Logo
শিরোনাম
রাজবাড়ীতে ট্রাকের সাথে সংঘর্ষে মোটর সাইকেল আরোহীর মৃত্যু রাজবাড়ীতে আবৃত্তি ও কথামালায় প্রকাশনা উৎসব নওগাঁয় মোটরসাইকেলের ধাক্কায় স্কুল ছাত্র নিহত-মা ও ছোট বোন আহত মোরেলগঞ্জে শ্রমীকদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ করলেন এমপি মিলন লালমনিরহাটে বিদ্যুৎ স্পৃষ্টে মারাগেছে স্কুলছাত্র নওগাঁয় বোরো ধান চাষের শুরুতেই বিদ্যুতের লোড শেডিং, দুঃশ্চিন্তায় কৃষকরা নওগাঁয় ৩৫ কোটি টাকা মূল্যের কষ্টিপাথরের মূর্তি উদ্ধার করেছে পুলিশ কুড়িগ্রামের শীতকাতর অসহায় মানুষের পাশে কেন্দ্রীয় যুবলীগ নেত্রকোনায় বিশ্ব জলাভূমি দিবস উপলক্ষে মানববন্ধন মোরেলগঞ্জে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দৈন্যদশা শিক্ষার্থী ৮ শিক্ষক ২

৯৩ হাজার টাকা ছাড়াল স্বর্ণের দাম

প্রকাশিত:Wednesday ১৮ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Friday ০৩ February ২০২৩ |
Image

এক সপ্তাহের ব্যবধানে দেশের বাজারে স্বর্ণের দাম ভরিতে দুই হাজার টাকার বেশি বেড়েছে। নতুন দর অনুযায়ী প্রতি ভরি ভালো মানের স্বর্ণ কিনতে গ্রাহককে গুনতে হবে ৯৩ হাজার টাকার বেশি।

বাংলাদেশ জুয়েলার্স অ্যাসোসিয়েশন-বাজুস দাম বাড়ানোর এই সিদ্ধান্ত নেয়। এর আগে গত ৭ জানুয়ারি স্বর্ণের দাম বাড়ায় বাজুস, যা ৮ জানুয়ারি থেকে কার্যকর হয়েছে। তখন প্রথমবারের মতো দেশের বাজারে প্রতি ভরি স্বর্ণের দাম ৯০ হাজার টাকা ছাড়ায়।

বাজুসের মূল্য নির্ধারণ ও মূল্য পর্যবেক্ষণ স্থায়ী কমিটির ভাইস চেয়ারম্যান এনামুল হক ভূঁইয়া লিটন স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, 

বাজুস ভালো মানের স্বর্ণ ভরিতে দুই হাজার ৬৮৩ টাকা বাড়িয়েছে। এতে প্রতি ভরি সোনার দাম বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৯৩ হাজার ৪২৯ টাকা। আগে এই দাম ছিল ৯০ হাজার ৭৪৬ টাকা।


আরও খবর



নেত্রকোনা এতিমখানায় শিশুদের নিয়ে পিঠা উৎসব

প্রকাশিত:Monday ২৩ January 20২৩ | হালনাগাদ:Friday ০৩ February ২০২৩ |
Image

নেত্রকোনা জেলা প্রতিনিধি :পারিবারিক আনন্দ উপলব্ধি করতে ও শীতের পিঠা উপভোগ করতে নেত্রকোনায় সরকারি শিশু পরিবার (বালক) সকল শিশুদের নিয়ে শীতকালীন পিঠা উৎসবের আয়োজন করা হয়। এই প্রতিষ্ঠানের সকল শিশুই এতিম ও দরিদ্র পরিবারের, স্থানীয়দের কাছে সরকারি শিশু পরিবার এতিমখানা নামে পরিচিত। 

রবিবার সন্ধ্যায় জেলার সদর উপজেলার রৌহা ইউনিয়নের কুমড়ি গ্রামে অবস্থিত সরকারি শিশু পরিবার (বালক) কর্তৃপক্ষ এই পিঠা উৎসবের আয়োজন করে। এতে করে এখানে অবস্থানরত একশত শিশু আনন্দে মাতোয়ারা হয়ে পড়ে।


