Logo
শিরোনাম

ঝোড়ো হাওয়াসহ বজ্রপাতের আভাস

প্রকাশিত:বুধবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ |
Image

দেশের ২০ জেলার নদীবন্দরকে সতর্ক সংকেত দিয়েছে বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদপ্তর। সেই সঙ্গে জেলাগুলোর ওপর দিয়ে ঝোড়ো হাওয়াসহ বজ্রপাতের আভাস দেওয়া হয়েছে।

বুধবার আবহাওয়া অফিসের আবহাওয়াবিদ মো. মনোয়ার হোসেন জানান, দুপুর ১টা পর্যন্ত অভ্যন্তরীণ নদীবন্দরগুলোর জন্য আবহাওয়ার পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছে। এই পূর্বাভাসে ২০ জেলার ওপর দিয়ে ৪০ থেকে ৫০ কিলোমিটার বেগে দমকা হাওয়াসহ ঝড় বয়ে যেতে পারে।

জেলাগুলো হলো- রংপুর, দিনাজপুর, রাজশাহী, পাবনা, বগুড়া, টাঙ্গাইল, ময়মনসিংহ, ঢাকা, ফরিদপুর, মাদারীপুর, যশোর, কুষ্টিয়া, খুলনা, বরিশাল, পটুয়াখালী, নোয়াখালী, কুমিল্লা, চট্টগ্রাম, কক্সবাজার এবং সিলেট। এসব এলাকার নদীবন্দরকে ১ নম্বর সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

পূর্বাভাসে আরো বলা হয়, সকাল ৬টায় ঢাকায় তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ২৮.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। একই সময়ে আর্দ্রতা ছিল ৮৯ শতাংশ। আজকের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২৭.৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস। ঢাকায় মঙ্গলবার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৩.০ ডিগ্রি সেলসিয়াস।


আরও খবর

শিগগিরই বাড়ছে বিদ্যুতের দাম

মঙ্গলবার ০৪ অক্টোবর ২০২২




চালের বাজারে আবারও অস্বস্তি

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৩ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ |
Image

আতপ চাল রপ্তানিতে বাড়তি শুল্ক আরোপ করেছে ভারত। এখন থেকে বাংলাদেশে আতপ চাল আমদানিতে ২০ শতাংশ হারে রপ্তানি শুল্ক দিতে হবে ভারতীয় ব্যবসায়ীদের। খুদ রপ্তানিও নিষিদ্ধ করেছে দেশটি। আমদানিকারকদের আশঙ্কা, ভারতের এ সিদ্ধান্তে আবার অস্থিতিশীল হয়ে উঠতে পারে চালের বাজার। এদিকে, শুল্ক বৃদ্ধিকে দাম বাড়ানোর অজুহাত হিসেবে কাজে লাগাচ্ছেন পাইকারি ও খুচরা ব্যবসায়ীরা।

লাগামহীনভাবে চালের দাম বৃদ্ধি ঠেকাতে বাজারে সরবরাহ বৃদ্ধির উদ্যোগ নেয় সরকার। এ লক্ষ্যে আমদানি বাড়াতে দেওয়া হয় শুল্ক ছাড়। গত ২৮ আগস্ট চাল আমদানির ওপর ১০ শতংশ শুল্ক প্রত্যাহার করা হয়। যার ইতিবাচক প্রভাব পড়তে শুরু করে বাজারে। আমদানি বেড়ে যাওয়ায়, কয়েক দিনের ব্যবধানে পাইকারি ও খুচরায়, সব ধরনের চালের দাম কেজিতে কমে আসে ৫ টাকা পর্যন্ত। কিন্তু ভারত আতপ চাল রপ্তানির ওপর শুল্ক বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত নেওয়ায় আবার অস্থিতিশীল হচ্ছে চালের বাজার।

আমদানি করা চাল পাইকারি ও খুচরা বাজারে আসছে না- এমন অভিযোগ করে পাইকারি ব্যবসায়ীরা জানান, আমদানি করা চালের পুরোটাই কিনে নিচ্ছেন মিল মালিক ও হাতে গোনা বড় কয়েকটি কোম্পানি। দেশের উৎপাদন এবং আমদানি মিলে পুরো মজুদ থাকছে তাদের কাছেই। আর তাদের খেয়াল-খুশিতেই নির্ধারিত হচ্ছে দাম। সরবরাহ বাড়াতে মিল গেট এবং মজুদ পর্যায়ে তদারকির দাবি ব্যবসায়ীদের।


