Logo
শিরোনাম
মেঘনা নদীতে গোসল করার সময় নিখোঁজ ছাত্রের মরদেহ উদ্ধার রাজবাড়ীতে ট্রাকের সাথে সংঘর্ষে মোটর সাইকেল আরোহীর মৃত্যু রাজবাড়ীতে আবৃত্তি ও কথামালায় প্রকাশনা উৎসব নওগাঁয় মোটরসাইকেলের ধাক্কায় স্কুল ছাত্র নিহত-মা ও ছোট বোন আহত মোরেলগঞ্জে শ্রমীকদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ করলেন এমপি মিলন লালমনিরহাটে বিদ্যুৎ স্পৃষ্টে মারাগেছে স্কুলছাত্র নওগাঁয় বোরো ধান চাষের শুরুতেই বিদ্যুতের লোড শেডিং, দুঃশ্চিন্তায় কৃষকরা নওগাঁয় ৩৫ কোটি টাকা মূল্যের কষ্টিপাথরের মূর্তি উদ্ধার করেছে পুলিশ কুড়িগ্রামের শীতকাতর অসহায় মানুষের পাশে কেন্দ্রীয় যুবলীগ নেত্রকোনায় বিশ্ব জলাভূমি দিবস উপলক্ষে মানববন্ধন

ফ্রান্সে দারিদ্র্য বাড়ছে

প্রকাশিত:Saturday ১৯ November ২০২২ | হালনাগাদ:Friday ০৩ February ২০২৩ |
Image

ফ্রান্সে অভাব-অনটন ও দারিদ্র্য বাড়ছে। দেশটির ক্রমবর্ধমান দারিদ্র্য নিয়ে বিভিন্ন শঙ্কার কথা জানিয়েছে একটি এনজিও।  বেসরকারি ত্রাণ সংস্থা জানায়, ফ্রান্সে দারিদ্র্য পরিস্থিতি আরো খারাপ হচ্ছে। খবর তুর্কি গণমাধ্যম ইয়েনি শাফাকের।

ক্যাথলিক রিলিফ নামের একটি এনজিও তাদের বার্ষিক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, ফ্রান্সে ২০২১ সালে এ সংস্থার কাছে যারা সাহায্য চেয়েছিল, তাদের ৪৮ শতাংশ পরিবার এতই গরিব ছিল যে, তাদের নিজেদের খাওয়ার মতো কোনো অর্থ বা বাজেট ছিল না।

বিভিন্ন বিল পরিশোধ ও অনিবার্য খরচ চালানোর পর প্রতি দুই পরিবারের একজনের কাছে মাস শেষ করার জন্য ৩০৫.২ মার্কিন ডলার অর্থ ছিল। এটা ওই পরিবারের প্রত্যেক সদস্যের জন্য জনপ্রতি প্রতিদিন ৫.১৭ মার্কিন ডলার অর্থের নিশ্চয়তা দিচ্ছিল। অথচ এ সংস্থাটি বলছে, ফ্রান্সে একজন মানুষের বেঁচে থাকার জন্য অন্তত ৭.২৪ মার্কিন ডলারের খাদ্য দরকার।

বেসরকারি ত্রাণ সংস্থা ক্যাথলিক রিলিফের কাছে যারা সাহায্য নিচ্ছে, তাদের মধ্যে ৭৫ শতাংশই নতুন। এর আগে অভাবগ্রস্ত ছিল না। ২০২২ সালের জ্বালানি সংকট এবং বিভিন্ন পণ্যের ক্রমবর্ধমান দামের কারণে এমন অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। এ এনজিওটির শঙ্কা পরিস্থিতি আরো খারাপ হতে পারে।


আরও খবর



কুড়িগ্রামের শীতকাতর অসহায় মানুষের পাশে কেন্দ্রীয় যুবলীগ

প্রকাশিত:Thursday ০২ February 2০২3 | হালনাগাদ:Friday ০৩ February ২০২৩ |
Image

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি :

কুড়িগ্রামের শীতকাতর অসহায়, ছিন্নমূল  মানুষের জন্য গরম কাপড় কম্বল নিয়ে পাশে দাঁড়িয়েছে কেন্দ্রীয় যুবলীগ। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনায় বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ কুড়িগ্রামের ১ হাজার শীত কাতর অসহায় মানুষের মাঝে কম্বল বিতরন করেন।

আজ বিকেলে কুড়িগ্রাম স্টেডিয়ামে কম্বল বিতরন করেন কেন্দ্রীয় যুবলীগের যুগ্ন সম্পাদক বাদসা মতিউর রহমান সাংগঠনিক সম্পাদক সোহেল পারভেজ ত্রান ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক নাসিম পারভেজ পাভেল কুড়িগ্রাম জেলা যুবলীগের আহবায়ক এডভোকেট রুহুল আমিন দুলাল যুগ্ন আহবায়ক রেদওয়ানুল হক দুলাল, খ,ম,আনিছুর রহমান চাঁদ মমিনুর রহমান মমিন ও সদস্য আতাউর রহমান বিপ্লব প্রমুখ। 

গরম কাপড় কম্বল পেয়ে শহরের বস্তি এলাকার জয়নব বেওয়া( ৫৭) বলেন যে ঠান্ডা বাহে,গরম কাপড়ের দরকার ছিলো, কম্বল টা পেয়ে মোর খুব উপকার হলো।যারা কম্বল দিলো তাদের জন্য মুই দোয়া করিম। 

বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ এবারের শীতে উত্তর জনপদ  সহ দেশের বিভিন্ন জেলায় শীতকাতর অসহায় মানুষের জন্য কম্বল সহায়তা প্রদান করছেন।


আরও খবর



শীতার্ত মানুষের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ করলেন ১৪ বিজিবি

প্রকাশিত:Saturday ১৪ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Friday ০৩ February ২০২৩ |
Image

শহিদুল ইসলাম জি এম মিঠন :


নওগাঁয় শীতার্ত মানুষের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ করলেন ১৪ বিজিবি। এছাড়াসী মান্তবর্তী ২৩৭ জন মহিলা, ১৮৬ জন পুরুষ এবং ১০৬ জন শিশুসহ মোট ৫২৯ জন গরীব অসুস্থদের বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা ও ঔষধ বিতরণ করা হয়।

নওগাঁর পত্নীতলা ব্যাটালিয়ন (১৪ বিজিবি) কাম্প থেকে জানানো হয়, শীতার্ত  মানুষের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ কর্মসূচীর আওতায় শুক্রবার পত্নীতলা ব্যাটালিয়ন (১৪ বিজিবি)’র অধীনস্থ কড়িয়া বিওপির দায়িত্বপূর্ণ সীমান্তবর্তী এলাকায় পাঁচবিবি উপজেলাধীন কড়িয়া ইসলামিয়া সিনিয়র মাদ্রাসা মাঠে মোট ২৫০ জন এবং চকচন্ডি বিওপির দায়িত্বপূর্ণ এলাকার ধামইরহাট উপজেলাধীন চকচন্ডি ঈদগাহ মাঠে ২৫০ জন মোট ৫০০ জন বয়স্ক শীতার্ত মানুষের মাঝে শীতকালীন কম্বল বিতরণ করা হয়। এছাড়াও একই দিন পত্নীতলা ব্যাটালিয়ন (১৪ বিজিবি'র) অধিনস্থ কালুপাড়া বিওপির দায়িত্বপূর্ণ এলাকায় ধামইরহাট উপজেলাধীন কালুপাড়া প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে অত্র ব্যাটালিয়নের মেডিকেল অফিসার মেজর মুছলেহ উদ্দিন এর নেতৃত্বে ধামইরহাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এর সহযোগীতায় সীমান্তবর্তী ২৩৭ জন মহিলা, ১৮৬ জন পুরুষ এবং ১০৬ জন শিশুসহ মোট ৫২৯ জন গরীব অসুস্থদের মাঝে বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা ও ঔষধ বিতরণ করা হয়।  


