Logo
শিরোনাম

বঞ্চনা ও ক্ষোভ থেকে জঙ্গিবাদের সৃষ্টি হয়

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০22 | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ |
Image

জাতীয় ও আন্তর্জাতিকভাবে এদিকে আমাদের ও আন্তর্জাতিক মহলকে খেয়াল রাখতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন ঢাকা মহানগর পুলিশ-ডিএমপি কমিশনার শফিকুল ইসলাম। সোমবার রাজধানীর বসুন্ধরা কনভেনশন হলে অ্যান্টি টেরোরিজম ইউনিটের (এটিইইউ) এর পঞ্চম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে তিনি কথা বলেন।

ডিএমপি কমিশনার শফিকুল ইসলাম বলেন, ‘বাংলাদেশের জঙ্গিবাদের প্রেক্ষাপটে দেখা গেছে, আমাদের দেশের কোনও কারণে জঙ্গিবাদ মাথাচাড়া দেয় না, আমাদের দেশে জঙ্গিবাদ আন্তর্জাতিক কারণে মাথাচাড়া দেয়। প্রথমে আফগান যুদ্ধ, তারপর ইরাক যুদ্ধ, এরপর আইএস সৃষ্টি হলে দেশেও জঙ্গিবাদ মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছিল। আমরা সবকিছু মোকাবিলা করেছি, দমন করেছি।

তিনি বলেন, ‘জঙ্গিবাদ ক্ষোভ ও বঞ্চনা থেকে সৃষ্টি হয়। যত দ্রুত এই ক্ষোভ প্রশমিত করা যাবে, তত তাড়াতাড়ি দমন হবে। আমরা ছোটবেলা মসজিদে যাবার সময় থেকে শুনে আসছি— ফিলিস্তিনে আমাদের মুসলিম ভাইদের খুন করা হচ্ছে, এই বঞ্চনা থেকেই জঙ্গিবাদের সৃষ্টি হয়। আমাদের দেশের বড় কোনও কারণে জঙ্গিবাদ সৃষ্টি হবে না। এটা জাতীয় ও আন্তর্জাতিকভাবে খেয়াল রাখতে হবে।

শফিকুল ইসলাম বলেন, ‘আরেকটি বিষয় হলো— পাঁচ বছর পর পর আমাদের দেশে রাজনৈতিক বিভিন্ন কর্মকাণ্ড হয়। সে সময় পুলিশ রাজনৈতিক মিছিল-মিটিং নিয়ে ব্যস্ত থাকে। এসময় জঙ্গিরা মাথাচাড়া দেয়। এ সময় সতর্ক দৃষ্টি রাখতে হবে।


আরও খবর

শিগগিরই বাড়ছে বিদ্যুতের দাম

মঙ্গলবার ০৪ অক্টোবর ২০২২




কুমিল্লায় সড়ক দুর্ঘটনায় ২ জন নিহত

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ |
Image

নিজস্ব প্রতিবেদক , কুমিল্লাঃ

ঢাকা -চট্টগ্রাম মহাসড়‌কের কু‌মিল্লা সদর দক্ষিন উপজেলার বেলত‌লী এলাকায় যাত্রীবাহী বা‌সের চাপায় ব‌্যাটা‌রি চা‌লিত অ‌টো‌রিক্সার ২ যাত্রী নিহত হয়েছে। এ ঘটনায়  আহত হয়েছে আরও ২ জন। আজ সকাল ৮ টায় এ দূর্ঘটনা ঘটে।

ময়নামতি হাইওয়ে ক্রসিং থানার ওসি আকুল চন্দ্র বিশ্বাস জানান, মহাসড়কের বেলতলীতে নোয়াখালী থেকে ঢাকাগামী ইকোনো পরিবহনের যাত্রীবাহী একটি বাস ব্যাটারী চালিত অটোরিকশাকে চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলে অটোরিকশার যাত্রী সদর দক্ষিন উপজেলার কিসমত গ্রামের সিরাজুল হকের ছেলে জয়নাল আবেদিন ও দূর্লভপুর গ্রামের আলফু মিয়ার ছেলে ইমরান হোসেন মারা যায়। 

