Logo
শিরোনাম

৬০ বছর পর ইংল্যান্ডকে হারালো হাঙ্গেরি

প্রকাশিত:রবিবার ০৫ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ১০ আগস্ট ২০২২ |
Image

শক্তি-সামর্থ্য কিংবা পরিসংখ্যান— সব দিক থেকেই হাঙ্গেরির চেয়ে এগিয়ে ইংল্যান্ড ফুটবল দল। কিন্তু শনিবার (৪ জুন) রাতে এই হাঙ্গেরির মাঠেই বড় অঘটন হলো ইংলিশদের। দীর্ঘ ৬০ বছর পর হাঙ্গেরির কাছে হেরে গিয়েছে ইংল্যান্ড।

নেশন্স লিগে শনিবার রাতে ‘এ’ লিগের তিন নম্বর গ্রুপের ম্যাচে বুদাপেস্টের পুসকাস অ্যারেনায় ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ১-০ গোলে জিতেছে স্বাগতিক হাঙ্গেরি। ম্যাচের ভাগ্য গড়ে দেওয়া গোলটি করেন হাঙ্গেরির ফুটবলার দমিনিক সোবোসলাই।

ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সবশেষ ১৯৬২ বিশ্বকাপে গ্রুপ পর্বে জিতেছিল হাঙ্গেরি। ওই ম্যাচে ২-১ গোলে জিতেছিল হাঙ্গেরি। প্রায় ৬০ বছর পর এবার নিজেদের মাঠে ইংলিশদের বিপক্ষে জয় পেল হাঙ্গেরি।  

এদিন দিনের আরেক ম্যাচে জার্মানির বিপক্ষে ১-১ গোলে ড্র করেছে ইতালি। ম্যাচের দ্বিতীয়ার্ধে ইতালিকে লিড এনে দেন লরেন্সো পেল্লেগ্রিনি। এরপর সমতা টানেন জার্মানির জসুয়া কিমিখ।

জার্মানির মুখোমুখি হওয়ার আগে ফাইনালিসিমাতে আর্জেন্টিনার কাছে পাত্তাই পায়নি ইতালি। হেরে যায় বড় ব্যবধানে। আর্জেন্টিনার পর জার্মানির বিপক্ষেও জিততে পারল না ইউরো চ্যাম্পিয়নরা। নিজেদের মাঠে জার্মানির সঙ্গে কোনো রকমে ড্র করে আর্জেন্টাইনদের দেওয়া দুঃখ ভুলল মানচিনির শিষ্যরা।


আরও খবর

এশিয়া কাপের দল ঘোষণা ভারতের

মঙ্গলবার ০৯ আগস্ট ২০২২




নিষেধাজ্ঞার শুফল পাচ্ছে জেলেরা!এক নৌকায় ২৩ লাখ টাকার ইলিশ

প্রকাশিত:বুধবার ২৭ জুলাই ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৯ আগস্ট ২০২২ |
Image

অনুপ সিংহ,নোয়াখালী প্রতিনিধিঃ

নোয়াখালীর দ্বীপ উপজেলা হাতিয়াতে ৬৫ দিনের নিষেধাজ্ঞা শেষে সাগরে জেলেদের জালে ঝাঁকে ঝাঁকে ধরা পড়ছে ইলিশ। 

একই নৌকায় ধরা পড়েছে ছোট-বড় মিলিয়ে ৯৯ মণ ইলিশ। জালভর্তি মাছ পাওয়ায় জেলেদের মুখে হাসি। এ যেন স্বপ্নের যাত্রা শেষে সোনার হরিণ পাওয়া। 

গতকাল মঙ্গলবার (২৬ জুলাই) সন্ধ্যায় পরে হাতিয়ার চেয়ারম্যান ঘাটে মাছগুলো নিলাম করলে চেয়ারম্যান ঘাটের স্থানীয় মেঘনা ফিশিংয়ে ২৩ লাখ  ২৬ হাজার ৫০০ টাকায় কিনে নেন। 

জেলে আবুল কাশেম বলেন, ১০-১৫জন জেলে গতকাল সোমবার গভীর রাত থেকে ইলিশ ধরতে মা-বাবার দোয়া-৩’ নামের একটি মাছ ধরার নৌকা নিয়ে সাগরে জাল ফেলেন। জাল টেনে নৌকায় তুলতেই দেখতে পান, অনেকগুলো বড় ইলিশ এবং একই সঙ্গে ছোট ইলিশও ধরা পড়েছে। এক নৌকায় আগে কখনো এত মাছ পাওয়া যায়নি। ঘাটে আসার সঙ্গে সঙ্গে মাছ দেখতে অনেক মানুষ ভিড় জমিয়েছে। পরে মেঘনা মেঘনা ফিশিং সব মাছ গুলো নিলামে কিনে নেন।   