আরও খবর

লিটারে ১৪ টাকা কমল সয়াবিন তেলের দাম

মঙ্গলবার ০৪ অক্টোবর ২০২২




মৌসুমি বায়ুর প্রভাবে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে বৃষ্টি

প্রকাশিত:সোমবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ০৫ অক্টোবর ২০২২ |
Image

মৌসুমি বায়ুর প্রভাবে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে থেমে থেমে হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি হচ্ছে। এই অবহাওয়া অক্টোবরের প্রথম সপ্তাহ পর্যন্ত চলতে পারে বলে পূর্বাভাসে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদফতর।

সোমবার সকাল থেকেই রাজধানীর আকাশ ছিল মেঘলা। আবার কোথাও কোথাও ফোঁটা-ফোঁটা বৃষ্টিও হয়েছে। তবে দুপুর সাড়ে ১২টা নাগাদ বৃষ্টি বাড়তে শুরু করে। এখন পর্যন্ত তা হালকা থেকে মাঝারি অবস্থায় আছে। কোথাও ভারী বৃষ্টি নেই। তবে ঢাকার বাইরের কোথাও কোথাও আগামী ২৪ ঘণ্টায় ভারী বৃষ্টি হতে পারে বলে আবহাওয়া অধিদফতর জানিয়েছে।

আবহাওয়াবিদ তরিফুল নেওয়াজ কবির বলেন, এখন মৌসুমি বায়ুর প্রভাবে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে থেমে থেমে হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি হচ্ছে। এই অবস্থা আরও কিছুদিন থাকতে পারে। কারণ এখনও বাংলাদেশে মৌসুমি বায়ু অবস্থান করছে।

সাধারণত অক্টোবরের প্রথম সপ্তাহের দিকে মৌসুমি বায়ু বিদায় নেয় জানিয়ে তিনি বলেন, এবারও একই সময়ে (অক্টোবরের প্রথম সপ্তাহে) এই পরিস্থিতির পরিবর্তন ঘটবে বলে আশা করছি। তার আগেও এই বায়ু বিদায় নিতে পারে। এখনই এটি বলা সম্ভব নয়। এদিকে গতকালও ঢাকার কিছু এলাকায় ভারী বৃষ্টি হয়েছে, আবার কিছু এলাকায় একেবারেই বৃষ্টি হয়নি। এমন আবহাওয়া বিরাজ করছে সারাদেশেই।

আবহাওয়া অধিদফতর জানায়, মৌসুমি বায়ুর অক্ষ উত্তর প্রদেশ, বিহার, পশ্চিমবঙ্গ ও বাংলাদেশের মধ্যাঞ্চল হয়ে আসাম পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে। এর একটি বর্ধিতাংশ উত্তরপশ্চিম বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে। মৌসুমি বায়ু বাংলাদেশের উপর কম সক্রিয় এবং উত্তর বঙ্গোপসাগরের অন্যত্র দুর্বল থেকে মাঝারি অবস্থায় রয়েছে।



আরও খবর

শিগগিরই বাড়ছে বিদ্যুতের দাম

মঙ্গলবার ০৪ অক্টোবর ২০২২




কুমিল্লায় সুজন হত্যার বিচার দাবিতে মানব বন্ধন

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ০৫ অক্টোবর ২০২২ |
Image

কু‌মিল্লা ব্যুরো ঃ

কুমিল্লায় সুজন হত্যার বিচার দাবি করে সংবাদ সম্মেলন ও মানব বন্ধন করেছে এলাকাবাসী ও তার পরিবার।                   বৃহস্পতিবার দুপুরে নগরীর ঠাকুরপাড়া এলাকায় তার নিজ বাসায় সংবাদ সম্মেলনে সুজনের পরিবারের সদস্যরা সাংবাদিকদের বলেন, ১২সেপ্টেম্বর  জিলানী সুজনকে তার নিজ বাসা থেকে রিপন ও তার সহযোগীরা ডেকে নিয়ে হত্যা করে। এবিষয়ে মামলা করতে গেলে পুলিশ মামলা নেয়নি পরে আদালতে মামলা করা হয়। বতর্মানে আসামীরা বিভিন্ন ভাবে ভয়ভীতি দেখাচ্ছে। এঘটনার সুষ্ঠ বিচার দাবি করছি। পরে ঠাকুরপাড়া সড়কে মানববন্ধন কর্মসূ‌চি পালন ক‌রে নিহ‌তের প‌রিবারসহ এলাকাবাসী।


