English Version

আজকের চাকরির খবর লাইভ খেলা দেখুন

ট্রাম্পকে ক্ষমা চাইতে হবে

পোস্ট টি ভালো লাগলে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

আফ্রিকার দেশগুলোর প্রতিনিধিত্বকারী ওই গোষ্ঠীটির ওয়াশিংটন ডিসি মিশন ট্রাম্পের এ মন্তব্যে ‘মর্মাহত, অপমানিত ও উদ্বিগ্ন’ হওয়ার কথা জানিয়েছে ।বৃহস্পতিবার হোয়াইট হাউসের ওভাল দপ্তরে অভিবাসন নিয়ে এক বৈঠক চলাকালে ট্রাম্প কথিত ওই মন্তব্যটি করেন বলে প্রকাশিত প্রতিবেদনগুলোতে বলা হয়। কিন্তু কথিত ওই ভাষা ব্যবহার করেননি বলে দাবি করেছেন ট্রাম্প।ওই বৈঠকে উপস্থিত দুই রিপাবলিকান সিনেটরও ট্রাম্পের দাবির প্রতি সমর্থন জানিয়েছেন।

শুক্রবার এক টুইটে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জানিয়েছেন, অভিবাসন আইন ‘কঠোর’ করা নিয়ে আইনপ্রণেতাদের সঙ্গে ওই গোপনীয় বৈঠকটি করছিলেন তিনি। কিন্তু তিনি বলছেন বলে যেসব শব্দ উল্লেখ করা হচ্ছে ‘সেগুলো ব্যবহার করা হয়নি’।অপরদিকে আফ্রিকান ইউনিয়ন বলেছে, “এই মন্তব্য সুপ্রসিদ্ধ মার্কিন ভাবমূর্তি এবং বৈচিত্র্য ও মর্যাদার প্রতি শ্রদ্ধাকে অসম্মান করেছে।“এই মন্তব্যে আমরা আহত, অপমানিত ও উদ্বিগ্ন হয়েছি। আফ্রিকা মহাদেশ ও এর অধিবাসীদের বিষয়ে বর্তমান (মার্কিন) প্রশাসনের ব্যাপক ভুল বুঝাবুঝি রয়েছে বলে গভীরভাবে বিশ্বাস করে আফ্রিকান ইউনিয়ন।

“এই বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্র প্রশাসন ও আফ্রিকার দেশগুলোর মধ্যে জরুরিভিত্তিতে সংলাপ হওয়া দরকার।”ট্রাম্পের এই মন্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় বোতসওয়ানায় নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূতকে তলব করে কৈফিয়ত চেয়েছে দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।