Logo
শিরোনাম
মেঘনা নদীতে গোসল করার সময় নিখোঁজ ছাত্রের মরদেহ উদ্ধার রাজবাড়ীতে ট্রাকের সাথে সংঘর্ষে মোটর সাইকেল আরোহীর মৃত্যু রাজবাড়ীতে আবৃত্তি ও কথামালায় প্রকাশনা উৎসব নওগাঁয় মোটরসাইকেলের ধাক্কায় স্কুল ছাত্র নিহত-মা ও ছোট বোন আহত মোরেলগঞ্জে শ্রমীকদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ করলেন এমপি মিলন লালমনিরহাটে বিদ্যুৎ স্পৃষ্টে মারাগেছে স্কুলছাত্র নওগাঁয় বোরো ধান চাষের শুরুতেই বিদ্যুতের লোড শেডিং, দুঃশ্চিন্তায় কৃষকরা নওগাঁয় ৩৫ কোটি টাকা মূল্যের কষ্টিপাথরের মূর্তি উদ্ধার করেছে পুলিশ কুড়িগ্রামের শীতকাতর অসহায় মানুষের পাশে কেন্দ্রীয় যুবলীগ নেত্রকোনায় বিশ্ব জলাভূমি দিবস উপলক্ষে মানববন্ধন

জনপ্রিয় হচ্ছে ই-সিম

প্রকাশিত:Sunday ৩০ October ২০২২ | হালনাগাদ:Friday ০৩ February ২০২৩ |
Image

মোবাইল ফোনে নতুন প্রযুক্তির ই-সিম বা ভার্চুয়াল সিম জনপ্রিয় হতে শুরু করেছে। এই সিমের প্রতি মোবাইল ফোন ব্যবহারকারীদের বিশেষ আগ্রহ রয়েছে। বিশেষ করে যারা নতুন প্রযুক্তির মোবাইল ফোন ব্যবহার করেন, তারা ই-সিমে আগ্রহী বেশি বলে জানিয়েছে মোবাইল ফোন অপারেটররা।

গ্রামীণফোনের পর ই-সিম রবি ও বাংলালিংক বাজারে ছাড়ার প্রযুক্তি নিয়েছে বলে জানা গেছে। ই-সিম ব্যবহারে সুবিধার পাশাপাশি কিছু সীমাবদ্ধতাও রয়েছে। তার পরও ক্রেতারা বিশেষভাবে এই সিমের খোঁজ করছেন বলে জানিয়েছে অপারেটররা। নতুন নম্বরের সিম বিক্রিতে নিষেধাজ্ঞা থাকায় নতুন নম্বরে ই-সিম বিক্রি করতে পারছে না গ্রামীণফোন।

জানা গেছে, ই-সিমের প্রতি মোবাইল গ্রাহকদের আগ্রহ রয়েছে। এই সিম জনপ্রিয় হতে শুরু করেছে। ৫ লাখের মতো ডিভাইসে গ্রামীণফোনের ই-সিম ব্যবহার হচ্ছে। গ্রামীণফোন সেন্টারে গেলে ই-সিম নেওয়া যাবে।

ই-সিম হলো ভার্চুয়াল বা অ্যাম্বেডেড সিম। এটা এমন এক ধরনের সিম, যেটা ব্যবহার করতে ফোনে কোনো ধরনের সিমকার্ড মোবাইল সেটে ঢোকাতে হয় না। এতে প্লাস্টিকের ব্যবহারও কম হয়। ই-সিম ব্যবহার করতে হলে পছন্দমতো যেকোনো অপারেটরের একটা প্ল্যান বেছে নিতে হবে। তারপর একটা মোবাইল নাম্বার বাছতে হবে না (পুরোনো নম্বরে করতে চাইলে নম্বর বাছতে হবে না)। বায়োমেট্রিক ভেরিফিকেশন পদ্ধতি সম্পন্ন করে হ্যান্ডসেটে ইন্টারনেট সংযোগ চালু করতে হবে। সিম কিটে দেওয়া কিউআর কোড স্ক্যান করে তারপর মোবাইল সেট অনুযায়ী ধাপে ধাপে পুরো প্রক্রিয়াটি সম্পন্ন করতে হবে।