আরও খবর



এক এনআইডিতে ১৫টির বেশি সিম নয়

প্রকাশিত:বুধবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ |
Image

রোকসানা মনোয়ার : একটি জাতীয় পরিচয়পত্র  দিয়ে একজন মোবাইল ফোন ব্যবহারকারী সর্বোচ্চ ১৫টি সিম নিবন্ধন করতে পারবেন। এছাড়া যাদের এনআইডি নেই তারা জন্মসনদ, ড্রাইভিং লাইসেন্স বা পাসপোর্ট দিয়ে দুটি সিম কিনতে পারবেন। কিন্তু একটি এনআইডির বিপরীতে ২৩১টি সিমও পাওয়া গেছে অনুসন্ধানে। এনআইডি বা স্মার্টকার্ডের বিপরীতে অধিক সংখ্যক সিম কেনা ও নিবন্ধন করার ঘটনায় নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসি সতর্ক অবস্থান নিয়েছে।
জানা যায়, বিটিআরসি একটি জাতীয় পরিচয়পত্রের বিপরীতে ২৩টি, ২৭টি, ৩০টি, ৩২টি এমনকি সর্বোচ্চ ২৩১টি সিম নিবন্ধনের সন্ধান পেয়ছে। ২৬টি করে সিম আছে এমন গ্রাহকের সংখ্যা ১৫ হাজার ১৯৬ জন। ৩০টি করে সিম আছে ১৫ হাজার ২৫৭ জনের। ২৪টি করে সিম আছে এমন গ্রাহকের সংখ্যা ২০ হাজার ৭০০ জন। ২৩টি করে সিম আছে ২৪ হাজার ৬৭৯ জনের। অন্যদিকে ২০টি করে সিম আছে ৪৭ হাজার ৮২৫ জনের। একটি জাতীয় পরিচয়পত্রের বিপরীতে ১৫টির বেশি সিম আছে, এমন গ্রাহকের সংখ্যা ৭ লাখ ২৩ হাজার ৯২৩টি।  

নির্বাচন কমিশন ১০, ১৩ ও ১৭ ডিজিটের জাতীয় পরিচয়পত্র দিয়ে থাকে। এর আগে সিবিভিএমপি (সেন্ট্রাল বায়োমেট্রিকস ভ্যারিফিকেশন মনিটরিং সিস্টেম) সলিউশনে ১৭ ডিজিট ও ১০ ডিজিটের জাতীয় পরিচয়পত্রের নম্বর এবং জন্মনিবন্ধন সনদের নম্বর, ড্রাইভিং লাইসেন্স নম্বর এবং পাসপোর্ট নম্বরের ম্যাপিং না থাকায় একজন গ্রাহকের পক্ষে ৭৫টি (প্রতিটি ডকুমেন্টের বিপরীতে ১৫টি করে) সিম নিবন্ধন করা সম্ভব ছিল। পরবর্তী সময়ে ২০২১ সালের ১৬ মার্চ জন্মনিবন্ধন সনদের নম্বর, ড্রাইভিং লাইসেন্স নম্বর এবং পাসপোর্ট নম্বর ব্যবহার করে সর্বোচ্চ দুটি সিম নিবন্ধনের বিষয়ে কমিশন নির্দেশনা প্রদান করে।

এ অবস্থায় বর্তমান পরিস্থিতিতে সিবিভিএমপি সলিউশনে ১৭ ও ১০ ডিজিটের জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বর এবং জন্মনিবন্ধন সনদের নম্বর, ড্রাইভিং লাইসেন্স নম্বর এবং পাসপোর্ট নম্বরের মধ্যে ম্যাপিং না থাকায় একজন গ্রাহকের পক্ষে ৩৬টি (১৫+১৫+২+২+২) সিম নিবন্ধন করা সম্ভব।

