Logo
শিরোনাম

ইউক্রেনে রাশিয়ার রাজনৈতিক পরিকল্পনা ব্যর্থ হয়েছে, দাবি যুক্তরাজ্যের

প্রকাশিত:শনিবার ১৪ মে ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ১৬ মে ২০২২ | ২৯জন দেখেছেন
Image

ইউক্রেন যুদ্ধ নিয়ে নিয়মিত গোয়েন্দা তথ্য প্রকাশ করছে যুক্তরাজ্য। শনিবার সর্বশেষ প্রকাশিত গোয়েন্দা প্রতিবেদনে  যুক্তরাজ্য দাবি করেছে, ইউক্রেনে রাশিয়ার রাজনৈতিক পরিকল্পনা ব্যর্থ হয়েছে।

ব্রিটিশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের গোয়েন্দা তথ্যে বলা হয়, রাশিয়া শুধুমাত্র ইউক্রেনের খেরসন অঞ্চলে মস্কোপন্থী নেতা বসাতে সক্ষম হয়েছে। এর মাধ্যমে প্রমাণিত হয়, ইউক্রেনে তাদের রাজনৈতিক উদ্দেশ্য ব্যর্থ হয়েছে।

যুক্তরাজ্যের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, খেরসন অঞ্চলে রাশিয়া সামরিক প্রশাসক নিয়োগ দিয়েছে। মস্কো গণভোটের মাধ্যমে অঞ্চলটিকে তাদের সঙ্গে যুক্ত হতে বলেছে। গণভোট অনুষ্ঠিত হলে রাশিয়া সুকৌশলে তাদের স্বপক্ষে ফলাফল নিয়ে আসবে বলেও প্রতিবেদনে দাবি করা হয়েছে।

তবে ইউক্রেনের শুধুমাত্র একটি অঞ্চলে রাশিয়া এটা করতে সক্ষম হলেও অধিকাংশ অঞ্চলে ব্যর্থ হয়েছে বলে প্রতিবেদনে বলা হয়েছে। সূত্র: বিবিসি


আরও খবর



দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা চুয়াডাঙ্গায়, ঢাকায় ৩৬.৪ ডিগ্রি

প্রকাশিত:সোমবার ২৫ এপ্রিল ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ১৬ মে ২০২২ | ৮৬জন দেখেছেন
Image

চুয়াডাঙ্গায় দেশের সর্বোচ্চ ৪১ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে। এছাড়া রাজশাহীতে ৪০ ডিগ্রি, খুলনায় ৩৮.৫ ডিগ্রি এবং ঢাকায় ৩৬.৪ ডিগ্রী সে. সেলসিয়াস তাপমাত্রার রেকর্ড করা হয়েছে। রোববার (২৪ এপ্রিল) আবহাওয়া অধিদপ্তরের ওয়েব সাইটে এ তথ্য প্রকাশ করা হয়েছে।

চুয়াডাঙ্গা:

জানা গেছে, তীব্র গরম ও রোজার কারণে খুব প্রয়োজন ছাড়া বাইরে বের হচ্ছে না কেউ। জেলার রাস্তাঘাটও অন্যান্য দিনের তুলনায় ফাঁকা দেখা যায়। ডায়রিয়াসহ বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হচ্ছে মানুষ। রোদের তেজে খুব প্রয়োজন ছাড়া ঘর থেকে বের হচ্ছেন না কেউ। একটু স্বস্তির জন্য গাছের ছায়ায় আশ্রয় নিচ্ছেন অনেকেই। তীব্র গরমে সব চেয়ে বেশি দুর্ভোগে পড়েছেন খেটে খাওয়া নিম্ন আয়ের মানুষগুলো।

চুয়াডাঙ্গা শহরের ভ্যান-চালক আঃ হালিম জানান, গত কয়েকদিন থেকে খুব গরম পড়ছে। ভ্যান নিয়ে বাইরে আসা যাচ্ছে না। শরীর ঘেমে জামা ভিজে যাচ্ছে। রোজার মধ্যে ভ্যান চালাতে খুব কষ্ট হচ্ছে। কিন্তু সামনে ঈদ কিছুই করার নেই। পরিবারের সদস্যদের কথা ভেবে আয় করতে বাইরে আসতে হচ্ছে।

চুয়াডাঙ্গা আঞ্চলিক আবহাওয়া অফিসের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সামাদুল হক জানান, গত কয়েক দিন থেকে চুয়াডাঙ্গা ও এর আশপাশ এলাকার ওপর দিয়ে মাঝারি থেকে তীব্র তাপপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে। আজ রোববার সন্ধ্যা ৬টায় জেলার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ৪১ ডিগ্রি সেলসিয়াস। যা দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা।