দূর্ঘটনা আহত দুজনকে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

 ঘাতক বাসটিকে আটক করা হয়েছে। নিহত দুজনের মরদেহ উদ্ধার করেছে হাইওয়ে পুলিশ।


আরও খবর



যাত্রাবাড়ীতে বাসের চাপায় ব্যবসায়ী নিহত

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ |
Image

ইবাদত হোসেন ঃ

রাজধানীর যাত্রাবাড়ীতে বাসের ধাক্কায় ছিটকে পড়ে আহত,  আরেক বাসের চাপায় ঘটনাস্থলেই প্রাণ হারায় ঠিকাদার ব্যবসায়ী। 

নাম মোঃ ফারুক হোসেন (৩৭).মতিঝিল এলাকায় ঠিকাদারি করতেন। বৃহস্পতিবার (২৯ সেপ্টেম্বর) দুপুরে ঘটনাটি ঘটে। 

সত্যতা নিশ্চিত করেন, বাড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি মাজহারুল ইসলাম। তিনি বলেন একটি বাস চিহ্ন করে  জব্দ করা হয়েছে। 

যাত্রাবাড়ী থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আসাদুজ্জামান 

জানিয়েছেন, দুপুর আনুমানিক এক টার দিকে মাতুয়াইল হাসেম রোড মেইন রাস্তা পার হওয়ার সময়ে, ফারুক রাস্তার মাঝে চলে আসেন ডিভাইডার কাছে, সে সময়ে "তাসা এক্সক্লুসিভ " পরিবহন এর ধাক্কায় রাস্তায় ছিটকে পড়লে, আরেক বাস চাপা দিয়ে চলে যায়। এতে তিনি ঘটনাস্থলে প্রাণ হারান। সংবাদ পেয়ে মৃতদেহটি উদ্ধার করে আইনি প্রকৃয়া শেষে ঢামেক মর্গে পাঠানো হয়েছে। 

নিহতের খালাতো ভাই মোঃ সবুজ জানিয়েছেন, লক্ষ্মীপুর জেলার রামগতি উপজেলার পূর্ব চর গ্রামের মোহাম্মদ উল্লাহ মাস্টারের ফারুক মিয়া।  বর্তমানে যাত্রাবাড়ী হাসেম রোড় বিদ্যুৎ অফিসের পাশে পরিবার নিয়ে থাকতেন। দুই ছেলের জনক ছিলেন। চার বোন তিন ভাইয়ের মধ্যে তিনি ছিলেন ছোট। তিনি তিনি স্থানীয় (৬৫,নং) ওয়ার্ড যুবলীগের সহ-সভাপতি ছিলেন। 

ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহটি হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে।


আরও খবর

কল্যাণপুরে ভবনে ফাটল

রবিবার ০২ অক্টোবর 2০২2

কিশোর গ্যাং আতঙ্কে রাজধানী

শনিবার ০১ অক্টোবর ২০২২




নারায়ণগঞ্জে বর্ণাঢ্য আয়োজনে কুমারী পূজা অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত:সোমবার ০৩ অক্টোবর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ |
Image

বুলবুল আহমেদ সোহেল ঃ

করোনার মহামারি স্বাস্থ্যবিধির উপর নজর রেখে দুই বছর পর নারায়ণগঞ্জে বর্ণাঢ্য আয়োজনে কুমারী পূজা অনুষ্ঠিত হয়েছে। নগরীর চাষাঢ়া রাম কৃষ্ণ মিশন আশ্রমে সোমবার বেলা এগারটা থেকে শুরু হওয়া কুমারী পূজায় হিন্দু সম্প্রদায়ের শত শত পূণ্যার্থী অংশগ্রহণ করেন। বৃষ্টি উপেক্ষা করেই পূণ্যার্থীরা রামকৃষ্ণ মিশন আশ্রমে আসতে শুরু করে। প্রদ্বীপ জ্বেলে শঙ্খ বাজিয়ে উলুধ্বণি দিয়ে সাত বছর বয়সী এক শিশুকে দেবীর আসনে বসিয়ে তাঁরচরণে প্রণাম করে পূজো করা হয়। মন্ত্র পাঠের মধ্যদিয়ে পূণ্যার্থীরা করজোরে দেবীর কাছে শান্তি কামনা করেন।

