Logo
শিরোনাম

গাজীপুর-৩ আসনের জনগনকে ঈদ শুভেচ্ছা জানালেন আ.লীগের শীর্ষ নেতারা

প্রকাশিত:সোমবার ০২ মে 2০২2 | হালনাগাদ:শনিবার ০২ জুলাই 2০২2 |
Image

সদরুল আইনঃ

      গাজীপুর-৩ আসনের জনগনকে ঈদ উল ফিতরের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন সাংসদ ইকবাল হোসেন সবুজ।

একই সাথে শ্রীপুর উপজেলা আ.লীগের সদ্য নির্বাচিত সভাপতি হুমায়ূন কবির হিমু, যুগ্ম সম্পাদক মাসুদ আলম ভাংগী, পৌর সভাপতি সিরাজুল ইসলাম মেম্বার ও সাধারন সম্পাদক নূর এ আলম মোল্লাও উপজেলা ও পৌরবাসিকে ঈদ উল ফিতরের শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন।

তারা বলেন, এক মাস সিয়াম সাধনার পর মুসলিম উম্মাহর সবচেয়ে বড় ধর্মিয় উৎসব উদ উল ফিতর উদযাপিত হবে আগামিকাল মঙ্গলবার।

ঈদ উল ফিতরের এই মাহেন্দ্রক্ষণে ঈদের আনন্দ ভাগ করে নিতে এবং সব ভেদাভেদ ভুলে মানুষ ও মানবতার পাশে নেতা কর্মিদের কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে সহমর্মিতা প্রকাশের জন্য তারা আহবান জানান।

তারা বলেন, ঈদ মুসলিমদের হলেও আনন্দ যেন হয় সবার।মানুষের কল্যানে, মানবতার পাশে থেকে একটি সুন্দর জাতী বিনির্মানে শেখ হাসিনার উন্নয়ন বাস্তবায়নে এবং তার সুফল মানুষের মাঝে ছড়িয়ে দিতে একসাথে কাজ করতে হবে সবায়কে।

অতীতের সব জীর্ণতা শীর্নতাকে পিছনে ফেলে সহমর্মিতা ও একসাথে পথ চলার সোপান রচনা করতে হবে আ.লীগের প্রতিটি নেতা কর্মিকে।ঈদের খুশি থেকে গাজীপুর-৩ আসনের কোন মানুষ যেন বঞ্চিত না হন সেদিকে সর্বদা নজর রাখতে উদাক্ত আহবান জানান সাংসদ ইকবাল হোসেন সবুজ সহ সকল নেতৃবৃন্দ।


আরও খবর



চলতি সপ্তাহ নতুন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্তির ঘোষণা

প্রকাশিত:রবিবার ০৫ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০২ জুলাই 2০২2 |
Image

চলতি সপ্তাহের মধ্যে নতুন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত করার ঘোষণা আসবে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। রবিবার (৫ জুন) সচিবালয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ তথ্য জানান।

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে এমপিওভুক্তির ঘোষণাটি আসার কথা ছিল গত মার্চে। এরপর বলা হয়, মে মাসে আসবে। অবশেষে জুন মাসের শুরুতে এমপিওভুক্তির ঘোষণা দিলেন শিক্ষামন্ত্রী।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, যখন এমপিওভুক্তির ঘোষণা আসবে, তখন থেকে শিক্ষকরা এই সুবিধা পাবেন। এক সপ্তাহের মধ্যে ঘোষণা দেওয়া হলে এই অর্থবছরের বাজেট থেকেই শিক্ষকরা এমপিও সুবিধা পাবেন।

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান জাতীয়করণের বিষয়ে তিনি বলেন, জাতীয়করণের কাজ বেশ এগিয়েছে। এ বছরের মধ্যেই শেষ হয়ে যাবে। তৃতীয় শিক্ষক নিয়োগে প্রয়োজনে অর্থ মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে আবারও দেন-দরবার করা হবে বলেও জানান শিক্ষামন্ত্রী।

ডা: দীপু মনি বলেন, ব্যক্তিগতভাবে আমার মনে হয়, তৃতীয় শিক্ষক প্রয়োজন। এখন কোর্সের যে কলেবর ও সময় বৃদ্ধি করা হয়েছে, তাতে সেই কোর্স দুজন শিক্ষকের দ্বারা করানো সম্ভব নয়। তৃতীয় শিক্ষক দরকার। কিন্তু আমরা একা কিছু করতে পারি না। আমাদের এসব সিদ্ধান্ত জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়, অর্থ মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়।