জেলা মৎস্য কর্মকর্তা মোহাম্মদ ইকবাল হোসেন বলেন, সামনে আরও বেশি মাছ ধরা পড়বে বলে আশা করা হচ্ছে। প্রজনন মৌসুমসহ সরকারি বিভিন্ন নিষেধাজ্ঞা মেনে চলায় স্থানীয় জেলেরা উপকৃত হচ্ছেন। এ কারণে নদী ও সাগরে বিভিন্ন প্রজাতির মাছের বংশবিস্তার বেড়েছে। যার ফলে প্রচুর মাছ ধরা পড়ছে।


আরও খবর

আন্তর্জাতিক আদিবাসী দিবস

মঙ্গলবার ০৯ আগস্ট ২০২২




দূষিত শহরের তালিকায় ২৬ তম ঢাকা

প্রকাশিত:রবিবার ৩১ জুলাই ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৯ আগস্ট ২০২২ |
Image

বর্ষা মৌসুমের কারণে মাঝে মাঝে বৃষ্টি হওয়ায় ঢাকার বাতাসের মান ‘মধ্যম’ অবস্থায় রয়েছে। ইরানের তেহরান, চীনের বেইজিং, পাকিস্তানের লাহোর যথাক্রমে ১৪৫, ১৩৪ এবং ১৩৩ একিউআই স্কোর নিয়ে তালিকার প্রথম তিনটি স্থান দখল করেছে।

শনিবার  সকাল ৮টা ৪২ মিনিটে ঢাকার এয়ার কোয়ালিটি ইনডেক্স (একিউআই) স্কোর ৬৫ রেকর্ড করা হয়েছে। বিশ্বের দূষিত শহরের তালিকায় ঢাকা ২৬তম স্থানে রয়েছে।

৫০ থেকে ১০০ এর মধ্যে একিউআই স্কোর ‘মধ্যম’ বলা হয়, তবে কিছু মানুষের জন্য ‘ঝুঁকিপূর্ণ’ বলে বিবেচিত হয়, বিশেষ করে যারা বায়ু দূষণের প্রতি অস্বাভাবিকভাবে সংবেদনশীল। তাদের জন্য একিউআই স্কোর ১০১ থেকে ২০০ হলে ‘অস্বাস্থ্যকর’ বলে মনে করা হয়। একইভাবে, ২০১ থেকে ৩০০ এর মধ্যে একিউআই স্কোর ‘খারাপ’ বলা হয়, যেখানে ৩০১ থেকে ৪০০ এর স্কোর “ঝুঁকিপূর্ণ” বলে বিবেচিত হয়, যা বাসিন্দাদের জন্য গুরুতর স্বাস্থ্য ঝুঁকি তৈরি করে।

প্রতিদিনের বাতাসের মান নিয়ে তৈরি করা একিউআই সূচক একটি নির্দিষ্ট শহরের বাতাস কতটুকু নির্মল বা দূষিত সে সম্পর্কে মানুষকে তথ্য দেয় এবং তাদের জন্য কোনো ধরনের স্বাস্থ্য ঝুঁকি তৈরি হতে পারে তা জানায়। বাংলাদেশে একিউআই নির্ধারণ করা হয় দূষণের পাঁচটি ধরনকে ভিত্তি করে- বস্তুকণা (পিএম১০ ও পিএম২.৫), এনও২, সিও, এসও২ এবং ওজোন (ও৩)।

ঢাকা দীর্ঘদিন ধরে বায়ু দূষণে ভুগছে। এর বাতাসের গুণমান সাধারণত শীতকালে অস্বাস্থ্যকর হয়ে যায় এবং বর্ষাকালে কিছুটা উন্নত হয়। ২০১৯ সালের মার্চ মাসে পরিবেশ অধিদপ্তর ও বিশ্বব্যাংকের একটি প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে যে, ঢাকার বায়ু দূষণের তিনটি প্রধান উৎস হল, ইটভাটা, যানবাহনের ধোঁয়া ও নির্মাণ সাইটের ধুলো।


আরও খবর

দল গোছানোর কাজে গতি আনছে আ.লীগ

বুধবার ০৩ আগস্ট ২০২২




কু‌মিল্লা লালমাইয়ে শিশু ধর্ষণের অভিযোগে আটক-১

প্রকাশিত:সোমবার ১৮ জুলাই ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৯ আগস্ট ২০২২ |
Image

