Logo
শিরোনাম
রাজধানীর সেতু ভবনে আগুন কমপ্লিট শাটডাউন : ঢাকাসহ সারা দেশে বিজিবি মোতায়েন জয়পুরহাটের পাঁচবিবিতে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ইট বোঝায় ট্রাক খাদে কুষ্টিয়ায় আন্দোলনকারী ও ছাত্রলীগের মধ্যে সংঘর্ষ -কয়েকটি মোটর সাইকেলে আগুন পুঠিয়ায় আ’লীগের বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সভা লালমনিরহাটে অনুষ্ঠিত হয়েছে তিস্তা সমাবেশ বেনাপোল স্থল বন্দর দিয়ে মিথ্যা ঘোষণায় আমদানি করা হয়েছে ১৮ কোটি টাকার সালফিউরিক এসিড কুমারখালীতে মহাসড়ক অবরোধ করে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ, আহত-২ শরণখোলায় নার্সের চিকিৎসার অবহেলায় এক রোগীর মৃত্যুর অভিযোগ শেরপুরে কোটাবিরোধী শিক্ষার্থী-ছাত্রলীগের সংঘর্ষ, সাংবাদিকসহ আহত-২০

দেশে ৮ মাত্রার ভূমিকম্পের শঙ্কা রয়েছে : দুর্যোগ প্রতিমন্ত্রী

প্রকাশিত:বুধবার ১২ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ২১ জুলাই ২০২৪ |

Image

বিডি টু ডে ডেস্ক:


মেগা সিটি রাজধানী ঢাকা ভূমিকম্পের উচ্চ ঝুঁকিতে রয়েছে বলে বিশেষজ্ঞরা সতর্ক করে আসছেন দীর্ঘদিন ধরে।



 তবে, এবার ৮ মাত্রার ভূমিকম্প সম্পর্কে সতর্কবার্তা দিলেন খোদ সরকারের দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী মহিববুর রহমান। 


এতে প্রায় ২০ শতাংশ ভবন ধসে লাখ লাখ মানুষ আটকা পড়তে পারে বলেও শঙ্কার কথা জানিয়েছেন তিনি।



আজ বুধবার (১২ জুন) বাংলাদেশের সেক্রেটারিয়েট রিপোর্টার্স ফোরাম (বিএসআরএফ) আয়োজিত ‘বিএসআরএফ সংলাপে’ অংশ নিয়ে তিনি এসব কথা বলেন। বিএসআরএফের সাধারণ সম্পাদক মাসউদুল হকের সঞ্চালনায় এতে সভাপতিত্ব করেন সভাপতি ফসিহ উদ্দীন মাহতাব।



ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘বাংলাদেশ ভূমিকম্পপ্রবণ এলাকার অন্তর্ভুক্ত। যেকোনো সময় বাংলাদেশে সর্বোচ্চ ৮ মাত্রার ভূমিকম্পের আশঙ্কা রয়েছে। এতে ২০ শতাংশ বিল্ডিং কলাপস হয়ে যেতে পারে।



 ঢাকা শহরে লাখ লাখ লোক আটকা পড়তে পারে। অনেক লোকের মৃত্যুর আশঙ্কাও রয়েছে। আমরা এসব বিষয় নিয়ে  কাজ করছি।’



তবে ভয়ের কারণ নেই জানিয়ে মহিববুর রহমান বলেন, ‘মন পরিস্থিতি বহু দেশে হয়ে আসছে। যেমন, তুরস্কে ভূমিকম্প হয়। কিন্তু তারা দুর্যোগ সহনীয় অবকাঠামো ও সমাজব্যবস্থা গড়ে তুলেছে। যে কারণে সমস্যা এলে তা সমাধান করার সক্ষমতা তারা তৈরি করেছেন।’


দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘যদি কোনো রকম ভূমিকম্প হয়, সেজন্য শহুরে অঞ্চলে ব্যাপকভাবে স্বেচ্ছাসেবী তৈরি করতে কাজ করছি। ভবনগুলো যদি ধসে যায়, তাহলে সেগুলো পরিষ্কার করা ও মানুষকে উদ্ধারে আমরা ব্যাপকভাবে পরিকল্পনা গ্রহণ করেছি।’