শীতবস্ত্র বিতরণ এবং মেডিকেল ক্যাম্পেইন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে লেঃ কর্নেল মোঃ হামিদ উদ্দিন, পিএসসি, অধিনায়ক, পত্নীতলা ব্যাটালিয়ন (১৪ বিজিবি) উপস্থিত ছিলেন। উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি জনসাধারণকে সীমান্ত দিয়ে পুশইন প্রতিরোধে বিজিবি’কে আন্তরিক সহযোগিতা প্রদান এবং মাদক চোরাচালান ও অন্যান্য সীমান্ত অপরাধের সাথে জড়িত না হওয়ার আহবান জানান। এ সময় অত্র ব্যাটালিয়নের সুবেদার মেজরসহ অন্যান্য পদবীর সদস্য, স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।


আরও খবর



এককভাবে নির্বাচন করতে চায় জাতীয় পার্টি

প্রকাশিত:Friday ২০ January ২০23 | হালনাগাদ:Friday ০৩ February ২০২৩ |
Image

দ্বাদশ জাতীয় নির্বাচনে এককভাবে নির্বাচনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে জাতীয় পার্টি। এজন্য ঐক্যবদ্ধভাবে দলের নেতাকর্মীদের প্রস্তুতি নেওয়ার নিদের্শ দিয়েছেন বিরোধীদলীয় নেতা রওশন এরশাদ। 

বৃহস্পতিবার সংসদ ভবনে চলছিল জাপার সংসদীয় দলের বৈঠক। রওশনের সভাপতিত্বে বৈঠকে বিরোধীদলীয় উপনেতা জিএম কাদেরসহ দলটির ১৮ জন সংসদ সদস্য উপস্থিত ছিলেন। বৈঠকে দলের অভ্যন্তরে গত সাড়ে তিন মাস ধরে চলা বিবাদ ইস্যুতে খোলামেলা আলোচনা করেছেন সবাই। আলোচনা শেষে ‘অনৈক্য, ভুল বোঝাবুঝি ও মান-অভিমান’ ভুলে দলে ঐক্য ধরে রেখে এককভাবে দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনে অংশগ্রহণের লক্ষ্যে প্রস্তুতি গ্রহণের সিদ্ধান্ত হয়েছে। দলে কয়েক দফা বিবাদের পর গতকালই প্রথমবারের মতো রওশনের ডাকে সাড়া দিয়ে সংসদীয় দলের বৈঠকে যান জিএম কাদেরসহ দলটির এমপিরা। রওশন নিজের স্বাক্ষরে চিঠি দিয়ে সবাইকে বৈঠকে আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন বলে জানান জাপা মহাসচিব মুজিবুল হক চুন্নু।

সংসদীয় দলের বৈঠক শেষে রওশন এরশাদ বলেন, ‘সবাইকে এক থাকতে বলেছি। ঐক্যবদ্ধ থেকে সবাইকে কাজ করতে বলেছি। আগামী নির্বাচনে আমরা এককভাবেই অংশ নিব, সেভাবে সবাইকে এখন থেকেই প্রস্তুতি নিতে বলেছি। সংসদেও সবাই যেন উপস্থিত থেকে গঠনমূলক আলোচনা করেন, রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর আলোচনায় গঠনমূলক কথা বলেন- সেই নির্দেশনা দিয়েছি।

বৈঠক শেষে জিএম কাদের বলেন, যে ঝামেলা সৃষ্টি হয়েছিল সেটি কেটে গেছে। আজকের বৈঠকেও কয়েক দফায় কথা বলার আগে কী বলবেন, সেবিষয়ে কানে-কানে উনি আমার মতামত জানতে চেয়েছেন। এর আগে ব্যক্তিগতভাবেও উনি আমাকে বলেছিলেন- তুমি দল চালাও, আমার দিক থেকে কোনো সমস্যা নেই। আসলে যে ঘটনাগুলো ঘটেছে সেগুলো উনি যে নিজ বিবেচনায় করেছেন সেটি আমার মনে হয়নি। যাক, বৈঠকে সবাই দলের ঐক্যের উপরই জোর দিয়েছেন।