তারা নিজেরাই গান নাচ করে আনন্দ করে। ছোট বড় প্রতিটি শিশু তাদের নিজ পরিবারে থাকার আনন্দ উপলব্ধি করে। নিজেরা হাতে তৈরি করে নেত্রকোনা অঞ্চলের প্রায় ২০ রকমের বাহারী পিঠা। 

একইসাথে হারিয়ে যাওয়া দুধপুলি, পাটি সাপটা, চিতইসহ,পুলি পিঠা নানা ধরনের পিঠার সাথে পরিচিতিও হয় তারা। এই পিঠা গুলো সাথে নেত্রকোনা অঞ্চলের জামাই পিঠা নামে পরিচিত পিঠাও ছিল। 

চতুর্থ শ্রেণীর ছাত্র সিয়াম জানায়, আমি চতুর্থ  শ্রেণিতে পড়ি। আমি বাড়ির চেয়ে এখানে থাকতে বেশি পছন্দ করি। আমি বাড়িতে গেলে তেমন বেশি ভালো লাগে না, এখানে থাকলে আমি আনন্দ করতে পারি সবার সাথে মজা করতে পারি এখানে যারা আছে সকলে আমাদের ভাই। আমরা এখানে প্রতিবছর এ ধরনের অনেক উৎসব পালন করে থাকি। 

অন্য একজন শিশু জানায়, স্যার আমাদের জন্যই শীতকালীন পিঠা উৎসব এর আয়োজন করেছেন। তিনি প্রায় ২০ ধরনের পিঠার ব্যবস্থা করেছেন এর মধ্যে অনেক পিঠারি নাম আমরা জানি না। এই পিঠা উৎসবে, আমরা বাড়ির মতো পিঠা খাওয়ার আনন্দ পাচ্ছি এবং সব ধরনের পিঠার নাম জানতে পারছি। 

অন্যদিকে শিশুদেরকে আনন্দ দিতে এবং পারিবারিক শিক্ষায় বড় করে তুলতে এমন আয়োজন বলে জানিয়েছেন নিবাসের তত্ত্বাবধায়ক। 


আরও খবর



করোনা মধ্যেও ১২ লাখ বাংলাদেশীকে ভিসা দিয়েছে ভারত

প্রকাশিত:Wednesday ০১ February ২০২৩ | হালনাগাদ:Friday ০৩ February ২০২৩ |
Image

শহিদুল ইসলাম জি এম মিঠন, স্টাফ রিপোর্টার :

করোনা মহামারির মধ্যেও ১২ লাখ বাংলাদেশীকে ভিসা দিয়েছে ভারত। এ সময়ের মধ্যে বাংলাদেশের ১২ লাখ নাগরিদেরকে উন্নত চিকিৎসা এবং ট্যুরিস্ট ভিসা দেয়। ভারতে উন্নত চিকিৎসা সেবা নেয়ায় ও ট্যুরিস্ট ভিসাতে ভারত ভ্রমণ করছেন উল্লেখযোগ্য সংখ্যক বাংলাদেশী ।

ভারতীয় হাইকমিশনের অফিস তথ্য মতে, ২০২২ইং সালের মার্চের শেষ সপ্তাহ থেকে গত বছরের নভেম্বর পর্যন্ত ৮ মাসে ভারতের ভিসা নিয়েছেন ১০ লাখ বাংলাদেশি।

করোনা মহামারির বিরতির পর, ভারতের সীমান্ত খুলে দিলে ২০২২ইং সালের মার্চের শেষ সপ্তাহ থেকে গত বছরের নভেম্বর পর্যন্ত মাত্র ৮ মাসে ভারতের ভিসা নিয়েছেন ১০ লাখ বাংলাদেশি। যার মধ্যে ২ লাখ ৭৩ হাজার রয়েছে মেডিকেল ভিসা।