কুমিল্লা ব্যুরো ঃ       

কুমিল্লার লালমাই উপজেলায় রিক্সা চালকের ৯বছরের শিশু কন্যাকে ধর্ষণের অভিযোগে আবদুল মতিন (৫৫) নামের এক কৃষককে গ্রেপ্তার করেছে লালমাই থানা পুলিশ।                   ১৭ই জুলাই (রোববার) ভোর রাতে লালমাই থানার সেকেন্ড অফিসার জীবন রায় চৌধুরী অভিযান চালিয়ে স্থানীয় ফয়েজগঞ্জ বাজার থেকে তাকে আটক করে। 

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, উপজেলার পেরুল দক্ষিণ ইউনিয়নের গজারিয়া গ্রামের মৃত ফজর আলীর ছেলে কৃষক আবদুল মতিন গত ৩ জুলাই বেলা সাড়ে ১২টার দি‌কে একই গ্রামের রিক্সা চালকের ৯বছরের শিশু কন্যাকে আখ খাওয়ানোর প্রলোভন দেখিয়ে নিজের আখ খেতে নিয়ে মুখ চেপে ধর্ষণ করে। শিশুটির বাবা কুমিল্লা শহরে রিক্সা চালায় এবং মা অন্যের বাড়ীতে কাজ করে। বিকালে মা বাড়ীতে ফিরলে শিশুটি ধর্ষণের বিষয়টি জানায়। এঘটনায় শিশুটির মা বাদী হয়ে গত ১৪ জুলাই লালমাই থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০ (সংশোধনী/২০০৩) এর ৯ (১) ধারায় মামলা (নং ০৩, তাং ১৪/০৭/২০২২ইং) দায়ের করেন।   

লালমাই থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ আইয়ুব বলেন, ভিকটিমের মেডিকেল পরীক্ষা সম্পন্ন, আদালতে ২২ ধারায় জবানবন্দি রেকর্ড এবং স্থানীয় তদন্তের প্রাথমিক সত্যতা  পেয়ে অভিযুক্ত আবদুল মতিন কে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তদন্ত চলমান রয়েছে।


আরও খবর



সাগরে যাওয়ার আনন্দে জেলেরা

প্রকাশিত:শনিবার ২৩ জুলাই ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ১০ আগস্ট ২০২২ |
Image

টানা ৬৫ দিনের নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে বঙ্গোপসাগরে রুপালি ইলিশ শিকারের জন্য নামছে পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালীর উপজেলার কয়েক হাজার জেলে। শুক্রবার (২২ জুলাই) মধ্যরাত থেকে আবার কেউ আজ শনিবার সকাল থেকে সরকারি নিষেধাজ্ঞাকাল কাটিয়ে উৎসবমুখর পরিবেশে গভীর সাগরে ইলিশ শিকারের উদ্দেশ্যে যাত্রা করবেন।

শুক্রবার মধ্যরাতের পর সাগরে নামার জন্য জেলেদের মধ্যে দেখা গেছে ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনা। দল বেঁধে গভীর সাগরে যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছেন তারা। জেলেদের প্রত্যাশা, নিষেধাজ্ঞার ফলে আগের চেয়ে বেশি ইলিশ ধরা পড়বে। এর আগে, ২০ মে থেকে ২৩ জুলাই পর্যন্ত ৬৫ দিনের জন্য মাছ ধরার ওপর নিষেধাজ্ঞা দেয় সরকার।

বড়বাইশদিয়া, মৌডুবী, চালিতাবুনিয়া, চরমোন্তাজসহ রাঙ্গাবালী উপজেলার অর্ধলক্ষাধিক জেলে রয়েছেন। তারা সাগরে যাওয়ার সব ধরনের প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছেন। শুক্রবার মধ্যরাত কিংবা শনিবার ভোর থেকে মাছ ধরার ট্রলার নিয়ে দলে দলে গভীর সাগরের দিকে যাত্রা করবেন তারা। জেলেদের সমুদ্রযাত্রার প্রস্তুতির সঙ্গে সঙ্গে রাঙ্গাবালীর মাছের আড়ত, বরফকল এবং সংশ্লিষ্ট ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানগুলোতে ফিরতে শুরু করেছে প্রাণচাঞ্চল্য।

হাফিজুর রহমান নামে এক জেলে বলেন, ‘মৌসুমের শুরুতেই ৬৫ দিনের অবরোধকালে আমরা মাছ শিকারের জন্য সাগরে নামিনি। দীর্ঘ বিরতির পর আমরা সাগরে মাছ শিকারে যাব। ইলিশ মাছ ধরাই আমাদের একমাত্র পেশা। এ কারণে এত দিন অলস সময় পার করতে হয়েছে। বিকল্প কর্মসংস্থান না থাকায় ধারদেনা করে সংসার চালিয়েছি। এখন সমুদ্রে ইলিশ ধরা পড়লে সামনের দিনগুলো ধারদেনা পরিশোধ করতে পারব ইনশাআল্লাহ।’

