Logo
শিরোনাম

বলিউড ছাড়ছেন নার্গিস ফাখরি

প্রকাশিত:বুধবার ০৮ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ১০ আগস্ট ২০২২ |
Image

রণবীর কাপুরের হাত ধরে ২০১১ সালে রোমান্টিক ঘরানার সিনেমার মধ্য দিয়ে বলিউডে কাজ করা শুরু করেন নার্গিস ফাখরি। প্রথম সিনেমার মধ্য দিয়েই দর্শকদের নজরে আসে নার্গিসের অভিনয়। এভাবেই বলিউড যাত্রা শুরু। এবার বলিউড ছাড়ছেন অভিনেত্রী নার্গিস ফাখরি। হতাশা থেকেই তার এ সিদ্ধান্ত বলে ভারতীয় বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন তিনি। 

বেশ কিছু সিনেমায় অভিনয় করলেও বলিউডে নিজের জায়গা পাকাপোক্ত  করতে পারেননি তিনি। অভিনেত্রী হওয়ার সেই লড়াই নিয়ে একাধিকবার মুখ খুলেছিলেন অতীতে। এবার নার্গিস জানালেন তিনি অভিনয় থেকে বিরতি নিতে চান। 

তার এমন সিদ্বান্তের পর উঠে এসেছিল অনেক প্রশ্ন ও বিতর্ক। এবার নিজেই জানালেন বলিউড ছাড়ার কারণ। তিনি বলেন, টানা ১১ বছর ধরে বলিউডে কাজ করছি। কিন্তু এত পরিশ্রম করে কী লাভ যদি পরিবার ও নিজেকে সময় না দিতে পারি? তাই বলিউড থেকে আপাতত নিজেকে সরিয়ে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

তিনি আরও বলেন, আগামীতে এমনও হতে পারে, আমি হয়তো আর কাজ পাব না। সিনেমার এই জগতে ফিরতেও সমস্যা হতে পারে। তার পরও নিজের এ সিদ্ধান্তে আমি খুশি। কারণ এখন আর অন্তত বলিউড তারকাদের সঙ্গে ইঁদুর দৌড়ে নামতে হবে না। কিন্তু বলিউড ছাড়লেও অভিনয়ের প্রতি যে ভালোবাসা সবসময় ছিল, তা অটুট থাকবে। যে কারণে ভবিষ্যতে হয়তো অভিনয়ে ফিরেও আসতে পারি।


আরও খবর

বিয়ে করছেন রিচা-ফজল

মঙ্গলবার ০৯ আগস্ট ২০২২

গুঞ্জন উড়িয়ে দিলেন আলিয়া!

বুধবার ০৩ আগস্ট ২০২২




নদী ভাঙন রোধে সরকা‌রের দৃ‌ষ্টি আর্কষণ

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৪ আগস্ট ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ১০ আগস্ট ২০২২ |
Image

নিজস্ব প্রতি‌নি‌ধি, শেরপুর:

শেরপুরের নকলা উপজেলায় ব্রহ্মপুত্র নদীর ভাঙন রোধে মানব বন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার (৪ আগস্ট) বি‌কে‌লে উপজেলার চরঅষ্টধর ইউনিয়নের দক্ষিণ নারায়খোলা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রাঙ্গনসহ নদীর পাড়ে দাঁড়িয়ে কয়েক শতাধিক ভাঙন কবলিত ক্ষতিগ্রস্ত মানুষ প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ছাত্র/ছাত্রী মানববন্ধন অংশগ্রহণ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ স্থানীয় প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন।

মানববন্ধন চলাকালে এলাকাবাসী বলেন, বিগত কয়েক বছরে এলাকার কয়েক শতাধিক মানুষ এই নদী ভাঙন কবলিত হয়ে ভিটে মাটি ও সহায় সম্বলহীন পড়েছে। গত বছর একটি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও মসজিদ সহ গোরস্থান ব্রহ্মপুত্র নদের ভাঙনে বিলীন হয়ে গেছে। নকলা উপজেলার প্রায় ২ কি: মি: অংশে এই ভাঙন শুরু হয়েছে। 