এছাড়া ট্যুরিস্ট, ব্যবসায়ী এবং অন্যান্য ভিসা'র আবেদন বেড়েছে। মাত্র ৮ মাসে বাংলাদেশ থেকে ভারত ভ্রমণের ভিসা নেয়ার এই পরিসংখ্যান অন্য যেকোন দেশের তুলনায় অনেক বেশি বলে জানায় বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনের একটি সুত্র।

তাদের তথ্য মতে, করোনার আগে ২০১৯ সালে সর্বোচ্চ সংখ্যক ১৬ লাখের বেশি বাংলাদেশি ভারতের ভিসা নেন। ২০২১ সালে করোনাকালীন প্রতিকূল সময়ের মাঝেও অন্যান্য দেশের প্রতি ভারত সরকার কঠোর থাকলেও বন্ধুরাষ্ট্র বাংলাদেশের জন্যে লকডাউন সত্বেও প্রায় ২ লাখ ৩০ হাজার ভিসা ইস্যু করে ভারত, যার মধ্যে ১ লাখ ৯৬ হাজার ছিল মেডিকেল ভিসা।

করোনার প্রকোপ কমার পর প্রাথমিকভাবে বেনাপোল ও আখাউড়া স্থলবন্দরের ইমিগ্রেশন দিয়ে টুরিস্ট ভিসাধারীদের প্রবেশের অনুমতি দেয় ভারত সরকার যদিও তখন করোনা নেগেটিভ সনদ বাধ্যতামূলক করেছিল তারা।

পরবর্তীতে ধীরে ধীরে বর্তমানে বাংলাবান্ধা ফুলবাড়ি স্থলবন্দরের মতো ২/১টি বর্ডার ছাড়া বাংলাদেশিরা সর্বোচ্চ যে বন্দরগুলো ভারত প্রবেশের জন্যে ব্যবহার করে তা সচল রেখেছে ভারত সরকার যেখান দিয়ে প্রতিদিন শত শত বাংলাদেশি ভারতে যাচ্ছেন।

ভারতীয় ভিসা আবেদন কেন্দ্র ঢাকার ডেপুটি চিফ অপারেটিং অফিসার কিংশুক মিত্র জানান, একমাত্র বাংলাদেশেই ভারতীয় ভিসা প্রাপ্তির সবচেয়ে বৃহত্তম অপারেটিং নেটওয়ার্ক রয়েছে এবং ঢাকার যমুনা ফিউচার পার্কের যে ভিসা এ্যাপ্লিকেশন সেন্টার (আইভ্যাক) রয়েছে তা সারাবিশ্বে ভারতের যত ভিসা সেন্টার আছে তাদের তুলনায় সবচেয়ে বড় ও আধুনিক।

ঢাকা ছাড়াও সারাদেশে আরো ১৪ টি জেলায় রয়েছে তাদের সেন্টার সেগুলো হলো, রাজশাহী, বগুড়া, সিলেট, খুলনা, যশোর, চট্টগ্রাম, সাতক্ষীরা, ময়মনসিংহ, বরিশাল, রংপুর, ঠাকুরগাঁও, নোয়াখালী, কুমিল্লা এবং ব্রাহ্মণবাড়িয়া যাদের সবগুলো মিলে বিশ্বের বৃহত্তম ভিসা অপারেশন নেটওয়ার্ক তৈরি হয়েছে বাংলাদেশে। তিনি জানান, ২০২২ সালের শেষ দিকে ঢাকায় তাদের সেন্টার সহ সকল আইভ্যাকে ভারতীয় ভিসার চাহিদা ছিল সবচেয়ে বেশি। অতিরিক্ত চাপে অধিকাংশ সময়ে তাদের জন্যে সময়মতো ভিসা দিতেও হিমশিম খেতে হয়েছে তারপরেও তারা বাংলাদেশিদের তাদের দেশে ভ্রমনে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়েছেন।

