Logo
শিরোনাম

বইমেলায় ভাঙনের সুর

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৫ মার্চ ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ১৬ মে ২০২২ | ২৩৩জন দেখেছেন
Image

এবারের অমর একুশে বইমেলা শুরু হয় গত ১৫ ফেব্রুয়ারি। শুরু হয়েছিল ১৩ দিনের জন্য, কিন্তু পরে করোনা পরিস্থিতির উন্নতি হলে তা বাড়িয়ে ১৭ মার্চ পর্যন্ত করা হয়। সে হিসেবে আর দুদিন পরই শেষ হচ্ছে এবারের মেলা। গত দুই বছর অনেকটা হতাশায় কাটলেও এবারের মেলা শুরুর দিন থেকেই জমে ওঠে। তবে শেষ সপ্তাহের ছুটির দিনের পর থেকেই ফাঁকা হতে থাকে মেলাপ্রাঙ্গন।

যে প্যাভেলিয়নগুলোতে উপচে পড়া ভিড় থাকত সেগুলোতে অল্প-স্বল্প পাঠক দেখা গেলেও প্রান্তিক স্টলগুলো ছিল একদম ফাঁকা। বিক্রিয়কর্মীরা কাটাচ্ছেন অলস সময়, কেউবা নিজেদের মধ্যে গল্প-গুজব করছেন। আর আগত দর্শনার্থীদের অনেকেই সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের লেকের পাশে বসে আড্ডা দিচ্ছেন। আবার কেউ আড্ডা দিচ্ছেন খাবারের দোকানে। মেলার ২৮তম দিন সোমবার (১৪ মার্চ) মেলা ঘুরে দেখা যায় এমন দৃশ্য।

প্রকাশক ও বিক্রয়কর্মীরা বলছেন, মেলার শেষ দিকে প্রত্যাশা অনুযায়ী পাঠক সমাগম ও বিক্রি খুবই কম। মেলায় যারা আসছেন তাদের বেশির ভাগই আড্ডা দিতে আসছেন।

তাম্রলিপির মেলার স্টল ম্যানেজার হৃদয় আহমেদ বলেন, মেলায় শেষ দিকে এসে পাঠক সমাগম একদমই কম। তবে গত দুবছরের তুলনায় ভালো। যদিও ২০১৮-১৯ সালে মেলার শেষ দিকে এসে যেমন উপচে পড়া ভিড় হতো তেমনটা নেই। তখন এই সময়ে বিক্রয়কর্মী ও প্রকাশকরা কথা বলার জন্যও সুযোগ পেত না ব্যস্ততার কারণে। এখন মেলায় যারা আসছেন তাদের বেশির ভাগই এদিক-সেদিক ঘুরছেন।'

অন্যধারা প্রকাশের সত্ত্বাধিকারী মনির হোসেন পিন্টু বলেন, 'প্রথমত আমরা শিওর ছিলাম না মেলার সময় বাড়বে কিনা! আমরা ১৩ দিনের প্রস্তুতি নিয়ে মেলা শুরু করেছি। সেই সময়টা আমাদের খুবই ভালো যায়। সময় বাড়লেও আমরা আশঙ্কাগ্রস্ত ছিলাম পাঠক থাকবে কিনা এবং পাঠক সমাগম খুবই ভালো ছিলো।  মেলার পড়ন্ত সময়ের হিসেবে কম হলেও পাঠক সমাগম ভালো।

চিত্রা প্রকাশের বিক্রয়কর্মী প্রমা শর্মা বলেন, মেলার প্রথম সপ্তাহ জমজমাটই চলে। মেলার মাঝের দিকে এসে শুক্র ও শনিবার ছাড়া লোক সমাগম আস্তে আস্তে কম হতে শুরু করে। শেষ দিকে এসে আমাদের প্রত্যাশা অনুযায়ী তা অনেকটাই কম।  লোকসমাগম কম বলে বিক্রিও কম। এখন যারা আসছেন তাদের ভিড় হয়তো খাবারের দোকানে, নয়তো লেকের পাশে। বেশির ভাগই আড্ডা দিচ্ছেন।

