Logo
শিরোনাম
বাউল ছালমা হলেন বরিশাল বিভাগের শ্রেষ্ঠ "জয়িতা" পাংশায় মাদক সহ ৯ মামলার আসামী গ্রেফতার ১৬৩ টাকায় তেল বিক্রির ব্যত্যয় ঘটলে ব্যবস্থা নেয়া হবে: ভোক্তার মহাপরিচালক দুর্গাপুরে বালুবাহী হ্যান্ডট্রলির চাপায় প্রাণ গেল শিক্ষার্থীর নওগাঁ জেলা প্রেস ক্লাবের সভাপতি আবু বক্কর, সাধারণ সম্পাদক বেলায়েত নওগাঁয় প্রাইভেটকার তল্লাসি, ৭২ কেজি গাঁজা সহ যুবক আটক রূপগঞ্জে প্রাইভেটকার চাপায় গৃহবধু নিহত রাঙ্গামাটির বড়ইছড়ি নির্মাণ শ্রমিক বোঝাই ট্রাক খাদে নিহত-২, আহত-২০ মুসলিমদেরকে সঠিক পথ থেকে বিচ্যুত করার জন্য বিভিন্ন ষড়যন্ত্র চলছে নওগাঁয় কম্পিউটার ব্যবসার অন্তরালে অশ্লিল ভিডিও বিক্রি করায় ৩ যুবক আটক

জাবিতে গৃহবধূ ধর্ষণ: মূলহোতার দায় স্বীকার

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০১ মার্চ ২০২৪ |

Image

সম্রাট মনির : জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে (জাবি) স্বামীকে আটকে রেখে স্ত্রীকে দলবদ্ধ ধর্ষণের ঘটনায় মো. মামুনুর রশিদ ওরফে মামুন (৪৪) ও তার অন্যতম সহায়তাকারী মো. মুরাদ হোসেন দায় স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দি দিয়েছেন।

শুক্রবার তাদের আদালতে হাজির করে পুলিশ। এরপর তারা ধর্ষণের ঘটনায় স্বেচ্ছায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিতে সম্মত হন। ফলে জবানবন্দি রেকর্ডের আবেদন করেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা আশুলিয়া থানার পুলিশ পরিদর্শক মিজানুর রহমান। আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ঢাকার সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট শেখ মুজাহিদুল ইসলাম তাদের জবানবন্দি রেকর্ড করেন। এরপর তাদের কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন আদালত।

এর আগে বৃহস্পতিবার (৮ ফেব্রুয়ারি) তিনদিনের রিমান্ড শেষে ছাত্রলীগ নেতা মোস্তাফিজুরসহ চারজনকে আদালতে হাজির করে পুলিশ। এরপর মামলার তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত তাদের কারাগারে আটক রাখার আবেদন করেন তদন্তকারী কর্মকর্তা। শুনানি শেষে ঢাকার জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ফারহানা ইয়াসমিন তাদের কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। কারাগারে যাওয়া অন্য আসামিরা হলেন সাব্বির হাসান, সাগর সিদ্দিক ও হাসানুজ্জামান।

এর আগে ৪ ফেব্রুয়ারি আসামিদের তিনদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছিলেন ঢাকার সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট রাবেয়া বেগমের আদালত।

৩ ফেব্রুয়ারি দিনগত রাত সাড়ে ৯টার দিকে জাবির মীর মশাররফ হোসেন হলে স্বামীকে আটকে রেখে স্ত্রীকে হলের পাশে জঙ্গলে নিয়ে দলবদ্ধ ধর্ষণের ঘটনা ঘটে। ওই ঘটনায় ভিকটিমের স্বামী রাতেই বাদী হয়ে আশুলিয়া থানায় ছয়জনের নাম উল্লেখ করে মামলা করেন।


আরও খবর



জনশূন্য নাইক্ষ্যংছড়ির সাত গ্রাম

প্রকাশিত:বুধবার ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ |

Image

মিয়ানমারের অভ্যন্তরে সরকারি বাহিনীর সঙ্গে বিদ্রোহীদের লড়াই ক্রমেই তীব্রতর হচ্ছে। তাদের ছোড়া গুলি ও মর্টারশেল সীমান্ত অতিক্রম করে বাংলাদেশে এসে পড়ছে। এরইমধ্যে এক বাংলাদেশিসহ দুজন নিহত হয়েছে। ফলে আতঙ্কে জনশূন্য হয়ে পড়েছে বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি সীমান্তের ঘুমধুম ইউনিয়নের সাতটি গ্রাম।