জানা যায়, ভিসা ব্যবস্থাকে সর্বজনীন করতে ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যে সংশোধিত ভ্রমণ চুক্তি ২০০১ সালের মে মাস থেকে চালু রয়েছে। এটি সর্বশেষ ২০১৮ সালের জুলাই মাসে সংশোধন করা হয় এবং দুই দেশই তাতে স্বাক্ষর করে। বন্ধুপ্রতীম রাষ্ট্র হিসেবে বাংলাদেশি নাগরিকদের জন্য বিনামূল্যে ভিসা প্রদান করে ভারত। শুধুমাত্র ভিসা আবেদন জমা দেওয়ার সুবিধার্থে ভারতীয় ভিসা অ্যাপ্লিকেশন সেন্টার (আইভ্যাক) প্রতিটি আবেদনের জন্য (প্রসেসিং ফি) বাবদ নামমাত্র (প্রায় ৮শ') টাকা দিতে হয়।

কোভিড পরবর্তী গত বছর ও চলতি বছর বাংলাদেশিদের ভারতের ভিসা প্রাপ্তির পরিসংখ্যান অন্যান্য যে কোন সময়কে ছাড়িয়ে যাবে মর্মে জানান ভারতীয় হাইকমিশনের কর্মকর্তারা।


আরও খবর



নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে

ডিবি পুলিশ পরিচয়ে ডাকাতি'র প্রস্তুতিকালে ৬ জন গ্রেফতার

প্রকাশিত:Tuesday ২৪ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Friday ০৩ February ২০২৩ |
Image

বুলবুল আহমেদ সোহেল :

নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে ডিবি পুলিশ পরিচয়ে ডাকাতি'র প্রস্তুতিকালে ৬ জনকে গ্রেফতার করেছে গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশ। এসময় তাদের কাছ থেকে জব্দ করা হয় একটি গাড়ির নম্বর প্লেট, ২টি ডিবি পুলিশের জ্যাকেট, হ্যান্ডকাপ, অকেজো ওয়াকিটকি,খেলনা পিস্তল,আর্মি পোষাকের সদৃশ্য জ্যাকেট ও দেশীয় অস্ত্র। গ্রেপ্তারকৃতরা হলঃ-খলিলুর রহমান মৃধা, জামাল আকন, আবু সালে হাওলাদার, বিল্লাল, আবু হানিফ ও ইউসুফ।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ডিবি) তরিকুল ইসলাম জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সোমবার রাতে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের সিদ্ধিরগঞ্জ মিজমিজি পশ্চিমপাড়া এলাকায় অভিযান চালিয়ে ডাকাতি প্রস্তুতিকালে ৬ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়। এসময় তাদেরকে তল্লাশি করে দেশীয় অস্ত্র, খেলনার পিস্তলসহ ডাকাতি কাজে ব্যবহৃত সরঞ্জাম উদ্ধার করা হয়। দীর্ঘদিন যাবত তারা মহাসড়কে ডাকাতি করে আসছিল। তারা বিভিন্ন জেলার বাসিন্দা। তাদের বিরুদ্ধের বিভিন্ন থানায় একাধিক মামলা রয়েছে। এঘটনায় সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।


আরও খবর



নওগাঁয় বড় ভাইয়ের কোদালের আঘাতে ছোট ভাইয়ের মৃত্যু'র অভিযোগ

প্রকাশিত:Tuesday ১৭ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Friday ০৩ February ২০২৩ |
Image

শহিদুল ইসলাম জি এম মিঠন, স্টাফ রিপোর্টার :


নওগাঁ জেলা সদর উপজেলার গুমারদহ এলাকায় জমি নিয়ে বিরোধের জেরে বড় ভাই ফজলুর রহমানের (৫৫) এর কোদালের হাতলের আঘাতে আহত ছোট ভাই নজরুল ইসলাম (৫২) এর চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুর অভিযোগ করা হয়েছে। ঘটনার ৭ দিন পর  সোমবার ১৬ জানুয়ারি রাতে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়েছে ।  সংবাদ পেয়ে নওগাঁ সদর মডেল থানার পুলিশ নিহত নজরুল ইসলামের মৃতদেহ উদ্ধার করেছে। তবে মঙ্গলবার বিকেল সারে চারটায় সংবাদ লেখা পর্যন্ত থানায় কোন মামলা দায়ের হয়নি।  