মানব বন্ধনে অংশ নেয়া নকলা সরকারী হাজী জালমামুদ ডিগ্রি কলেজের প্রভাষক শরিফ আহমেদ খান বলেন, বিগত কয়েক বছর ধরে এই অঞ্চলের মানুষ ব্রহ্মপুত্র নদের ভাঙনে সহায় সম্বলহীন হয়ে গেছে, তবে প্রশাসনের পক্ষ থেকে ভাঙ্গন রোধে কোন কাকার্যকর ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি।

স্থানীয় এলাকাবাসী ও প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক রাজীব জানান, এলাকার একমাত্র প্রাথমিক বিদ্যালয় নদীর পাড়ে বিলিনের পথে, এই অঞ্চলের ছেলে মেয়েরা কোথায় পড়তে যাবে তা নিয়ে আমরা চিন্তিত। 

স্থানীয় কৃষক বারেক মিয়া জানান, ব্রহ্মপুত্র নদের ভাঙনে আমার ৪ একর জমি বিলীন হয়ে আজ আমি সহায় সম্বলহীন হয়ে অন্যের বাড়িতে আশ্রয় নিয়েছি। 

নকলা উপজেলা নির্বাহী অফিসার বুলবুল আহমেদ জানান, ব্রহ্মপুত্র নদের ভাঙন রোধে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সাথে কথা বলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। 

জামালপুর জেলা পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী আবু সাইদ জানান, নকলা উপজেলা ব্রহ্মপুত্র নদীর ভাঙন এলাকায় বাঁধ নির্মাণের প্রয়োজনীয় অর্থ বরাদ্দ এই মুহুর্তে নেই। তবে ভাঙন এলাকা পরিদর্শন করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।


আরও খবর



৩ কোটি টাকা মূল্যের কুশ মাদক উদ্ধার

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০২ আগস্ট 2০২2 | হালনাগাদ:বুধবার ১০ আগস্ট ২০২২ |
Image

দেশে প্রথমবারের মতো কুশ মাদকসহ বিভিন্ন অপ্রচলিত মাদক বিক্রি এবং কুশ মাদক তৈরির মূলহোতা ওনাইসি সাঈদকে আটক করেছে র‍্যাব।

মঙ্গলবার ভোরে গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে রাজধানীর গুলশান থেকে তাকে আটক করা হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করেন র‍্যাবের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের সহকারী পরিচালক সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার আ ন ম ইমরান খান।

তিনি বলেন, দেশে এই প্রথম অপ্রচলিত মাদক কুশ, হেম্প, এক্সট্যাসি, মলি, এডারল, ফেন্টানিল ও অন্যান্য মাদক উদ্ধার করা হয়েছে। এ সময় মাদক তৈরির মূলহোতা ওনাইসি সাঈদ ওরফে রেয়ার সাঈদকে আটক করা হয়।

অভিযানে প্রায় ৩ কোটি টাকা মূল্যের দেশি ও বিদেশি মুদ্রা জব্দ করা হয়েছে। অভিযান ও কুশ মাদকের বিষয়ে আজ দুপুরে কারওয়ান বাজারে র‍্যাব মিডিয়া সেন্টারে সংবাদ সম্মেলনে বিস্তারিত জানানো হবে।


আরও খবর

আন্তর্জাতিক আদিবাসী দিবস

মঙ্গলবার ০৯ আগস্ট ২০২২




উইন্ডিজকে হোয়াইটওয়াশ করতে পেরে যা বললেন তামিম

প্রকাশিত:রবিবার ১৭ জুলাই ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৯ আগস্ট ২০২২ |
Image

টেস্ট আর টি-টোয়েন্টি সিরিজে ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাছে ধরাশায়ী হয়েছে বাংলাদেশ। তাই ওয়ানডে অধিনায়ক তামিম ইকবালের সামনে চ্যালেঞ্জটা ছিল পাহাড়সম।