তবে এই বৈঠকে রওশনপুত্র সাদ এরশাদ এমপি উপস্থিত ছিলেন না। দলের দুই কো-চেয়ারম্যান কাজী ফিরোজ রশীদ ও সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা জানান, বৈঠকে তারা সবাই একদম খোলামেলা কথা বলেছেন। কার কী ভুল ছিল, কেন দলে বিবাদ- এনিয়ে তারাও সরাসরি কথা বলেছেন, দেশের চলমান রাজনৈতিক বাস্তবতার নিরিখে জাপার পথচলার ওপর তারা গুরুত্ব দিয়েছেন। দলের প্রেসিডিয়াম সদস্য ফখরুল ইমাম এমপি বলেন, ‘বৈঠকের মূল সিদ্ধান্ত হল- সবাই ঐক্যবদ্ধ থাকবো।

জিএম কাদেরের কাছে ক্ষমা চাইলেন রাঙ্গা : বৈঠক শেষে সবাই অধিবেশনে যোগ দেওয়ার কিছুক্ষণ পর জিএম কাদের, ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, কাজী ফিরোজ রশীদ, সৈয়দ আবু হোসেন বাবলাসহ দলের কয়েকজন এমপি বেরিয়ে আসেন। এসময় তাদের সঙ্গে বেরিয়ে আসেন দল থেকে বহিষ্কৃত ও সংসদের বিরোধীদলীয় চিফ হুইপ মসিউর রহমান রাঙ্গাও। পরে তারা সবাই বিরোধীদলীয় উপনেতার (জিএম কাদের) কার্যালয়ে যান। কয়েক মিনিট পর জিএম কাদেরের কক্ষ থেকে বেরিয়ে জাপার এমপি অধ্যাপিকা রওশন আরা মান্নান জানান, ভেতরে জিএম কাদেরের কাছে রাঙ্গা ক্ষমা চেয়েছেন। 

এ দিকে চেয়ারম্যান হিসেবে দল পরিচালনা এবং দলীয় সিদ্ধান্ত গ্রহণে জিএম কাদেরের ওপর আদালতের ‘অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা’ বহালই থাকলো। ঢাকার প্রথম যুগ্ম জেলা জজ মাসুদুল হক নিষেধাজ্ঞা খারিজের আবেদন নাকচ করেছিলেন আগেই। সেই আবেদন খারিজের বিরুদ্ধে জেলা জজ আদালতে জিএম কাদের যেই মিস আপিল করেছিলেন, সেটিও বৃহস্পতিবার খারিজ হয়ে গেছে। ফলে, জাতীয় পার্টির (জাপা) চেয়ারম্যান জিএম কাদেরের ওপর অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা বহাল থেকে গেল।


আরও খবর



স্কুলকে মোবাইল অ্যাপে নিয়ে আসলেন ব্রাহ্মণপাড়ার ইউএনও

প্রকাশিত:Sunday ২৯ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Friday ০৩ February ২০২৩ |
Image

কুমিল্লা ব্যুরো :

কুমিল্লার ব্রাহ্মণপাড়ায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের জন্য শিখন ব্যবস্থাপনা অ্যাপ তৈরি করে ব্যাপক সাড়া ফেলেছে উপজেলা প্রশাসন।       নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) সোহেল রানার উদ্ভাবিত মোবাইল অ্যাপ ব্যবহার করে উপজেলা ও জেলার বেশ কয়েকটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান তাদের শিখন ব্যবস্থাপনায় এনেছে অভাবনীয় পরিবর্তন। রুটিন থেকে শুরু করে লেসন প্ল্যান, শিক্ষা সহায়ক ডিজিটাল উপকরণসহ শিখন কার্যক্রমের পুরোটা এখন চলছে মোবাইল অ্যাপের মাধ্যমে। নতুন বছরের শুরুতে অ্যাপ ভিত্তিক শিখন শেখানো কার্যক্রম হাতের মুঠোয় পেয়ে চরম খুশি শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। বিশেষজ্ঞরা বলছেন নতুন শিক্ষাক্রম বাস্তবায়নেও এ অ্যাপ হতে পারে দারুণ সহায়ক।

