Logo
শিরোনাম

ছোট ছোট রাজনৈতিক দলের কদর বাড়ছে

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৭ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ১০ আগস্ট ২০২২ |
Image

রোকসানা মনোয়ার : আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন সামনে রেখে ছোট ছোট রাজনৈতিক দলের কদর বাড়ছে। নির্বাচন এলেই নামসর্বস্ব এসব দলের দৌড়ঝাঁপ বাড়ে, সেই সঙ্গে স্বগোত্রীয় বড় দলের কাছে বাড়ে তাদের নানামুখী আবদার। দেশে বড় দুই দল আওয়ামী লীগ ও বিএনপি নিজেদের স্বার্থে সেই আবদারের গুরুত্বও বাড়িয়ে দেয়। ২০২৩ সালে অনুষ্ঠেয় নির্বাচনের হিসাব অনেক জটিল ও কঠিন হতে পারে বলে মনে করছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা।

দল নিরপেক্ষ সরকার ছাড়া বিএনপিসহ একাধিক রাজনৈতিক দল নির্বাচনে না যাওয়ার কথা এরই মধ্যে জানিয়ে দিয়েছে। অপরদিকে রাজনৈতিক দলগুলোকে নির্বাচনে নিতে সরকারি দল আওয়ামী লীগ বেশ তৎপর। ছোট রাজনৈতিক দলগুলোকে নিজেদের পক্ষে টানার জন্য প্রতিযোগিতা শুরু হয়েছে বড় দুই জোটে। এবারও এর ব্যক্তিক্রম নয়।

আগামী নির্বাচনে নিজেদের কর্তৃত্ব টিকিয়ে রাখাই আওয়ামী লীগ ও বিএনপির মূল লক্ষ্য। এজন্য দূরে সরিয়ে রাখা জোটের শরিকদের কাছে টানছে দুদলই। অন্যদিকে দুই দলের বাইরে থাকা ছোট দলগুলোও চাইছে আগামী নির্বাচনের আগে আওয়ামী লীগ বা বিএনপি নেতৃত্বাধীন যেকোনো জোটে যুক্ত হতে। নির্বাচনের দিনক্ষণ ঠিক না হলেও বেশ আগে থেকেই নির্বাচনী প্রস্তুতি শুরু করেছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ। তবে শেষ পর্যন্ত নির্বাচনে না গেলেও রাজপথে নির্বাচন ও সরকারবিরোধী আন্দোলন জোরদার করার পরিকল্পনা নিয়ে এগোচ্ছে বিএনপি। এর অংশ হিসেবে প্রধান দুই দলই নিজ নিজ জোট শরিকদের সঙ্গে দূরত্ব কমানোর জন্য উদ্যোগ নিয়েছে।

২০১৮ সালের ৩০ ডিসেম্বরের নির্বাচনের মাধ্যমে টানা তৃতীয়বার ক্ষমতায় এলেও আওয়ামী লীগ সরকারের মন্ত্রিসভায় মহাজোট ও ১৪ দল শরিকদের কারো ঠাঁই মেলেনি। এমনকি ওই সময়ই প্রধানমন্ত্রীসহ আওয়ামী লীগের নীতিনির্ধারক নেতারা ১৪ দল শরিকদের নিজেদের পায়ে দাঁড়ানোর কিংবা বিরোধী দলে থেকে নিজ নিজ দলীয় কার্যক্রম চালানোর পরামর্শ দেন। পরবর্তী নির্বাচনে শরিকদের নিজ নিজ প্রতীকে অংশ নেওয়ার ইঙ্গিতও দেন প্রধানমন্ত্রী। এসব বিষয় ১৪ দল শরিক নেতাদের যেমন ক্ষুব্ধ করে রেখেছিল, তেমনি গত তিনবারের ধারাবাহিকতায় দ্বাদশ সংসদ নির্বাচন জোটগতভাবে হবে কি না, তা নিয়েও ধোঁয়াশা তৈরি হয়েছিল।

প্রায় তিন বছর পর গত ১৫ মার্চ আওয়ামী লীগ সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শরিক দলের নেতাদের বৈঠকে একসঙ্গে নির্বাচন করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। তিনি ওই বৈঠকে সমন্বয়হীনতা দূর করে জোটের কার্যক্রম জোরদারের তাগিদও দেন। এমনকি জোট শরিকদের এখনই আসন সমঝোতাসহ মূল্যায়নের দাবি পূরণের আশ্বাসও দিয়েছেন শেখ হাসিনা।