মেলার আয়োজন

বিকাল ৪টায় বইমেলার মূল মঞ্চে অনুষ্ঠিত হয় ড. মুহম্মদ শহীদুল্লাহ্ : বাংলা ভাষা ও সাহিত্যের আলোকবর্তিকা এবং ড. মুহম্মদ এনামুল হক : জীবন ও সৃজন শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠান। প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন হাকিম আরিফ এবং সৌরভ সিকদার। আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন আনোয়ারুল হক, ললিতা রানী বর্মন এবং মাসুদ রহমান। সভাপতিত্ব করেন সৈয়দ আজিজুল হক।

প্রবন্ধ উপস্থানকালে হাকিম আরিফ বলেন, বাংলাভাষী অঞ্চলে ভাষাচর্চা বা তাত্ত্বিকভাবে ভাষাবিজ্ঞানের প্রসঙ্গটি যখনই উত্থাপিত হয়, তখন অপরিহার্যভাবেই ড. মুহম্মদ শহীদুল্লাহর নাম চলে আসে। বাংলা ভাষার চর্চা বা ভাষার বৈজ্ঞানিক বিশ্লেষণের বিষয়টি ছিল তার আবেগের অংশ, জীবনযাপনের মতোই নৈমিত্তিক।

সৌরভ সিকদার বলেন, বাংলার মনীষী ড. মুহম্মদ এনামুল হক গবেষণাক্ষেত্রে যেমন মেধাবী ছিলেন, তেমনি প্রশাসনিক দক্ষতা ও কর্মতৎপরতায় ছিলেন অনন্য। বাংলাভাষা ও সাহিত্যের গবেষণায়, বাংলাভাষার পরিকল্পনায় ও এ অঞ্চলের শিক্ষাব্যবস্থা সংস্কারে তার অবদান চিরস্মরণীয়।


আরও খবর



ব্যবসায়ীকে অস্ত্র দিয়ে ফাঁসানোর অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন

প্রকাশিত:শুক্রবার ২২ এপ্রিল 20২২ | হালনাগাদ:রবিবার ১৫ মে ২০২২ | ১০৭জন দেখেছেন
Image

অনুপ সিংহ,নোয়াখালী প্রতিনিধিঃ

নোয়াখালীর সোনাইমুড়ী থেকে অস্ত্র উদ্ধার দেখিয়ে পার্শ্ববর্তী বেগমগঞ্জ থেকে এক ব্যবসায়ীকে আটক করে র‍্যাব-৩ কর্তৃক হয়রানির প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন করেছেন ব্যবসায়ীর স্ত্রী শিল্পী আক্তার ও তার সহোদররা।

বৃহস্পতিবার দুপুরে সোনাইমুড়ী প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে শিল্পী আক্তার জানান,তার স্বামী পার্শ্ববর্তী বেগমগঞ্জ উপজেলার বরইচাতাল বাজারের একজন ব্যবসায়ী ছিলেন।

বিগত ২০ এপ্রিল ইফতার শেষে রাত ৭টার দিকে পারভেজ হোসেনের বাড়ীর সামনের দোকানে গেলে তাকে আটক করেন র‍্যাব-৩ এর সদস্যরা। পরে গভীর রাতে সোনাইমুড়ী উপজেলার বজরা ইউনিয়নের বারাহীনগর গ্রামের পরিত্যক্ত একটি বাড়ি থেকে বিপুল পরিমাণ অস্ত্র উদ্ধার করে সোনাইমুড়ী থানায় র‍্যাব-৩ বাদী হয়ে অস্ত্র আইনে মামলা দায়ের করে।

