Logo
শিরোনাম

ইফতার করালে রোজার সমান সওয়াব

প্রকাশিত:বুধবার ২০ এপ্রিল ২০22 | হালনাগাদ:সোমবার ১৬ মে ২০২২ | ২৮০জন দেখেছেন
Image

রমজান মাসে মহানবী (সা.) অত্যধিক দান করতেন। তাই সাহাবায়ে কেরাম ও সালাফে সালেহিনও বেশি বেশি দান করতেন। প্রখ্যাত সাহাবি আবদুল্লাহ ইবনে আব্বাস (রা.) বলেন, ‘আল্লাহর রাসুল (সা.) মানুষের মধ্যে সবচেয়ে দানশীল ছিলেন। আর রমজান মাসে যখন জিবরাইল (আ.) তাঁর সঙ্গে সাক্ষাৎ করতেন তখন তিনি আরো বেশি দান করতেন।

জিবরাইল (আ.) রমজানের প্রতি রাতে তাঁর সঙ্গে সাক্ষাৎ করতেন। তখন আল্লাহর রাসুল (সা.) তাঁকে কোরআন পাঠ করে শোনাতেন। আল্লাহর রাসুল (সা.)-এর সঙ্গে যখন জিবরাইল (আ.) দেখা করতেন, তখন তিনি মানুষের কল্যাণে প্রবহমান বাতাসের চেয়েও বেশি দান করতেন। (বুখারি, হাদিস : ৩২২০)
দানের মাধ্যমে মানুষের পাশে দাঁড়ানোর অনেক বড় সুযোগ মেলে। মহান আল্লাহ দানের পরিপূর্ণ প্রতিদানের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। কোরআনে ইরশাদ হয়েছে, ‘বলুন, আমার রব বান্দাদের মধ্যে যাকে ইচ্ছা তার রিজিক বৃদ্ধি করেন এবং যাকে ইচ্ছা তার রিজিক সীমিত করেন, তোমরা যা কিছু ব্যয় করবে তিনি এর প্রতিদান দেবেন, তিনিই সর্বোত্তম রিজিকদাতা। ’ (সুরা সাবা, আয়াত : ৩৯)

রমজানে দানের একটি দিক হলো রোজাদারকে ইফতার করানো। রোজাদারকে ইফতার করালে রোজার সমান সওয়াব পাওয়া যায়। রাসুল (সা.) ইরশাদ করেছেন, ‘যে ব্যক্তি কোনো রোজাদারকে ইফতার করাবে সে ওই রোজাদারের সমপরিমাণ সওয়াব পাবে। এবং রোজাদারের সওয়াবও কমানো হবে না। ’ (তিরমিজি, হাদিস : ৮০৭; ইবনে মাজাহ, হাদিস : ১৭৪৬)

মহান আল্লাহ আমাদের আমল করার তাওফিক দান করুন।


আরও খবর

গৌতম বুদ্ধের জন্মদিন আজ

রবিবার ১৫ মে ২০২২

হজের নিবন্ধন শুরু সোমবার

শুক্রবার ১৩ মে ২০২২




কু‌মিল্লা লালমাইয়ে বজ্রপাতে কৃষকের মৃত্যু

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৬ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ১৪ মে ২০২২ | ৬০জন দেখেছেন
Image

নিজস্ব প্রতিবেদক ,কু‌মিল্লা

কুমিল্লার লালমাই উপজেলার পেরুল উত্তর ইউনিয়নের  মাতাইনকোটে বজ্রপাতে আবু তাহের (৪০) নামে একজন কৃষক  মারা গেছেন।                                           ৬ মে (শুক্রবার) বিকেল সা‌ড়ে ৫ টায় মাতাইনকোট কমপ্লেক্সে উত্তর দিকের ফসলি মাঠে এ দূর্ঘটনা ঘটে। 

কৃষক আবু তাহের ওই গ্রামের মৃত তাজুল ইসলামের ২য় ছেলে। মৃত্যুকালে তিনি ১ স্ত্রী, ২ ছেলে ও ২ মেয়ে রেখে গেছেন।            শুক্রবার বিকালে তিনি নিজের ক্ষেতের কাটা বোরো ধান বৃষ্টি থেকে রক্ষা করতে কাজ করছিলেন।