রাজশাহী:

রাজশাহীতে কয়েকদিনের ব্যবধানে তাপমাত্রা আবারও ৪০ দশমিক ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে।

অথচ আগের দিন  রাজশাহীর সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৮ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। অর্থাৎ একদিনের ব্যবধানে রাজশাহীতে তাপমাত্রা বেড়েছে ১ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

বাইরে বের হওয়া লোকজন জানান, সকাল থেকেই রোদ তো নয়, যেন সূর্য আকাশ থেকে আগুন ঝড়াচ্ছে। এতে অতিমাত্রা যোগ করেছে পদ্মার বুকে জেগে ওঠা বিশাল বালু চর থেকে ধেয়ে আসা আগুনের মত উত্তপ্ত বাতাস। যাকে স্থানীয়ভাবে বলা হচ্ছে, ‘লু’ হাওয়া।

গত ১৫ এপ্রিল বিকেল ৩টায় রাজশাহীর তাপমাত্রা ৮ বছরের রেকর্ড ভেঙে ৪১ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াসে ওঠে। এর আগে ২০১৪ সালের ২৫ এপ্রিল রাজশাহীতে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড হয়েছিল ৪১ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

রাজশাহী আবহাওয়া পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রের সিনিয়র পর্যবেক্ষক কামাল উদ্দিন জানান, গত ৪ এপ্রিলের পর রাজশাহীতে তাপপ্রবাহ চলছে। রবিবার বিকেল ৩টায় রাজশাহীতে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড হয়েছে ৪০ দশমিক ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস। দিনের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড হয়েছে ২৫ দশমিক ৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

খুলনা:

আজ সর্বোচ্চ ৩৮ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে খুলনায়। রোববার (২৪ এপ্রিল) দুপুরে আঞ্চলিক আবহাওয়া অফিসের সিনিয়র অফিসার মো. আমিরুল আজাদ এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

স্থানীয়রা জানান, তীব্র দাবদাহের কারণে বাইরে যাওয়া যাচ্ছে না। তবে জনশূন্য হয়ে পড়েছে মহানগরীর অধিকাংশ স্থান ও সড়ক। সড়কে যানবাহন ও মানুষের ভিড় থাকলেও আজ তেমনটি নেই।


আরও খবর



গজারিয়ায় উপজেলা প্রশাসনের ইফতার ও দোয়ার মাহফিল

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৬ এপ্রিল ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ১৬ মে ২০২২ | ৮৪জন দেখেছেন
Image

শাহাদাত হোসেন সায়মনঃ


গজারিয়ায় উপজেলা  পরিষদের উদ্যোগে ইফতার ও উপজেলা চেয়ারম্যান  আমিরুল ইসলামের রোগ মুক্তি কামনায় দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত। 

 মঙ্গলবার উপজেলা পরিষদ অডিটোরিয়াম হলরুমে ইফতার ও দোয়ার মাহফিলে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মুন্সীগঞ্জ-৩আসনের সংসদ সদস্য ও বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ এর কেন্দ্রীয় মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক এড্যাঃমৃণাল কান্তি দাস,উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃজিয়াউল ইসলাম চৌধুরীর সভাপতিত্বে অন্যান্যদের মাঝে উপস্থিত ছিলেন সহকারী কমিশনার (ভুমি) সৈয়দা ইয়াসমিন সুলতানা,বাংলাদেশ উম্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় এর সাবেক পরিচালক মোঃহাফিজ আহম্মেদ, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান রেফায়েত উল্লাহ খাঁন তোতা(সি,আই,পি),উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আতাউর রহমান নেকী,মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান খাদিজা আক্তার আঁখি,গজারিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি হাজী মোঃমহসিন চৌধুরী,গজারিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ রইছ উদ্দীন,গজারিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযুদ্ধো শফিউল্লাহ শফি,ইমামপুর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান হাফিজুজ্জামান খান জিতু,ভবেরচর ইউঃপি চেয়ারম্যান ইঞ্জিঃসাঈদ মোঃলিটন, হোসেন্দী  ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হাজী আক্তার হোসেনসহ উপজেলা প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরের প্রধান গণ।

ইফতার পূর্ব দোয়ার মাহফিলে দেশ,জাতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান আমিরুল ইসলামের রোগ মুক্তি কামনায় দোয়া করা হয়।


