English Version

টানা তৃতীয় বার ফাইনালে ঢাকা, রংপুরের বিদায়!

পোস্ট টি ভালো লাগলে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

ছবি অনলাইন

বিডিটুডেস ডেস্ক: আর জেগে ওঠেনি ক্রিস গেইলের ঘুমন্ত ব্যাট। অনেক ভরসার রাইলি রুশোর ব্যাটেও নেমে এসেছিল হতাশার প্লাবন। রংপুর রাইডার্সের ব্যাটিং লাইনের বারুদ জ্বলে উঠতে দেননি রুবেল হোসেনরা। ম্যাচের শুরুতে তিন বলে ছক্কা হজমের পর তিন বলে তিন উইকেট নিয়ে ম্যাচের লাগাম পেয়েছিল ঢাকা ডায়নামাইটস। বাকি সময়ে যা হাতছাড়া করেনি সাকিব আল হাসানের দল। গতকাল মিরপুর স্টেডিয়ামে বিপিএলের দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ারে রংপুরকে পাঁচ উইকেটে পরাজিত করে ফাইনালে উঠে গেছে ঢাকা। গত আসরে এই রংপুরের কাছে হেরেই রানার্সআপ হয়েছিল সাকিব বাহিনী। বিপিএলে তৃতীয়বার ফাইনালে উঠল ঢাকা ডায়নামাইটস। আর ঢাকা ফ্র্যাঞ্চাইজির এটি পঞ্চম ফাইনাল। আগামীকাল ফাইনালে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের মুখোমুখি হবে ঢাকা। প্রথমে ব্যাট করে ১৯.৪ ওভারে ১৪২ রান তুলেছিল রংপুর। জবাবে ১৬.৪ ওভারে ৫ উইকেটে ১৪৭ রান তুলে ম্যাচ জিতে নেয় ঢাকা।

ছবি অনলাইন

ঢাকার শক্তিশালী ব্যাটিং লাইনের সামনে ১৪৩ রানের টার্গেট খুব বড় চ্যালেঞ্জ ছিল না। ইনিংসের চতুর্থ বলে উপুল থারাঙ্গা (৪) ফিরেছিলেন মাশরাফির শিকার হয়ে। রনি তালুকদার-সুনীল নারিনের আক্রমণ থামিয়েছিলেন নাজমুল অপু। চতুর্থ ওভারে নারিন ফিরেন ১৪ রান করে। ব্যাটিংয়ে এসেই ঝড় তোলা সাকিব দলীয় ৭৫ রানে বোল্ড হন বেনি হাওয়েলের বলে। তার শরীরে লেগে বল স্ট্যাম্পে আঘাত হানে। তিনি ২৩ রান করেন। একবার জীবন পাওয়ার পরও উইকেটে স্থায়ী হতে পারেননি পোলার্ড। মাশরাফির শিকার হওয়ার আগে ১৪ রান করেন তিনি। ১১তম ওভারের শেষ বলে নূরুল হাসানের সঙ্গে ভুল বোঝাবুঝিতে রান আউট হন একপ্রান্ত আগলে থাকা রনি তালুকদার। তিনি ২৪ বলে ৩৫ রান করেন। শেষদিকে আর বিপদ হতে দেননি আন্দ্রে রাসেল ও নূরুল হাসান। তাদের ৫০ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটিতে জয় নিশ্চিত করে ঢাকা। রাসেল ১৯ বলে ৫টি ছক্কায় অপরাজিত ৪০ রান করেন। নাজমুল অপুকে টানা তিন ছক্কা মেরে ম্যাচ শেষ করেন রাসেল। নূরুল হাসান ৯ রানে অপরাজিত ছিলেন। রংপুরের মাশরাফি দুটি, নাজমুল অপু ও বেনি হাওয়েল একটি করে উইকেট নেন।

এর আগে নাদিফ চৌধুরীর ক্যামিওতে চার ওভারেই ৪০ পার হয়েছিল রংপুরের স্কোর। শুভাগত হোমকে টানা তিন ছক্কা মারা নাদিফ (১২ বলে ২৭ রান) দলীয় ৪২ রানে আউট হন। পঞ্চম ওভারের প্রথম দুই বলে গেইল, রুশোকে ফিরিয়ে রংপুরকে বড় ধাক্কা দেন রুবেল। বাইরের বল তাড়া করে গেইল (১৫) ফিরেন। নিজের প্রথম বলেই রুশো (০) ক্যাচ দেন পোলার্ডের হাতে। ৪২ রানে তিন উইকেট হারানোর ধাক্কা ভালোভাবে কাটিয়ে উঠেছিল রংপুর মিঠুন-রবি বোপারার জুটিতে। তাদের ৫৮ রানের জুটি ভাঙে মিঠুন আউট হলে। কাজী অনিকের বলে উইকেটের পেছনে ক্যাচ দেন মিঠুন ২৭ বলে ৩৮ রান করে। মাশরাফি, বেনি হাওয়েলরা সুবিধা করতে পারেননি ব্যাট হাতে। একপ্রান্ত আগলে রবি বোপারার খেলা ৪৩ বলে ৪৯ রানের ইনিংসে লড়াইয়ের পুঁজি পায় রংপুর। ঢাকার পক্ষে রুবেল ২৩ রানে চারটি, আন্দ্রে রাসেল-কাজী অনিক দুটি করে, সাকিব-শুভাগত হোম একটি করে উইকেট নেন। বিডিটুডেস /ডি আই/ ৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

thirteen + fourteen =