এত উচ্চমাত্রার ভূমিকম্পের সতর্কবার্তা তিনি কীসের ভিত্তিতে দিচ্ছেন- সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে মহিববুর রহমান বলেন, ‘নির্দিষ্ট গবেষণার ভিত্তিতেই আমি এমন কথা বলেছি। এ নিয়ে আমাদের সুনির্দিষ্ট তথ্য আছে।’


ভূমিকম্পে ক্ষয়ক্ষতির হাত থেকে বাঁচতে করণীয় সম্পর্কে জানাতে গিয়ে মহিববুর রহমান বলেন, ‘ভবিষ্যতে একটি নিরাপদ বাংলাদেশ রেখে যেতে চাইলে পুরো জাতিকে দুর্যোগের বিষয়ে সচেতন করতে হবে।’



সরকারের প্রস্তুতি জানাতে গিয়ে মহিববুর রহমান বলেন, ‘যদি কোনো রকম ভূমিকম্প হয়, সেজন্য শহুরে অঞ্চলে ব্যাপকভাবে স্বেচ্ছাসেবী তৈরি করতে কাজ করছি। ভবনগুলো যদি ধসে যায়, তাহলে সেগুলো পরিষ্কার করা ও মানুষকে উদ্ধারে আমরা ব্যাপকভাবে পরিকল্পনা গ্রহণ করেছি।’


সম্প্রতি ঘূর্ণিঝড় রিমাল বড় ধরনের চ্যালেঞ্জ তৈরি করেছিল জানিয়ে ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘এতবড় ঝড় হওয়ার পর একজন মৎস্যজীবীও মারা যাননি, একটা নৌকাও ডোবেনি।



 আগামী দিনেও যেকোনো সময় ঝড় আসতে পারে, দুর্যোগ মন্ত্রণালয় কেবল বন্যাই না, টর্নেডো কিংবা বন্যাও হতে পারে, সিলেটে পাহাড়ধসে তিনজনকে আমরা হারিয়েছি, যে কারণে সারাক্ষণ ও সারা বছর আমাদের মন্ত্রণালয়কে কাজ করতে হয়।’



আরও খবর

রাজধানীর সেতু ভবনে আগুন

বৃহস্পতিবার ১৮ জুলাই ২০২৪




পুঠিয়ায় আ’লীগের বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সভা

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৮ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ২১ জুলাই ২০২৪ |

Image

পুঠিয়া (রাজশাহী) প্রতিনিধি::



রাজশাহীর পুঠিয়ায উপজেলায় নিহত ছাত্রলীগ কর্মীর গায়েবানা জানাজা ও সারা দেশব্যাপী জামায়াত, বিএনপির নৈরাজ্য ও ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বুধবার (১৭ জুলাই) বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে পুঠিয়া উপজেলার পরেশ নারায়ণ সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় (পিএন) মাঠে নিহত ছাত্রলীগ কর্মী সবুজ আলীর গায়েবানা জানাজা শেষে, দেশব্যাপী সহিংসতার বিরুদ্ধে পুঠিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের আয়োজনে ঢাকা-রাজশাহী মহাসড়কে ওই বিক্ষোভ মিছিল করা হয়।

পরে বিক্ষোভ মিছিল শেষে পুঠিয়া উপজেলার ত্রিমোহনী বাজার মসজিদের সামনে নেতাকর্মীরা উপস্থিত হয়ে সংক্ষিপ্ত সমাবেশ করেন। সংক্ষিপ্ত ওই সমাবেশে বক্তারা বলেন জামাত-বিএনপি ও শিবিরের দেশব্যাপী নৈরাজ্য ও দেশকে অস্থিতিশীল করার বিরুদ্ধে আমাদের সজাগ ও জাগ্রত থাকতে হবে। যারা রাজাকার ছিল তাদেরকে উৎখাত করা হয়েছে। এদেশে যুদ্ধাপরাধী, রাজাকারের কোন স্থান নেই। তোমরা যারা আন্দোলন করছো ভুল পথে যেওনা।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি এস এম একরামুল হকের সভাপতিত্বে উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগ যুগ্ন-সাধারন সম্পাদক ও সাবেক এমপি আয়েন উদ্দিন, সাংগঠনিক সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ, স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক চিন্ময় কান্তি দাস, জেলা যুবললীগের সাবেক সভাপতি আবু সালেহ, জেলা আওয়ামী লীগের দপ্তর বিষয়ক সম্পাদক প্রদ্যুৎ কুমার সরকার, উপ-দপ্তর সম্পাদক আব্দুল মান্নান, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ গোলাম ফারুক, পুঠিয়া উপজেলা যুবলীগ সভাপতি ও সাবেক মেয়র রবিউল ইসলাম রবি, রাজশাহী জেলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক কামরুল ইসলাম মিঠু, উপজেলা কৃষক লীগ সভাপতি রাজিবুল হক রাজিব, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি মো. তুহিনুজ্জামান, সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান মাসুম, উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম-সম্পাদক ও পৌরসভার ২ নং প্যানেল মেয়র নিজাম উদ্দীন মকুলসহ উপজেলা আওয়ামী লীগের অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মী ও বিভিন্ন ইউনিয়ন, ওয়ার্ডের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকগণ।