আরও খবর



আজ থেকে ট্রেনের টিকিট বিক্রি শুরু

প্রকাশিত:শনিবার ২৩ এপ্রিল ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ১৫ মে ২০২২ | ৭৩জন দেখেছেন
Image

আসন্ন ঈদ-উল-ফিতর উপলক্ষে ঘরমুখো যাত্রীদের জন্য ট্রেনের টিকিট বিক্রি শুরু হবে আজ শনিবার সকাল ৮টা থেকে। চলবে ২৭ এপ্রিল পর্যন্ত। প্রতিদিন সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত ট্রেনের অগ্রীম টিকিট বিক্রি করা হবে। ইন্টারনেটেও ই-টিকিটিংয়ের মাধ্যমে অগ্রিম টিকিট বিক্রি সকাল ৮টা থেকে শুরু হবে।

‘টিকিট যার ভ্রমণ তার’ নিশ্চিত করতে যাত্রীদের এনআইডি বা জন্ম নিবন্ধন সনদের ফটোকপি কাউন্টারে প্রদর্শন করে টিকিট কিনতে হবে। একজন যাত্রী একসঙ্গে সর্বোচ্চ চারটি টিকিট কিনতে পারবেন। ঈদের অগ্রিম বিক্রিত টিকিট ফেরৎ নেওয়া হবে না।

যাত্রীর চাপ কমানোর লক্ষ্যে ঢাকা শহরের ৫টি কেন্দ্র টিকিট বিক্রি করা হবে। স্থানগুলো হলো- কমলাপুর, ঢাকা বিমানবন্দর, তেজগাঁও, ঢাকা ক্যান্টনমেন্ট ও ফুলবাড়িয়া (পুরাতন রেলওয়ে স্টেশন)।

এর আগে গত ১৩ এপ্রিল সংবাদ সম্মেলনে রেলমন্ত্রী মো. নূরুল ইসলাম সুজন জানিয়েছিলেন, প্রতিটি টিকিট বিক্রয় কেন্দ্রে মহিলা ও প্রতিবন্ধীদের জন্য একটি করে কাউন্টার থাকবে। প্রতিটি আন্তঃনগর ট্রেনে শুধুমাত্র মহিলা ও প্রতিবন্ধী যাত্রীদের জন্য একটি করে স্বতন্ত্র কোচ সংযোজন করা হবে।

তিনি বলেন, ঢাকা হতে বর্হিগামী ট্রেনে প্রতিদিন মোট আসন সংখ্যা হবে ২৬ হাজার ৬৬৩টি, যার অর্ধেক টিকিট কাউন্টারে এবং অর্ধেক টিকিট অনলাইনে বিক্রি করা হবে। ঢাকা হতে ২টি ঈদ স্পেশাল ট্রেনের আরও ১৫০০ আসনের টিকিট কাউন্টারে বিক্রি হবে।

ভ্রমণের সুবিধার্থে ছয় জোড়া বিশেষ ট্রেন পরিচালনার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রেলপথ মন্ত্রণালয়। পবিত্র ঈদ-উল-ফিতরের সাত দিন পূর্বে ২৫ এপ্রিল থেকে ঈদের পূর্ব দিন পর্যন্ত আন্তঃনগর ট্রেনসমূহের অফ-ডে থাকবে না এবং ঈদ পরবর্তীতে যথারীতি অফ-ডে কার্যকর করা হবে। অফ-ডে প্রত্যাহারের ফলে অতিরিক্ত ৯২টি আন্তঃনগর ট্রেন বিশেষ টিপ হিসেবে পরিচালিত হবে। ঈদুল ফিতরের দিন কোনো আন্তঃনগর ট্রেন চলাচল করবে না।

ঈদ পরবর্তী টিকিট বিক্রি শুরু হবে ১ মে, চলবে ৪ মে পর্যন্ত। ২, ৩ ও ৪ মে এর অগ্রিম টিকিট বিক্রি চাঁদ দেখার ওপর নির্ধারণ করা হবে। ঈদ উপলক্ষে অতিরিক্ত চাহিদা মেটানোর জন্য মোট ৯২টি যাত্রীবাহী কোচ সার্ভিসে অন্তর্ভুক্ত করা এবং ২১৮টি লোকোমোটিভ যাত্রীবাহী ট্রেনে ব্যবহারের পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে। টিকিট কালোবাজারি প্রতিরোধে পুলিশ এবং র‌্যাব সার্বক্ষণিক পাহারায় থাকেবে। এছাড়া জেলা প্রশাসকদের সহায়তায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হবে।