এই মামলায় আমার নিরপরাধ স্বামীকে গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতে প্রেরণ করে। তিনি আরও জানান,আমার স্বামীকে আটকের পর থানায় রেখে রাতভর অমানবিক নির্যাতন চালায় র‍্যাব সদস্যরা। আমার স্বামী বিগত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ওয়ার্ড সদস্য হিসেবে নির্বাচনে অংশগ্রহন করেন। এর প্রতিহিংসায় জের ধরে একটি মহল র‍্যাব সদস্যকে দিয়ে আটক করে মিথ্যা ঘটনা সাজিয়ে হয়রানি করছে।

এঘটনায় তিনি সুষ্ঠ তদন্ত করে প্রশাসনের উর্ধতন কতৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।


আরও খবর



মানিকগঞ্জে ইসলামী ব্যাংকের ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৬ এপ্রিল ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ১৫ মে ২০২২ | ১২৯জন দেখেছেন
Image

মনিরুল ইসলাম মিহিরঃ মানিকগঞ্জে ইসলামী ব্যাংকে ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। মঙ্গলবার বিকেলে ব্যাংকের নিজ কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত “সার্বজনীন কল্যানে মাহে রমজান” শীর্ষক আলোচনা সভা ও ইফতার মাহফিলে সভাপতিত্ব করেন ব্যাংকের ঢাকা নর্থ জোন প্রধান ও সিনিয়র এক্সিকিউটিভ ভাইস-প্রেসিডেন্ট মুহাম্মদ সাঈদ উল্লাহ।

প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন মানিকগঞ্জ পৌর সভার মেয়র মোঃ রমজান আলী ও বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ন সাধারন সম্পাদক ও জেলা ডায়বেটিকস সমিতির সাধারন সম্পাদক আ,ফ,ম, সুলতানুল আজম খান আপেল। স্বাগত বক্তব্য রাখেন মানিকগঞ্জ শাখা ব্যবস্থাপক মোঃ হাবিবুর রহমান ।মূল আলোচনা করেন, আমিন বাজার জামে মসজিদের খতিব মাওলানা মুহাম্মদ ফখর উদ্দিন।অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন ব্যাংকের প্রিন্সিপাল অফিসার জুলফিকার আহম্মেদ।

জেলার বিশিষ্ট নাগরিক ও বিভিন্ন শ্রেনী-পেশার মানুষ এ ইফতার মাহফিলে অংশগহন করেন।


আরও খবর



বছরে পানিতে ডুবে মারা যায় সাড়ে ১৪ হাজার শিশু

প্রকাশিত:বুধবার ২০ এপ্রিল ২০22 | হালনাগাদ:সোমবার ১৬ মে ২০২২ | ৯৫জন দেখেছেন
Image

নদীমাতৃক বাংলাদেশে প্রতিদিন ‘প্রায় ৪০ শিশুর’ মৃত্যু হয় পানিতে ডুবে। এর মধ্যে অধিকাংশেরই প্রাণ যায় সকাল ৯টা থেকে বেলা ১টার মধ্যে। এজন্য দায়ী অভিভাবকের ব্যস্ততা কিংবা অসচেতনতা। ২০১৬ সালে একটি বেসরকারি সংস্থার জরিপে এই তথ্য উঠে আসে।

এরপর বাংলাদেশে পানিতে ডুবে শিশু-মৃত্যু প্রতিরোধের কৌশল উদ্ভাবন করে। বিশ্বদরবারে সুনামও অর্জন করে। সেই দেশে গত ছয় বছরে এ বিষয়ে আর কোনো তথ্যই সংগ্রহ করা হয়নি।

সেন্টার ফর ইনজুরি প্রিভেনশন অ্যান্ড রিসার্চ, বাংলাদেশের (সিআইপিআরবি) ডেপুটি এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর আমিনুর রহমান জানান, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সহযোগিতায় ২০১৬ সালের ওই আলোচিত জরিপের পর, পানিতে ডুবে শিশু মৃত্যু প্রতিরোধে তারা নানা পদক্ষেপ গ্রহণ করেছেন। সম্প্রতি একনেকে বড় একটি প্রকল্পও পাস হয়েছে।