আর সেই চ্যালেঞ্জ বেশ ভালোভাবেই মোকাবিলা করে সফল হয়েছেন তামিম। সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ৩-০ ব্যবধানে হারিয়েছেন টাইগাররা। বলতে গেলে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে  হোয়াইটওয়াশের লজ্জা দিয়ে টেস্ট আর টি-টোয়েন্টি হারের প্রতিশোধ নিল বাংলাদেশ।

এমন দারুণ এক সিরিজ জয়ের প্রতিক্রিয়ায় তামিম ইকবাল বলেছেন, ‘হ্যাঁ অবশ্যই আমি আমাদের অর্জনে (সিরিজ জয়ে) গর্বিত। আমরা ঘরের মাঠে সবসময়ই ভালো ছিলাম। কিন্তু এটি ব্যাক টু ব্যাক অ্যাওয়ে সিরিজ জিতেছি আমরা। আমি আমার দলের জন্য খুব গর্বিত। আপনারা দেখেছেন যে, উইকেট ও কন্ডিশন বেশ কঠিন ছিল। তবে আমাদের স্পিনশক্তি তুলনামূলক ভালো ছিল। বোলাররা তাদের সেই প্রতিভা দারুণভাবে কাজে লাগিয়েছে। আমরা সিরিজ জয় করেছি।’

গোটা সিরিজেই বাংলাদেশ দলের অন্যতম সেরা কয়েকজন খেলোয়াড় অনুপস্থিত ছিলেন। সাকিব, মুশফিক খেলেননি। বিষয়টি কেমন ভুগিয়েছে?

জবাবে বাংলাদেশ অধিনায়ক বলেন, ‘অবশ্যই আমরা শীর্ষ পাঁচ থেকে তিনজন খেলোয়াড়কে মিস করেছি। তবে এটি দলের ছেলেদের (নতুন বা তরুণদের) জন্য একটি দুর্দান্ত সুযোগ ছিল। আমি মনে করি তারা সে সুযোগ ভালোভাবেই কাজে লাগিয়েছে।’ 

এর পর সোহান, নাসুম ও তাইজুলের প্রশংসা করেন তামিম। বলেন, ‘বিশেষ করে সোহানের মতো খেলোয়াড়রা দারুণ খেলেছে। সে যখনই সুযোগ পেয়েছে ভালো করেছে। আজ (শেষ ওয়ানডে) আরেকটি উদাহরণ দেখিয়েছে সোহান। গুরুত্বপূর্ণ সময়ে সে হাল ধরেছে। ঠাণ্ডা মাথায় শান্তভাবে ব্যাটিং করেছে সোহান। আমি মনে করি বাংলাদেশ ক্রিকেটের জন্য এটি ভালো একটি উদাহরণ। আর নাসুম যেভাবে বোলিং করেছে এবং সোহান যেভাবে ব্যাটিং করেছে তা সিরিজের সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য বিষয়। মিরাজ তো সবসময়ই দারুণ পারফর্ম করে। কিন্তু এই দুটি (সোহান ও নাসুম) ছিল এবার অনন্য। ’

এর পর শেষ ম্যাচে সুযোগ পাওয়া স্পিনার তাইজুলের প্রশংসা করেন তামিম। বলেন, ‘আমাকে তাইজুলের নাম উল্লেখ করতেই হবে। পুরো সফর জুড়ে সে দলের সঙ্গে ছিল কিন্তু মাঠে নামতে পারেননি। কিন্তু প্রতিটি অনুশীলন সেশনে তাকে দেখা গেছে। যখনই সে সুযোগ পায় তখনই সেটি দারুণ কাজে লাগায়। তাই কিছু বিষয় আছে, যা আমরা অবশ্যই ফিরিয়ে আনব।’


আরও খবর

এশিয়া কাপের দল ঘোষণা ভারতের

মঙ্গলবার ০৯ আগস্ট ২০২২




বিএনপির মুখে লোডশেডিং এর কথা মানায় না - মুজিবুল হক

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৯ জুলাই ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৯ আগস্ট ২০২২ |
Image