আইফোন, স্যামসাং, গুগল পিক্সেল ও মটোরোলার কয়েকটি মডেলের ফোনে ই-সিম ব্যবহার করা যাচ্ছে। এ ছাড়া আইপ্যাড প্রো, অ্যাপল ওয়াচের সব সিরিজ, স্যামসাং গ্যালাক্সি স্মার্ট ওয়াচ ও হুয়াওয়ের স্মার্ট ওয়াচে ই-সিম ব্যবহার করা যাচ্ছে। অনেক ডিভাইসেই সিমকার্ড ও ই-সিম ব্যবহারের সুযোগ থাকে। কোনোগুলোতে শুধু ই-সিম ব্যবহারেরই সুযোগ থাকে। ফলে ফোন কেনার আগে বিষয়গুলো দেখে নেওয়া জরুরি।


আরও খবর



লালমনিরহাটে বিডিটুডেস এর সাংবাদিককে হত্যার হুমকি

প্রকাশিত:Tuesday ১০ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Friday ০৩ February ২০২৩ |
Image

গৃহবধু ছবিতা রাণীর শরীরে গুরুত্বপূর্ণ রোগের চিকিৎসা করাতে লালমনিরহাটের নাম নিরাময় ক্লিনিকে গেলে তার পেট কেটে অপারেশন করা হয়। পরে যে কারণে অপারেশন করেন সেই রোগ না থাকায় তার পেটে সেলাই দিয়ে প্রথমে রংপুর রেফার করার কথা বললেও পরে ওই ক্লিনিকে চিকিৎসা দিয়ে   রোগাক্রান্ত ছবি রাণীর স্বামী শচীন রায়ের বাড়ীতে নিয়ে যেতে বললে বর্তমানে ছবিতা সদরের বেড়পাঙ্গা গ্রামে নিজ বাড়ীতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আছেন।  এ ব্যাপারে পৃথক ভাবে ছবিতার লোকজন ও কন্যা সঞ্চিতা বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।  এঘটনায় সংবাদ প্রচার ও স্টাটাস দিলে ক্লিনিক মালিক মোবাইল ফোনে পরিচয় দিয়ে অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ সহ নানানরকমের হুমকি ধামকি প্রদান করেন।  


লালমনিরহাটে মোবাইল ফোনে বিডিটুডেস এর সাংবাদিককে হত্যার হুমকি; থানায় জিডি

রোববার (৮ জানুয়ারি) রাত ৮টা ৩মিনিটের দিকে সামসুল আলম পরিচয় দিয়ে সাংবাদিক উত্তম কুমার রায়-এঁর মোবাইল ফোনে তাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজসহ দেখে নেবোসহ নানা হুমকি ধামকি দেয়।

এ ঘটনায় লালমনিরহাট সদর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী করা হয় (জি. ডি নং-৩৮২, তাং ০৯/০১/২৩ইং)।

সাধারণ ডায়েরীতে সাংবাদিক উত্তম কুমার রায় উল্লেখ করেছেন, ‘পেশাগত দায়িত্ব পালন করায় ইং ৮ জানুয়ারি, ২০২৩ রাত ৮:০৩ঘটিকার সময় আমার ব্যবহৃত মুঠোফোন ০১৮৪১৭১০৩৫৭ নম্বরে অপরিচিত ০১৭১৬৫৩৩৮৩৯ নম্বর হতে কল আসলে আমি রিসিভ করি। এমতাবস্থায় আমাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করতে থাকে। পরিচয় জানতে চাইলে কলদাতা বলেন, আমি সামসুল আলম নিরাময় ক্লিনিকের মালিক, এখন চিনছিস। গালিগালাজের কারণ জানতে চাইলে কলদাতা বলেন, তুই আমার প্রতিষ্ঠান নিরাময় ক্লিনিক সম্পর্কে এতো লেখা-লিখি করিস কেন? তুই লালমনিরহাটের কে? তোকে দেখে নেবোসহ নানা হুমকি ধামকি দিতে থাকে। কথার এক পর্যায়ে সে চাঁদাবাজির মামলা দিবে বলে কল বিচ্ছিন্ন করে দেয়।