সাম্প্রতিক কোনো পরিসংখ্যান নেই জানিয়ে আমিনুর রহমান বলেন, গবেষণা আরও করতে হবে। জাতীয় পর্যায়ে এ ধরনের গবেষণা করা কঠিন। সরকারের সহযোগিতা পেলে আগামী বছর আরেকটা গবেষণা করব।

আমিনুর রহমানের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, প্রতি বছর প্রায় ১৯ হাজার মানুষ পানিতে ডুবে মারা যায়। এর মধ্যে ১৮ বছরের কম বয়সী শিশুর সংখ্যা প্রায় সাড়ে ১৪ হাজার। ৫ বছরের কম বয়সের সংখ্যা প্রায় ১০ হাজার। অর্থাৎ, পানিতে ডুবে মারা যাওয়াদের প্রায় অর্ধেকের বয়সই ৫ বছরের কম।

সংখ্যাগুলো দিনের হিসাবে বিবেচনা করলে ৫ বছরের কম বয়সী প্রায় ৩০টি শিশু প্রতিদিন মারা যায়। ১৮ বছরের কম বয়সী প্রায় ৪০ জন আর সব বয়সী চিন্তা করলে প্রতিদিন মারা যায় প্রায় ৫০ জন।

এই মৃত্যু কমানোর জন্য আমরা কিছু কৌশল বের করেছি জানিয়ে আমিনুর রহমান বলেন, ৫ বছরের কম বয়সী শিশুদের ডে-কেয়ার সেন্টারে রাখতে হবে। সকাল ৯টা থেকে বেলা ১টা পর্যন্ত। এই বয়সী যে শিশুরা মারা যায়, তাদের প্রায় ৬০ শতাংশ এই সময়টাতেই পানিতে ডোবে।

‘এই চার ঘণ্টা প্রাপ্তবয়স্কদের কেউ যদি শিশুদের দেখে শুনে রাখে, তাহলে শিশুর পানিতে ডুবে মারা যাওয়ার শঙ্কা প্রায় ৮০ শতাংশ কমে যায়।’

সরকারের পদক্ষেপ : বাংলাদেশের মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয় একটা প্রকল্প হাতে নিয়েছে। দুই মাস আগে প্রকল্পটি অনুমোদন পেয়েছে। এর মাধ্যমে ১৬টি উপজেলায় প্রায় ২ লাখ বাচ্চাকে ডেকেয়ার সেন্টারের আওতায় আনা হবে। তিন লাখ ৬০ হাজার শিশুকে নতুন করে সাঁতার শেখানো হবে। এতে যে খরচ হবে, তার ৮০ শতাংশই বাংলাদেশ সরকার বহন করবে। বাকি ২০ শতাংশ আসবে দুটি দাতা সংস্থা থেকে।

মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে জানানো হয়, বিভিন্ন সংগঠনকে সঙ্গে নিয়ে প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করবে শিশু একাডেমি। সিআইপিআরবি কারিগরি সহায়তা দেবে।

আপাতত নির্দিষ্ট কয়েকটি উপজেলায় কাজ শুরু হলেও সরকারের আশা, ১০ থেকে ১২ বছরের মধ্যে সারাদেশ এই কর্মসূচির আওতায় আসবে।

যত্ন-সচেতনতার বিকল্প নেই : পানিতে ডুবে শিশু মৃত্যুর বিষয়টিকে এখন অনেকেই অভিভাবকের ‘অবহেলাজনিত অপরাধ’ বলে উল্লেখ করছেন। গণমাধ্যম ও উন্নয়ন যোগাযোগবিষয়ক প্রতিষ্ঠান ‘সমষ্টি’ পানিতে ডুবে শিশু মৃত্যু প্রতিরোধে বিভিন্ন সময় পরামর্শ সভার আয়োজন করে, এমন বার্তাই দিয়েছে। প্রতিষ্ঠানটি, সিআইপিআরবির মতো ব্যাপক পরিধির জরিপ না চালালেও তাদের এক বিশ্লেষণে দেখা গেছে, ২০২০ সালের জানুয়ারি থেকে ২০২১ সালের জানুয়ারি পর্যন্ত ১৩ মাসে, সারাদেশে ৪৬৭টি ঘটনায় ৮৩৩ জন পানিতে ডুবে মারা গেছে। এদের মধ্যে ৬৮৬ জনই (৮২.৩৫ শতাংশ) শিশু। মৃতদের মধ্যে ২৮১ জন কন্যাশিশু।