এদিকে ২০ দল এবং জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শরিক দলের অনেক নেতার কর্মকান্ডে অনেকটা অসন্তুষ্ট বিএনপি। ২০ দলের অনেক নেতা বিভিন্ন সময় বিএনপির স্বার্থে বাইরে গিয়ে কাজ করেছেন। তারপরও বৃহৎ স্বার্থে সেই দলগুলোর সঙ্গে দূরত্ব কমানোর পরিকল্পনা নিয়ে কাজ করছে বিএনপি। এরই মধ্যে কল্যাণ পার্টি ও এলডিপিকে এক প্ল্যাটফরমে নিয়ে আসতে সক্ষমও হয়েছে দলটি। এর বাইরে তারা বাম ও ইসলামী দলসহ সরকারবিরোধী অন্য রাজনৈতিক দলগুলোকেও কাছে টানার চেষ্টা করছে। এ নিয়ে বিএনপি নেতারা কয়েকটি ছোট দলের সঙ্গে কয়েক দফা বৈঠক করে নানা আশ্বাসও দিয়েছেন।

নাগরিক ঐক্যের সভাপতি মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন, ‘এই সরকারের পতনের পাশাপাশি গণতন্ত্র ও মানুষের ভোটাধিকার ফিরিয়ে আনতে হলে রাজপথের আন্দোলনের বিকল্প নেই। এজন্য সব দলকে এক প্ল্যাটফরমে আসতে হবে। বিএনপি বড় দল। তাদেরই এ ঐক্য গড়ার উদ্যোগ নিতে হবে।’

আওয়ামী লীগের সূত্র জানিয়েছে, যারা স্বাধীনতায় বিশ্বাসী ও নিবন্ধিত রাজনৈতিক দল আছে, তাদের সঙ্গে সুসম্পর্ক গড়ে তুলতে চায় ক্ষমতাসীনরা। ছোট দলগুলোর রাজনৈতিক অবস্থান যা-ই থাকুক, রাজনৈতিক গুরুত্বের বিষয়টি বিবেচনায় নিয়েই এসব দলকে বড় দুই দল জোটে টানছে।

জানা গেছে, বিএনপি ছোট দলগুলোর সঙ্গে বৈঠক শুরু করায় সরকারি দলও নড়েচড়ে বসেছে। দলীয় সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য, ১৪ দলের মুখপাত্র ও সমন্বয়ক আমির হোসেন আমু, দলের প্রেসিডিয়াম সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক, মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়াসহ অন্যরা ছোট দলগুলোর সঙ্গে যোগাযোগ শুরু করেছেন। ১৪ দলের ঐক্য বাড়াতেই বেশি ব্যস্ত ক্ষমতাসীন দলের নেতারা। সংসদ নির্বাচনে বিএনপি অংশ নিলে আওয়ামী লীগ জাতীয় পার্টিকে সঙ্গে নিয়ে মহাজোটগতভাবে নির্বাচন করবে। এ মুহূর্তে মহাজোট সম্প্রসারণের দলীয় চিন্তা না থাকলেও অনেকটা কৌশল থেকেই ছোট দলের সঙ্গে বৈঠক করছেন তারা। আওয়ামী লীগের নেতারা আগামী কয়েক দিনের মধ্যে ১৪ দলের সঙ্গে বৈঠক করবেন। এরপর তারা কৃষক শ্রমিক জনতা লীগ ও এলডিপির সঙ্গে বৈঠক করতে পারেন বলে আভাস পাওয়া গেছে। এ ছাড়াও আওয়ামী লীগের ভাবনায় সিপিবি, বিকল্পধারা বাংলাদেশ-এর নেতাদের সঙ্গে অনুষ্ঠানিক বৈঠক হতে পারে।

রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা বলছেন, এখন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর যেভাবে ছোট দলগুলোর অফিসে ছুটে চলেছেন, বিরোধী দলে থাকা অবস্থায় তৎকালীন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক প্রয়াত আবদুল জলিলও একইভাবে ছোটাছুটি করেন। এতে ইতিবাচক ফল পেয়েছিলেন। দীর্ঘ প্রচেষ্টার ফলেই ২০০৪ সালে ১৪ দলীয় জোট। এরপর এরশাদকে সঙ্গে নিয়ে মহাজোট গঠন করে আওয়ামী লীগ। দীর্ঘদিন ক্ষমতার বাইরে থাকা বিএনপির এখন টার্গেট ছড়িয়ে-ছিটিয়ে থাকা সরকারবিরোধী রাজনৈতিক দলগুলোকে একত্র করা। এজন্য জোটসহ জোটের বাইরে থাকা দলগুলোর সঙ্গে সংলাপ করে চলেছে বিএনপি। দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর দলের শীর্ষ নেতাদের নিয়ে কখনো গুলশানে বিএনপির কার্যালয়ে আবার কখনো দলগুলোর কার্যালয়ে বৈঠকে বসছেন।

এ প্রসঙ্গে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, দুর্নীতি, লুটপাট, সন্ত্রাসসহ সরকারের অনিয়মের বিরুদ্ধে গোটা দেশ আজ দুই ভাগে বিভক্ত। তাই দলগুলো তাদের নিজেদের আত্মমর্যাদার জন্য যেটা উত্তম সেটাই করবে।


আরও খবর



মমতাময়ী মাও তো একজন শিক্ষক

প্রকাশিত:রবিবার ১৭ জুলাই ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ১০ আগস্ট ২০২২ |
Image

মাজহারুল ইসলাম মাসুম, সিনিয়র সাংবাদিক লেখক ও গবেষক :

পৃথিবীর প্রত্যেক সন্তানের প্রথম শিক্ষক হচ্ছেন তার মা | খুব উচ্চ শিক্ষিত, স্বল্প শিক্ষিত হবার প্রয়োজন নেই, স্বশিক্ষিত হবারও প্রয়োজন নেই | যখন একজন মা সন্তান জন্ম দেন তখন তার মধ্যে জন্ম নেয় কালজয়ী এক শিক্ষক | যে শিক্ষকের  তথাকথিত পৃথিবীর মতো কোনো স্কুল নেই, বড় বড় জ্ঞানগর্ভ বই নেই, মা নিজেই যেন শিক্ষার আলোকবর্তিকা হয়ে উঠেন | মা এমন  একজন শিক্ষক যিনি এসবের বিনিময়ে কোনো বেতন নেননা, কোনো ধরণের সুযোগ সুবিধা নেননা, কেবল দিয়েই যান | তিল তিল করে নিজেকে  কেবল ত্যাগ করে যান, ভালোবাসার পরশ বুলিয়ে যান | মা এমন একজন নিঃস্বার্থ শিক্ষক যিনি সন্তানের মঙ্গলের জন্য নিজের জীবনও উৎসর্গ করতে পারেন | 