গত ১০ জানুয়ারি নওগাঁ সদর উপজেলার শৈলগাছি ইউনিয়নের গুমারদহ গ্রামের মাঠে তাদের পারিবারিক একটি জমিতে বোরো ধান লাগানোর জন্যে জমি তৈরী করার সময় এই মারপিটের ঘটনা ঘটেছে বলে জানা গেছে।  নিহত নজরুল ইসলাম গুমারদহ গ্রামের  মৃত আবুল হোসেনের ছেলে। 

নিহতের স্বজন, স্থানীয়রা জানায়, নজরুল ইসলামেরা দুই ভাই ও দুই বোন। তাদের বাবার রেখে যাওয়া সম্পত্তির ভাগ বাটোয়ারা না হওয়ায় নজরুল ইসলাম ও তার বড় ভাই ফজলুর রহমানের মধ্যে মাঝে মাঝেই বিরোধ লেগে থাকতো। গত ১০ জানুয়ারি ফজলুর রহমান গ্রামের মাঠে একটি জমিতে বোরো ধান লাগানোর জন্য আইল দিতে যান। এ সময় নজরুল তাকে বাধা দিতে যান। এ নিয়ে দুই ভাইয়ের মধ্যে কথা কাটাকাটি শুরু হয়। কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে ফজলুর রহমানের হাতে থাকা কোদালের হাতল দিয়ে নজরুলকে বেশ কয়েকটি আঘাত করেন। এতে নজরুল গুরুতর আহত হন। পরে তাকে উদ্ধার করে ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট নওগাঁ সদর আধুনিক হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার অবস্থার অবনতি হলে ওই দিনই তাকে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সোমবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে তার মৃত্যু হয়।

শৈলগাছী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোয়াজ্জেম হোসেন জানান, ফজলুর ও নজরুল দুই ভাই। দীর্ঘদিন ধরে তাদের দু'জনের মধ্যে জমি নিয়ে বিরোধ চলছিল। ৫/৬ দিন আগে জমি নিয়ে বিরোধের জেরে ফজলুর তার ছোট ভাইকে কোদালের হাতল দিয়ে মারধর করেন। এতে নজরুল গুরুতর আহত হন। সোমবার রাতে রাজশাহীতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার সকালে লাশ গ্রামের বাড়িতে আসার পর পুলিশ খবর পেয়ে ময়না তদন্তের জন্য মৃতদেহ থানায় নিয়ে যায়।  

নওগাঁ সদর মডেল থানার ওসি ফয়সাল জানান, খবর পেয়ে মৃতদেহ উদ্ধার পূর্বক ময়না তদন্তের জন্যে পাঠানো হয়েছে। ময়না তদন্তের প্রতিবেদন পাওয়ার পরেই মৃত্যুর সঠিক কারন জানাযাবে।


আরও খবর



টেকনাফ-সেন্টমার্টিন রুটে আবার চালু

প্রকাশিত:Friday ১৩ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Friday ০৩ February ২০২৩ |
Image

আজ থেকে আবারো শুরু হলো টেকনাফ-সেন্টমার্টিন নৌপথে পর্যটকবাহী জাহাজ চলাচল । 

বৃহস্পতিবার রাতে বিষয়টি নিশ্চিত করে টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কামরুজ্জামান জানান, শুক্রবার সকাল থেকে এ নৌপথে আবারো জাহাজ চলাচলের অনুমতি দেওয়া হয়েছে। প্রথম দিন পর্যটকবাহী জাহাজ এম ভি পারিজাত ও এম ভি রাজহংস যাত্রা করবে। এদিকে কক্সবাজার জেলা প্রশাসনের এডিএম আবু সুফিয়ান জানান, প্রথম দিন দুটি জাহাজ চলাচল করলেও পর্যায়ক্রমে অন্য সাতটি জাহাজও চলবে। গত বছরের মার্চ হতে টেকনাফ সেন্টমার্টিন রুটে জাহাজ চলাচল বন্ধ ছিল।


আরও খবর