Logo
শিরোনাম

জাতিসংঘে ভাষণ ও মিলাদে মোস্তফা (দঃ) সৈয়দ মইনুদ্দিন

প্রকাশিত:সোমবার ১৪ মার্চ ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ১৬ মে ২০২২ | ২৬৯জন দেখেছেন
Image

জাতিসংঘে ভাষণ ও মিলাদে মোস্তফা (দঃ) এর শুভ উদ্বোধন

বিগত ২০০০ সালের ২৮-৩১শে আগষ্ট জাতিসংঘ সদর দপ্তরে বিশ্বশান্তি সম্মেলন (ঞযব গরষষবহরঁস ডড়ৎষফ ঢ়বধপব ংঁসসরঃ ড়ভ জবষরমরড়ঁং ধহফ ঝঢ়রৎরঃঁধষ খবধফবৎ) অনুষ্ঠিত হয়। এ সম্মেলনে উদ্বোধন করেন তৎকালিন জাতিসংঘ মহাসচিব কফি আনান। এ সম্মেলনে পৃথিবীর বিভিন্ন ধর্মের শীর্ষ স্থানীয় ধর্মগুরু ও আধ্যাত্মিক শীর্ষ স্থানীয় নেতৃবৃন্দ অংশ গ্রহণ করেন। বাংলাদেশ থেকে প্রতিনিধি দলে নেতৃত্ব দেন আওলাদে রাসূল (দঃ) শায়খুল ইসলাম হযরত শাহ্সূফী মাওলানা সৈয়দ মইনুদ্দিন আহমদ আল্-হাসানী ওয়াল্ হোসাইনী (মাঃজিঃআঃ)।
জাতিসংঘে আয়োজিত উক্ত কনফানেন্সে হুজুর কেবলা ভাষণে বলেনঃ আজকের জাতিসংঘ বিশ্ব-শান্তি ও সকল ধর্মের ও বর্ণের মানুষের মধ্যে ভেদাভেদ, হানাহানি, যুদ্ধ, ক্ষুধা ও দরিদ্র নিসনের যে উদ্যোগ গ্রহণ করেছে, তা আজ থেকে ১৪০০ বছর পূর্বে আমাদের মহানবী হযরত মুহাম্মদ (দঃ) ‘মদিনার সনদের’ মাধ্যমে বিশ্ববাসীকে উপহার দিয়েছিলেন, যা জাতিসংঘ আজ বাস্তবায়ন করার প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।
সম্মেলন সমাপনী দিবসে প্রার্থনা পর্বে আওলাদে রাসূল (দঃ) সৈয়দ মইনুদ্দিন আহমদ আল্-হাসানী ওয়াল্ হোসাইনী (মাঃজিঃআঃ) মিলাদ শরীফ (ছালাত ও সালাম) পরিচালনা করেন এবং সমগ্র বিশ্ববাসীর সুখ-শান্তি ও সমৃদ্ধি কামনা করে মুনাজাত পরিচালনা করেন। জাতিসংঘের ইতিহাসে তিনিই প্রথম ব্যাক্তিত্ব, যিনি মিলাদে-মোস্তফা (দঃ) এর শুভ উদ্বোধন করেন। মিলাদ মাহফিলে রাবেতার মহাসচিব আবদুল্লাহ ওমর নাসিফ, ইরাক, ইরান, ভারত ও পাকিস্থানসহ বিভিন্ন দেশের ধর্মীয় নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

উজবেকিস্তান সরকার ও ইউনেস্কোর যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত বিশ্ব-আধ্যাত্মিক সম্মেলনে আমন্ত্রিত এবং ধর্মীয় নেতৃবৃন্দ কর্তৃক বিপুলভাবে বিরল সম্মানে ভূষিত।