সাংবাদিক উত্তম কুমার রায় সাধারণ ডায়েরীতে আরও উল্লেখ করেছেন, উক্ত ঘটনার পর থেকে আমি আশঙ্কা করিতেছি যে, হুমকি দাতা সামসুল আলমের দ্বারা বা তার লোকজনের দ্বারা আমার প্রাণনাশের ও সামাজিকভাবে হেয় প্রতিপন্ন করিতে পারে।


আরও খবর



ডাক্তার ফেরদৌস খন্দকার এর নেতৃত্বে বিনামূল্যে হেলথ ক্যাম্প

প্রকাশিত:Sunday ২৯ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Friday ০৩ February ২০২৩ |
Image

কিশোরগঞ্জের অষ্টগ্রামে ডাক্তার ফেরদৌস খন্দকার এর নেতৃত্বে প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর জন্য স্বাস্থ্যসেবা কর্মসূচির আওতায় দিনব্যাপী বিনামূল্যে হেলথ ক্যাম্পে প্রায় এক হাজার দরিদ্র প্রান্তিক মানুষ এই ক্যাম্পে সেবা নেন দিনভর।

১৫ জন চিকিৎসক এই হেলথ ক্যাম্পে চিকিৎসা সেবা প্রদান করেন । ক্যাম্পে বিনামূল্যে বিপুল পরিমাণ ঔষধ ও চিকিৎসা সরঞ্জাম দেয়া হয়।

এর মধ্যে ১০জন রোগীকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় নিয়ে আসার দায়িত্ব নেন ডাঃ ফেরদৌস খন্দকার। গান্ধী আশ্রম এর সৌজন্যে শীত বস্ত্র উপহার দেয়া হয় রোগীদের

হেলথ ক্যাম্প আয়োজন করে শেখ রাসেল ফাউন্ডেশন ইউএসএ ও অগ্রগামী কমিউনিটি ডেভেলপমেন্ট ফাউন্ডেশন এবং গান্ধী আশ্রম ট্রাষ্ট

ভিডিও কনফারেন্স এর মাধ্যমে আমেরিকা থেকে অনুষ্ঠান উদ্ভোধন করেন অগ্রগামী কমিউনিটি ডেভেলপমেন্ট ফাউন্ডেশনের স্বাস্থ্য সেবা পরিচালক রুখসানা পারভীন ঝুমু ।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন স্থানীয় এমপি রেজোয়ান আহমদ তৌফিক। বিশেষ অতিথি ছিলেন আশ্রম ট্রাষ্টের চেয়ারম্যান অব: মেজর জেনারেল জীবন কানাই দাস, ছিলেন অষ্টগ্রামের উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ হারুন-অর-রশিদ । সার্বিক ব্যবস্থাপনায় ছিলেন অব: মেজর এহসান আহমেদ ।


আরও খবর



প্রেমিকাকে তুলে নিতে এসে সাবেক প্রেমিক সহ ৪ জন আটক

প্রকাশিত:Friday ২৭ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Friday ০৩ February ২০২৩ |
Image

শহিদুল ইসলাম জি এম মিঠন, স্টাফ রিপোর্টার :

যুবতীকে জোর-পূর্বক প্রাইভেটকারে তুলেনিয়ে যাওয়ার সময় সাবেক প্রেমিক সহ ৪ জনকে আটক করেছে র‌্যাব। 

সত্যতা নিশ্চিত করে র‌্যাব কাম্প থেকে প্রতিবেদক কে জানানো হয়, র‌্যাব-৫, সিপিসি-৩, জয়পুরহাট ক্যাম্পের একটি চৌকস আভিযানিক দল কোম্পানী অধিনায়ক মেজর মোঃ মোস্তফা জামান এবং স্কোয়াড কমান্ডার সিনিয়র সহকারি পুলিশ সুপার মোঃ মাসুদ রানা এর নেতৃত্বে বুধবার দুপুর পনে ১২টারদিকে জয়পুরহাট জেলার সদর উপজেলার পাঁচুরমোড় এলাকা 

হতে ভিকটিম যুবতীকে উদ্ধার সহ ভিকটিম এর সাবেক প্রেমিক পরিচয়দানকারী অপহরণকারী আব্দুল্লাহ আল মাসুম (২২) সহ সহ মোট ৪ জনকে আটক করা হয়।