বিশ্বের বিভিন্ন দেশ তাদের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোকে লার্নিং ম্যানেজমেন্ট সিস্টেমের মাধ্যমে শিখন কার্যক্রমকে ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে নিয়ে আসা হয়। তবে, বাংলাদেশের স্কুল কলেজের জন্য এক নতুন ধরণের লার্নিং ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম উদ্ভাবন করলেন কুমিল্লার ব্রাহ্মণপাড়ার ইউএনও সোহেল রানা। ‘শিক্ষায়তন’ নামের এই লার্নিং ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম একটি স্যাস ( সফটওয়ার এজ এ সার্ভিস) মডেল অনুসারে তৈরী করা ই-সার্ভিস এপ্লিকেশন যাতে দুইটি ওয়েব বেজড প্ল্যাটফর্ম ও একটি মোবাইল এ্যাপ। পুরো সিস্টেমটির স্পেসিফিকেশন ডিজাইন করেছেন ইউএনও সোহেল রানা। এই ডিজাইনটিকে বাস্তবায়ন করতে জেলা প্রশাসন, কুমিল্লা পরবর্তীতে বিজনেস একসিলারেট বিডি নামে একটি টেকনোলজি পার্টনার নিযুক্ত করে যারা সফলভাবে এই লার্নিং ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম ডেভেলাপ করে। সফল পাইলটিং শেষে জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে বর্তমানে কুমিল্লার ৫টি স্কুলে বাস্তবায়নাধীন আছে সফটওয়ারটি। স্কুল ৫টি হলো কুমিল্লার কালেক্টরেট স্কুল, ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলাধীন শিদলাই আশরাফ স্কুল, ভগবান সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়, ওশান হাই স্কুল এবং সদর দক্ষিণ উপজেলার শিক্ষা বোর্ড মডেল স্কুল এন্ড কলেজ। 

মূলত এই প্ল্যাটফর্মে স্কুলের সকল কার্যক্রম প্রধান শিক্ষক ওয়েব প্ল্যাটফর্মে, শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা মোবাইল অ্যাপে করতে পারবেন। শিক্ষার্থীদের জন্য প্রতিটি কোর্সে আলাদা আলাদাভাবে সাজানো আছে। কোর্সের ভেতরে সেই কোর্সে সকল ক্লাসের আলাদা ডাইনামিক সেকশন আছে যেখানে শিক্ষকেরা অতিরিক্ত লার্নিং ম্যাটেরিয়াল জমা করতে পারবেন এবং শিক্ষার্থীরা তা দেখতে পাবেন। শিক্ষকেরা  অ্যাপে লেকচার নোট আপলোড করতে পারবেন, শিক্ষার্থীদের গ্রুপে ভাগ করতে পারবেন, ক্লাসে নোটিফিকেশন পাঠাতে পারবেন, এসাইনমেন্ট দিতে পারবেন ও জমা নিতে পারবেন, গ্রেড বসাতে পারবেন। ক্লাসে বসে সফটওয়্যার ব্যবহার করে শিক্ষকেরা হাজিরা নিতে পারবেন। অর্থাৎ স্কুলের সকল কার্যক্রম মোবাইল অ্যাপে করতে পারবেন শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা। এছাড়াও, প্রত্যেক শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের রয়েছে নিজস্ব ওয়েব পেইজ। 