২০০০ ইং সালের ১৭-১৮ই সেপ্টেম্বর উজবেকিস্তান সরকার প্রধানের আমন্ত্রণে এবং ইউনেস্কোর তত্ত্বাবধানে উজবেকিস্তানের রাজধানী তাসখন্দে হোটেল শেরাটনে অনুষ্ঠিত আন্তর্জাতিক আধ্যাত্মিক সম্মেলনে অষ্ট্রেলিয়া, আজারবাইজান, বেনিন, চীন, ফ্রান্স, ভারত, ইন্দোনেশিয়া, ইরান, ইস্রাইল, জাপান, সুদান, কাজাখাস্তান, মরক্কো, সউদী আরব, স্পেন, শ্রীলংকা, সুইজারল্যান্ড, থাইল্যান্ড, তিউনিশিয়া, তুরস্ক, ভ্যাটিকান, যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্য থেকে ধর্মীয় আধ্যাত্মিক শীর্ষস্থানীয় নেতৃবৃন্দ অংশ গ্রহন করেন। বড় শাহজাদা আল্হাজ্ব শাহ্সূফী সৈয়দ সাইফুদ্দীন আহমদ আল্-হাসানী ওয়াল্ হোসাইনী (মাঃজিঃআঃ) সফরসঙ্গী ছিলেন। জর্দানের প্রিন্স আল্-হাসান বিন্ তালাল স্বাগত বক্তব্য রাখেন। সভাপতিত্ব করেন ইউনেস্কো সদর দপ্তর হতে আগত ডাইক্টের ডায়েন (উড়ঁফড়ঁ উরবহব)। ইন্টারন্যাশনাল এ কনফানেন্সে মুর্শেদ কেবলা বিশেষভাবে সমাদৃত হন। তাসখন্দ ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় তাঁকে সংবর্ধনা দেওয়া হয়। উজবেকিস্তান সরকার তাঁকে বিশেষ ফ্লাইটে পবিত্র বুখারী নগরীতে নিয়ে যান। তিনি হযরত ইমান বুখারী (রঃ), ইমাম আহমদ বিন হাম্বল (রঃ) এবং শায়খ বাহাউদ্দিন নক্শবন্দী (রঃ) প্রমুখ মনীষীদের মাজার জিয়ারত করেন।


আরও খবর



বাল্যবিয়ের দায়ে রাঙ্গাবালীতে বর-কাজীসহ পাঁচজন গ্রেফতার

প্রকাশিত:শনিবার ২৩ এপ্রিল ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ১৫ মে ২০২২ | ৯২জন দেখেছেন
Image

কামরুল হাসানঃ বাল্যবিয়ের দায়ে পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালী উপজেলায় বর-কাজী ও ঘটকসহ পাঁচজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। শনিবার দুপুরে তাদের গলাচিপা জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে সোপর্দ করা হয়।  

গ্রেফতারকৃতরা হলেন, বর সজিব ফরাজি (২৫), রাঙ্গাবালী সদর ইউনিয়নের মুসলিম বিবাহ ও তালাক রেজিষ্টার (কাজী) মোঃ সুলতানুর রহমান (৫৬), জাল জন্মনিবন্ধন প্রস্তুতকারক কম্পিউটারের দোকানি আবুল হোসেন ফরাজি (৩২), কনের চাচা মো. মাসুম আকন (৪২) ও ঘটক কাঞ্চন আলী (৫৫)।  

জানা গেছে, রাঙ্গাবালী সদর ইউনিয়নের মুসলিম বিবাহ ও তালাক রেজিষ্টার (কাজী) সুলতানুর রহমানের কার্যালয় শুক্রবার রাতে উপজেলার ছোটবাইশদিয়া ইউনিয়নের চতলাখালী গ্রামের বেল্লাল ফরাজীর ছেলে সজিব ফরাজীর সঙ্গে সদর ইউনিয়নের উত্তরীপাড়া গ্রামের এক অপ্রাপ্ত বয়স্ক কিশোরীর বাল্যবিয়ে করাকালীন সময় অভিযান চালায় পুলিশ। এসময় বাল্যবিয়ের কাজে জড়িতদের গ্রেফতার করা হয়।  

  এ ব্যাপারে রাঙ্গাবালী থানার ওসি দেওয়ানা জগলুল হাসান বলেন, বাল্যবিবাহ নিরোধ আইনে তাদের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। আসামিদের আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।


আরও খবর



কুমিল্লায় সকাল সাড়ে ৮টায় হবে ঈদের প্রধান জামাত কেন্দ্রীয় ঈদগাহে

প্রকাশিত:রবিবার ০১ মে ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ১৫ মে ২০২২ | ৭৮জন দেখেছেন
Image

 নিজস্ব প্রতিবেদক,কুমিল্লা

কুমিল্লা কেন্দ্রীয় ঈদগাহে পবিত্র ঈদ উল ফিতরের প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হবে সকাল সাড়ে ৮টায়। এজন্য সকল প্রস্তুতি সম্পন্ করেছে সিটিকর্পোরেশন ।  তোরণ আলোকসজ্জায় বর্ণিল সাজে সেজেছে কেন্দ্রীয় ঈদগাহ মাঠ।  কেন্দ্রীয় গাহে ঈদ জামাতে ইমামতি করবেন কান্দিরপাড় জামে মসজিদের পেশ ইমাম হাফেজ মোহাম্মদ ইব্রাহিম।