আরও খবর



প্রধানমন্ত্রী চীন যাচ্ছেন ৮ জুলাই

প্রকাশিত:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ২১ জুলাই ২০২৪ |

Image



বিডি টুডেস ডেস্ক:


আগামী ৮ জুলাই চীন সফরে যাবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। 


তিনদিনব্যাপী এ সফরে বাণিজ্য, বিনিয়োগ ও ব্রিকসে বাংলাদেশের অন্তর্ভুক্তির বিষয়গুলো গুরুত্ব পাবে।



পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ আজ সোমবার (২৪ জুন) রাজধানীর একটি হোটেলে আয়োজিত এক ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানিয়েছেন।


এর আগে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে বাংলাদেশ সফররত চীনের কম্যুনিস্ট পার্টির আন্তর্জাতিক বিভাগের মন্ত্রী লিউ জিয়ানচাও সাক্ষাত করেন।



 সাক্ষাতকালে বাংলাদেশে নিযুক্ত চীনের রাষ্ট্রদূত ইয়াও ওয়েন ও দেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।


পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, বাংলাদেশের বড় উন্নয়ন সহযোগী চীনের সাথে বাণিজ্য ঘাটতি কমিয়ে আনতে রপ্তানি বৃদ্ধি, ওষুধ, সিরামিক, চামড়াজাত পণ্য রপ্তানির ক্ষেত্র প্রসার, চীনের বিনিয়োগ বৃদ্ধি ও অবকাঠামো নির্মাণ সহযোগিতা নিয়ে আলোচনা হয়েছে।



 পাশাপাশি দেশে আশ্রিত প্রায় ১৩ লাখ রোহিঙ্গার নিজ দেশ মিয়ানমারে প্রত্যাবাসনে চীনের কার্যকর ভূমিকা বৃদ্ধির জন্য আহ্বান জানানো হয়েছে।



লিউ জিয়ানচাও সাংবাদিকদের বলেন, আমরা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে চীন সফরে স্বাগত জানাই। বাংলাদেশে পণ্য উৎপাদন, বিনিয়োগ বৃদ্ধি ও অবকাঠামো নির্মাণে আরও সহযোগিতা দিতে চীন প্রস্তুত।


আরও খবর

রাজধানীর সেতু ভবনে আগুন

বৃহস্পতিবার ১৮ জুলাই ২০২৪




সমবায়ের মাধ্যমে চাষাবাদ করার আহ্বান পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রীর

প্রকাশিত:রবিবার ১৪ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২০ জুলাই ২০24 |

Image
ওবায়দুল ইসলাম রবি - রাজশাহী


পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী মোঃ আব্দুল ওয়াদুদ, এমপি বলেছেন, কৃষি মন্ত্রণালয় এবং সমবায় বিভাগের সমন্বিত উদ্যেগে কৃষি সমবায় সমিতি গঠন করে সকল কৃষি জমিকে এর আওতায় এনে চাষাবাদ করা হবে। এতে কৃষকরা তাদের উৎপাদিত কৃষি পণ্য সমবায় বাজারে বিক্রয় করতে পারবে। 