আটকৃতরা হলেন, লালমনিরহাট জেলা সদর উপজেলার পঞ্চগ্রাম খন্ডিকরপাড়া গ্রামের 

মোঃ ফয়জার রহমানের ছেলে আব্দুল্লাহ আল মাসুম (২২) ও তার ৩ সহযোগী লালমনিরহাট জেলা সদর উপজেলার শিবরাম গ্রামের মৃত আলম মিয়ার ছেলে ওবায়দুল ইসলাম(২৬), সাদেক নগর গ্রামের মোঃ ইসলাম এর ছেলে ময়নুল হক (২৩) এবং একই গ্রামের আমিনুল ইসলাম এর ছেলে সোহেল রানা(২২)।

র‌্যাব আরো জানান, বুধবার সকাল ১০ টারদিকে ভিকটিম যুবতী (১৮) জয়পুরহাট জেলা সদর থানাধীন পাচুরমোড় এলাকায় শপিং করার সময় ভিকটিম যুবতীর সাবেক প্রেমিক মোঃ আব্দুল্লাহ আল মাসুম (২২) ও তার ৩ জন সহযোগী ভিকটিম যুবতীকে জোরপূর্বক ভাড়াকরা একটি প্রাইভেটকারে উঠিয়ে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন। ঘটনাস্থলটি র‍্যাব ক্যাম্প হতে আনুমানিক ৪০০-৫০০ গজ দূরে অবস্থিত। এসময় আমাদের জয়পুরহাট র‍্যাব ক্যাম্পের ৬ জন দায়িত্বরত এফএস সদস্য পাম্পে বাইকের জ্বালানি তেল নিতে যাওয়ার সময় বিষয়টি লক্ষ করেন এবং কোম্পানি অধিনায়ককে বিষয়টি অবহিত করলে জয়পুরহাট র‍্যাব ক্যাম্পের আভিযানিক দল দ্রুত ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে অপহরণকারী চক্রের মূলহোতা সহ ৪ জন সদস্যকে আটক ও ঘটনাস্থল থেকে ভিকটিম যুবতীকে উদ্ধার করতে সক্ষম হয়। পরে তাদেরকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে তারা স্বীকার করে যে, ভিকটিম যুবতীকে বিয়ে করার উদ্দেশ্যে তারা তাকে জোর করে উঠিয়ে নিয়ে যাচ্ছিল বলে আটককৃতরা 

র‌্যাবের কাছে শিকার করেছেন।

এঘটনায় থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে বলেও নিশ্চিত করেছে র‌্যাব।


আরও খবর



২০ হাজার মানুষের ফ্রি চিকিৎসা সেবা প্রদান

প্রকাশিত:Monday ২৩ January 20২৩ | হালনাগাদ:Friday ০৩ February ২০২৩ |
Image

মাহবুবুল আলম রিপন :

ঢাকার ধামরাইয়ে প্রায় বিশ হাজার দরিদ্র অসহায় নারী পুরুষের মাঝে বিনামূলে চিকিৎসা সেবা ও ফ্রি ঔষুধ প্রদান করা হয়েছে। দুই মাস ব্যাপী উপজেলার ৮টি ইউনিয়নের ক্যাম্পিং করে বিনা মূলে চিকিৎসা সেবা ব্যবস্থা করেন আমেনা নূর ফাউন্ডেশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সিআইপি বীর মুক্তিযোদ্ধা আহম্মদ আল জামান। এছাড়াও আমেনা নূর ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে স্কুল কলেজ,মসজিদ মাদ্রসা,এতিমখানা,মন্দির,রাস্তাঘাটসহ বিভিন্ন উন্নয়ন মূলক কার্যক্রমে অনুদান দিয়ে যাচ্ছেন।এছাড়া বাংলাদেশের বিভিন্ন জেলায় করোনা ও বন্যা কালীন সময়ে মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন আমেনা নূর ফাউন্ডেশন। চাঁদপুর হাজীগঞ্জে ও নোয়াখালি বেগমগঞ্জে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গাকালীন সময়েও পাশে ছিলেন আমেনা নূর ফাউন্ডেশন। 