এ বিষয়ে জানতে চাইলে  ইউএনও সোহেল রানা বলেন, ‘ লার্নিং ম্যানেজমেন্ট সিস্টেমের ধারণাটি বেশ পুরনো। স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে ক্যানভাস, মুডল, স্কুলজি, ব্ল্যাকবোর্ড ইত্যাদি নানা ধরণের লার্নিং ম্যানেজমেন্ট সফটওয়্যার আছে। এগুলো স্কুল ম্যানেজমেন্ট সফটওয়্যার থেকে কিছুটা ভিন্ন ধাচের। তবে, নানা ধরণের সফটওয়্যার এর ডিজাইন বিশ্লেষণ করে, শিক্ষক শিক্ষার্থীদের সাথে আলোচনান্তে স্থানীয় চাহিদা নআমরা কুমিল্লার সকল স্কুলে এটি বাস্তবায়ন করতে চাই ও পরবর্তীতে সরকার বড় পরিসরে পুরো বাংলাদেশে এটি ছড়িয়ে দিতে পারে। শিক্ষার মানোন্নয়নে ও সরকারের স্মার্ট বাংলাদেশের রূপকল্প বাস্তবায়নেও এটি সহায়ক ভূমিকা রাখতে পারে। তবে, এটি বাস্তবায়নের অনেকগুলো চ্যালেঞ্জ আছে যেগুলো মোকাবিলা করে সামনে এগুতে হবে।’ 

কু‌মিল্লার সাবেক জেলা প্রশাসক  ও বর্তমানে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের যুগ্মসচিব জনাব মোহাম্মদ কামরুল হাসান জানান,“ আমি জেলা প্রশাসনে যোগ দেওয়ার পর থেকেই মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর স্বপ্ন স্মার্ট বাংলাদেশ বাস্তবায়নে ও চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় কাজ করে আসছি। কাজ করতে গিয়ে শিক্ষা ব্যবস্থাপনাকে যুগোপযোগি করে তোলার কথা মাথায় আসে। ব্রাহ্মণপাড়ার উপজেলা নির্বাহী অফিসার সোহেল রানা শিক্ষাক্ষেত্রে লার্নিং ম্যানেজমেন্ট সিস্টেমের আধুনিকায়নের কথা বললে আমরা সেই অভাব পূরণের লক্ষ্যে লার্নিং ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম তৈরী করার উদ্যোগ গ্রহণ করি এবং পরবর্তীতে তা প্রত্যন্ত অঞ্চলের শিক্ষার্থীদের মাঝে ছড়িয়ে দেই। সেখান থেকেই মূলত শিক্ষায়তনের যাত্রা শুরু।”

শিক্ষায়তনের টেকনিক্যাল বিষয়গুলো নিয়ে কাজ করছেন বিজনেস একসিলারেটের সিইও কামরুল হাসান সুমন। তিনি বলেন এ ধরণের সফটওয়্যারের ব্যবহার দেশে নেই। “ দেশে প্রচলিত সফটওয়্যারগুলোতে  ক্লাসরুমে কি পড়ানো হচ্ছে সে বিষয়টি সংযোগ করার অপশন কম। শিক্ষায়তনের মাধ্যমে অভিভাবক, শিক্ষার্থীরা জানতে পারবেন তার বাচ্চারা কি পড়ছে। যেগুলো আছে (যেমন টেন মিনিট স্কুল) তাদের অধিকাংশ কনটেন্ট নির্ভর সেবা দেয়। আমাদের এই সফটওয়্যার কনটেন্ট নির্ভর নেই। জেলা প্রশাসনের মতো প্রতিষ্ঠান থেকে এরকম সফটওয়্যার এর ডিজাইন অভাবনীয়। আমরা এই উদ্যোগের অংশীদার হতে পেরে গর্বিত এবং ভবিষ্যতে এটিকে সারা দেশে ছড়িয়ে দিতে ইচ্ছুক।” 