আজ রবিবার (১৪ জুলাই) বেলা এগারোটায় রাজশাহী জেলার দুর্গাপুর উপজেলা পরিষদ হলরুমে  সমাজসেবা অধিদপ্তর কর্তৃক সুদমুক্ত ঋণ, অসহায় দরিদ্র ব্যক্তি এবং ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী ভুক্ত শিক্ষার্থী ও ব্যক্তিদের পুনর্বাসন ও অর্থ সহায়তা বিতরণ, নাবী পাট বীজ উৎপাদনকারী চাষীদের মাঝে বিনামূল্যে নাবী পাট বীজ, রাসায়নিক সার ও কীটনাশক বিতরণ, বিভিন্ন প্রাকৃতিক দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্ত গরীব, দুঃস্থ ও অসহায় পরিবারের মাঝে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তর কর্তৃক শুকনা খাবার বিতরণ, ‘ইউনিয়ন পরিষদ উন্নয়ন সহায়তা’ খাতের আওতায় অনগ্রসরতা, প্রাকৃতিক দুর্যোগ ও ডেঙ্গু রোগ নিয়ন্ত্রণে বিভিন্ন উপকরণ বিতরণ এবং প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় হতে বাস্তবায়নাধীন বিশেষ এলাকার জন্য উন্নয়ন সহায়তা (পার্বত্য চট্টগ্রাম ব্যতীত) শীর্ষক কর্মসূচির আওতায় আদিবাসী শিক্ষার্থীদের মাঝে শিক্ষাবৃত্তি এবং বাইসাইকেল বিতরণসহ সরকারের বিভিন্ন অনুদান বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন।

আব্দুল ওয়াদুদ বলেন,  দুর্গাপুরে সুবিধামত জায়গায় সুবিধাজনক সময়ে সমবায় বাজার তৈরি করা হবে। এই বাজারে কৃষকরা উৎপাদিত পণ্য দালালের খপ্পর ব্যতীত সঠিক দামে বিক্রয় এবং ভোক্তারা সঠিক দামে পণ্য ক্রয় করতে পারবে। দালালরা যাতে পণ্যের আর্টিফিসিয়াল ক্রাইসিস (কৃত্রিম সংকট) তৈরি করতে না পারে সেদিকে সবাইকে সতর্ক থাকতে হবে। 

প্রতিমন্ত্রী বলেন, এখানে যে পেঁয়াজের দাম মাত্র ৪০-৫০ টাকা অথচ ঢাকায় সেই পেয়াজের দাম ১৫০ টাকা। এটা হয়েছে শুধু মাত্র মধ্যস্বত্বভোগীদের দৌরাত্মের কারণে। কৃষি সম্প্রসারণ বিভাগ, সমবায় বিভাগ এবং আপনাদের সহযোগিতায় এই সিন্ডিকেটের কিরুদ্ধে কাজ করবো । তা না হলে আমাদের দেশের এই সীমিত সম্পদ দিয়ে সামনে এগোনো সম্ভব হবে না। সমবায় ব্যবস্থার উপর গুরুত্ব আরোপ করে তিনি বলেন, সমবায়কে আমাদের মূল ভিত্তি করতে হবে। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জমি ও সম্পদের মালিকানার আইনে কীভাবে সমবায় সমিতি সম্পদের মালিক হবে তার নির্দেশনা দিয়েছিলেন। এ সময় ব্যক্তি, ইন্ডাস্ট্রি এবং সমবায় সম্পদের এ তিন প্রকার মালিকানার কথা তিনি উল্লেখ করেন। 

তিনি আরও বলেন, শুধু দুর্গাপুর আর পুঠিয়া নয়, প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে পুরো রাজশাহী অঞ্চলের চেহারা বদলে দেয়ার জন্য আমরা কতগুলো কর্মসূচি বাস্তবায়ন করছি যা অতি শীঘ্রই দেখতে পাবেন। দুর্গাপুরে আগামী পাঁচ বছরে প্রায় ১৫০ কোটি টাকা ব্যয়ে রাস্তা করা হবে যার মধ্যে ২৫ কোটি টাকা ইতোমধ্যে পেয়েছি। আরেকটি প্রায় সাড়ে ৫০০ কোটি টাকার প্রকল্প একনেকে উপস্থাপন করেছি যা দিয়ে ৪১০ কিলোমিটার নদী খনন করা হবে। আগামী শীত মৌসুম থেকে টেন্ডার করতে পারবেন বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন। 