 কুমিল্লা নগরীর ২৭টি ওয়ার্ডের ঈদগাহসহ ১৫০টি মসজিদের বেশিরভাগ স্থানেই ঈদের জামাত সকাল ৮ টায় । জেলার ১৭উপজেলার  ইউনিয়ন পর্যায়েরে ঈদগাহসহ মসজিদে বেশির ভাগই ঈদের নামাজ সকাল ৯ টায় । বেশির ভাগ স্থানেই মানুষের সমাগম বিবেচনায় নগরের কেন্দ্রীয় ঈদগাহের প্রধান জামাত সকাল সাড়ে ৮টার আগে পরে অনুষ্ঠিত হবে ঈদের জামাত ।

 দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ার কারণে ঈদগাহে নামাজ আদায় করার সম্ভব না হলে বিকল্প ব্যবস্থা হিসেবে পাশ্ববর্তী কুমিল্লা জিমনেশিয়াম প্রস্তুত রাখা হয়েছে।

কুমিল্লা কেন্দ্রীয় ঈদগাহের জামাতের জন্য নির্ধারিত সময়ের সাথে মিল রেখে কেন্দ্রীয় ঈদগাহের পার্শ্ববর্তী এলাকার মসজিদ ও ঈদগাহে সুবিধাজনক অন্যসময়ে ঈদের জামাতের সময় নির্ধারণের  জন্য অনুরোধ জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় ঈদগাহ উপদেষ্টা কমিটি। ঈদগাহ ময়দান এবং পার্শ্ববর্তী রাস্তাসমূহে জেলা প্রশাসন এবং সিটি কর্পোরেশনের পক্ষ হতে ঈদগাহ কমিটির ব্যানার ব্যতীত অন্য কোনো সংস্থা বা ব্যক্তি কর্তৃক কোনো ব্যানার স্থাপন না করার নির্দেশনা প্রদান করা হয়।

ইসলামিক ফাউন্ডেশনের সহকারি পরিচালক মোঃ নাজমুস সাকিব বলেন,  কুমিল্লা নগরের কেন্দ্রীয় ঈদগাহ, ১৭উপজেলার ঈদগাহসহ প্রায় আট শতাধিক মসজিদে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে। তবে জেলার ১৭টি উপজেলার ১৫ হাজার ৩০০ মসজিদের মধ্যে দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়া হলে প্রায় ১০হাজার ৫৪৯টি মসজিদে ঈদের নামাজ অনুষ্ঠিত হবে। 

কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী ড. শফিকুল ইসলাম জানান, কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশনের উদ্যোগে নগরের ঈদগাহ মাঠ ও আশের পাশের সড়কগুলো পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন করা হয়েছে। ঈদগাহ আলোকসজ্জা করা হয়েছে পুরো এলাকা। লাগানো হয়েছে সিসি ক্যামেরা। কেন্দ্রিয় ঈদ গাহ এর প্রধান জামাত  নগরবাসি সুন্দর ভাবে আদায়ের জন্য সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে।


আরও খবর



ঢাকা ছেড়েছে ৭৩ লাখ মানুষ

প্রকাশিত:সোমবার ০২ মে 2০২2 | হালনাগাদ:রবিবার ১৫ মে ২০২২ | ৭১জন দেখেছেন
Image

ঈদুল ফিতরের ছুটিতে ঢাকা থেকে বাইরে গেছে ৭৩ লাখ মানুষ। গত ২৭২৮২৯  ৩০ এপ্রিল তাদের মোবাইল সিমের ঢাকা ছাড়ার হিসেবেই  সংখ্যা নিশ্চিত করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন ডাক  টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার

রবিবার (১ এপ্রিল) দুপুরে  বিষয়ে তিনি ফেসবুকে একটি পোস্ট দেন। ফেসবুক পোস্টে তিনি লিখেছেন২৯  ৩০ এপ্রিল ঢাকা থেকে বাইরে গেছে ৪৩ লাখ  হাজার মোবাইল সিম এর আগের দুদিনেও আনুমানিক ৩০ লাখ সিম ঢাকা থেকে বাইরে গেছে মোবাইল অপারেটরদের কাছ থেকে তথ্যগুলো পাওয়া গেছে

মন্ত্রী জানান২৯ এপ্রিল ঢাকা থেকে বাইরে গেছে ১৯ লাখ ৩২ হাজার ৯৯০ জন৩০ এপ্রিল ঢাকা ছেড়েছেন ২৩ লাখ ৭৬ হাজার ২২৬ জন