ভগবান সরকারি স্কুলে শিক্ষায়তন বাস্তবায়ন করছেন বিজ্ঞান শিক্ষক মহিউদ্দিন পলাশ। তিনি  জানান শিক্ষায়তন এমন একটি সফটওয়্যার যেখানে এক কথায় শ্রেণি কার্যক্রমের সবকিছু রয়েছে। এর মাধ্যমে শিক্ষার্থীরা মোবাইলের মাধ্যমে উন্নত মানের শিক্ষা সেবা গ্রহণ করতে পারবে। অ্যাপের  মাধ্যমে শিক্ষকদের কাজ অনেকটাই সহজ হয়ে যাবে। বিশেষ করে তদের টিচিং প্ল্যান সাজানোর ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।    

বর্তমানে www.sikkhayton.gov.bd   ইউআরএলের মাধ্যমে প্ল্যাটফর্মটি ব্যবহার করা যাবে ও গুগল প্লে স্টোরে এপের নাম ‘শিক্ষায়তন’ অথবা ‘sikkhayton’ নামে এন্ড্রয়েড অ্যাপটি পাওয়া যাবে। শিক্ষায়তন নেটওয়ার্কে যুক্ত হতে চাইলে আগ্রহী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান জেলা প্রশাসন, কুমিল্লা অথবা উপজেলা প্রশাসন, ব্রাহ্মণপাড়ার সংশ্লিষ্টদের সাথে যোগাযোগ করতে পারেন।


আরও খবর



সৌদিতে প্রথম হজকারীদের অগ্রাধিকার

প্রকাশিত:Tuesday ১০ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Friday ০৩ February ২০২৩ |
Image

সৌদি আরবের হজ ও ওমরাহ-বিষয়ক মন্ত্রী তৌফিক আল-রাবিয়াহ জানিয়েছেন, এ বছর হজ করার জন্য হাজির সংখ্যা নির্ধারিত থাকবে না। এছাড়া হজ করার ক্ষেত্রে যে নির্দিষ্ট একটি বয়স নির্ধারণ করে দেওয়া হয়েছিল, সেটিও থাকবে না।

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার পর নিজ দেশে বিধিনিষেধ আরোপ করে সৌদি আরব। মানুষের সমাগম নিয়ন্ত্রণে রাখতে দেশটি হাজিদের সংখ্যা নির্ধারণ করে দেয়। অবশেষে তিন বছর পর সেসব বিধিনিষেধ তুলে দেওয়া হচ্ছে।

হজ ও ওমরাহ-বিষয়ক মন্ত্রী তৌফিক আল-রাবিয়াহ সোমবার হজ মেলা-২০২৩ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দেন। সেখানেই নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়ার ঘোষণা দেন। তিনি বলেছেন, মহামারির আগে হাজির সংখ্যা যত ছিল, সেটি আগের সংখ্যায় ফিরে যাবে। 

তবে সৌদির স্থানীয় সংবাদমাধ্যমগুলো জানিয়েছে, যেসব মানুষ এখন পর্যন্ত একবারও হজ করেননি, এবার তাদের অগ্রাধিকার দেওয়া হবে। এ বছর ২৬ জুন থেকে হজের মৌসুম শুরু হবে।

করোনা মহামারির আগে ২০১৯ সালে প্রায় ২৬ লাখ মানুষ পবিত্র হজ পালন করেন। কিন্তু পরের দুই বছর নির্দিষ্ট সংখ্যক মানুষ হজের সুযোগ পান। যাদের প্রায় সবাই ছিলেন সৌদিতে বসবাসকারী।

এরপর ২০২২ সালে প্রায় ১০ লাখ মানুষ হজ পালন করার সুযোগ পান। কিন্তু সে সময় বয়স নির্ধারণ করে দেওয়া হয়েছিল। বলা হয়েছিল, যাদের বয়স ১৮-৬৫ এবং পরিপূর্ণ সুস্থ শুধু তারাই হজ পালন করতে পারবেন। এছাড়া করোনার ভ্যাকসিন নেওয়ার বিষয়টি বাধ্যতামূলক ছিল।


আরও খবর

বিশ্ব ইজতেমা শুরু

Friday ১৩ January ২০২৩