স্থানীয় পেরুল উত্তর ইউপি চেয়ারম্যান আবুল বাশার জানান, বজ্রপাতে আমার ইউনিয়নের মাতাইনকোট গ্রামের আবু তাহের নামের একজন কৃষক মারা গেছেন। খবর পেয়েই আমি কৃষকের বাড়ীতে এসেছি।


আরও খবর



জুমাতুল বিদায় মসজিদে মসজিদে মুসল্লিদের ঢল

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৯ এপ্রিল ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ১৬ মে ২০২২ | ৯২জন দেখেছেন
Image

ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে এবং ইহকাল ও পরকালের মুক্তি কামনায় আজ শুক্রবার সারাদেশে পবিত্র জুমাতুল বিদা পালিত হয়েছে। পবিত্র রমজান মাসের শেষ শুক্রবার জুমাতুল বিদা হিসেবে প্রতিবছর পালন করেন মুসলমানরা। রমজান মাসজুড়ে রোজা রাখা আর ইবাদত-বন্দেগির অংশ হিসেবে এদিন নাজাত প্রার্থনা করেন সবাই। রাজধানীসহ বিভাগীয় ও জেলা শহরের প্রধান প্রধান মসজিদে ছিল না তিল ধারণের ঠাঁই। গ্রামে-গঞ্জেও ছিল নামাজিদের অভূতপূর্ব উদ্দীপনা। সকল পর্যায়ের কোটি মানুষ ছুটে আসেন রমজানের মহাসম্মানিত শেষ জুমায় শরিক হতে। রাজধানীর মসজিদগুলোতে লাখো মানুষের স্বতঃস্ফূর্ত ও ধর্মীয় আবেগভরা উপস্থিতি ছিল চোখে পড়ার মতো। আল্লাহর রহমত বরকত নাজাত প্রত্যাশী নানা বয়সী মানুষ যেন ¯্রােতের গতিতে ছুটে এসেছিলেন বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদ, মহাখালী মসজিদে গাউসুল আজম, গুলশান আজাদ মসজিদ, ধানমন্ডি সেন্ট্রাল মসজিদ, সোবহানবাগ মসজিদ, এলিফ্যান্ট রোড মসজিদ, বনানী বাজার মসজিদ, মহাখালী বায়তুল মাহফুজ, মিরপুর কাজীপাড়া জামে মসজিদ, শেওড়াপাড়া বড় মসজিদ, ১১নং কেন্দ্রীয় মসজিদ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় মসজিদ, মতিঝিল ওয়াপদা মসজিদ, কাওরান বাজার আম্বারশাহ ও হাইকোর্ট মাজার মসজিদসহ রাজধানীর বিভিন্ন এলাকার জামে মসিজদগুলোয়।