মঙ্গলবার (৬ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় বিষয়টি গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন ঘুমধুম ইউনিয়নের ৫ নম্বর ওয়ার্ড মেম্বার আনোয়ার হোসেন।

এই জনপ্রতিনিধি জানান, উত্তর ঘুমধুম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে আশ্রয়কেন্দ্র খোলা হয়েছে। সোমবার থেকে এ পর্যন্ত সাতটি পাড়ার ৪০টি পরিবারের শতাধিক লোক আশ্রয় নিয়েছেন।

এদিকে বিদ্যমান পরিস্থিতিতে বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি সীমান্তের ২৪০ পরিবারকে নিরাপদ আশ্রয়ে ফিরিয়ে নিতে নির্দেশ দিয়েছেন জেলা প্রশাসক (ডিসি)।

জেলা প্রশাসক (ডিসি) শাহ মুজাহিদ উদ্দিন বলেন, বান্দরবান-মিয়ানমার সীমান্তে মিয়ানমারের অভ্যন্তরে চলমান পরিস্থিতির কারণে ছাত্রছাত্রী ও সীমান্তে অতি ঝুঁকিপূর্ণ এলাকায় বসবাসকারী ২৪০ পরিবারকে নিরাপদ আশ্রয়ে নিতে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। একইসঙ্গে পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত সীমান্তবর্তী স্কুলগুলো বন্ধ ও সবাইকে আতঙ্কিত না হয়ে সজাগ থাকার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপার বিকেল ৩টায় নাইক্ষ্যংছড়ির তুমব্রু সীমান্ত পয়েন্ট পরির্দশন করে ঘুমধুম ইউনিয়ন পরিষদে যান তারা। পরে স্থানীয় প্রশাসনের সঙ্গে মতবিনিময় শেষে জলপাইতলী এলাকা যান তারা। সেখানে মিয়ানমারের ছোড়া মর্টারশেলের আঘাতে নিহত হোসনে আরার পরিবারের সঙ্গে কথা বলেন ডিসি। সেই সঙ্গে প্রশাসনে পক্ষ থেকে হোসনে আরার পরিবারকে ২০ হাজার টাকা ক্ষতিপূরণ দেন। পরির্দশন শেষে সার্বিক অবস্থা নিয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন জেলা প্রশাসক।

প্রসঙ্গত, মিয়ানমারে চলমান সংঘর্ষে গোলাগুলি, মর্টারশেল ও বোমা বিস্ফোরণের শব্দে কাঁপছে পুরো সীমান্ত এলাকা। বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ির ঘুমধুম ইউনিয়ন, কক্সবাজারের উখিয়ার পালংখালী ইউনিয়ন থেকে শুরু করে টেকনাফের হোয়াইক্যং এবং হ্নীলা ইউনিয়ন পর্যন্ত সীমান্ত এলাকায় গোলাগুলি ও মর্টারশেলের বিকট শব্দে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ছে। বিশেষ করে তুমব্রু সীমান্তে দুজনের মৃত্যুতে আতঙ্ক আরও বেড়েছে।

মিয়ানমারের অভ্যন্তরে বিদ্রোহীদের সামনে টিকতে না পেরে রাখাইন রাজ্য ছেড়ে পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিচ্ছেন সীমান্তরক্ষী বাহিনীর (বিজিপি) সদস্যরা। সবশেষ মঙ্গলবার (৬ ফেব্রুয়ারি) নতুন করে উখিয়া, টেকনাফ এবং তুমব্রু সীমান্ত দিয়ে বিজিপি সদস্যসহ দেশটির অন্যান্য বাহিনীর ১৪৯ জন বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছেন। এ নিয়ে তিনদিনে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছেন বিজিপির ২৬৪ জন সদস্য।

