Logo
শিরোনাম
মেঘনা নদীতে গোসল করার সময় নিখোঁজ ছাত্রের মরদেহ উদ্ধার রাজবাড়ীতে ট্রাকের সাথে সংঘর্ষে মোটর সাইকেল আরোহীর মৃত্যু রাজবাড়ীতে আবৃত্তি ও কথামালায় প্রকাশনা উৎসব নওগাঁয় মোটরসাইকেলের ধাক্কায় স্কুল ছাত্র নিহত-মা ও ছোট বোন আহত মোরেলগঞ্জে শ্রমীকদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ করলেন এমপি মিলন লালমনিরহাটে বিদ্যুৎ স্পৃষ্টে মারাগেছে স্কুলছাত্র নওগাঁয় বোরো ধান চাষের শুরুতেই বিদ্যুতের লোড শেডিং, দুঃশ্চিন্তায় কৃষকরা নওগাঁয় ৩৫ কোটি টাকা মূল্যের কষ্টিপাথরের মূর্তি উদ্ধার করেছে পুলিশ কুড়িগ্রামের শীতকাতর অসহায় মানুষের পাশে কেন্দ্রীয় যুবলীগ নেত্রকোনায় বিশ্ব জলাভূমি দিবস উপলক্ষে মানববন্ধন

বেশি স্বাস্থ্যকর কোনটি ভাত না রুটি ?

প্রকাশিত:Monday ০৫ December ২০২২ | হালনাগাদ:Friday ০৩ February ২০২৩ |
Image

রুটি না হয় ভাত, আমাদের খাবার মেন্যুতে একটি থাকেই। এর উপস্থিতি ছাড়া আমাদের খাবারগ্রহণ যেন অম্পূর্ণ থেকে যায়। অবশ্য বাঙালির খাদ্য তালিকায় ভাত-ই বেশি প্রচলিত। কিন্তু ভাত বা রুটি- এসব খাবার আমাদের কতটা উপকারী এবং কী পরিমাণ খাওয়া উচিৎ? আর ভাত ও রুটির মধ্যে কোনটি স্বাস্থ্যকর ? 

পুষ্টিবিদ তামান্না চৌধুরীর মতে, একজন সুস্থ মানুষ দৈনিক তার খাবার তালিকায় ভাত বা রুটি রাখতে পারেন। তবে ভাত হলে ব্রাউন চাউলের হওয়া উচিত। আর রুটি হলে চালের গুড়া বা ভুট্টার আটার রুটি হতে হবে। কোনোভাবেই গম থেকে তৈরি আটা-ময়দার রুটি খাওয়া যাবে না। শুধু তাই নয়, গমের আটা বা ময়দার তৈরি কোনো খাবারই খাওয়া যাবে না। কারণ, বর্তমানে সারাবিশ্বে যে গম পাওয়া যায়, তা জেনেটিক্যালি মডিফায়েড। অর্গানিক গম কোথাও পাওয়া যায় না। ফলে এসব গমের তৈরি খাবারগ্রহণ করলে ক্যান্সার, ডায়াবেটিস, হৃদরোগ, ব্লাড প্রেসার, লিভার ড্যামেজ, কিডনি ড্যামেজসহ বিভিন্ন ধরনের জটিল রোগ হতে পারে। একইভাবে সাদা চালের তৈরি খাবারেও নানা ধরনের শারীরিক সমস্যা তৈরি করতে পারে।

কী পরিমাণ খাওয়া যাবে?

তামান্না চৌধুরী, ব্রাউন্ড চালের ভাত বা চালের রুটি পর্যাপ্ত সাক-সবজি, মাছ ও গোস্তের সঙ্গে একজন মানুষ তার প্রয়োজন অনুযায়ী খেতে পারেন। তবে অতিরিক্ত খাওয়া ঠিক নয়। এতে মেদ বৃদ্ধিসহ শারীরিক সমস্যা তৈরি হতে পারে। আর মাছ-গোস্তের ক্ষেত্রে অবশ্যই চাষের মাছ নয় ও ফার্মের গোস্ত নয়।

তবে শরীরের ওজন হ্রাসে ও সুস্থ থাকতে কিংবা বিভিন্ন ধরনের রোগ মুক্তির জন্য কার্বোহাইড্রেট ত্যাগ করা ভালো। কিন্তু যাদের ভাত ও রুটি ছাড়া একেবারে চলে না, তারা অন্তত উপরের নির্দেশনা ফলো করলে বেশ সুফল পাবেন।

