ঢাকা, বাংলাদেশ, ২৬°সে | আজ |
English Version

সৃষ্টিশীল সংগঠন ‘তরুণের হাট’ মাশরাফি

পোস্ট টি ভালো লাগলে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

বিডিটুডেস ডেস্ক:  সৃষ্টিশীল সংগঠন ‘তরুণের হাট’ বরাবরের মতো এ বছরও তাদের বার্ষিক অনুষ্ঠান করেছিল টাঙ্গাইলের ধনবাড়ী উপজেলায়। ‘আমরাই পারি, আমরাই পারব’—এই আলোচ্য বিষয়কে কেন্দ্র করে আয়োজন করা হয় ‘তারুণ্যের উৎসব-২০১৮’। এবারের অনুষ্ঠানের প্রধান আকর্ষণ ছিল বাংলাদেশ ওয়ানডে ক্রিকেট দলের সফলতম অধিনায়ক ও জনপ্রিয় খেলোয়াড় মাশরাফি বিন মুর্তজার যোগদান ও অনুপ্রেরণামূলক বক্তব্য প্রদান।১৫ বছরে পদার্পণ করা তরুণের হাটের এবারের অনুষ্ঠান অন্য সব অনুষ্ঠানকে ছাপিয়ে হয়ে উঠেছিল অনন্য ও অসাধারণ। গত শুক্রবারের এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিল লক্ষাধিক মানুষ।
https://youtu.be/F8gDhvtwcbw
বেলা ১১টায় হেলিকপ্টারে করে ঢাকা থেকে ধনবাড়ীর উদ্দেশে রওনা হন মাশরাফি। ধনবাড়ীর নবাববাড়ীর মাঠে হেলিকপ্টার নামলে উপস্থিত জনতা মাশরাফিকে দেখে উল্লাসে ফেটে পড়েন। এরপর পথে পথে ফুল ছিটিয়ে তাঁকে অভ্যর্থনা জানানো হয়। জুমার নামাজের পর দুপুর ২টায় ধনবাড়ী কলেজ মাঠে ‘তারুণের উৎসব’ অনুষ্ঠান শুরু হয়। মাশরাফি মঞ্চে উঠলে লাখো জনতা সমস্বরে ‘মাশরাফি মাশরাফি’ আওয়াজের মাধ্যমে প্রিয় খেলোয়াড়কে স্বাগত জানান।মাশরাফিকে ফুল, তোরণ ও ক্রেস্ট দিয়ে অভ্যর্থনা জানান তরুণের হাটের উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্যরা। মাশরাফি তাঁর বক্তব্যে সংগঠনটির ভূয়সী প্রশংসা করেন এবং এর কার্যক্রমের সঙ্গে ভবিষ্যতে থাকার ইচ্ছা প্রকাশ করেন। এ ছাড়া ম্যাশ তাঁর বক্তব্যে মাদকের খারাপ পরিণতির কথা উল্লেখ করে তরুণদের এর কাছ দূরে থাকার অনুরোধ করেন।

আরও পড়ুনঘাড়ে মাজা ব্যথা রোগীর জন্য উপদেশ

অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন তরুণের প্রতিষ্ঠাতা এবং প্রধান উপদেষ্টা অ্যাডভোকেট সোলায়মান হোসেন। ক্রীড়া সাংবাদিক ও তরুণের হাটের উপদেষ্টা আরিফুল ইসলাম রনির সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে মুখ্য আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইঞ্জিনিয়ার শামীম রহমান।অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন ধনবাড়ী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মীর ফারুক আহমাদ, পৌরসভার মেয়র খন্দকার মঞ্জুরুল ইসলাম তপন, ডিভাইন গ্রুপের নির্বাহী পরিচালক প্রকৌশলী সেলিম রেজা ও গাজীপুর ফিডসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক কবীর হোসেন। উপস্থিত ছিলেন তরুণের হাটের উপদেষ্টা ও সহকারী ব্যবস্থাপক জাহিদ হাসান সুমন, উপদেষ্টা সোহেল রানা, শিবলী সাদিক সৌরভ, কামাল আহম্মেদ, সোলায়মান আকন্দ।

আরও পড়ুনবাত থেকে বাঁচতে কী কী নিয়ম পালন করতে হবে

এলাকার বীর মুক্তিযোদ্ধা, গুণীজন ও বয়োজ্যেষ্ঠদের পুরস্কার প্রদানের মাধ্যমে অনুষ্ঠানে সংবর্ধনা দেওয়া হয়। সমাজের দুস্থ শারীরিক প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের হুইলচেয়ার দেওয়া হয়। এ ছাড়া অনুষ্ঠানের অতিথিরা খেলাধুলা, চিত্রাঙ্কনসহ অন্যান্য প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিজয়ীদের হাতে তুলে দেন।তরুণের হাটের সদস্য এবং পুলিশ বাহিনীর সদস্যদের সার্বিক তিন স্তরের নিরাপত্তা বলয়ে প্রায় পাঁচ ঘণ্টা ধনবাড়ীতে অবস্থান শেষে লাখো মানুষের আবেগ আর ভালোবাসায় সিক্ত হয়ে বিকেল ৪টা ৪৫ মিনিটে আবারও হেলিকপ্টারে ঢাকায় ফিরে যান মাশরাফি বিন মুর্তজা।অনুষ্ঠানে শেষে ব্যান্ডের শিল্পীরা মনোজ্ঞ সংগীত পরিবেশন করেন।

বিডিটুডেস/রুস/26.02.18