সমষ্টির পরিচালক ও সাংবাদিক মীর মাসরুর জামান মনে করেন, পানিতে ডুবে শিশু মৃত্যু প্রতিরোধের ব্যাপারটি সামগ্রিক যত্নের বিষয়। তিনি বলেন, বিষয়টি পারিবারিক, কমিউনিটি এবং রাষ্ট্রীয় পর্যায়ে যত্ন নিয়ে দেখতে হবে। সূত্র : ভয়েস অব আমেরিকা


আরও খবর



১১ যাত্রী নিয়ে পদ্মায় উল্টে গেল স্পিডবোট

প্রকাশিত:শনিবার ৩০ এপ্রিল ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ১৪ মে ২০২২ | ৯৩জন দেখেছেন
Image

বাংলাবাজার-শিমুলিয়া নৌরুটের পদ্মাসেতুর কাছে বাংলাবাজারগামী একটি স্পিডবোটডুবির ঘটনা ঘটেছে। এ সময় বোটে ১১ জন যাত্রী ছিলেন। শনিবার (৩০ এপ্রিল) সকাল সাড়ে ৮টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে জানায় বিআইডব্লিউটিএর বাংলাবাজার ঘাট সূত্র।

তবে আশার খবর হলো ডুবে যাওয়া বোটের সব যাত্রীকে উদ্ধার করা হয়েছে। কেউ নিখোঁজ নেই।

জানা গেছে, শনিবার সকালে শিমুলিয়া থেকে একটি স্পিডবোট শিবচরের বাংলাবাজার ঘাটের উদ্দেশে রওনা হয়। বোটটি পদ্মাসেতুর কাছে গেলে ঢেউয়ের ধাক্কায় উল্টে যায়। খবর পেয়ে স্থানীয় জেলে, নৌকা ও নৌপুলিশের টিম গিয়ে সব যাত্রীদের উদ্ধার করে।

এদিকে ঘাটের একটি সূত্র জানিয়েছে, শিমুলিয়া থেকে ধারণক্ষমতার বেশি যাত্রী নিয়ে রওনা দেয় বাবু নামের একটি স্পিডবোট। বোটটির চালক ছিলেন মো. উজ্জ্বল। সেতু অতিক্রমের সময় প্রচণ্ড ঢেউয়ের ধাক্কায় বোটটি উল্টে যায়।

কাঁঠালবাড়ী নৌপুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক মো. জাহানুর আলী বলেন, বোটটির তলা ফেটে ডুবে যায়। তবে সকল যাত্রীদের উদ্ধার করা হয়েছে। কোনো হতাহত ও নিখোঁজ নেই।


আরও খবর



শিরোপা ফয়সালা হবে কি আজ?

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৬ এপ্রিল ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ১৫ মে ২০২২ | ১০২জন দেখেছেন
Image

ইয়াশফি রহমান: প্রাইম ব্যাংকের সামনে সুপার লিগের তৃতীয় রাউন্ডে দাঁড়াতে পারেনি শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব। একই অবস্থা লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জের। মিরপুরে তাদের বড় ব্যবধানে হারিয়েছে আবাহনী লিমিটেড।

শিরোপা প্রত্যাশী দুই ক্লাবের হারে ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে শিরোপার ফয়সালা হয়নি তৃতীয় রাউন্ডে। আজ চতুর্থ রাউন্ড মাঠে গড়াবে। আজ কি শিরোপার ফয়সালা হবে? শেখ জামাল জয়ে ফিরতে মরিয়া। সঙ্গে প্রথম শিরোপা জয়ের অপেক্ষা দীর্ঘ করতে চায় না তারা।