কয় বেলা খাবেন? সকালে নাস্তা, ১১টায় ফের নাস্তা, দুপুরের খাবার, বিকেলের নাস্তা ও রাতের খাবার- দৈনিক এভাবে পাঁচবার খাদ্যগ্রহণের উপদেশ কোনো কোনো ক্ষেত্রে চিকিৎসকদের দিতে দেখা যায়। বিশেষ করে ডায়াবেটিস রোগীকে এমন পরামর্শ দিয়ে থাকেন চিকিৎসকরা। আর প্রতিবার খাবারেই কার্বোহাইড্রেট জাতীয় খাবার থাকে। এতে কোনো কোনো ক্ষেত্রে রোগী সুস্থ হওয়ার পরিবর্তে দিনে দিনে আরো অসুস্থ হতে থাকেন।


আরও খবর



দশমিনায় কনকনে শীতে পুরনো কাপড়েই চলছে জীবন

প্রকাশিত:Wednesday ১১ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Friday ০৩ February ২০২৩ |
Image

মোঃ নাঈম হোসাইন,দশমিনা, পটুয়াখালী :

পটুয়াখালীর দশমিনা উপজেলার সদর ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের তেতুলিয়া নদীপাড়ের  গোলখালী গ্রামের।মোসা.ফাতেমা বেগম (৪৯)। স্বামী পরিত্যাক্তা ফাতেমা বেগম ছেলে জহিরুল ইসলাম (১৪) এবং শাররীক প্রতিবন্ধী মেয়ে তাছলিমাকে (১২) নিয়ে একটি কবরস্থানের পাশে ভাঙা পরিত্যাক্ত ঘরে বসবাস করছেন। ফাতেমা বেগম বলেন, মুজিববর্ষের ঘর পাননি তিনি। এছাড়া কোন রকম সরকারী সহায়তাও পাননা। প্রতিবন্ধী মেয়ে থাকায় কেউ কাজ দেয়না, তাই অভাবের তাড়নায় তার ছেলেকে তেতুলিয়া নদীতে জেলে নৌকায় দৈনিক ১৫০ টাকা মজুরীতে মাছ ধরার কাজে দিয়েছেন কিন্তু নদীতে মাছ না পাওয়া গেলে মজুরীর টাকা দেয়না তারা।তাই কোনদিন খাবার জোটে আবার কোনদিন না খেয়েই কেটে যায় দিন।আমার ভাঙা ঘরে কনকনে শীতের ঠান্ডা হাওয়া ঢুকে আমাদের শরীরে কাপন ধরেযায়। ছেড়া পুরনো কাথা কাপড় শরীরে জড়িয়ে জুবুথুবু হয়ে কাটাচ্ছেন শীতের রাত, অভাবের তাড়নায় জীবন যেন আর চলছে না।স্থানীয় ইউপি সদস্য মোঃ অলিউল ইসলাম বলেন, অসহায় ফাতেমা বেগম মুজিববর্ষের ঘর বরাদ্দ পায়নি কিন্তু অনেক স্বচ্ছল পরিবার ঘর বরাদ্দ পেয়েছেন। তিনি ফাতেমা বেগমকে সহয়তা করার আশ্বাস দেন। ইউপি চেয়ারম্যান এ্যাডভোকেট ইকবাল মাহামুদ লিটন বলেন, ফাতেমা বেগমকে ভিজিডি সুবিধার আওতায় আনা হবে। 

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ মহিউদ্দিন আল হেলাল বলেন, ফাতেমা বেগমের ব্যাপারে খোজ খবর নিয়ে তার প্রাপ্যতা সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।


আরও খবর



মেসি-রোনালদোর ‘লড়াই’ দেখতে ২০ লক্ষাধিক আবেদন

প্রকাশিত:Saturday ১৪ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Friday ০৩ February ২০২৩ |
Image

ইয়াশফি রহমান ঃপর্তুগিজ সুপারস্টার ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো গত ১ জানুয়ারি সৌদি আরবের ক্লাব আল নাসরে যোগ দিলেও দলটির হয়ে এখন পর্যন্ত মাঠে অভিষেক হয়নি তার। তবে রোনালদোর জন্য অপেক্ষা করছে বড় কিছু। লিওনেল মেসি, নেইমার জুনিয়র ও কিলিয়ান এমবাপ্পের সমন্বিত পিএসজির বিপক্ষে লড়বেন তিনি।