এবার কুমারী দেবীরূপে মন্ডপে অধিষ্ঠিত হয় দেওভোগ ভূইঁয়ারবাগ এলাকর বিদ্যা নিকেতন হাই স্কুলের প্রথম শ্রেনীর ছাত্রী মিষ্টু চক্রবর্ত্তী। মিষ্টু চক্রবর্ত্তী নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন ১৪ নম্বর ওয়ার্ডের দেওভোগ এলাকার দিপঙ্কর চক্রবর্ত্তী ও সম্পা রাণী চক্রবর্ত্তী’র কন্যা। শাস্ত্র মতে, প্রতিটি মেয়ের মাঝে মা বিরাজমান। সেটা জেনে কুমারী পূজা করা হয়।  শিশুদের মাধ্য থেকেই ভগমান আর্ভিবুত হয়। তাই শিশুদের মন নিস্পাপ বলে পুজা করা হয়।


আরও খবর



কু‌মিল্লা জেলা প‌রিষদ নির্বাচ‌নে

আওয়ামীলী‌গের ম‌নোনয়ন পে‌লেন ম‌ফিজুর রহমান বাবলূ

প্রকাশিত:শনিবার ১০ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ |
Image

কু‌মিল্লা ব্যুরো ঃ

কুমিল্লা জেলা পরিষদ নির্বাচনে বীর মুক্তিযোদ্ধা মফিজুর রহমান বাবলু আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা পেয়েছেন।

বীর মুক্তিযোদ্ধা মফিজুর রহমান বাবলু যিনি একজন বর্ষীয়ান রাজনীতিক, প্রখ্যাত আইনজীবী ও বিশিষ্ট ব্যবসায়ী। 

১৯৪৬ সালের ১০ আগস্ট জন্ম নেওয়া বাবলু তার মামা আওয়ামী লীগ সহ -সভাপতি কাজী জহিরুল কাইয়ুমের হাত ধরে ১৯৫৪ সালের যুক্তফ্রন্ট নির্বাচনে আওয়ামী লীগের রাজনৈতিক কর্মী হিসেবে রাজনীতির পথে পা বাড়ান। তারপর ১৯৬২ সালের শিক্ষা আন্দোলনে অংশ নেন। ১৯৬৪ থেকে ১৯৬৬ সাল পর্যন্ত ছিলেন অবিভক্ত কুমিল্লা জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক।

সে সময় জাতির পিতা ঘোষিত বাঙালির মুক্তির সনদ ছয়দফা আন্দোলনে অংশ নেন। পরবর্তীতে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সদস্য ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। ঊনসত্তরের গণআন্দোলনে অংশ নেন ডাকসুর সদস্য হিসেবে। সত্তরের নির্বাচনে দলের হয়ে কাজ করেন। অংশ নেন একাত্তরের মহান মুক্তিযুদ্ধে। দেশ স্বাধীনের পর ১৯৭৩ থেকে ১৯৭৭ সাল পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করেন জেলা আওয়ামী লীগের সমাজকল্যাণ সম্পাদকের।

পরে জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক, সিনিয়র সহ-সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন। বর্তমানে তিনি কুমিল্লা জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি। ১৯৮৬ থেকে ১৯৯৩ সাল পর্যন্ত ছিলেন চৌদ্দগ্রাম উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি। ১৯৮২ ও ১৯৮৮ সালে দলীয় কর্মসূচি পালনকালে বিএনপি ও ফ্রিডম পার্টির নির্যাতনের শিকারও হয়েছেন রণাঙ্গনের এই বীর মুক্তিযোদ্ধা।