গতকাল জুমার আজানের আগে থেকেই মুসুল্লিগণ মসজিদে সমবেত হতে শুরু করেন। জুমাতুল বিদার জামাতে প্রায় সকল মসজিদই ছিল পূর্ণ। ভবনের ছাদ-বারান্দা ভরে নামাজিদের কাতার চলে যায় সড়কে। নামাজ শেষে মসজিদে মসজিদে হয় দীর্ঘ মুনাজাত। খতিবগণের বিশেষ মুনাজাতের সময় ছিল আমিন আমিন ধ্বনি আর গুনাহ মাফ চেয়ে আল্লাহর কাছে কান্না। ভাবগম্ভীর ইবাদত ও মুনাজাত গোটা রাজধানীর পরিবেশকে মোহিত করে তুলেছিল। পবিত্র আবহ বিরাজ করছিল মসজিদ নগরী ঢাকায়। প্রাণের উচ্ছ্বাসে আর হৃদয়ের টানে মসজিদে ছুটে আসা মানুষ অভিবাসী নির্যাতিত মুসলিম ভাইবোন ও শিশুদের জন্য প্রার্থনা করেন। বাংলাদেশের উন্নয়ন-সমৃদ্ধি ও জাতির সর্বাঙ্গীণ মুক্তি-সাফল্যের পথে সকল বাধা দূর করা, দুর্নীতি-লুটপাট, অন্যায়-অত্যাচার, অযোগ্যতা-দায়িত্বহীনতায় পূর্ণ নেতৃবৃন্দের হেদায়েত জন্যও আল্লাহর দরবারে দোয়া করেন। মুনাজাতে দেশের ঘৃণ্য রাজনীতির ব্যর্থতার চক্র থেকে উত্তরণ, অভিশপ্ত দুর্বৃত্তায়নের করাল গ্রাস থেকে পরিত্রাণ লাভ এবং বিশ্বময় উন্নতির যুগে, বাংলাদেশের অকর্মা, দুর্বৃত্ত ও লুটেরা চক্রের হাত থেকে মুক্তি পাওয়ার পথ বের হওয়ার জন্য আল্লাহর রহমত ও করুণা কামনা করা হয়।
চট্টগ্রামে মসজিদে ধর্মপ্রাণ মানুষের ঢল
চট্টগ্রাম ব্যুরো জানায়, মাহে রমজানের শেষ জুমা জুমাতুল বিদা উপলক্ষ্যে চট্টগ্রামের মসজিদে মসজিদে ধর্মপ্রাণ মুসল্লিদের ঢল নামে। মহানগরী ও জেলার মসজিদগুলোতেও ছিল ব্যাপক উপস্থিতি। মসজিদে স্থান সংকুলান না হওয়ায় অনেকে রাস্তায় জুমার নামাজ আদায় করেন। এসময় বিভিন্ন মসজিদ এলাকায় সড়কে যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। নামাজ শেষে দেশ ও জাতির কল্যাণ এবং মুসলিম উম্মাহর ঐক্য ও শান্তি কামনা করে বিশেষ মোনাজাত পরিচালনা করা হয়। সেখানে মহান আল্লাহর কাছে দু’হাত তুলে দোয়া কামনা করেন ধর্মপ্রাণ মুসল্লিরা।
জুমাতুল বিদায় নগরীর আন্দরকিল্লা শাহি জামে মসজিদে হাজারো মুসল্লি অংশ নেন হন। মসজিদের আঙিনা, ছাদ ছাড়িয়ে মুসল্লিদের উপস্থিতি এসে পড়ে সামনের সড়কের অনেকদূর পর্যন্ত। নামাজ শুরুর আগে প্রচ- খরতাপ মুসল্লিদের ভোগালেও নামাজ শুরু হতে হতেই হালকা বৃষ্টি সবার মাঝে যেনো প্রশান্তির ছোঁয়া নিয়ে আসে। নগরীর জমিয়াতুল ফালাহ মসজদি, লালদীঘি জামে মসজিদ, বায়তুশ শরফ জামে মসজিদ, চট্টেশ্বরাই গায়েবি মসজিদ, সিজিএস কলোনী জামে মসজিদ, মুরাদপুর মসজিদে বেলাল, অলি খাঁ জামে মসজিদ, চন্দপুরা শাহী জামে মসজিদ, বহদ্দারহাট জামে মসজিদসহ নগরীর প্রায় সব মসজিদে তিল ধারণের ঠাঁই ছিলো না। নামাজের আগে জুমাতুল বিদা ও রমজানের তাৎপর্য নিয়ে বিশেষ খুতবা দেন ইমাম ও খতিবেরা।