মমতাময়ী মাও তো একজন শিক্ষক। সেটা আমরা হয়তো বুঝতে পারিনা। তবে সময় আমাদের তা বুঝিয়ে দেয়। একটা ঘটনায় বিষয়টি অনেক সহজবোধ্য হয়ে যাবে।  বিশ্ববিখ্যাত বিজ্ঞানী টমাস আলভা এডিসনের তখন শিশুকাল। এক দিন এডিসন ঘরে এসে তার মাকে খামবন্দি চিঠি দিলেন। তিনি মাকে বললেন, ‘আমার শিক্ষক আমাকে কাগজটি দিয়েছেন এবং শুধু তোমাকেই দিতে বলেছেন।’ মা চিঠিটি জোরে পড়া শুরু করলেন এবং তার চোখ থেকে জল গড়িয়ে পড়ছে মাটিতে, ‘আপনার পুত্র মেধাবী। এই স্কুলটি তার জন্য অনেক ছোট এবং এখানে তাকে শেখানোর মতো যথেষ্ট প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত ও দক্ষ  শিক্ষক নেই। দয়া করে আপনি নিজেই তার শিক্ষার ব্যবস্থা করুন।’ তার মা মারা যাওয়ার অনেক বছর পরের কথা। এডিসন তখন শতাব্দীর সেরা আবিষ্কারক। এক দিন তাঁর পারিবারিক পুরনো জিনিসপত্র দেখছিলেন। একটি ডেস্কের ড্রয়ারের কোনায় হঠাৎ তিনি একটি ভাঁজ করা কাগজ পেলেন। তিনি সেটি খুললেন। কাগজে লেখা ছিল—‘আপনার সন্তান মেধাহীন ও নিম্ন বুদ্ধিসম্পন্ন। আমরা তাকে আমাদের স্কুলে আর আসতে দিতে পারি না।’ এডিসন কয়েক ঘণ্টা ধরে কাঁদলেন। কারণ এডিসন বুঝতে পারলেন তার  মা সেদিন বড় কিছু ভাবেননি। বরং তার চিন্তাশক্তি প্রয়োগ করে ভেবেছেন কিভাবে একটা নেতিবাচক ধারণাকে ইতিবাচক ধারণায় পরিণত করা যায়। তিনি টমাস আলভা এডিসনকে গড়ার আগেই ভেঙে যেতে দেননি বরং তার  মধ্যে এই ধারণা সৃষ্টি করেছিলেন যে তার মতো মেধাবী পৃথিবীতে আর কেউ নেই। কয়েকটি শব্দের ইতিবাচক পরিবর্তন এডিসনের জীবন পাল্টে দিয়েছিল। এখানে এডিসনের মা একজন শিক্ষকের মতো কাজ করেছেন। কিন্তু তা  স্কুলের শিক্ষকরা তা পারেননি।

প্রতিদিন এমন মায়ের মতো ভালোবাসার বন্ধনে জড়িয়ে ধরা  নিঃস্বার্থ শিক্ষকদের খুঁজি। সেই প্রাণপ্রিয় মুখগুলিকে খুঁজি। কিন্তু কোথায় তারা। তারা তো আকাশের তারা হয়ে গেছে। সে তারা এখনও রাতে আলোর মশাল নিয়ে দাঁড়িয়ে থাকে। আমাদের আলোকিত পথ দেখানোর অপেক্ষা করে। কিন্তু আমরা তো স্বার্থপর হয়ে গেছি। সবাই আর শিক্ষক নেই, কেউ কেউ শিক্ষক। এক দুষ্টচক্রে বাধা পড়ে গেছে শিক্ষকদের প্রকৃত সত্তা। শিক্ষকতা পেশা নয়, এটা একটা আত্মত্যাগ। এটা একটা সেবা। কিন্তু কে শুনবে কার কথা। ছাত্রদের মুখগুলো দেখে কষ্ট লাগে। ওরা ওদের প্রতিভার আলো ছড়িয়ে আলোকিত হতে চায়। কিন্তু শিক্ষক নামের সেই নিঃস্বার্থ মানুষটা তো আর নেই। সব যেন দুঃস্বপ্ন, সব যেন গন্তব্যহীন।


আরও খবর

পরাজয় মানুষকে আপন-পর চেনাতে শেখায়

বৃহস্পতিবার ০৪ আগস্ট ২০২২




এসএসসি পরীক্ষার তারিখ ঘোষণা রবিবার

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৫ জুলাই ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ০৭ আগস্ট ২০২২ |
Image

সারাদেশে বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি হওয়ায় মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) ও সমমান পরীক্ষা গ্রহণের সিদ্ধান্ত নিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। রবিবার (১৭ জুলাই) শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি সংবাদ সম্মেলন করে আনুষ্ঠানিকভাবে পরীক্ষার তারিখ ঘোষণা করবেন।

এসএসসিও সমমান পরীক্ষা-২০২২ শুরু সংক্রান্ত বিষয়ে শিক্ষামন্ত্রীর সংবাদ সম্মেলন আহ্বান করা হয়েছে। ১৭ জুলাই দুপুর ১টায় শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে।

এদিকে সারাদেশের বন্যা পরিস্থিতি অনেকটা স্বাভাবিক হওয়ায় আগস্টের মাঝামাঝি পরীক্ষা শুরু করতে চায় শিক্ষা বোর্ডগুলো। সংবাদ সম্মেলনের আগে শিক্ষা বোর্ডগুলো থেকে পরমর্শ নেবেন শিক্ষামন্ত্রী। এরপর প্রধানমন্ত্রীর সম্মতি নিয়ে এসএসসি-সমমান পরীক্ষা শুরুর দিন ঘোষণা করার কথা রয়েছে।