উপজেলার মৌডুবী ইউনিয়নের জাহাজমারা  সমিতির সভাপতি নজরুল হাওলাদার বলেন, ‘আমাদের জেলেপল্লীতে ৬৫ দিন অলস সময় পার করতে হয়েছে। জেলেরা তাদের জমানো টাকা বসে বসে খেয়েছে। কারণ জেলেরা সাগরের মাছ ধরা ছাড়া অন্য কোনো কাজ করতে পারে না। তাই আমি মনে করি এবার সাগরে ইলিশ মাছ ধরা পড়লে জেলেরা আগের ধারদেনা পরিশোধ করতে পারবে।’

মৎস্য ব্যবসায়ী বনি আমিন ভূঁইয়া বলেন, ‘এত দিনের নিষেধাজ্ঞায় জেলেদের পাশাপাশি আমাদেরও কষ্ট হয়েছে। তবু সেটা আমাদের জন্য অনেক ভালো হয়েছে। কারণ এখন আগের চেয়ে জেলেরো মাছ বেশি পাবেন। আর আমরাও বেশি মাছ বিক্রি করে লাভবান হব।’



আরও খবর

আন্তর্জাতিক আদিবাসী দিবস

মঙ্গলবার ০৯ আগস্ট ২০২২




শ্রীলঙ্কায় জরুরি অবস্থার মেয়াদ বাড়লো

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৮ জুলাই ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৯ আগস্ট ২০২২ |
Image

অর্থনৈতিক ও রাজনৈতিকভাবে টালমাটাল শ্রীলঙ্কার জরুরি অবস্থার মেয়াদ বাড়ানো হয়েছে। দেশজুড়ে শৃঙ্খলা পুনরুদ্ধারে আরোপিত কঠোর জরুরি আইন আগামী একমাসের জন্য বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিলো দেশটির পার্লামেন্ট।

এ বিষয়ে বুধবার (২৭ জুলাই) লঙ্কান পার্লামেন্টের ২২৫ জন সদস্যের মধ্যে জরুরি অবস্থা বাড়ানোর পক্ষে ভোট দেন ১২০ এমপি। বিপক্ষে অবস্থান নেন ৬৩ এমপি। জরুরি অধ্যাদেশ, যা দীর্ঘ সময়ের জন্য সন্দেহভাজনদের গ্রেফতার এবং আটকে রাখার ক্ষমতা দেয় সেনাবাহিনীকে। সংসদে পাস না হলে বুধবারই শেষ হয়ে যেতো জরুরি অবস্থা।

ভারপ্রাপ্ত প্রেসিডেন্ট থাকা অবস্থায় গত ১৭ জুলাই দেশজুড়ে জরুরি অবস্থা জারি করেন রনিল বিক্রমাসিংহে। গোটাবায় রাজাপাকসে প্রেসিডেন্ট পদ থেকে সরে দাঁড়ালে পার্লামেন্টে ভোটাভুটিতে প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন রনিল। এরপরই সরকার গঠন করে পরিস্থিতি সামাল দেওয়ার অঙ্গীকার করেন তিনি। তবে দেশের মানুষকে সরকারের পাশে থেকে সহযোগিতার আহ্বান জানান তিনি।

এদিকে, বিরোধীদলগুলো জরুরি অবস্থাকে ভিন্নমতাবলম্বীদের দমন করার জন্য সরকারের পদক্ষেপ হিসাবে সমালোচনা করেছে।

দেশটির পুলিশ বুধবার আলাদা বিবৃতিতে জানিয়েছে, যে তারা বেআইনি সমাবেশের অভিযোগে বিক্ষোভকারী কুসল সান্দারুয়ান ও ওয়েরাঙ্গা পুষ্পিকাকে আটক করেছে।

আগের দিন মঙ্গলবার সন্ধ্যায় দেশটির প্রধান বিমানবন্দরে দুবাইগামী একটি ফ্লাইটে উঠার সময় ছাত্র নেতা ধনিজ আলী গ্রেফতার হন। পুলিশের দাবি, ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের মামলায় তার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা ছিল।

দেশজুড়ে শৃঙ্খলা ফেরাতে রনিল বিক্রমাসিংহে বিক্ষোভকারীদের দমাতে যে কঠোর অবস্থানে, তা ভালোভাবে নিচ্ছেন না অনেকেই।



আরও খবর