কোচ সোহেল ইসলাম গণমাধ্যমকে বললেন, ‘ব্যাটিং-বোলিংয়ে আমাদের একটি বাজে দিন গেছে। এর আগে আমরা টানা জিতেছি। ভুল করেছিলাম। কিন্তু জয়ে সেগুলো আড়াল হয়েছে। সামনের ম্যাচটা আমাদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ। জিততে হলে আমাদের সেরা ক্রিকেট খেলতে হবে। আমরা শিরোপা জিততে চাই। এজন্য জিততেই হবে।’

মিরপুরে শেখ জামালের প্রতিপক্ষ আবাহনী লিমিটেড। রাউন্ড রবিন লিগে শেখ জামাল বিকেএসপিতে আবাহনীকে ৫ উইকেটে হারিয়েছিল। এবার নিশ্চয়ই বদলা নিতে মুখিয়ে খালেদ মাহমুদের শিষ্যরা।

শেষ রাউন্ডে মিরপুরে তারা মাশরাফি, সাকিব, চিরাগ জানিদের আটকে দারুণ ম্যাচ জিতেছিল। মোসাদ্দেকের অলরাউন্ড পারফরম্যান্সে হেসেছিল প্রতিযোগিতার হ্যাটট্রিক চ্যাম্পিয়নরা। এবার শিরোপার লড়াইয়ে না থাকলেও দারুণভাবে লিগ শেষ করতে চান মোসাদ্দেক, ‘আমরা হয়তো শিরোপা জিততে পারব না। কিন্তু শেষ ম্যাচগুলো জিতে ভালোভাবে লিগ শেষ করতে চাই। সামনে আমাদের দুটি ম্যাচ। দুটি ম্যাচই জিততে চাই।’

লিগে ব্যাট-বল হাতে সমান তালে পারফর্ম করেন মোসাদ্দেক। ১৩ ম্যাচে ৬৪৩ রান করেছেন। বল হাতে উইকেট ১২টি। শেষ দুই ম্যাচে পারফর্ম করে নিজেকেও ভালো অবস্থানে দেখতে চান মোসাদ্দেক।

এদিকে বিকেএসপিতে মাশরাফিদের প্রতিপক্ষ গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্স। শেষ ম্যাচে তারা হেরে যাওয়ায় শিরোপার লড়াইয়ে পিছিয়ে পড়েছে। আজ শেখ জামাল জিতে গেলে তাদের উৎসব শুরু হয়ে যাবে। মাশরাফিরা শেষ দুই রাউন্ডে জিতলেও তাদের ধরতে পারবে না। ২২ পয়েন্ট নিয়ে শেখ জামাল এখন শীর্ষে। ১৮ পয়েন্ট নিয়ে রূপগঞ্জ দুইয়ে।

শেখ জামাল আবাহনীকে হারালে পয়েন্ট হবে ২৪। তখন রূপগঞ্জের দুই ম্যাচ জিতলেও পয়েন্ট হবে ২২। ২ পয়েন্ট এগিয়ে থেকে শিরোপা যাবে শেখ জামালের ঘরে। সমীকরণ কি হবে, সেদিকে না তাকিয়ে রূপগঞ্জের কোচ আফতাব আহমেদ নিজেদের খেলায় মনোযোগী।

তবে একটি সমীকরণে শেখ জামাল চ্যাম্পিয়ন হয়ে যেতে পারে। রূপগঞ্জ গাজী গ্রুপের কাছে হারলে এবং শেখ জামাল আবাহনীর বিপক্ষে জয় না পেলে কালই প্রথম লিগ শিরোপা উদযাপন করতে পারবে শেখ জামাল। তবে রূপগঞ্জ জিতে গেলে এবং শেখ জামাল হেরে গেলে শিরোপার ফয়সালা হবে শেষ রাউন্ডে।


আরও খবর