অন্যদিকে সীমান্তে উত্তেজনাকে কাজে লাগিয়ে ওপারের সশস্ত্র গোষ্ঠীর লোকজনও অস্ত্র নিয়ে রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অনুপ্রবেশ করছে বলে জানা গেছে। মঙ্গলবার উখিয়ার পালংখালী সাতটি পয়েন্ট দিয়ে অনুপ্রবেশের সময় অস্ত্রসহ ২৪ জনকে আটক করেছেন স্থানীয়রা। অনুপ্রবেশে বাধা দিতে গিয়ে চারজন রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীদের ছোড়া হাতবোমার আঘাতে আহত হয়েছেন।


আরও খবর

গ্যাস লিকেজ থেকে বিস্ফোরণ, দগ্ধ সাত

বুধবার ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




দশমিনা মানবসেবা সংগঠনের উদ্যোগে মানবিক সহায়তা প্রদান

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ |

Image

মোঃ নাঈম হোসাইন, দশমিনা(পটুয়াখালী):

পটুয়াখালী দশমিনা উপজেলা মানবসেবা সংগঠনের উদ্যোগে মঙ্গবার সকাল ১১ টায় অস্থায়ী কার্যালয়ে মেয়ের চিকিৎসার জন্য অসহায় পিতাকে আর্থিক সহায়তা প্রদান করা হয়।

 পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, উপজেলার দশমিনা ০৪নং ইউনিয়নের ০৯ নাম্বার কাটাখালী গ্রামের মাওলানা আঃ করিমের মেয়ে মোসাঃ কারিমা দীর্ঘদিন বিভিন্ন জটিল রোগে আক্রান্ত হয়ে বিনা চিকিৎসায় নিজ বসত ঘরেই মৃত্যুর প্রহর গুনছে। গুরুতর অসুস্থ হয়ে পরলে দশমিনা হাসপাতালে ভর্তি করা হলে প্রাথমিক চিকিৎসায় সুস্থ হলেও পরে আবার অসুস্থ হয়ে পরে। হাসপাতাল কতৃপক্ষ উন্নত চিকিৎসার জন্য বললেও পারিবারিক ভাবে চিকিৎসার খরচ ব্যাবহুল হওয়ায় কারিমাকে পারিবারিক ভাবে চিকিৎসা করানো সম্ভব হয়নি। এ বিষয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সহযোগিতার চাওয়া হলে দশমিনা মানবসেবা সংগঠন সহায়তায় এগিয়ে আসে। মঙ্গবার মানবসেবা সংগঠনের অস্থায়ী কার্যালয়ে কারিমার বাবার হাতে দশহাজার টাকার সহায়তার তুলেদেয়া হয়।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন মানসেবা সংঘঠনের সভাপতি এ্যাড. ইকবাল হোসেন, সিনিয়র সহসভাপতি মো. বেল্লাল হোসেন, যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক জায়েদ মোল্লা, হাজির হাট জামে মসজিদের ইমাম হাফেজ ক্কারী মোঃ ওবায়দুল্লাহ হামজা  প্রমূখ।

কারিমার বাবা মাও.আঃ করিম বলেন, আমার মেয়ের চিকিৎসার জন্য অনেক টাকার প্রয়োজন। আজ মানবসেবা সংগঠনের কাছ থেকে যে সহায়তা পেয়েছি আমি তাদের দোয়া করি। এ ভাবে সামজের লোক এগিয়ে আসলে আমার মেয়েকে চিকিৎসা করিয়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরিয়ে আসবে।

মানবসেবা সংগঠনের সভাপতি এ্যাড. ইকবাল হোসেন বলেন, এ সংগঠনটি মহামারি করোনার সময় শুরু করি।  এ সংগঠনের সকল সদস্যদের সহযোগিতায় সামাজের অসহায় পরিবারের পাশে যে কোন সমস্যায় নিজেদের সাধ্য অনুসারে সহযোগিতা করে থাকি। এ সহযোগিতা সবসময় চলোমান থাকবে।


আরও খবর

বাউল ছালমা হলেন বরিশাল বিভাগের শ্রেষ্ঠ "জয়িতা"

বৃহস্পতিবার ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

পাংশায় মাদক সহ ৯ মামলার আসামী গ্রেফতার

বৃহস্পতিবার ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




বকশীগঞ্জের মেরুরচর ও সাধুরপাড়ায় কারিতাসের অবহিতকরণ সভা

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ |

Image

জামালপুর প্রতিনিধি :