খুলনাতে জুমাতুল বিদা পালিত
খুলনা ব্যুরো জানায়, খুলনাতেও পালিত হল জুমাতুল বিদা বা রমজানের শেষ জুমা। রোজাদার মুসল্লীগণ জুমা আদায়ের জন্য মসজিদে একত্রিত হন। ঈমামগণ খুৎবা দানকালে রমজান মাসের শেষ জুমার, শাবে কদরের ও ফিতরার গুরুত্ব ও ফজিলত সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করেন। জুমার নামাজ শেষে মুসল্লিরা দু’হাত তুলে আল্লাহর কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করেন। খুলনার টাউন জামে মসজিদে জুমাতুল বিদার খুৎবা দেন মসজিদের খতিব মাওলানা মোহাম্মদ সালেহ। খুলনার প্রত্যেকটি মসজিদে নামাজ শেষে বিশেষ মুনাজাত পরিচালনা করা হয়। এসময় মসজিদে মুসল্লিদের উপচে পড়া ভীড় দেখা যায়। কেউ কেউ শেষ রাতে কবরস্থানে গিয়ে কবর জিয়ারাত করে মৃত আত্মীয় স্বজনের কবর জিয়ারত করে তাদের রুহের মাগফিরাত কামনা করেন।
বগুড়ায় মুসল্লিদের উপচে পড়া ভীড়
বগুড়া অফিস জানান, পবিত্র রমজান মাসের শেষ জুমাহ জুমাতুল বিদা’র জামায়াতগুলোতে বগুড়ার মসজিদগুলোতে ছিল মুসল্লিদের উপচে পড়া ভীড়।
বগুড়ার মহাস্থান গড় জামে মসজিদ, বগুড়া কেন্দ্রিয় জামে মসজিদ, বগুড়া সেন্ট্রাল জামে মসজিদসহ ছোট বড় সব মসজিদেই দেখা যায় হাজার হাজার মুসল্লি মসজিদের ভিতরে যায়গা না পেয়ে আশেপাশের রাস্তায় জায়নামাজ বিছিয়ে বসে পড়ে।
হাজীগঞ্জ বড় মসজিদে লাখো মানুষের ঢল
চাঁদপুর জেলা সংবাদদাতা সংবাদদাতা জানান, চাঁদপুরের হাজীগঞ্জ ঐতিহাসিক বড় মসজিদে জুমা’তুল বিদায় লাখো মানুষের ঢল নামে। সকাল থেমে থেমে বৃষ্টি ও বিশাল জামায়াতকে রুখতে পারেনি। গুড়ি গুড়ি বৃষ্টির মধ্যে সকাল ১০টার পর থেকে হাজীগঞ্জের প্রত্যান্ত অঞ্চল ও জেলা শহর থেকে মুসল্লিরা এসে নামাজ পড়ার জন্য জায়গা নেয়। মসজিদ, মসজিদের ছাদ, কওমী মাদরাসা ১-৬ তালা, হাজীগঞ্জ প্লাজা, হাজীগঞ্জ টাওয়ার, হাজীগঞ্জ পৌর সুপার মার্কেটের ২য় ও তৃতীয় তলা, বিভিন্ন মার্কেটের ওলিগলি পূর্ণ হয়ে যখন নামাজ শুরু হয় তখন চাঁদপুর-কুমিল্লা সড়কে মুসল্লিরা দাঁড়িয়ে পড়লে নামাজের সময় সড়কটি বন্ধ থাকে। জুমাতুল বিদার নামাজ সুষ্ঠ ও সুন্দর ভাবে সম্পন্ন করতে মসজিদ কর্তৃপক্ষ, পৌরসভা ও পুলিশ প্রশাসনের আগে থেকে প্রস্তুত থেকে সেবা প্রদান করে। এ ছাড়া ২০টি স্বেচ্ছাসেবী প্রতিষ্ঠান কাজ করে। নামাজ শেষে মুসলিম উম্মা ও বিশ্ব শান্তি কামনা করে বিশেষ মোনাজাত পরিচালনা করেন হাজীগঞ্জ ঐতিহাসিক বড় মসজিদের পেশ ইমাম ও খতিব হাফেজ মাওলানা মুফতি আবদুর রউফ।