আগস্টে এসএসসি পরীক্ষা শুরু হলে অক্টোবরে উচ্চ মাধ্যমিক (এইচএসসি) পরীক্ষা শুরুর পরিকল্পনা রয়েছে বলে জানা গেছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে আন্তঃশিক্ষা বোর্ডের সমন্বয়ক ও ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক তপন কুমার সরকার বলেন, দেশের অধিকাংশ স্থানে বন্যার পানি নেমে গেছে। যেসব স্থানে পানি রয়েছে সেখানের অনেক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান আশ্রয়কেন্দ্র হিসেবে এখনো ব্যবহার হচ্ছে। বর্তমানে সেগুলো পরীক্ষা কেন্দ্র হিসেবে প্রস্তুত করার কাজ শুরু করা হয়েছে। বন্যার পানিতে ক্ষতিগ্রস্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো সংস্কার কাজ করা হচ্ছে।

তিনি বলেন, শিক্ষামন্ত্রী পরীক্ষা শুরুর ঘোষণা দিলে সে অনুযায়ী আমরা সংশোধিত রুটিন তৈরি করবো। রুটিন প্রকাশের পর এক থেকে দুই সপ্তাহ সময় দিয়ে পরীক্ষা শুরু করা হবে। আগস্ট থেকে পরীক্ষা শুরু করতে চান বলেও জানান তিনি।

ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের একজন কর্মকর্তা জানান, আগামী ১৩ থেকে ১৬ আগস্টের মধ্যে এসএসসি-সমমান পরীক্ষা শুরু করা হতে পারে। এসময়ের মধ্যে পরীক্ষা শুরু করতে শিক্ষা বোর্ডগুলো থেকে প্রস্তাব দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন চেয়ারম্যানরা।

দেশব্যাপী এসএসসি ও সমমান পরীক্ষা শুরু হওয়ার কথা ছিল গত ১৯ জুন। তবে সিলেটসহ দেশের কয়েকটি এলাকায় বন্যা পরিস্থিতির ব্যাপক অবনতি হওয়ায় ১৭ জুন এসএসসি পরীক্ষা স্থগিতের ঘোষণা আসে।

এর আগে সিলেট, সুনামগঞ্জসহ দেশের কয়েকটি জেলায় বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হওয়ায় ১৯ জুন থেকে শুরু হতে যাওয়া এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা স্থগিত করে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।


আরও খবর



কু‌মিল্লা লালমাইয়ে শিশু ধর্ষণের অভিযোগে আটক-১

প্রকাশিত:সোমবার ১৮ জুলাই ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৯ আগস্ট ২০২২ |
Image

কুমিল্লা ব্যুরো ঃ       

কুমিল্লার লালমাই উপজেলায় রিক্সা চালকের ৯বছরের শিশু কন্যাকে ধর্ষণের অভিযোগে আবদুল মতিন (৫৫) নামের এক কৃষককে গ্রেপ্তার করেছে লালমাই থানা পুলিশ।                   ১৭ই জুলাই (রোববার) ভোর রাতে লালমাই থানার সেকেন্ড অফিসার জীবন রায় চৌধুরী অভিযান চালিয়ে স্থানীয় ফয়েজগঞ্জ বাজার থেকে তাকে আটক করে। 

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, উপজেলার পেরুল দক্ষিণ ইউনিয়নের গজারিয়া গ্রামের মৃত ফজর আলীর ছেলে কৃষক আবদুল মতিন গত ৩ জুলাই বেলা সাড়ে ১২টার দি‌কে একই গ্রামের রিক্সা চালকের ৯বছরের শিশু কন্যাকে আখ খাওয়ানোর প্রলোভন দেখিয়ে নিজের আখ খেতে নিয়ে মুখ চেপে ধর্ষণ করে। শিশুটির বাবা কুমিল্লা শহরে রিক্সা চালায় এবং মা অন্যের বাড়ীতে কাজ করে। বিকালে মা বাড়ীতে ফিরলে শিশুটি ধর্ষণের বিষয়টি জানায়। এঘটনায় শিশুটির মা বাদী হয়ে গত ১৪ জুলাই লালমাই থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০ (সংশোধনী/২০০৩) এর ৯ (১) ধারায় মামলা (নং ০৩, তাং ১৪/০৭/২০২২ইং) দায়ের করেন।   