অস্বচ্ছল মেয়েদের উদ্দেশে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ২০ বছর আগে মেয়েরা কী পেয়েছেন আর এখন কী পাচ্ছেন তা আপনাদের সকলের জানা। মেয়েদের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যা করেছেন তা ভাবনার অতীত। আজ বাংলাদেশের সকল জায়গায় মেয়েরা কাজ করছে। তারা নিজেদের মেলে ধরার সুযোগ পাচ্ছে। 

এ সময় তিনি স্মার্র্ট বাংলাদেশ গড়তে সত্যপথে চলতে এবং সত্য কথা বলতে সকলের প্রতি আহ্বান জানান। পুঠিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার স্বীকৃতি প্রামাণিক এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোঃ শরিফুজ্জামান বক্তৃতা করেন। অন্যান্যের মধ্যে বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি দপ্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারি, বীর মুক্তিযোদ্ধা, রাজনৈতিক ব্যক্তিবর্গ, উপকারভোগী এবং প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠান শেষে  প্রতিমন্ত্রী উপকারভোগীদের হাতে সরকারের বিভিন্ন অনুদান তুলে দেন। পরে প্রতিমন্ত্রী উপজেলা পরিষদ চত্বরে একটি তাল গাছের চারা রোপণ করেন।


আরও খবর

রাজধানীর সেতু ভবনে আগুন

বৃহস্পতিবার ১৮ জুলাই ২০২৪




লক্ষ্মীপুরের কমলনগরে প্রণোদনার সার-বীজ নিয়ে কর্মকর্তাদের নয়-ছয়

প্রকাশিত:রবিবার ১৪ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২০ জুলাই ২০24 |

Image

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি::


আমন ধান উৎপাদন বৃদ্ধি এবং উৎসাহের সাথে ফলনের জন্যে বাংলাদেশ সরকার কৃষকদের মাঝে কৃষি প্রণোদনা হিসেবে সার-বীজ কৃষি অফিসের মাধ্যমে বিতরণ করে থাকেন। কিন্ত লক্ষ্মীপুরের কমলনগর কৃষি অফিস সেই সার-বীজ নিয়ে নয়-ছয় করছে।

জানা যায়, ৭ নং হাজিরহাট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নিজাম উদ্দিন কৃষি অফিস থেকে মোট ৫৫ জনের একটি তালিকা পেয়েছেন। কিন্তু এদের মধ্যে অনেকেই প্রণোদনা পাননি। তালিকাভূক্ত ১নং ওয়ার্ডের মোহাম্মদ উল্যাহ অভিযোগ করেন তার নাম থাকলেও তিনি কোন সার-বীজ পাননি।পরে তিনি অফিসে গিয়ে তালিকা চেক করলে জানতে পারেন অন্য একজন স্বাক্ষর দিযে তার সার-বীজ নিযে গেছে।

একই এলাকার হেলাল উদ্দিন বলেন, তালিকায় নাম থাকলেও দেয়া হয় না সঠিকভাবে সার-বীজ এবং তিনিও পাননি। ১৪ জুলাই ২০২৪, সকালে অফিসে গেলে উপ-সহকারী কৃষি অফিসার আসিফ রেজা জানান, আপনাদের বরাদ্দকৃত প্রণোদনা শেষ হয়ে গেছে, আবার আসলে পাবেন। 

পরবর্তীতে সংবাদকর্মীদের উপস্থিতিতে, আরেক উপ-সহকারী কৃষি অফিসার আরিফ সহ তালিকা চেক করলে দেখা যায়, প্রণোদনার সার-বীজ মজুদ না থাকলেও, স্বাক্ষর দেয়ার জায়গা খালি রয়েছে। নামে প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ব্যক্তি বলেন, কিছুদিন আগে আমি এবং স্বপন নামে একজন লাইনে দাড়িয়ে দেখতে স্বপনের নামের পাশে কৃষি অফিসার আসিফ রেজা নিজেই স্বাক্ষর করেছেন। কিছুক্ষণ পরে স্বপন প্রণোদনার সার-বীজ চাইলে তাৎক্ষণিক তিনি বলেন আপনি এইমাত্রই নিয়েছেন। পরে আমি আসিফ রেজাকে বললাম, উনি নেননি, আপনিতো নিজেই এখন তালিকায় স্বাক্ষর করেছেন।