মফিজুর রহমান বাবলু ছিলেন ২ নাম্বার সেক্টরের বীর মুক্তিযোদ্ধা। আগরতলার রাধানগরে যুব মুক্তিযোদ্ধাদের প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে তিনি সমন্বয়কের ভূমিকা পালন করেন। পুরো মুক্তিযুদ্ধের সময় চৌদ্দগ্রামে তার নিজের বাড়িটি ছিল মুক্তিবাহিনীর অস্থায়ী ক্যাম্প। আওয়ামী লীগের নেতারাও বিভিন্ন সময়ে সেখানে বৈঠকে মিলিত হতেন। তার আরেকটি পৈতৃক বাড়িসহ এ দুটি বাড়িতে প্রায়ই পাকিস্তানি বাহিনী হানা দিত। একপর্যায়ে পাকিস্তানিরা একটি বাড়ি জ্বালিয়ে দেয়। মুক্তিযোদ্ধা বাবলুর চার চাচা সেই আগুনে শহীদ হন।

দীর্ঘ রাজনৈতিক জীবনের পাশাপাশি মফিজুর রহমান বাবলু নিজেকে জড়িয়েছেন বিভিন্ন সামাজিক কর্মকাণ্ডে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এই সিনেট সদস্য কুমিল্লা ডায়াবেটিক অ্যাসোসিয়েশন ও কুমিল্লা ক্লাবের সদস্য। তিনি বাংলাদেশ ফ্যামিলি প্ল্যানিং অ্যাসোসিয়েশনের আজীবন সদস্য। লায়ন্স ইন্টারন্যাশনাল, কুমিল্লা লায়ন্স ক্লাব, কুমিল্লা কালচারাল কমপ্লেক্সের সঙ্গে জড়িত বাবলু কুমিল্লা শহর ও চৌদ্দগ্রামে বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক প্রতিষ্ঠানও গড়ে তুলেছেন। বৈশিক মহামারি করোনায়  ক্ষতিগ্রস্ত আর্তমানবতার সেবায় এগিয়ে এসেছিলেন রণাঙ্গনের বীর মুক্তিযোদ্ধা মফিজুর রহমান বাবলু। 

বঙ্গবন্ধু অন্তঃপ্রাণ পঁচাত্তর বছর বয়সি এ মুক্তিযোদ্ধার চাওয়া বঙ্গবন্ধুকন্যার হাতে পূর্ণতা পাক বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা। প্রধানমন্ত্রীর সহযোদ্ধা হয়ে নিজেকে সেই কর্মকাণ্ডে আরও সম্পৃক্ত করতে জেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে দলীয় মনোনয়ন পেয়েছেন বীর মুক্তিযোদ্ধা মফিজুল ইসলাম।

 শ‌নিবার বিকেল ৪ টায় গণভবনে আওয়ামীলীগের সংসদীয় ও স্থানীয় সরকার জনপ্রতিনিধি মনোনয়ন বোর্ডের যৌথসভায় সিদ্ধা‌ন্তে দলীয় মনোনয়ন পেয়েছেন বীর মুক্তিযোদ্ধা মফিজুল ইসলাম। ওই সভায় সভাপতিত্ব করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

 আগামী ১৭অক্টোবর কুমিল্লা জেলা পরিষদ নির্বাচনে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

এদিকে কুমিল্লা জেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হতে ইতোমধ্যে ১৫ জন ব্যক্তি দলীয় মনোনয়নের আবেদন ফরম সংগ্রহ করে জমা দিয়েছি‌লেন।


আরও খবর

পুলিশের পক্ষে বললেন খামেনি

মঙ্গলবার ০৪ অক্টোবর ২০২২




স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের পর হত্যা: প্রাইভেট শিক্ষক তিনদিনের রিমান্ড মঞ্জুর