লালমাই থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ আইয়ুব বলেন, ভিকটিমের মেডিকেল পরীক্ষা সম্পন্ন, আদালতে ২২ ধারায় জবানবন্দি রেকর্ড এবং স্থানীয় তদন্তের প্রাথমিক সত্যতা  পেয়ে অভিযুক্ত আবদুল মতিন কে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তদন্ত চলমান রয়েছে।


আরও খবর



পদ্মা সেতু দেখতে মমতাকে আমন্ত্রণ শেখ হাসিনার

প্রকাশিত:বুধবার ২০ জুলাই ২০22 | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৯ আগস্ট ২০২২ |
Image

সেপ্টেম্বরে দিল্লি সফর করবেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আর সেই সফরে নির্দিষ্ট কর্মসূচির বাইরেও পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে দেখা করার ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন বঙ্গবন্ধুকন্যা। চিঠি লিখে তিনি মমতাকে সেই ইচ্ছার কথা জানিয়েছেন। পাশাপাশি চিঠিতে নিজেদের অর্থে নির্মিত সদ্য উদ্বোধন হওয়া এশিয়ার অন্যতম দীর্ঘ পদ্মা সেতু দেখার জন্য আমন্ত্রণ জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রীকে। মমতাকে পাঠানো চিঠিতে বঙ্গবন্ধুকন্যা লিখেছেন, আপনার সুবিধাজনক সময়ে বাংলাদেশ সফরের জন্য আমন্ত্রণ রইল। 

মাসখানেক আগে রাজশাহীর এক ঝুড়ি সুস্বাদু আম পাঠিয়েছিলেন শেখ হাসিনা। প্রাপ্তি স্বীকার করে প্রধানমন্ত্রীকে একটি আন্তরিক চিঠি দিয়েছিলেন মমতা। এরপরই ১২ জুলাই পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রীর চিঠির উত্তরে পদ্মা সেতু দেখার আমন্ত্রণ জানালেন বঙ্গবন্ধুকন্যা।

চিঠিতে শেখ হাসিনা লিখেছেন, সেপ্টেম্বরে আমার নির্ধারিত নয়াদিল্লি সফরকালে আপনার সঙ্গে সাক্ষাতের সুযোগ সৃষ্টি হবে বলে আশা রাখি। নবনির্মিত পদ্মা সেতুর মাধ্যমে পশ্চিমবঙ্গ তথা ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের আত্মিক বন্ধন আরও দৃঢ় হবে এবং বাণিজ্যিক সম্পর্কে সম্ভাবনার নতুন দ্বার উন্মোচন হবে বলেও চিঠিতে আশা প্রকাশ করেছেন তিনি।

কলকাতায় মুখ্যমন্ত্রীর সচিবালয় নবান্ন সূত্রে মঙ্গলবার জানানো হয়েছে, বঙ্গবন্ধুকন্যার আমন্ত্রণে সাড়া দিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কবে বাংলাদেশ সফরে যাবেন, সে বিষয়ে এখনো কোনো সূচি নির্দিষ্ট হয়নি।


আরও খবর

আন্তর্জাতিক আদিবাসী দিবস

মঙ্গলবার ০৯ আগস্ট ২০২২




সন্ত্রাসবিরোধী সৌদি নেতৃত্বাধীন জোটে বাংলাদেশ

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৯ জুলাই ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ১০ আগস্ট ২০২২ |
Image

সন্ত্রাসবাদ দমনে বাংলাদেশের শরণাপন্ন হয়েছে সৌদি আরবের নেতৃত্বাধীন ইসলামিক মিলিটারি কাউন্টার টেরোরিজম কোয়ালিশন। এক্ষেত্রে তারা বাংলাদেশের গভীর সহযোগিতা চেয়েছে। ওই জোটের মহাসচিব মেজর জেনারেল মোহাম্মেদ আল-মুঘেদি এ সপ্তাহে ঢাকা সফর করে এই বার্তা দিয়েছেন।