গফরগাঁওয়ে জমাতুলবিদা পালিত
গফরগাঁও উপজেলা সংবাদদাতা জানান, পবিত্র মাহে রমজানের শেষ শুক্রবার পবিত্র জমাতুল বিদা গফরগাঁও উপজেলার পৌরসভাসহ বিভিন্ন মসজিদে পালিত হয়েছে। প্রতিটি মসজিদে মুসুল্লিদের উপচে পড়া ভীর ছিল। কোথাও জায়গা নেই। সকলস্তরে মুসুল্লিরা জুমা নামাজে অংশ নেয়। এ উপলক্ষে প্রতিটি মসজিদে বিশেষ মোনাজাত করা হয়।
রাজশাহীতে জুমাতুল বিদা পালিত
রাজশাহী ব্যুরো জানান, ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের মধ্যদিয়ে শুক্রবার রাজশাহীতে পালিত হয়েছে পবিত্র জুমাতুল বিদা। জুমার আজানের পর রাজশাহী কেন্দ্রীয় শাহ্ মখদুম (র.) দরগা মসজিদ, সাহেব বাজার বড় মসজিদ ও হেতেম খাঁ মসজিদ, সোনাদিঘী মসজিদসহ নগরীর সব মসজিদে নামাজে মুসল্লিদের ভীড় লক্ষ্য করা যায়। জুমাতুল বিদাকে কেন্দ্র করে নামাজ শুরুর আগেই সব মসজিদ কানায় কানায় ভরে যায়। ঠাঁই না হওয়ায় অনেকেই বাইরে নামাজ আদায় করেন। জুমাতুল বিদার খুতবায় উচ্চারিত হয় ‘আলবিদা, আলবিদা, ইয়া শাহর রামাদান। অর্থাৎ বিদায়, বিদায় হে মাহে রমজান। জুমার দুই রাকাত নামাজ শেষে রাজশাহীসহ গোটা দেশ ও জাতির সুখ সমৃদ্ধি, কল্যাণ ও মুসলিম উম্মাহর ঐক্য ও শান্তি এবং কল্যাণ কামনা করে বিশেষ মোনাজাত করা হয়। নামাজ আদায়ের পর মহানগরের টিকাপাড়া, কাদিরগঞ্জ, হেতেম খাঁ, গৌরহাঙ্গাসহ বিভিন্ন কবরস্থানে বাবা-মা ও আত্মীয়-স্বজনের কবর জিয়ারত করতে যান। এ মাসের শেষ জুমার দিন পালিত হয় আল কুদস দিবস।
বরিশাল ব্যুরো জানায়, পবিত্র জুমাতুল বিদা নামাজে গতকাল বরিশালসহ দক্ষিণাঞ্চলের মসজিদে মসজিদে মুসল্লিদের ঢল নামে।
জুমাতুল বিদা উপলক্ষে গতকাল দক্ষিণাঞ্চলে সর্ববৃহৎ জামাত অনুষ্ঠিত হয় ফরিদপুরের বিশ্ব জাকের মঞ্জিলে। দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে হাজার হাজার জাকেরান ও আশেকানবৃন্দ বিশ্ব জাকের মঞ্জিল জামে মসজিদে জুমাতুল বিদার নামাজ আদায় করেন। পরে বিশ্ব জাকের মঞ্জিলের পীর ছাহেব খাজাবাবা ফরিদপুরী নকসবন্দী মুজাদেদ্দী (কু:ছে:আ:) ছাহেবের রওজা শরিফ জিয়ারতের নিয়তে ফাতেহা শরিফ পাঠান্তে বিশেষ মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়।
বরিশালের চরমোনাই দরবার শরিফ মসজিদ, পিরোজপুরের ছারছীনা দরবার শরিফ মসজিদ এবং ঝালকাঠীর নেছারাবাদ দরবার শরিফ মসজিদ ও মোকামিয়া দরবার শরিফ মসজিদ ছাড়াও জামে বরিশাল মহানগরীর এবাদুল্লাহ মসজিদ, জামে কসাই মসজিদ, বায়তুল মোকাররম মসজিদসহ নগরীর বিভিন্ন মসজিদে জুমাতুল বিদার বড় জামাত অনুষ্ঠিত হয়।