মন্ত্রী বলেন, আমরা যখন এমপিও নীতিমালা সংশোধন করে পাঠাই, তখন অর্থ মন্ত্রণালয় থেকে তৃতীয় শিক্ষকের পদটি অনুমোদন দেওয়া হয়নি। এটা নিয়ে আবার অর্থ মন্ত্রণালয়ে দেন-দরবারে যেতে হবে। আশা করছি, তারা বিষয়টিকে বিবেচনা করবে।

শিক্ষামন্ত্রী আরও বলেন, আমরা এমপিও নীতিমালা রিভিউ করেছিলাম। সেখানেও মাদ্রাসা এবং মাউশির মধ্যে একটা তারতম্য হয়ে গেছে। সেটাকেও আমরা সংযুক্ত করব। তার সঙ্গে তৃতীয় শিক্ষকের বিষয়টিও দেখব।

তিনি বলেন, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় এবং মাউশির তিন-চারটি সিদ্ধান্তের মধ্যে পার্থক্য আছে। সেটাকে সংযুক্ত করার জন্য ইতোমধ্যে আমরা জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় থেকে একটা প্রস্তাবনা পেয়েছি। তারা একটি কমিটি করবে, সেখানে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্য আমাদের দুজন প্রতিনিধিও থাকবে। কমিটি বসলে আশা করছি, দ্রুত এ সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে।


আরও খবর

১০ জুলাই পবিত্র ঈদুল আযহা

শুক্রবার ০১ জুলাই ২০২২




স্ত্রী সুবাহ’র মামলায় ইলিয়াসের বিচার শুরু

প্রকাশিত:রবিবার ১৯ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০২ জুলাই 2০২2 |
Image

অভিনেত্রী শাহ হুমায়রা হোসেন সুবাহকে নির্যাতনের অভিযোগে করা যৌতুকের মামলায় গায়ক ইলিয়াস হোসাইনের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেছেন আদালত। অভিযোগ গঠনের ফলে মামলার আনুষ্ঠানিক বিচার শুরু হয়েছে।

আজ রবিবার ঢাকার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-৭ এর বিচারক আবেরা সুলতানা খানম আসামির বিরুদ্ধে এ অভিযোগ গঠন করেন। ট্রাইবব্যুনালের পেশকার ইসতিয়ার আলম জনি বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে ২৯ মে ঢাকার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-৭ এর বিচারক আবেরা সুলতানা খানম এই মামলার চার্জশিট গ্রহণ করেন। একই সঙ্গে মামলার চার্জ গঠনের জন্য এদিন ধার্য করেন আদালত।

এরআগে চলতি বছরের মার্চ মাসে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পুলিশের নারী সহায়তা ও তদন্ত বিভাগের উপ-পরিদর্শক মাসুমা আফ্রাদ ইলিয়াসকে অভিযুক্ত করে চার্জশিট দাখিল করেন। মামলায় ১১ জনকে সাক্ষী করা হয়েছে।

এ মামলায় উচ্চ আদালতের ছয় সপ্তাহের জামিনে ছিলেন ইলিয়াস। আত্মসমর্পণ করে জামিন শুনানির দিন আদালতে উপস্থিত না হওয়ায় গত ২২ মার্চ ইলিয়াসের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন ঢাকার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-৭ এর ভারপ্রাপ্ত বিচারক জুলফিকার হায়াত।

গত ৩ জানুয়ারি যৌতুকের দাবিতে নির্যাতনের অভিযোগে বনানী থানায় এ মামলা করেন সুবাহ। মামলার অভিযোগ থেকে জানা যায়, গত বছরের সেপ্টেম্বরে সুবাহর সঙ্গে ইলিয়াসের পরিচয়। এরপর তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। তাদের গত বছরের ১ ডিসেম্বর বিয়ে হয়। বিয়েতে সুবাহর পরিবার ইলিয়াসের চাহিদা অনুযায়ী ১২ লাখ টাকা দামের রোলেক্স ব্র্যান্ডের ঘড়িসহ ১৫ লাখ ৭৫ হাজার টাকার যৌতুক দেয়। এতেও সন্তুষ্ট না হয়ে আবারও যৌতুক দাবি করেন ইলিয়াস। এরই মধ্যে সুবাহ জানতে পারেন, ইলিয়াস আগেও একাধিক বিয়ে করেছেন। এছাড়া একাধিক নারীর সঙ্গে তার প্রেমের সম্পর্ক রয়েছে।