আরও খবর



ঠাকুরগাঁওয়ে মাটি ছাড়াই অভিনব পদ্ধতিতে শাক-সবজি চাষ

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২১ এপ্রিল ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ১৬ মে ২০২২ | ৯৯জন দেখেছেন
Image

মোঃ মজিবর রহমান শেখ,

দ্রুত নগরায়নে কারণে কমছে কৃষি জমি। ফলে ইচ্ছে সত্বেও অনেকে বাগান কিংবা সবজি চাষ করতে পারেন না। তবে আশার কথা হচ্ছে  মাটি ছাড়াই অভিনব পদ্ধতিতে মাটির সংস্পর্শ ছাড়াই বিষ মুক্ত লেটুসসহ শাক-সবিজ ও ফল চাষ হচ্ছে ঠাকুরগাঁও জেলায় । গ্রীন হাউসের মতো বিশেষ পদ্ধতিতে উৎপাদিত নিরাপদ ও বিষমুক্ত এই সব শাক-সবজি সরবরাহ করা  হচ্ছে রাজধানী ঢাকার নামী-দামি রেস্টুরেন্ট গুলোতে। তবে সরকারি সহায়তা পেলে আরও বেশ কয়েকটি খামার গড়তে চান উদ্যোক্তারা। সরেজমিনে  ঠাকুরগাঁও  সদর উপজেলার খলিশাখুড়ি গ্রামে সবজি খামারে  গিয়ে দেখা যায়, প্লাস্টিক পাইপের মাধ্যমে ১৬টি খাদ্য উপাদান মিশ্রিত পানি অটো পাম্পের মাধ্যমে সঞ্চালন করে মাটি ছাড়া চাষাবাদ চলছে। আর পাইপ ছিদ্র করে বেড়ে উঠা লাগোনো গাছে স্বল্পপরিসরে চাষ করা হচ্ছে শসা, লাউ, মরিচ, ধনেপাতা, টমেটো, ক্যাপসিকাম, স্ট্রবেরি, পেঁয়াজ, রসুন, তরমুজ, করলাসহ আরও কয়েক ধরনের সবজি। একটি পানির পাম্প দিয়ে দিনে দুবার মাটির বিভিন্ন উপাদানমিশ্রিত পানি আদানপ্রদান করা হয়। উৎপাদিত এই সব শাক-সবজি রাজধানী সহ বিভিন্ন জেলায় বাজারজাত করছেন বাগানের  উদ্যোক্তারা । জানা যায় ২০১৭ সালে ৬০শতক জমি নিয়ে পরীা মুলক মাটি ছাড়া এই বিশেষ পদ্ধতিতে ওই  গ্রামের ৬ বন্ধু  যৌথভাবে লেটুস সহ শাক-সবজি ও ফল চাষ শুরু করেন । অভিনব এই পদ্ধতিতে আবাদ করে সফলও হয়েছেন তারা। ২০১৯ সাল থেকে  বানিজ্যিক ভাবে উৎপাদিত হচ্ছে তাদের খামারে বিদেশী সবজি লেটুসসহ দেশীয় ফল ও শাক-সবিজ। হাইড্রোপনিক পদ্ধতিতে চাষাবাদের এ ছয়জন উদ্যোক্তা হলেন জাফর ইবনে হাসান, নাহিদ হোসেন, আল আমিন, সাবাহ্ সাঈদ, আব্দুল্লাহ আল মামুন ও শাহরিয়ার। সবজির খামারের নিয়মিত শ্রমিকেরা বলেন, অত্যাধুনিক পদ্ধতিতে চাষ করা খামারে কাজ করছি। এখানে বিষ মুক্ত সবজি উৎপাদন করা হয়।কোন বিষয়ে সীদ্ধান্ত নিতে না পারলে বসদের কথা অনুযায়ি কাজ করি। উদ্দ্যোক্তা নাহিদ হোসেন বলেন, হাইড্রোপনিক পদ্ধতিতে চাষাবাদে অনেক বায়োসিকিউরিটি অনুশীলন করা হয় সে জন্য খেতে পোকা-মাকড়ের আক্রমন নেই। তাছাড়া কিছু ডিভাইস ব্যবহারের ফলে বণ্যপ্রাণী ভিতরে প্রবেশ করতে পারে না। বিষমুক্ত সবজি উৎপাদনে আমরা সম। আগামীতে আরও বেশি পরিমাণে লেটুসের সাথে টমোটো, শশা, মরিচ, তরমুজ চাষের পরিকল্পনা রয়েছে।