মহাসচিব মেজর জেনারেল মুঘেদি বাংলাদেশের আমন্ত্রণে গত ২৬-২৭ জুলাই ঢাকা সফর করেন। ২০১৫ সালে প্রতিষ্ঠিত জোটটির মহাসচিবের এটিই প্রথম ঢাকা সফর।

জোটের টুইট একাধিক বার্তায় মহাসচিব জানিয়েছেন, সন্ত্রাসবাদ দমনের উদ্দেশে বৈঠকগুলোতে সহযোগিতার ক্ষেত্র এবং উভয়পক্ষের এ বিষয়ে চিন্তাভাবনা নিয়ে আলোচনা হয়েছে।

পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেন, চিফ অফ জেনারেল স্টাফ লেফটেন্যান্ট জেনারেল আতাউল এইচ হাসান ও পুলিশ মহাপরিদর্শক বেনজীর আহমেদের সঙ্গে মহাসচিব বৈঠক করেছেন। এছাড়া সামরিক বাহিনীর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সঙ্গেও তিনি বৈঠক করেছেন। এ বিষয়ে এক কর্মকর্তা বলেন, সন্ত্রাস দমনে উভয়পক্ষের আগ্রহ আছে, আমরা আরও সহযোগিতা চাই।

সন্ত্রাসবাদ দমনে ইসলামিক জোট একটি নতুন প্ল্যাটফর্ম জানিয়ে তিনি বলেন, সাধারণভাবে সন্ত্রাসবাদ দমনে আমরা পশ্চিমা দুনিয়ার উদ্যোগকে বেশি দেখি। তাদের পাশাপাশি ইসলামিক দেশগুলোর ওই জোট বড় ধরনের গুরুত্ব বহন করে

পশ্চিমা দেশগুলোর উদ্যোগের পাশাপাশি ইসলামিক জোটে বাংলাদেশ প্রথম থেকেই যুক্ত এবং ভবিষ্যতেও থাকবো জানিয়ে তিনি বলেন, ‘আমরা এখন ওই জোটে আমাদের প্রতিনিধি পাঠানোর বিষয়টি গুরুত্বসহ বিবেচনা করছি।’

তিনি বলেন, জোটে বর্তমানে সদস্য সংখ্যা ৪১টি, তাদের মধ্যে ২৭টি দেশ ইতিমধ্যে তাদের প্রতিনিধি দল ওই জোটে পাঠিয়েছে। মহাসচিব বৈঠকগুলোতে প্রতিনিধি দল পাঠানোর জন্য আমাদের অনুরোধ জানিয়েছেন।

উল্লেখ্য ওই জোটে বাংলাদেশের পক্ষ থেকে চারটি পদ সৃজন করা আছে। এরমধ্যে একটি পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের, একটি পুলিশের এবং বাকি দুটি সামরিক বাহিনীর।

এই জোটের বড় একটি উদ্দেশ্য হচ্ছে সন্ত্রাসের সঙ্গে ইসলামের কোনও সম্পর্ক নেই—এই বার্তাটি সবাইকে দেওয়া। এক্ষেত্রে বাংলাদেশের অনেক সাফল্য আছে বলে জানান তিনি।

ওই কর্মকর্তা বলেন, বাংলাদেশের সাফল্য এবং উদ্যোগগুলো অন্য দেশগুলোকে জানানোর জন্যও অনুরোধ করেছেন মহাসচিব। গত মার্চে সৌদি পররাষ্ট্র মন্ত্রী ফয়সাল বিন ফারহান আল সৌদের ঢাকা সফরের সময়ে সন্ত্রাসবাদ দমন এবং জোটে সহযোগিতা নিয়ে আলোচনা হয়েছে বলে তিনি জানান।

২০১৫ সালে গঠিত সৌদি নেতৃত্বাধীন জোটে প্রথম দেশ হিসাবে বাংলাদেশ যোগ দেয়। এর সহযোগী দেশ হিসাবে আছে যুক্তরাজ্য, যুক্তরাষ্ট্র এবং ফ্রান্স। জোটের চেয়ারম্যান সৌদি ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মেদ বিন সালমান। জোটের সব ব্যয় সৌদি কর্তৃপক্ষ বহন করে।


আরও খবর

আন্তর্জাতিক আদিবাসী দিবস

মঙ্গলবার ০৯ আগস্ট ২০২২