উল্লেখ্যঈদের আগে বৃহস্পতিবার (২৮ এপ্রিলছিল সরকারি চাকরিজীবীদের শেষ কর্মদিবস কেননা সাপ্তাহিক ছুটিমে দিবস এবং ঈদের ছুটি মিলিয়ে এবার টানা  দিনের ছুটি পাচ্ছেন সরকারি চাকরিজীবীরা

চাঁদ দেখা সাপেক্ষে আগামী  বা  মে দেশে পবিত্র ঈদুল ফিতর উদযাপিত হবে রমজান মাস ২৯ দিনে শেষ হলে ঈদ হবে  মেআর ৩০ দিন পূর্ণ হলে ঈদ হবে  মে


আরও খবর



নওগাঁয় ‘হিজাব বিতর্কে প্রধান শিক্ষক গ্রেপ্তার

প্রকাশিত:রবিবার ১৭ এপ্রিল ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ১৫ মে ২০২২ | ৮৯জন দেখেছেন
Image

 নিজস্ব প্রতিনিধি, নওগাঁ

ন‌ওগাঁয় হিজাব নিয়ে মিথ্যা তথ্য ছড়িয়ে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত ও মানহানির মামলায় এবার জেলহাজতে পাঠানো হলো বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ধরণী কান্ত বর্মণকে । আজ রোববার নওগাঁ আমলী আদালত ৩ (মহাদেবপুর) এর হাজির হয়ে জামিনের আবেদন জানালে আদালতের বিজ্ঞ বিচারক মো: তাইজুল ইসলাম জামিনের আবেদন নাকোচ করে তাকে জেল হাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

 এ মামলায়  এর আগে গ্রেপ্তার হওয়া দু'জন হলেন, এক‌ই উপজেলা সদরের বাসিন্দা মৃত কাজী দেলোয়ার হোসেনের ছেলে কিউএম সাঈদ টিটো ও কুশারসেন্টার পাড়া এলাকার বাসিন্দা কাজী ময়েন উদ্দিনের ছেলে কাজী সামছুজ্জোহা মিলন।

গত বৃহস্পতিবার রাতে দাউল বারবাকপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক আমোদিনী পাল বাদী হয়ে থানায় ৫ জনের নাম উল্লেখ করে মামলা দায়ের করেন।ওই রাতে টিটো এবং মিলনকে গ্রেপ্তার করে থানা পুলিশ।

মামলার এজাহারভুক্ত আসামীরা হলেন, ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ধরণী কান্ত বর্মণ, কিউএম সাঈদ টিটো, কাজী সামছুজ্জোহা মিলন, বিদ্যালয়ের সভাপতি মাহমুদুল হাসান সুমন ও জেলার পোরশা উপজেলার গহেরপুর গ্রামের বাসিন্দা সালাউদ্দিন আহমেদ। এছাড়াও আরো অজ্ঞাত ২০ থেকে ২৫ জনকে আসামী করা হয়েছে ।

নওগাঁয় হিজাব ইস্যুতে উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে তিন সদস্য বিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি গঠিত হয়। তদন্ত কমিটির প্রতিবেদনে ৭টি সুনিদিষ্ট কারন উল্লেখ  ও সুপারিশ করা হয়েছে। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ঘটনার দিন দাউল বারবাকপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষিকা আমোদিনী পাল হিজাবের কারনে নয়; নির্ধারিত স্কুল ড্রেস না পরার কারনেই শিক্ষার্থীদের মারধর করেছিলেন।

একই দিনে বদিউল আলম নামে আরেক শিক্ষকও মারধর করেছিলেন শিক্ষার্থীদের। অথচ প্রধান শিক্ষক ধরণী কান্ত শুধু শিক্ষিকা আমোদিনী পালকে শোকজ করেন। এই ঘটনাতদন্ত কমিটির কাছে উদ্দেশ্যমূলক মনে হয়েছে। শুধু শিক্ষিকা আমোদিনী পালকে শোকজ করায় প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণের সুপারিশ করেছে তদন্ত কমিটি। এছাড়া প্রতিবেদনে সরকারি নির্দেশনা অমান্য করে শিক্ষার্থীদের প্রহার করায় শিক্ষিকা আমোদিনী পাল ও শিক্ষক বদিউল আলমের বিরুদ্ধেও বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণের সুপারিশ করা হয়েছে। 

প্রতিবেদনে গুজব ছোড়ানো প্রসংগে বলা হয়েছে যে, প্রধান শিক্ষক ধরনী কান্ত, শিক্ষিকা আমোদিনী পাল ও ম্যানেজিং কমিটির মধ্যে দীর্ঘদিনের তৃ-মুখী দ্বন্দ্ব চলছিলো। যা গুজব ছড়াতে ব্যবহার করা হয়েছে। শুধু তাই নয়; গুজব ছোড়ানোর পেছনে স্থানী কিছু ফেসবুক ব্যবহারকারি ও সাধারন মানুষের নাম উঠে এসেছে। তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নিতেও সুপারিশ করেছে তদন্ত কমিটি।