হাইড্রোপনিকের আরেক উদ্দ্যোক্তা আল আমিন বলেন, আমরা লেটুসকে বেশি গুরুত্ব দিয়েছি কারণ এর চাহিদা সারা বছর। তবে উৎপাদনে সফলতা আসলেও খরচের তুলনাই দাম সেই রকম পাওয়া যায় না। পরিকল্পনা রয়েছে দেশের চাহিদা পূরণ করে বিদেশে রফতানি করা কিন্তু সেই রকম যোগাযোগ পাচ্ছি না। বর্তমানে ঢাকায় বাজাবজাত করছি কিন্তু আশানুরুপ ফল পাচ্ছিনা। এ পদ্ধতিতে অল্প জায়গাতে বেশি পরিমাণ বিষ মুক্ত সবজি উৎপাদন করা সম্ভব। যার গুণগত মান অনেক বেশি। তবে এ পদ্ধতিতে উৎপাদন খরচ  বেশি। এ পদ্ধতিতে বীজ বোপণ থেকে লেটুসপাতা উৎপাদন পর্যন্ত সময় লাগে ৩৫-৩৮ দিন। এ বিষয়ে ঠাকুরগাঁও কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক কৃষিবিদ আবু হোসেন বলেন, উপজেলার ভূল্লী এলাকায় নিজস্ব উদ্দ্যোগে বৃহৎ আকারে বানিজ্যিক ভাবে হাইড্রোপনিক পদ্ধতিতে চাষাবাদ শুরু হয়েছে। সনাতন পদ্ধতি বর্তমানে দেশে যে হারে আবাদি জমি কমছে তাতে অনেকে চাইলেই এই পদ্ধতিতে চাষাবাদ করে সারা বছর সবজি- ফলমুল উৎপাদন করতে পারে।


আরও খবর



এবার চলচ্চিত্রে ধোনী

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৩ মে ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ১৬ মে ২০২২ | ৩৮জন দেখেছেন
Image

ভারতীয় ক্রিকেট দলের সর্বকালের সেরা ক্রিকেটারদের একজন মহেন্দ্র সিং ধোনি। ভারতকে ওয়ানডে এবং টি-২০ ক্রিকেট বিশ্বকাপ জেতানো এই অধিনায়ককে নিয়ে নির্মিত হয়েছে সিনেমাও। ২০১৬ সালে মুক্তি পাওয়া তার বায়োপিক ‘এম এস ধোনি: দ্য আনটোল্ড স্টোরি’ বক্স অফিসে বিপুল সাফল্যও পেয়েছিল।

এবার অন্যভাবে চলচ্চিত্রে নাম লেখাচ্ছেন ধোনি। তামিল সিনেমা প্রযোজনা করবেন তিনি, সর্বভারতীয় একটি ইংরেজি দৈনিক বুধবার এই খবর প্রকাশ করেছে। খবর আনন্দবাজারের। ওই সিনেমায় মুখ্য নারী চরিত্রে অভিনেত্রী হিসাবে ধোনি সই করিয়েছেন নয়নতারাকে। দক্ষিণী অভিনেত্রীদের মধ্যে তিনি অন্যতম। আইপিএল শেষ হলেই সিনেমার ব্যাপারে আনুষ্ঠানিক ঘোষণা করবেন ধোনি।

‘অথর্ব’ নামের এক পৌরাণিক ওয়েব সিরিজেও নাম ভূমিকায় দেখা যাবে বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক ধোনিকে। রমেশ তামিলমানি রচিত ওই ওয়েব সিরিজও প্রযোজনা করবে ধোনি এন্টারটেনমেন্ট।

সম্প্রতি একটি ভিডিও প্রকাশ্যে এসেছে। তাতে দেখা যাচ্ছে, পুরাকালের এক যোদ্ধার চেহারায় ‘দৈত্য-দানব’দের সঙ্গে লড়াই করছেন ধোনি। তার এই নতুন ভূমিকায় অবতীর্ণ হওয়ার নেপথ্যে রয়েছেন ক্রিকেটার-পত্নী সাক্ষী।

অন্যদিকে, খুব শিগগিরই বলিউডের বড় পর্দায় অভিষেক হবে নয়নতারার। শাহরুখ খানের বিপরীতে অভিনয় করবেন তিনি। ধোনি প্রযোজিত আসন্ন তামিল সিনেমাটি নিয়েও উৎসাহ তুঙ্গে।


আরও খবর