সুবাহর কাছে ফ্ল্যাট কেনা বাবদ ৫০ লাখ এবং গাড়ির জন্য আরও ৩০ লাখ টাকা যৌতুক দাবি করেন ইলিয়াস। গত ৯ ডিসেম্বর ইউটিউব চ্যানেল কেনার জন্য সুবাহর মায়ের কাছে আরও ১০ লাখ টাকা যৌতুক দাবি করলে তাকে আড়াই লাখ টাকা দেওয়া হয়। গত ২৭ ডিসেম্বর দুপুরে ফ্ল্যাট ও গাড়ি কেনার জন্য ৮০ লাখ টাকা দেয়ার জন্য সুবাহকে চাপ দেন ইলিয়াস। এ নিয়ে তাদের মধ্যে ঝগড়া হয়। এরই জেরে ওইদিন রাত ৮টার দিকে সুবাহকে শারীরিক নির্যাতন করেন ইলিয়াস। পরদিন আবারও ৮০ লাখ টাকা যৌতুক দাবি করেন।

টাকা দিতে অপারগতা জানালে সুবাহকে আবারও শারীরিক নির্যাতন করেন ইলিয়াস। এতে জখম হন সুবাহ। এরপর সুবাহকে ব্যথার ওষুধের নামে অন্য ওষুধ খাইয়ে দেন ইলিয়াস। এর কিছুক্ষণ পরই অজ্ঞান হয়ে পড়েন তিনি। এ সুযোগে ইলিয়াস আলমারিতে থাকা ২০ লাখ টাকার স্বর্ণালঙ্কার এবং ৫০ হাজার টাকা নিয়ে যান।

সূত্র : বাসস


আরও খবর

শিশুদের সিনেমায় মিথিলা

শুক্রবার ০১ জুলাই ২০২২




স্ত্রীকে আত্মহত্যায় প্ররোনার মামলায় এসআই গ্রেপ্তার

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৪ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০২ জুলাই 2০২2 |
Image

অনুপ সিংহ,নোয়াখালী প্রতিনিধিঃ

 নোয়াখালীর সদর উপজেলায় স্ত্রীকে আত্মহত্যায় প্ররোচনার মামলায় এক উপপরিদর্শক (এসআই) কে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।  

গ্রেপ্তারকৃত উপপরিদর্শক (এসআই) মিজানুর রহমান জাবেদ (৩৬) সদর উপজেলার বিনোদপুর ইউনিয়নের ৫নম্বর ওয়ার্ডের জামালপুর গ্রামের ফরাজি বাড়ির আবুল কাশেমের ছেলে।  সে চট্টগ্রাম জেলার আরআরএফ এ সংযুক্ত রয়েছে।

মঙ্গলবার (১৪ জুন) দুপুর ২টার দিকে সদর উপজেলার বিনোদপুর ইউনিয়নের জামালপুর গ্রামের মনতরাব ফরাজি বাড়ি থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।  

বিষয়টি নিশ্চিত করেন সুধারাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনোয়ারুল ইসলাম। তিনি আরো জানান, গ্রেপ্তারকৃত আসামির বিরুদ্ধে স্ত্রীকে আত্নহত্যায় প্ররোচনার অভিযোগে চট্রগ্রামের হালিশহর থানায় মামলা হয়েছে। ওই মামলায় তাকে নিজ বাড়ি থেকে গ্রেপ্তার করেছে সুধারাম থানার পুলিশ। গ্রেপ্তারকৃত আসামিকে হালিশহর থানার পুলিশের কাছে হস্তান্তরের বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।      

উল্লেখ্য,২০১৪ সালে পারিবারিক ভাবে সুধারাম থানার বিনোদপুর গ্রামের মৃত আবুল কাশেমের ছেলের সাথে বিয়ে হয় কলির। তারা স্বামী-স্ত্রী এক ছেলে এক মেয়েকে নিয়ে চট্রগ্রামের হালিশহরে একটি ভাড়া বাসায় বসবাস করত। তাঁর স্বামী বদ মেজাজী হওয়ায় কারণে-অকারণে স্ত্রীকে মারধর করত। এছাড়া তার স্বামীর সাথে তার বন্ধু বাদশার স্ত্রীর অবৈধ সম্পর্ক রয়েছে বলে সে তার পিতাকে জানায়। পরে গত ২৫ মার্চ শুক্রবার সকালের দিকে চট্টগ্রামের হালিশহরের শান্তিবাগের ৮ নং রোড়ের হক সাহেবের বাসায় এসআই স্বামীর প্ররোচনায় ফাতেমা আক্তার কলি (২৫) আত্মহত্যা করে। নিহত কলির নানা আব্দুল হক মেম্বার জানান, হাসপাতালের মর্গে থেকে লাশ আনতে গিয়ে নিহত কলির শরীরে আঘাতের চিহৃ রয়েছে। এ ঘটনায় ২৭ মার্চ সকালে নিহতের পিতা আহছান উল্যাহ বাদী হয়ে তাঁর মেয়ে আত্মহত্যায় প্ররোচনা ও সহায়তার দায়ে তাঁর স্বামী ও তাঁর বন্ধুসহ ৫ জনকে আসামি করে চট্রগ্রামের হালিশহর থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলা নং-৩০।