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পর্দাথ বিজ্ঞান,ইসলামি ইতিহাস ও বাংলা বিভাগের দরিদ্র মেধাবী শিক্ষার্থীদের পড়া লেখার জন্য বীর মুক্তিযোদ্ধা নূর উজ জামান ও বীর মুক্তিযোদ্ধা আমেনা জামানের নামে ট্রাস্ট গঠন করেছেন আমেনা নূর ফাউন্ডেশন। 

শনিবার সকাল ৮টা থেকে শুরু করে সারাদিন ব্যাপী সানোড়া ইউনিয়নের মহিষাশী বাজারে প্রায় এক হাজার রোগিকে বিনামূলে চিকিৎসা ও ঔষুধ দেওয়া হয়। শিশু, গাইনী,ডায়বেটিস,মেডিসিনসহ অন্যন্য রোগের ডাক্তারগণ চিকিৎসা দিয়ে থাকেন।

এসময় আমেনা নূর ফাউন্ডেশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সিআইপি বীর মুক্তিযোদ্ধা আহম্মদ আল জামান বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনা স্বপ্নকে বাস্তবায়ন করার লক্ষে আমেনা নূর ফাউন্ডেশন সমাজের দরিদ্র অসহায় মানুষদের পাশে রয়েছে। আমরা বিনামূলে চিকিৎসা ছাড়াও মানুষের বাসস্থান ব্যবস্থা করে যাচ্ছি। স্কুল কলেজ,মসজিদ মন্দির, এতিমখানাসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে আমাদের অনুদান অব্যহত রয়েছে।

তিনি আরও বলেন, তারা যতদিন বেঁচে থাকবেন ততদিন মানুষের সেবা করে যাবেন। পরিশেষে তিনি ৭১ সালের মুক্তিযোদ্ধের অন্যতম সংগঠক আমেনা নূর ফাউন্ডশনের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা নূর উজ জামানের র্দীঘ আয়ুর জন্য সবাইকে দোয়া করার অনুরোধ করেন।


আরও খবর



যেসব অভ্যাসে মাইগ্রেনের ব্যথা বাড়ে

প্রকাশিত:Sunday ১৫ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Friday ০৩ February ২০২৩ |
Image

মাইগ্রেনের সমস্যায় ভোগেন অনেকেই। এমন সমস্যা হলে মাথায় যন্ত্রণার পাশাপাশি নানাবিধ শারীরিক সমস্যা হয়। প্রতিদিনের কিছু অভ্যাসে মাইগ্রেনের ব্যথা হতে পারে। তাই এই ব্যথা কমাতেই এসব অভ্যাস পরিত্যাগ করতে হবে।

ঘুমে অনিয়ম

প্রতিদিন অন্তত ৮ ঘণ্টা ঘুমাতেই হবে। যদি তা সম্ভব না হয় তবে ৬ ঘণ্টার কম ঘুমালে মাইগ্রেনের সমস্যা বাড়বেই। রাত জেগে ওয়েব সিরিজ দেখা কিংবা মোবাইল দেখার অভ্যাস নিয়ন্ত্রণে আনুন। সমাধান মিলবে।

চিনি

এমন খাবার এড়িয়ে চলুন যেগুলোতে অতিরিক্ত চিনি আছে। রক্তে সুগার বাড়লে মাইগ্রেনের ব্যথা বাড়ে। তাই পরিমিত বোধ রেখে মিষ্টি খান।

খালি পেট রাখা

দীর্ঘক্ষণ না খেয়ে থাকলে গ্যাস্ট্রিকের প্রকোপ বাড়বে। মাইগ্রেনের ব্যথা বাড়াতে গ্যাস্ট্রিকের জুড়ি মেলা ভার। তাই কখনও খালি পেটে থাকবেন না এবং প্রচণ্ড ব্যস্ততায় তো নয়ই।

কফি খাওয়ার অভ্যাস

যাদের ক্যাফেইন আসক্তি রয়েছে তাদের এই অভ্যাস কমাতে হবে। মাইগ্রেনের সমস্যা বাড়ানোর ক্ষেত্রে কফি একটি কারণ। কফির অভ্যাস সহসাই ছাড়ানো কঠিন। এক্ষেত্রে একজন পুষ্টিবিদের সঙ্গে আলাপ করে নিন। 


আরও খবর