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ |
Image

নোয়াখালী প্রতিনিধিঃ অনুপ সিংহ ঃ

নোয়াখালী জেলা শহর মাইজদীতে অষ্টম শ্রেণিতে পড়ুয়া এক স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণের পর গলাকেটে হত্যার ঘটনায় প্রধান অভিযুক্ত প্রাইভেট শিক্ষককে তিনদিনের রিমান্ড এবং অন্য তিন আসামিকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছে আদালত।

শুক্রবার(২৩ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় মামলার তদন্ত কর্মকর্তা স্পেসল্যাব চৌধুরী প্রমোজ নোয়াখালী মুখ্য বিচারিক হাকিমের আদালতে প্রধান অভিযুক্ত আবদুর রহিম রনির দশদিনের রিমান্ডের আবেদন করেন। জেষ্ঠ্য বিচারিক হাকিম মোহাম্মদ এমদাদ রনির তিনদিনে রিমান্ড ও অন্য আসামিদের কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

দুপুরে নিজ কার্যালয়ের সংবাদ সম্মেলনে পুলিশ সুপার মো. শহীদুল ইসলাম জানান, নিহত স্কুলছাত্রীর মৃতদেহ উদ্ধারের পর পুলিশ অভিযান চালিয়ে বিভিন্ন সময়ে ওই ছাত্রীকে উত্যাক্তকারী কিশোর ইসরাফিল, তার ভাই সাঈদ ও সাবেক প্রাইভেট শিক্ষক আবদুর রহিম রনিকে আটক করা হয়। সাবেক প্রাইভেট শিক্ষক রনির মাথা, ঘাড়, গলাসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে নখের আঁচড় দেখে তাকে এঘটনার সাথে জড়িত বলে ধারণা করা হচ্ছে।

তিনি আরও জানান, কিছুদিন আগে ওই স্কুলছাত্রী রনির কাছে প্রাইভেট পড়া বন্ধ করে দিয়ে অন্যস্থানে প্রাইভেট শুরু করে। এতে ক্ষিপ্ত হলেও রনি ওই স্কুলছাত্রীর বাসায় আসা যাওয়া করতো। বৃহস্পতিবার দুপুর ১২ টা থেকে ২টার মধ্যে কোন একসময় ওইছাত্রীর বাসায় গিয়ে জোর পূর্বক ধর্ষণ ও পরে ঘটনা দামাচাপা দেওয়ার জন্য ঘরে থাকা ছোরা দিয়ে গলা ও হাতের রগ কেটে হত্যা করে। ঘটনা ভিন্ন খাতে নেওয়ার জন্য ঘরের আলমারিতে থাকা জিনিসপত্র ছড়িয়ে ছিটিয়ে রাখে। কিন্তু ঘরে কোন মূল্যবান জিনিস বা স্বর্ণালংকার নেয়নি।

এসপি আরো বলেন, এ হত্যাকান্ডের সাথে পারিবারিক বা অন্যকোন বিষয় আছে কিনা তাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে।  রনি ও ইসরাফিলকে হত্যা মামলা ও সাঈদ ও ইমামকে বিশেষ ক্ষমতা আইনের মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্ত, ডিএনএ ও ফরেনসিক পরীক্ষার জন্য পাঠানো হবে। রিপোর্ট পাওয়ার পর বিস্তারিত জানা যাবে।

বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে নোয়াখালী জেলা শহরের লক্ষ্মীনারায়নপুর এলাকার জাহান মঞ্জিলের একটি কক্ষ থেকে স্থানীয় একটি সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ে অষ্টম শ্রেণিতে পড়ুয়া ছাত্রীর তালাবদ্ধ নিজঘরে গলাকাটা ও অর্ধনগ্ন অবস্থায়  মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।  ঘটনায় জড়িত থাকা সন্দেহে পুলিশ তাৎক্ষনিক ৪জনকে আটক করে।


আরও খবর