আরও খবর

গৌতম বুদ্ধের জন্মদিন আজ

রবিবার ১৫ মে ২০২২

হজের নিবন্ধন শুরু সোমবার

শুক্রবার ১৩ মে ২০২২




মটরসাইকেলের দখলে শিমুলিয়া ঘাট

প্রকাশিত:শনিবার ৩০ এপ্রিল ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ১৬ মে ২০২২ | ১০৫জন দেখেছেন
Image

মুন্সিগঞ্জের শিমুলিয়া ঘাটে সাহরির পর থেকে যাত্রীদের উপচে পড়া ভিড় পড়েছে। শনিবার (৩০ এপ্রিল) শিমুলিয়া ঘাটে মোটরসাইকেলের দীর্ঘ সারি দেখা গেছে।

সকাল ১০টার দিকে শিমুলিয়া ঘাট থেকে মোটরসাইকেল নিয়ে একের পর এক ফেরি ছেড়ে যাচ্ছে। তারপরও ১ নং ঘাটের কাছে মোটরসাইকেলের লম্বা সারি রয়েছে।

ঘাট ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, শনিবার সাহরির পর থেকেই মোটরসাইকেল নিয়ে যাত্রীরা শিমুলিয়া ঘাটে এসে ভিড় করে। এ ছাড়া লঞ্চ ও স্পিডবোট ঘাটে মানুষ গাদাগাদি করে লঞ্চ ও স্পিডবোটে উঠছে। তারা দীর্ঘ লাইনে দাঁড়িয়ে লঞ্চ স্পিডবোটে পদ্মা পার হচ্ছে।

যশোরগামী যাত্রী মো. মামুন জানান, দুই ঘণ্টা হয় মোটরসাইকেল নিয়ে সিরিয়ালে দাঁড়িয়ে আছি। আমি ঢাকায় একটা ব্যবসা করি। প্রিয়জনদের সঙ্গে ঈদ করতে করতে গ্রামে যাচ্ছি।

লঞ্চঘাটে যাত্রী সুফিয়া জানান, ঘাটে এসেছি আধঘণ্টা হয়েছে। গাদাগাদি করে লাইনে দাঁড়িয়ে লঞ্চের দিকে এগোচ্ছি। জানি না কখন পৌঁছাব।

তবে শিমুলিয়া ২ ও ৩ নং ফেরিঘাট দিয়ে ছোট গাড়ি পারাপার করা হচ্ছে। ওই সব ঘাটে মানুষের তেমন কোনো ভিড় নেই বললেই চলে। তবে ঘাটে পারাপারের অপেক্ষায় এখনো ৫ শতাধিক গাড়ি রয়েছে।

বিআইডব্লিটিএ কর্মকর্তা মো. সোলাইমান বলেন, সকাল থেকেই এ ঘাট থেকে ৮৫টি লঞ্চ এবং ১৫৫টি স্পিডবোট চলছে। ঘাটে প্রচণ্ড যাত্রী চাপ রয়েছে।

মাওয়া ঘাটের ট্রাফিক পুলিশ আমিনুর রহমান বলেন, সকালে ঘাটে প্রচণ্ড যাত্রীর চাপ ছিল। এখন কিছুটা কমেছে। সকাল থেকে কয়েক হাজার মোটরসাইকেল পার হয়েছে।

শিমুলিয়া ঘাটের সহকারী ব্যবস্থাপক (বাণিজ্য) ফয়সাল আহমেদ বলেন, সকালে লঞ্চ চালু হওয়ার আগে কিছুটা মানুষের চাপ ছিল। পরে সেটা এখন আর তেমন নেই। তবে ঘাটে পারাপারের অপেক্ষায় ৫ শতাধিক ছোট যানবাহন রয়েছে। শিমুলিয়া ঘাট হতে ১০টি ফেরি চলাচল করছে।


আরও খবর



আজ গাজীপুর জেলা আ.লীগের বর্ধিত সভা : পুষ্প মাল্যে প্রস্তুত সুশোভিত মঞ্চ

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২১ এপ্রিল ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ১৬ মে ২০২২ | ১৩০জন দেখেছেন
Image

সদরুল আইনঃ

             আগামি ১৯ মে'র ত্রি-বার্ষিক সম্মেলণ সফল করতে আজ বৃহস্পতিবার অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে গাজীপুর জেলা আ.লীগের বিশেষ বর্ধিত সভা।ইতিমধ্যেই বর্ধিত সভার মঞ্চ দৃষ্টিনন্দন নান্দনিকরুপে প্রস্তত করা হয়েছে পুষ্প মঞ্জুরীতে।

এই বর্ধিত সভায় দলটির দায়িত্বপ্রাপ্ত ঢাকা বিভাগীয় কেন্দ্রিয় নেতাদের উপস্থিত থাকার কথা রয়েছে।

