English Version

পিরোজপুরে পরীক্ষায় অংশগ্রহন না করেও ১শ টাকায় পাচ্ছে ব্যবহারীক নম্বর

পোস্ট টি ভালো লাগলে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

এসডি রিপন মাহমুদ, পিরোজপুর: শিক্ষা জাতীর মেরুদন্ড। আর এই মেরুদন্ড ভেঙ্গে পঙ্গু করে দিচ্ছে কতিপয় স্কুল মাদ্রাসার মানুষ গড়ার কারিগর শিক্ষক গন। বর্তমানে সারাদেশে চলছে জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষা। আর এই পরিক্ষার সকল ব্যবহারীক পরীক্ষাগুলো নেওয়া হচ্ছে নিজ নিজ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে। তারই সুযোগে শিক্ষকগন শুরু করেছে টাকার বিনিময় ব্যবহারীক পরীক্ষায় পাশ করানোর ব্যবসা। পিরোজপুর সদর উপজেলার ৬নং শারিকতলা ডুমরিতলা ইউনিয়নের শারিকতলা দাখিল মাদ্রাসায় কৃষি শিক্ষা ও শাররীক শিক্ষা ব্যবহারীক ও মৌখিক পরীক্ষার শিক্ষার্থী অংশগ্রহন না করেও মাত্র ১০০ টাকার বিনিময় পেয়ে যাচ্ছে পূর্ণ নম্বর, এমন অভিযোগ উঠেছে।

জানাযায়, এই মাদ্রসায় ব্যবহারীক ও মৌখিক পরীক্ষায় কোন শিক্ষার্থীকে অংশগ্রহন করার প্রয়োজন হয় নাই। মাত্র ১০০ টাকা মাদ্রাসায় জমা করলেই তাদের পূর্ণ মার্ক দিচ্ছেন শিক্ষক। আর শিক্ষার্থীগন নিরবে পরীক্ষা না দিয়েই পূর্ণমার্ক পাওয়ার সুযোগ থেকে বঞ্চিত হতে চায় না। তাই সবাই ১০০ টাকা করে জমা দিচ্ছে শিক্ষকের কাছে। তবে এবিষয়টি নিয়ে ঝড় ওঠে অবিভাবক মহলে।
অত্র মাদ্রাসার এক শিক্ষার্থীর অবিভাবক মোঃ এনায়েত খান বলেন, পরীক্ষা না দিয়ে টাকার বিনিময় পাশ করানোর কারণে আমাদের ছেলে মেয়েরা জ্ঞান শূন্য হয়ে যাচ্ছে। ব্যবহারীক ও মৌখিক পরীক্ষা মানেই একটি বিষয়ের উপর জানা ও আকাঁ।

কিন্তু এমন ভাবে পরীক্ষা না নিয়ে নম্বর দেওয়া হলে ঐ বিষয়টির উপর শিক্ষার্থীদের আগ্রহ একেবারেই থাকবে না। এর প্রতিকার হওয়া প্রয়োজন। শারিকতলা দাখিল মাদ্রাসার সুপার মোঃ নজরুল ইসলাম বিষয়টির সত্যতা শিকার করে বলেন, কৃষি শিক্ষা ও শাররীক শিক্ষা ব্যবহারীক পরীক্ষায় শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহন ছাড়াই নম্বর দিয়ে দেওয়া হয়েছে কথাটা সত্য। তবে পরীক্ষা কেন্দ্রে এ বিষয়ে কিছু খরচ আছে যাহা শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে ৫০ টাকা হরে আদায় করা হয়। বিডিটুডেস/আরএ/০৭ নভেম্বর, ২০১৮

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

nine + 12 =