অভিযুক্ত অফিসার আসিফ রেজার কাছে এসব বিষয় সম্পর্কে চানতে চাইলে, তিনি বলেন- কেউ একজন স্বাক্ষর দিয়ে মোহাম্মদ উল্যাহর প্রণোদনার সার-বীজ উত্তোলন করে নিয়ে গেছে, হেলাল উদ্দিনের বিষয়ে বলেন, অসুবিধা নাই উনাকে সার-বীজ ব্যবস্থা করে দিবো। তালিকার স্বাক্ষর না থাকা, সার-বীজ নিয়ে যাওয়া প্রসঙ্গে জানতে চাইলে, তিনি এ বিষয়ে কোন যথাযথ কোন উত্তর দেননি।

এ বিষয়ে উপজেলা কৃষি অফিসার শাহীন রানার কাছে জানতে চাইলে, তিনি বলেন- যদি কোন কারণে কৃষক সার-বীজ না পেয়ে থাকে দবে পেয়ে যাবে। অব্যবস্থাপনার বিষয়ে তিনি কোন যথাযথ উত্তর দেননি। 

আরও খবর



হজে গিয়ে ৬৪ বাংলাদেশির মৃত্যু

প্রকাশিত:শনিবার ১৩ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ২১ জুলাই ২০২৪ |

Image

চলতি বছর পবিত্র হজ পালন করতে গিয়ে ৬৪ বাংলাদেশির মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে পুরুষ ৫১ জন এবং নারী ১৩ জন। তাদের মধ্যে মক্কায় ৫০ জন, মদিনায় ৫ জন, মিনায় ৭ জন ও জেদ্দায় ২ জন মারা গেছেন।

শনিবার (১৩ জুলাই) হজ পোর্টালের সবশেষ বুলেটিনে এ তথ্য জানানো হয়।

বুলেটিনে বলা হয়, পবিত্র হজ পালন শেষে এখন পর্যন্ত ৬৭ হাজার ৯৭৪ জন হাজি দেশে ফিরেছেন। সৌদি থেকে ১৮৪টি ফ্লাইটে হাজিরা দেশে ফিরেছেন। এর মধ্যে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স ৮৭, সৌদি এয়ারলাইন্স ৬৯টি এবং ফ্লাইনাস এয়ারলাইন্স ২৮টি ফ্লাইট পরিচালনা করে।

হজ শেষে গত ২০ জুন থেকে দেশে ফেরার ফ্লাইট শুরু হয়। ওইদিন বাংলাদেশ বিমানের প্রথম ফিরতি ফ্লাইট ৪১৭ জন হাজি নিয়ে শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করে। আগামী ২২ জুলাই পর্যন্ত হাজিদের ফিরতি ফ্লাইট অব্যাহত থাকবে।

প্রসঙ্গত, বাংলাদেশ থেকে মোট ৮৫ হাজার ২২৫ জন (ব্যবস্থাপনা সদস্যসহ) হজযাত্রী সৌদি আরবে গেছেন। আগামী বছর (২০২৫) বাংলাদেশের জন্য এক লাখ ২৭ হাজার ১৯৮ জনের কোটা দিয়েছে সৌদি আরব।

এদিকে, চলতি বছর প্রখর তাপপ্রবাহ ও অসহনীয় গরমের জেরে হজ করতে গিয়ে সৌদি আরবে রেকর্ড মৃত্যু হয়েছে। এখন পর্যন্ত ৬৪ বাংলাদেশির মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছে ধর্ম মন্ত্রণালয়।‌ এর মধ্যে হজের আনুষ্ঠানিকতা শুরুর আগে ১৭ জন, বাকি ৪৭ জন হজের আনুষ্ঠানিকতা শুরুর পর মারা গেছেন। মারা যাওয়া ব্যক্তিদের সবার নাম পরিচয় প্রকাশ করেছে হজ পোর্টাল। সর্বশেষ ১১ জুলাই মোহাম্মদ মিদ (৭৪) নামে একজন হাজি মারা গেছেন।

সৌদি আরবের আইন অনুযায়ী, কোনও ব্যক্তি হজ করতে গিয়ে যদি মারা যান, তাহলে তার মরদেহ সৌদি আরবে দাফন করা হয়। নিজ দেশে আনতে দেওয়া হয় না। এমনকি পরিবার-পরিজনের কোনও আপত্তি গ্রাহ্য করা হয় না। মক্কায় হজ যাত্রী মারা গেলে মসজিদুল হারামে জানাজা হয়।


আরও খবর