জামালপুরের বকশীগঞ্জ উপজেলার মেরুরচর ইউনিয়ন ও সাধুরপাড়া ইউনিয়নের কারিতাস বাংলাদেশ এর অবহিতকরণ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। কারিতাস বাংলাদেশ এর নতুন প্রকল্পে জামালপুর জেলার বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থ  মানুষের জন্য আগাম প্রস্তুতি এবং পূর্বাভাসমূলক প্রতিক্রিয়া প্রকল্পের জন্য এই অবহিত করণ সভার আয়োজন করা হয়। বৃহস্পতিবার দুপুরে সাধুরপাড়া ইউপি কার্যালয়ে কারিতাস ময়মনসিংহ অঞ্চল কতৃক অবহিতকরণ সভার আয়োজন করা হয়। এর আগে গত সোমবার বকশীগঞ্জ উপজেলা সম্মেলন কক্ষে অবহিত করণ সভা অনুষ্ঠিত হয়। ওই সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আবদুর রউফ তালুকদার। বকশীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা অহনা জিন্নাতের সভাপতিত্বে ও কারিতাসের ফিল্ড অফিসার সনদ দ্রং এর সঞ্চালনায় অবহিতকরণ সভায় অন্যান্যের মধ্যে উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মাসুমা ইয়াছমিন স্মৃতি,উপজেলা পরিসংখ্যান কর্মকর্তা রাফিউজ্জামান,উপজেলা দারিদ্র বিমোচন কর্মকর্তা নুরুন্নবী, কারিতাস ময়মনসিংহ অঞ্চলের জুনিয়র প্রোগ্রাম অফিসার সুরঞ্জন রাকসাম,ইউপি সদস্য আমেনা বেগম,আনোয়ার হোসেন ও কারিতাসের উপজেলা কো-অর্ডিনেটর সত্যজিত মৃ প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।  

বুধবার মেরুরচর ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে আয়োজিত অবহিতকরণ সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন ইউপি চেয়ারম্যান সিদ্দিকুর রহমান। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন কারিতাসের ফিল্ড অফিসার সনদ দ্রং। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ইউপি সদস্য জাহিদুল ইসলাম, শাহীন আলম,নূরুন্নাহার,সচিব সুলতান মাহমুদ,রনু নকরেক,বাপুস মারাক ও সঞ্চয় মারাক প্রমূখ। এ সময় শিক্ষক,মুক্তিযোদ্ধাসহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যাক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। 

বৃহস্পতিবার সাধুরপাড়া ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে অবহিতকরণ সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন সাধুরপাড়া ইউপি’র ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান জিয়াউল রহমান,ইউপি সচিব সুজন আলী,সহকারী শিক্ষক রুহুল আমিন,ইউপি সদস্য তাপসী বেগম,আমেনা বেগম,আকরাম হোসেন,সহিজল হক,সেলিম মিয়া, হামিদুল,শেখ ফরিদ,মোফাজ্জল,আবুল কাসেম, রনু নকরেক,বাপুস মারাক ও সঞ্চয় মারাক প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন কারিতাসের ফিল্ড অফিসার সনদ দ্রং।  

কারিতাসের ফিল্ড অফিসার সনদ দ্রং জানান,বন্যা কবলিত মানুষের জন্য কারিতাসের এই নতুন প্রকল্প। কারিতাসের এই প্রকল্পের মাধ্যমে বন্যা আশ্রয়ন কেন্দ্র সংস্কার,বন্যা আশ্রয়ন কেন্দ্রে স্যানেটারি ল্যাট্রিন সংস্কার এবং বন্যা আশ্রয়ন কেন্দ্রে নিরাপদে যাওয়ার জন্য লিঙ্ক রোড সংস্কার করা হবে।


আরও খবর

বাউল ছালমা হলেন বরিশাল বিভাগের শ্রেষ্ঠ "জয়িতা"

বৃহস্পতিবার ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

পাংশায় মাদক সহ ৯ মামলার আসামী গ্রেফতার

বৃহস্পতিবার ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




রাষ্ট্রপতি পদক পেলেন বাগেরহাট জেলার পুলিশ সুপার

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০১ মার্চ ২০২৪ |

Image

এম.পলাশ শরীফ, নিজস্ব প্রতিবেদক:  

