে পাইথন ১.০ সংস্করণ বাজারে আসে। সাথে আসে আরো কিছু সংযোজন। যেমন, ফাংশনাল প্রোগ্রামিং টুলস lambda, map, filter ও reduce।

আমাদের  ফেসবুক পেজে লাইক দিতে “এখানে ক্লিক করুন ”

আর ভালো কথা, পাইথন নাম টাও কোনো সাপের নামে নামকরণ করা হয়নি। ইংল্যান্ডের এক রম্য অনুষ্ঠান “মন্টি পাইথন ফ্লায়িং সার্কাস” থেকে এর নামকরণ করা হয়েছিল “পাইথন”। Guido van Rossum এই অনুষ্ঠানের অনেক ভক্ত ছিলেন।

অনেক বড় বড় প্রকল্প পাইথনে ডেভেলপ করা। যেমন, Youtube, Disqus, Pinterest, Quora, Instagram । এছাড়া কিছু বড় প্রতিষ্ঠান ও তাদের বিভিন্ন কাজে পাইথন ব্যবহার করে। যেমন, Google, Nasa.

MIT সহ যুক্তরাষ্ট্রের বেশিরভাগ বিশ্ববিদ্যালয়ে পাইথন প্রথম ল্যাঙ্গুয়েজ হিসেবে শেখানো হয়।

পাইথনের নিজস্ব বহু মডিউল ও লাইব্রেরি আছে। এর পরেও বিশেষ ধরনের কাজের জন্য বিশেষভাবে তৈরি বিভিন্ন প্যাকেজ ও পাওয়া যায়। যেমনঃ বায়োইনফর্মেটিক্স বিষয়ক কাজের জন্য রয়েছে BioPython, গ্রাফিকাল ইন্টারফেস প্রোগ্রামিং এর জন্য PyGTK, ইমেজ প্রসেসিং এর জন্য OpenCV ইত্যাদি। বিডিটুডেস/আরএ/১৫ জুলাই, ২০১৮