English Version

আজকের চাকরির খবর লাইভ খেলা দেখুন

ভেজাল খাদ্য চেনার উপায়

পোস্ট টি ভালো লাগলে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন


সৎ ও ভালো মানুষের সংজ্ঞা একেক জনের কাছে একেক রকম। বর্তমান প্রেক্ষাপটে বলা যায়, যার দ্বারা অন্যরা প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষ ভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয় না, তিনিই সৎ ও ভালো মানুষ। পরিস্থিতিদৃষ্টে মনে হয়, ব্যবসা-বাণিজ্যের জগতে একালে ভালো মানুষের সংখ্যা কমে গেছে। ধারণাটি হয়তো সত্য নয়। তবু দেখে শুনে এরকমই ভাবতে ইচ্ছে করে। যেকোনো উপায়ে মুনাফা লাভের আশায় প্রায় সব ধরনের খাদ্যেই ভেজাল মিশিয়ে যাচ্ছে এক শ্রেণীর ব্যবসায়ী।

কী খাবেন তা চিন্তা করলে হয়তো খাওয়াই ছেড়ে দিতে হবে আপনাকে। আমরা বেঁচে থাকার জন্য যে ভাত খাই, সে ভাতের চালেও নাকি এখন কেমিক্যাল দেয়া হচ্ছে ভয়ংকর হারে। যা আমাদের কিডনি, পাকস্থলীর ব্যাপক ক্ষতি করে এক সময় মৃত্যুরও কারণ হতে পারে। মুরগী, মাছ খাবেন? শান্তি নেই। মুরগীকে ব্যবসায়ীরা যে খাবার দেয় তা মানব দেহের জন্য ক্ষতিকর । সেসব মুরগী খেয়ে লিভার, পাকস্থলী, কিডনিসহ শরীরের বিভিন্ন অংগ প্রত্যঙ্গ ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে চির রোগী হওয়ার আশংকা আছে। গ্রীষ্মকালে আম, লিচু, জাম, কাঁঠাল খাওয়া এখন সবার কাছেই আতঙ্ক। পরিবারের জন্য মৌসুমী ফল কিনে নিতে তাই ভয় পান সবাই। তাই আসুন আমরা জেনে নিই ভেজাল খাদ্য চেনার উপায়গুলো :-

ফরমালিন দেয়া মাছ চেনার উপায়

ফরমালিন দেওয়া মাছের চোখ সাদা থাকে।
মাছ ফ্যাকাশে দেখায়, শরীরে পিচ্ছিল পদার্থ থাকে না।
ফুলকা কালচে বর্ণের হয়।
মাছের শরীর শুকনো থাকে।
ফরমালিনযুক্ত মাছের উপর মাছি বসে না।

রং দেয়া মাছ চেনার উপায়

ভাল করে খেয়াল করলে মাছের মুখ, কানকা, চোখ, বুকের পাখনা ও পেটের দিকে চকচকে রঙিন দেখা যাবে।

ভেজাল গোশত চেনার উপায়

ফরমালিন মেশানো গোশত শক্ত হয় ও শুকনা দেখায়।
ভেজাল গোশতে মাছি বসে না।

ভেজাল ফল চেনার উপায়

ঝুড়িতে সবগুলো ফল সমরুপ অথবা একই রকম হলে ভেজালের লক্ষণ। স্বাভাবিক অবস্থায় একটা ফল থেকে অন্যটা এমনকি একই ফলের দেহের রং এর মধ্যে কিছুটা হলেও পার্থক্য থাকে।
অতিরিক্ত কেমিক্যাল ব্যবহারে ফলের শাঁস শক্ত হয়। খেতে কখনও পানসে আবার কখনও তেতো বা বিস্বাদ লাগে।
ভেজাল চাল, আটা, ডাল চেনার উপায়

রঙিন চালে একটু পানি দিয়ে আঙ্গুলে ঘষা দিন, সাদা রঙের হয়ে যাওয়ার অর্থ রং দেওয়া হয়েছে।

ভেজাল মধু চেনার উপায়

গ্লাসে পানি ভরে কয়েক ফোটা মধু ঢাললে যদি পানির সংগে মিশে যায় তবে বোঝা যাবে এটা ভেজাল মধু।
কয়েক ফোটা মধু সাদা কাপড়ে রেখে তা ঘসে ধুয়ে ফেলার পর যদি কোন দাগ না থাকে তাহলে তা খাটি মধু।

সুত্র: ন্যাশনাল এমার্জেন্সি সার্ভিস