আগামী ১৯ জানুয়ারি সৌদির রাজধানী রিয়াদে ফরাসি চ্যাম্পিয়ন পিএসজির মুখোমুখি হবে আল হিলাল ও আল নাসরের ফুটবলারদের সংগঠিত একটি দল। ওই ম্যাচটি দিয়ে আবারও বিশ্ব ফুটবল ‘মেসি-রোনালদো’ দ্বৈরথ দেখতে পাবেন।

ম্যাচটিকে ঘিরে ফুটবলপ্রেমীদের মধ্যে আগ্রহ এখন তুঙ্গে। ইএসপিএনকে জানিয়েছে, পিএসজি ও সৌদি দলটির ম্যাচ টিকিটের জন্য ২০ লাখের বেশি মানুষ অনলাইনে আবেদন করেছেন।

রিয়াল মাদ্রিদ ও ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের সাবেক তারকা রোনালদো আল নাসরে যোগ দেয়ার পর ক্লাবটি এখন পর্যন্ত দুইটি ম্যাচ খেলে। কিন্তু নিষেধাজ্ঞার করাণে ম্যাচগুলোতে নামতে পারেননি তিনি। গত বছর প্রিমিয়ার লিগের এক ঘটনার জেরে দুই ম্যাচের নিষেধাজ্ঞা থাকায় নামা হয়নি রোনালদোর। ১৪ জানুয়ারি আল নাসর-আল শাবাব ম্যাচ দিয়ে নিষেধাজ্ঞা শেষ হচ্ছে।

নিষেধাজ্ঞায় মাঠে নামা বিলম্বিত হলেও পর্তুগিজ তারকার অভিষেক হচ্ছে ‘বড় ম্যাচ’ দিয়ে। কাতারি মালিকানাধীন পিএসজি আগামী ১৯ জানুয়ারি কিং ফাহাদ স্টেডিয়ামে একটি প্রদর্শনী ম্যাচ খেলবে। রিয়াদে অবস্থিত স্টেডিয়ামটির দর্শক ধারণক্ষমতা ৬৮ হাজার।


আরও খবর



নিলীমা দাসের শুভ জন্মদিন

প্রকাশিত:Sunday ০৮ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Friday ০৩ February ২০২৩ |
Image
এড. মৃণাল কান্তি দাসের সহধর্মিণী নিলীমা দাসের জন্মদিন



আরও খবর



নারায়ণগঞ্জে ৩ কোটি ২০ লাখ টাকার হেরোইন উদ্ধার করেছে ডিবি

প্রকাশিত:Monday ১৬ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Friday ০৩ February ২০২৩ |
Image

বুলবুল আহমেদ সোহেল  :

আজ দুপুরে পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে প্রেস ব্রিফিং পুলিশ সুপার গোলাম মোস্তফা রাসেল জানান, ১৫ জানুয়ারি দিবাগত রাত ২ টা ১০ মিনিটে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সিদ্ধিরগঞ্জের চিটাগাং রোড এলাকার বন্ধু পরিবহনের বাস কাউন্টারের সামনে পাকা রাস্তার উপর থেকে ১ কেজি ৬’শ গ্রাম হেরোইন উদ্ধার করে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ। গ্রেপ্তারকৃত আসামীর নাম মো. মাসুম সরকার। সে কুমিল্লার হোমনা ভবানীপুরের হাসান আলী সরকারের ছেলে। বর্তমানে ঢাকার রামপুরার হাজিপাড়ায় থাকতেন।উদ্ধারকৃত মাদকের পরিমান ১ কেজি ৬’শ গ্রাম। পুলিশ এ ঘটনায় আসামীর বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য আইনে মামলা করেছেন। এ ঘটনায় পুলিশ আসামির বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

পুলিশ সুপার জানান, এ ঘটনায় আরও কে কে জড়িত, কোথায় যাচ্ছিল বিষয় গুলো নিয়ে অনুসন্ধান চলছে।আসামীকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৫ দিনের রিমান্ড চাওয়া হবে।


আরও খবর



পেইড সোর্স নিয়োগ করে

হত্যা মামলার আসামীকে ভারত থেকে এনে গ্রেফতার করলো পুলিশ

প্রকাশিত:Tuesday ৩১ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Thursday ০২ February 2০২3 |
Image

নিজস্ব প্রতিনিধি :

লালমনিরহাটের পাটগ্রামে সাবেক কলেজ অধ্যক্ষ ও বীর মুক্তিযোদ্ধা এম ওয়াজেদ আলী হত্যা মামলার প্রধান আসামী নাহিদুজ্জামান প্রধান বাবু ভারতে পালিয়ে গিয়েও রক্ষা পায়নি। পুলিশের চৌকসতায় পেইড সোর্স নিয়োগের মাধ্যমে ফের আসামী বাংলাদেশের অভ্যন্তরে প্রবেশ করলে সীমান্তবর্তী এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