বিভিন্ন ধরনের পরিচিতি নম্বরের মধ্যে ম্যাপিং না থাকায় যেসব সমস্যা বর্তমানে হচ্ছে তা হলো গ্রাহকপ্রতি সর্বোচ্চ ১৫টি সিম অধিগ্রহণ সংক্রান্ত সরকারের নির্দেশনা যথাযথভাবে প্রতিপালন করা সম্ভব হচ্ছে না। একজন গ্রাহকের কাছে প্রকৃতপক্ষে কতগুলো সিম আছে তা নির্ণয় করা সম্ভব হচ্ছে না, সিম ব্যবহার করে কোনও অপরাধ সংঘটিত হলে অপরাধীকে শনাক্ত করা কঠিন হচ্ছে, একজনের নামে নিবন্ধিত সিম অন্যজন ব্যবহার করে অপরাধ ঘটাচ্ছে এবং সরকারের বিভিন্ন নাগরিক সেবা প্রদানের লক্ষ্যে বিভিন্ন সরকারি সংস্থাকে সঠিক তথ্য প্রদান সম্ভব হচ্ছে না।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বিটিআরসির ভাইস চেয়ারম্যান সুব্রত রায় মৈত্র বাংলা  বলেন, নতুন উদ্যোগের মূল কারণ হলো একটি জাতীয় পরিচয়পত্রের (এনআইডি) বিপরীতে ১৫টির বেশি মোবাইল সিম নেওয়া যাবে না। যাদের ১৫টির বেশি সিম থাকবে তাদের বাড়তি সিমগুলো সিংক্রোনাইজ করা হবে। পুরোপুরি বন্ধ করার আগে গ্রাহককে সেগুলোর বিষয়ে সুযোগ দেওয়া হবে।

তিনি বলেন, জাতীয় পরিচয়পত্রের ডেটাবেজ ও স্মার্ট কার্ডের ডাটাবেজের মধ্যে সংখ্যাগত পার্থক্য থাকায় দুটি দিয়েই গ্রাহক অনেক সিম নিতে পারছে। এটা সেন্ট্রাল ডাটাবেজের সঙ্গে ম্যাচও করছে না। নিয়ম হচ্ছে প্রতিটা জিনিসের তথ্য আমাদের ডাটাবেজে থাকতে হবে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, গত ২১ এপ্রিলে এপিআইয়ের মাধ্যমে নির্বাচন কমিশন থেকে সিবিভিএমপি সলিউশনে রাখা ১৭ ডিজিটের জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বরের সঙ্গে ১০ ডিজিটের জাতীয় পরিচয়পত্রের ম্যাপিং কার্যক্রম শুরু হয় এবং ১৮ মে ম্যাপিংয়ের প্রাথমিক ধাপ সম্পন্ন হয়। এরমধ্যে দেখা যায় ভুল জন্ম তারিখের কারণে ম্যাপিং করা সম্ভব হয়নি এমন ১৭ ডিজিটের জাতীয় পরিচয়পত্রের সংখ্যা ১৭ লাখ ৪৪ হাজার ৪০২টি। এগুলো সংশোধনের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা প্রয়োজন মনে করে বিটিআরসি। এজন্য মোবাইল ফোন অপারেটরদের সঙ্গে আলোচনা ও প্রয়োজনে নির্বাচন কমিশনের সহযোগিতা নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া যেতে পারে।  



আরও খবর

শিগগিরই বাড়ছে বিদ্যুতের দাম

মঙ্গলবার ০৪ অক্টোবর ২০২২




পুতিন-শি জিনপিং বৈঠক

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ০৫ অক্টোবর ২০২২ |
Image

ইউক্রেন–রাশিয়া যুদ্ধ শুরুর পর প্রথমবারের মতো সরাসরি বৈঠক করলেন রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ও চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং। বৃহস্পতিবার উজবেকিস্তানে অনুষ্ঠিত সাংহাই কো অপারেশন অর্গানাইজেশনের দুদিনের শীর্ষ সম্মেলনের ফাঁকে তাদের মধ্যে এ বৈঠক হয়।

ইউক্রেন যুদ্ধে ভারসাম্যপূর্ণ অবস্থান নেওয়ার জন্য চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের প্রশংসা করেছেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। একই সাথে তাইওয়ান ইস্যুতে পশ্চিমাদের উস্কানির সমালোচনা করে নিন্দাও জানান পুতিন। এ সময় জিনপিং জানান, বিশ্বে স্থিতিশীলতা ও ইতিবাচক শক্তি সঞ্চার করতে চীন রাশিয়ার সঙ্গে কাজ করতে ইচ্ছুক ।পশ্চিমাদের রুখতে কৌশলগত মিত্রতার ওপর জোর দেন তাঁরা। 


আরও খবর

চিকিৎসাবিজ্ঞানের নোবেল ঘোষণা

মঙ্গলবার ০৪ অক্টোবর ২০২২