গাজীপুর জেলা আ.লীগের দপ্তর সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন দেলু প্রেরিত এবং সাধারন সম্পাদক ইকবাল হোসেন সবুজ এমপি সাক্ষরিত এক পত্র থেকে জানা গেছে, আজ বৃহস্পতিবার(২১ এপ্রিল '২২) সকাল ১১ টায় জেলা পরিষদ অডিটরিয়ামে এই বর্ধিত সভাটি অনুষ্ঠিত হবে।

সভায় জেলা আ.লীগের সকল পর্যায়ের নেতাদেরকে যথাসময়ে উপস্থিত থাকার জন্য বিশেষভাবে অনুরোধ জানানো হয়েছে।

এদিকে জেলা আ.লীগের বর্ধিত সভাকে ঘিরে কতিপয় নেতা শো'ডাউন করতে এবং নিজের জনপ্রিয়তার প্রমান রাখতে তার অনুসারিদের ব্যাপক উপস্থিতি বাড়াতে নির্দেশ দিয়েছেন বলে বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে।

অতি উৎসাহী একটি মহল আসন্ন সম্মেলণে পদ প্রাপ্তির নিশ্চয়তা পেয়েছেন এমন ধারনা থেকে এই শো'ডাউন করতে যাচ্ছেন এমন জনশ্রুতি চাউর হয়ে পড়েছে বুধবার অনেক এলাকায়।সেইসব নেতার অনুসারিরা উজ্জীবিত বলে জানা গেছে।

ধারনা করা হচ্ছে আঝকের বর্ধিত সভা থেকে ১৯ মে'র ত্রি-বার্ষিক সম্মেলণে কারা হচ্ছেন সভাপতি সাধারন সম্পাদক এমন একটি ইঙ্গিত মিলতে পারে আগত কেন্দ্রিয় নেতাদের নিকট থেকে।

দলটির বিভিন্ন পর্যায়ের নেতা কর্মিরা মনে করছেন, যেহেতু বর্ধিত সভায় দায়িত্বপ্রাপ্ত কেন্দ্রিয় নেতারা আসছেন,সেকারনে তারা দলিয় প্রধানের কোন গোপন নির্দেশণা জানিয়ে দিতে পারেন আজকের বর্ধিত সভায় জেলার বর্তমান শীর্ষ নেতাদেরকে।


আরও খবর



কুসিক দায়িত্বে থাকবেন প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা

প্রকাশিত:রবিবার ১৫ মে ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ১৬ মে ২০২২ | ১৮জন দেখেছেন
Image

 নিজস্ব প্রতি‌বেদক,কুমিল্লা 

 কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশনের মেয়রের মেয়াদ শেষ হবে আগামী ১৬‌মে। তারপর থেকে সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশনের প্রশাসনিক ও আর্থিক ক্ষমতার দায়িত্ব পালন করবেন।

১১ মে স্থানীয় সরকার বিভাগের উপসচিব মোহাম্মদ শামছুল আলম স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহীকে দায়িত্ব গ্রহণের অফিস আদেশ দেয়া হয়।

অফিস আদেশে জানানো হয়, স্থানীয় সরকার (সিটি কর্পোরেশন) আইন ২০০৯ এর ৬ ধারা অনুযায়ী, কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশনের মেয়াদ আগামী ১৬ মে ২০২২ তারিখ উত্তীর্ণ হবে। বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন ইতোমধ্যে উক্ত সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচনী তফসিল ঘোষণা করা হয়েছে।

স্থানীয় সরকার (সিটি কর্পোরেশন) সংশোধন আইন ২০১১ এবং ২০১২ এর ধারা ২৫ অনুযায়ী, নির্বাচিত নতুন মেয়র দায়িত্ব গ্রহণের আগ পর্যন্ত কুমিল্লা সিটির সব প্রশাসনিক ও আর্থিক ক্ষমতা এই করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তাকে দেয়া হয়েছে।

শনিবার অফিস আদেশ প্রাপ্তির বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ড. সফিকুল ইসলাম।

তিনি জানান, ১১ মে তিনি অফিস আদেশ পেয়েছেন। সেই আদেশ বাস্তবায়নে কাজ চলছে।


আরও খবর