রাষ্ট্রপতি পুলিশ পদক (পিপিএম)-সেবা পেলেন বাগেরহাট জেলার পুলিশ সুপার আবুল হাসনাত খান। মামলার রহস্য উদঘাটন, গণমূখী পুলিশী সেবা নিশ্চিত করা, অপরাধ নিয়ন্ত্রণ, দক্ষতা, কর্তব্যনিষ্ঠা, সততা, শৃঙ্খলামূলক আচরণের মাধ্যমে প্রশংসনীয় অবদানের জন্য তিনি পিপিএম-সেবা পদকে ভূষিত হন।

মঙ্গলবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) রাজারবাগ পুলিশ লাইনসে জাতীয় পুলিশ সপ্তাহের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ পদক পরিয়ে দেন।


পুলিশ সুপার আবুল হাসনাত খান ২০২৩ সালের ২০ সেপ্টেম্বর বাগেরহাট জেলার পুলিশ সুপার হিসেবে যোগদান করেন। এরপর থেকে দক্ষতার সঙ্গে বাগেরহাট জেলার অপরাধ নিয়ন্ত্রণসহ আইন-শৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণ করে কাজ করে এসেছেন এই কর্মকর্তা। 

তিনি ২৭তম বিসিএস'র একজন চৌকস পুলিশ কর্মকর্তা। বাগেরহাট জেলা পুলিশ সুপার হিসেবে যোগদানের আগে তিনি ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের উপ-পুলিশ কমিশনার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।


আরও খবর

বাউল ছালমা হলেন বরিশাল বিভাগের শ্রেষ্ঠ "জয়িতা"

বৃহস্পতিবার ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

পাংশায় মাদক সহ ৯ মামলার আসামী গ্রেফতার

বৃহস্পতিবার ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




ব্যবসা শুরু করতে যাচ্ছেন পরীমণি

প্রকাশিত:শনিবার ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ |

Image

গত বছরের শেষের দিকে ব্যবসায়ীর হিসেবে নাম লেখালেন ঢাকাই সিনেমার অভিনেত্রী অপু বিশ্বাস। নিজের পরিকল্পনায় তিনি শুরু করেছেন বুটিক ও বিউটি পারলার এবং রেস্টুরেন্টের ব্যবসা। এবার সেই পথে হাটতে যাচ্ছেন ঢাকাই চলচ্চিত্রের বর্তমান প্রজন্মের জনপ্রিয় নায়িকা পরীমণি।

অভিনেত্রীর পাশাপাশি এবার নতুন পরিচয়ে আসছেন তিনি। আসছে ঈদে একটি প্রসাধনীর পণ্যের ব্যবসা শুরু করতে যাচ্ছেন।

এ নিয়ে এক গণমাধ্যমকে পরীমণি বলেন, আসলে অনেক আগে থেকেই আমার ব্যবসা করার ইচ্ছে ছিল কিন্তু কি কিসের বিজনেস শুরু করবো তাই ভাবছিলাম। অবশেষে অনেক ভেবে আর সবদিক বিবেচনা করে প্রসাধনীর পণ্যের ব্যবসা শুরু করতে যাচ্ছি।

হালের এই জনপ্রিয় নায়িকা আরও বলেন, এখন সোশ্যাল মিডিয়াতে ঢুকলেই অনেকেই দেখি অনেক ব্যবসা করছে। সেগুলোর মাঝে মেয়েদের প্রসাধনীর পণ্যের ব্যবসা বেশ তুঙ্গে। অনেকেই বেশ ভালো পণ্য বিক্রি করছে। তবে অনেক ক্ষেত্রেই দেখা যায় একটু কম দামে অনেকেই ব্যান্ডের পণ্য অনলাইন থেকে ক্রয় করছে। সেক্ষেত্রে দেখা যায় তারা আসলে প্রতারিত হচ্ছে। কেননা ব্যান্ডের পণ্য বলে বিক্রি হচ্ছে ক্লোন পণ্য। যা আসলে আমাদের স্কিনের জন্য বেশ ক্ষতিকর। আর তাই স্কিন ভালো রাখতে অরজিনাল ব্যান্ডের পণ্য নিয়ে বাজারে আসছি।


আরও খবর

বিচ্ছেদের সিদ্ধান্ত মাহিয়া মাহির

শনিবার ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