সোমবার (৩০ জানুয়ারি) বিকেল ৫ টায় লালমনিরহাট পুলিশ সুপার কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান পুলিশ সুপার মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম।

সংবাদ সম্মেলনের লিখিত বক্তব্যে পুলিশ সুপার জানান, পাটগ্রামে বীর মুক্তিযোদ্ধা এম ওয়াজেদ আলী হত্যাকান্ডের পর থেকে মুল আসামীকে গ্রেফতার করতে উন্নত প্রযুক্তির মাধ্যমে অনুসন্ধান চালিয়ে মামলার প্রধান আসামী নাহিদুজ্জামান বাবুর অবস্থান ভারতের কুচবিহারে জানা যায়।পরে পেইড সোর্স নিয়োগ করে তাদের মাধ্যমে আসামী ভারতের কুচবিহার থেকে বাংলাদেশের পাটগ্রামের দহগ্রাম এলাকায় ঢুকলে আসামিকে পাটগ্রাম থানা পুলিশের ১০ সদস্যের একটি টিম গ্রেফতার করে।

এসপির দেওয়া প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখিত তথ্যসূত্রে জানাযায়, হত্যা মামলায় গ্রেফতারকৃত আসামী নাহিদুজ্জামান প্রধান বাবু দীর্ঘ ০৩ বছর যাবত বীর মুক্তিযোদ্ধা এম ওয়াজেদ আলীর উপর বিভিন্ন কারণে ক্ষিপ্ত ছিল। ঘটনার দিন(২০ জানুয়ারী) রাত সাড়ে ৯টার দিকে বীর মুক্তিযোদ্ধা এম ওয়াজেদ আলীর পিছু নিয়ে তার বাসার সামনে পৌঁছিলে ধারালো ছুরি দিয়ে প্রথমে শরীরের বিভিন্ন জায়গায় উপর্যুপরি আঘাত করে বাবু। অঘাতপ্রাপ্ত হয়ে মুক্তিযোদ্ধা এম ওয়াজেদ আলী রাস্তা সংলগ্ন তার নিজ বাড়ির ওয়ালের পার্শ্বে পড়ে গেলে আসামীর হাতে থাকা ধারালো ছুরি দিয়ে ওয়াজেদ আলীর শরীরের বিভিন্ন স্থানে পুনরায় আঘাত করে এবং পরিশেষে ধারালো ছুরি দিয়ে গলায় আঘাত করে। এসময় এম ওয়াজেদ আলীর আত্মচিৎকারে লোকজন আসতে থাকলে আসামী ঘটনাস্থল থেকে দৌড়ে পালিয়ে যায়। এবং ঐ রাতেই উপজেলার জগতবের সীমান্ত দিয়ে গরু পারাপারকারীর মাধ্যমে অবৈধ পথে ভারতে পালিয়ে যায়। পরে পুলিশের তৎপরতায় এবং পেইড সোর্সের মাধ্যমে মামলার মূল আসামী নাহিদুজ্জামান বাবু বাংলাদেশ সীমান্তের দহগ্রামে ফেরত আসলে কৌশলে ২৯ জানুয়ারি রোববার মধ্য রাতের দিকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতারকৃত নাহিদুজ্জামান প্রধান বাবু (২৭) পাটগ্রাম নিউ পূর্বপারা রসূলগঞ্জ এলাকার আব্দুস সামাদ প্রধানের পুত্র। এর আগে মামলার প্রধান আসামী বাবুর ঘনিষ্ঠ বন্ধু আলমগীর হোসেনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

পুলিশ সুপার মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম জানান, গ্রেফতারকৃত আসামী নাহিদুজ্জামান প্রধান বাবুকে ৩০ জানুয়ারী বিজ্ঞ আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। আসামি এই হত্যাকান্ডে নিজেকে জড়িয়ে পাটগ্রাম আমলী আদালত জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট  বেলাল হোসাইনের আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী দিয়েছে।

লালমনিরহাট পুলিশের এ সংবাদ সম্মেলনে লালমনিরহাটের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আতিকুর রহমান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বি সার্কেল,পাটগ্রাম থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি ওমর ফারুক, মামলার তদন্ত কর্মকর্তা (ওসি তদন্ত) মুত্তালিবসহ প্রমূখ পুলিশ কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন।


আরও খবর