আরও খবর



রায়গঞ্জের চকঁনুর চারমাথার ব্রিজটি যেন মরণ ফাঁদ

প্রকাশিত:বুধবার ২২ জুন 20২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০২ জুলাই 2০২2 |
Image
সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি: সিরাজগঞ্জের রায়গঞ্জ উপজেলার ৮ নং পাঙ্গাসী ইউনিয়নের চকঁনুর চারমাথা থেকে গোঁতগাতী রাস্তায় যে ব্রিজটি রয়েছে তা মরণ ফাঁদে পরিণত হয়েছে।

যেকোনো সময় ঘটতে পারে বড় ধরনের দূর্ঘটনা। ব্রিজটির দু,পাশের দু' টি পাখা ভেঙ্গে পড়েছে। সাইটের মাটি সরে গেছে। জীবনের ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করছে এ পথের শত শত শিক্ষার্থী।

এছাড়াও এই ব্রিজ দিয়ে চলাচল করছে বিভিন্ন ধরনের যানবাহন। তাছাড়া প্রতিদিন হাজারো মানুষ এই ব্রিজের ওপর দিয়ে আসা-যাওয়া করছে। বলা চলে দিন দিন ব্রিজটি নরবড়ে হয়ে যাচ্ছে।

স্হানীয় বেশ কয়েক জন বাসিন্দার সাথে কথা বলে জানা যায়, দীর্ঘদিন সংস্কার না করা এবং রক্ষণাবেক্ষণের অভাবে চলাচলের জন্য ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে। ব্রিজটির এমন ভগ্নদশা হলেও ব্রিজটি সংস্কারে কারো কোনো মাথাব্যথা নেই। সংশ্লিস্ট কর্তৃপক্ষও নিচ্ছে না কোনো কার্যকর পদক্ষেপ।

এমতাবস্হায় উপজেলার হাটপাঙ্গাসী আন্চলিক মহাসড়ক চকঁনুরের চারমাথা থেকে গোতগাতী রাস্তার ব্রিজটি ভেঙ্গে নতুন একটি ব্রিজ নির্মাণ অথবা উক্ত ব্রিজটি সংস্কার করার জন্য সংশ্লিস্ট কর্তৃপক্ষের নিকট জোড় দাবি জানিয়েছেন অত্র এলাকাবাসী।

আরও খবর



লালমনিরহাটে মাইক্রোবাসে,১৭ কেজি গাঁজাসহ

কুড়িগ্রামের ৪ মাদক কারবারি গ্রেফতার করেছে র‍্যব

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৭ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০২ জুলাই 2০২2 |
Image

নিজস্ব প্রতিনিধি, লালমনিরহাট: 

গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‍্যব-১৩) রংপুর,  লালমনিরহাটের কালীগঞ্জের কাকিনায় ১৭ কেজি গাঁজাসহ চারজন মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে।সোমবার (৬ জুন) দুপুরে এক প্রেস বিজ্ঞাপ্তিতে এ তথ্য নিশ্চিত করেন রংপুর র‍্যব ১৩ এর সিনিয়র সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) ফ্লাইট লেফটেন্যান্ট মাহমুদ বশির আহমদ।

 রোববার (৫ জুন) রাতে লালমনিরহাট-বুড়িমারী মহাসড়কের কাকিনা কবি শেখ ফজলুল করিমের ফলকের সামনে থেকে তাদের আটক করা হয়।আটককরা হলেন, কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ি উপজেলার ইকবাল হোসেন (৩৪), আজিমুল হক (৩৭), মুসা মিয়া (২২) ও সুমন মিয়া (১৫)।র‍্যাব জানায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে রোববার রাতে কাকিনা কবি শেখ ফজলুল করিমের নাম ফলক এলাকায় অভিযান চালায় রংপুর র‍্যাব ১৩ এর একটি দল। এসময় সন্দেহজনকভাবে রংপুরগামী একটি মাইক্রোবাস আটক করে তল্লাশী চালানো হলে ১৭ কেজি গাঁজা জব্দ করে র‍্যাব। সেই সঙ্গে চারজন মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করা হয়।

মাইক্রোবাসটি জব্দ করে মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে আটকদের বিরুদ্ধে কালীগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করে পুলিশে সোপর্দ করা হয়েছে বলেও জানান তিনি


আরও খবর