 এ বিষয়ে মহাদেবপুর থানার ওসি আজম উদ্দিন মাহমুদ বলেন,  এ মামলার  এজাহার ভুক্ত অপর ২ আসামীকে ও গ্রেপ্তারের জন্য পুলিশ তৎপড়তা চালিয়ে চালিয়ে যাচ্ছে। এ ছাড়া মামলার তদন্ত সাপেক্ষে এই ঘটনায় অপপ্রচারকারী এবং আরো কেউ জড়িত থাকলেও তাদের আইনের আওতায় আনা হবে। 


আরও খবর



বিএনপির পায়ের নিচে মাটি নেই : কৃষিমন্ত্রী

প্রকাশিত:রবিবার ১৫ মে ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ১৬ মে ২০২২ | ১৬জন দেখেছেন
Image

নোয়াখালী জেলা প্রতিনিধি: দেশে বিএনপির পায়ের নিচে মাটি নেই। তারা কোনোদিন এত সহজে ক্ষমতায় আসতে পারবে না। এ দেশের মানুষ ভালো-মন্দ সবই বুঝে। তাদের আন্দোলন হয় না কেন? কারণ তাদের প্রতি জনগণের সমর্থন নেই। খালেদা জিয়ার অবর্তমানে যিনি বিএনপি চালাবেন; তিনি লন্ডনে থেকে ভোগবিলাস করছেন। রিমোট কন্ট্রোলে পার্টি চালাচ্ছেন। কাজেই ওখান থেকে রিমোট কন্ট্রোলে হুমকি দিয়ে, আর সেই হুমকির ওপর আওয়াজ তুলে গয়েশ্বর রায়রা ক্ষমতায় আসতে পারবে না। ক্ষমতায় আসতে হলে মানুষের কাছে যেতে হবে বলে জানিয়েছেন কৃষিমন্ত্রী ড. মো. আবদুর রাজ্জাক।

নোয়াখালীর সুবর্ণচরে বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন করপোরেশনের (বিএডিসি) আয়োজনে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে দ্বাদশ সংসদ নির্বাচন নিয়ে কৃষিমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ড. মো. আবদুর রাজ্জাক এসব কথা বলেন।

বিএনপির নেতাদের বক্তব্যকে ইঙ্গিত করে তিনি বলেন, হুমকি দিয়ে ক্ষমতায় আসা যাবে না। জাতির অর্জনকে হুমকি দিয়ে ধ্বংস করা যাবে না। আওয়ামী লীগ পর্দার অন্তরালে ষড়যন্ত্র করে ক্ষমতায় আসেনি। আমাদের ভিত্তি জনগণ। জনগণ যদি নির্বাচনের মাধ্যমে আমাদের প্রত্যাখ্যান করে আমরা তাদের রায় মেনে চলে যাব। এটি নিয়ে আমাদের কোনো দুঃখ নেই।

কৃষির উৎপাদন প্রসঙ্গে তিনি বলেন, আমরা জাতির কাছে প্রতিশ্রুতি দিয়ে ছিলাম। আমরা বাংলাদেশকে খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ করব। দরিদ্র্যতা কমিয়ে নিয়ে আসব। আজকে বাংলাদেশ দানা জাতীয় খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ। শাকসবজি, ডালের উৎপাদন বৃদ্ধি করেছি। কিন্তু তেলের উৎপাদন তেমন বৃদ্ধি করতে পারিনি। তবে আমাদের কাছে প্রযুক্তি এসেছে।

কৃষিমন্ত্রী বলেন, আমরা তো বলেছি আগামী নির্বাচন আমরা সুষ্ঠু করব, নিরপেক্ষ করব। গত ৮ মে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সেখানে প্রধানমন্ত্রী সুস্পষ্ট আমাদের বলেছেন আগামী নির্বাচন সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হবে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন নোয়াখালী-৩ আসনের সংসদ সদস্য মামুনুর রশীদ কিরণ, সংরক্ষিত নারী আসনের সংসদ সদস্য ও কৃষি মন্ত্রণালয়ের স্থায়ী কমিটির সদস্য হোসনে আরা, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মো. বেনজীর আলম, নোয়াখালী জেলা প্রশাসক দেওয়ান মাহবুবুর রহমান প্রমুখ।


আরও খবর