কু‌মিল্লা ব্যুরো ঃ

সাবেক রেলপথ মন্ত্রী মোঃ মুজিবুল হক এমপি বলেছেন বিএনপির মুখে লোডশেডিং এর কথা মানায় না, কারন বিএনপি বিদ্যুৎ এর নামে খাম্বা বসিয়ে লুটপাট করেছে।

শুক্রবার বিকেলে কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামের কাশিনগর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের পরিচিতি সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথাগুলো বলেন।

তিনি আরো বলেন, বিশ্ব নেত্রী মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যতদিন বেঁচে থাকবেন বাংলার মানুষ কোন সংকটে পরবে না। বাংলাদেশ বিশ্ব দরবারে মাথা উঁচু করে থাকবে। 

কাশিনগর বি এম উচ্চ বিদ্যালয় মাঠ অনুষ্ঠিত সভায় ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ মোখলেছুর রহমান মজু'র সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি ছিলেন চৌদ্দগ্রাম উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবদুস ছোবহান ভুইয়া, চৌদ্দগ্রাম পৌরসভার মেয়র জি এম মির হোসেন মিরু, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান এ বি এম বাহার, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ রহমতুল্লাহ বাবুল, সহ সাধারণ সম্পাদক ভিপি ফারুক আহমেদ।

বক্তব্য রাখেন কাশিনগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ মোশারেফ হোসেন, মোঃ রফিকুল ইসলামসহ আরো অনেকে।

অনুষ্ঠানে আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, মহিলা লীগ, ছাত্রলীগসহ বিভিন্ন অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।


আরও খবর



ইউরোপে গরমে গলে যাচ্ছে রাস্তাঘাট !

প্রকাশিত:সোমবার ২৫ জুলাই ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৯ আগস্ট ২০২২ |
Image

ইউরোপের অনেক বাড়ি বা পথঘাটই পুরনো প্রযুক্তিতে তৈরি। এগুলি এই ভয়ানক তাপের সঙ্গে লড়তে পারছে না। গলে যাচ্ছে রাস্তাঘাট, বেঁকে যাচ্ছে রেললাইন, ফেটে যাচ্ছে বাড়িঘর।

ইউরোপের আবহাওয়ার ধীরে ধীরে অবনতি ঘটছে। গোটা ইউরোপের তাপপ্রবাহ ক্রমশ নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাচ্ছে। স্পেন, জার্মানি, ইংল্যান্ড, পর্তুগালে বাতাসে যেন আগুনের হলকা। যুক্তরাজ্যে এই প্রথম আবহাওয়ার রেড অ্যালার্ট ঘোষিত হল। তাপের জেরে নষ্ট হচ্ছে ভূ-সম্পত্তি, প্রাণিজ সম্পত্তি। যা সংশয়ে ফেলে দিয়েছে অর্থনীতিকেও।

গত কয়েক দিন থেকেই দক্ষিণ ইউরোপের দেশগুলিতে প্রচণ্ড গরম ও দাবানলের পর এখন মধ্য ও উত্তর ইউরোপের দেশগুলিতেও দাবদাহের প্রকোপ ছড়িয়ে পড়েছে। চরমভাবাপন্ন আবহাওয়ায় কয়েকশো ব্যক্তি মারা গেছেন।

জার্মানির একটি পত্রিকা ‘এই গ্রীষ্মে ইউরোপে আগুন’ শীর্ষক এক প্রতিবেদন ছেপেছে। বলেছে, দক্ষিণ ইউরোপে ফ্রান্স, স্পেন, ইতালি, ক্রোয়েশিয়া, পর্তুগাল, গ্রিসের বনভূমিতে দাবানল চলছে। এতে যে পরিমাণ ক্ষতি হচ্ছে তা পুনরুদ্ধার করতে কয়েক বছর সময় লাগবে। দাবানলের জেরে এসব দেশের কৃষিকাজ ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। বনভূমিতে অগ্নিকাণ্ডের কারণে বহু মানুষকে বাড়িঘর ছাড়তে হয়েছে।

খবর : জিনিউজ ডিজিটাল ব্যুরোর।


আরও খবর