Logo
শিরোনাম

কুমিল্লার মুরাদনগরে অস্ত্র ঠেকিয়ে কলেজ ছাত্রীকে অপহরণ

প্রকাশিত:সোমবার ০৯ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০২ জুলাই 2০২2 |
Image

নিজস্ব প্রতি‌বেদক ,কু‌মিল্লা 

কুমিল্লার মুরাদনগরে প্রকাশ্য দিবালোকে অস্ত্র ঠেকিয়ে ইসরাত জাহান নামে এক কলেজ ছাত্রীকে অপহরণ করা হয়েছে। সোমবার দুপুরে উপজেলা সদরের মাস্টার পাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে। অপহৃত কলেজছাত্রী ইসরাত জাহান (১৬) ওই এলাকার প্রবাসী দেলোয়ার হোসেনের মেয়ে এবং উপজেলা সদরের কাজী নোমান আহমেদ ডিগ্রী কলেজের একাদশ শ্রেণীর ছাত্রী। 

ভিকটিমের পরিবার এবং স্থানীয়রা জানায়,  সোমবার দুপুরে উপজেলা সদরের মাস্টার পাড়া এলাকার প্রবাসী দেলোয়ার হোসেনের বাড়িকে ঘেরাও করে একদল সন্ত্রাসী। সন্ত্রাসীদের হাতে অস্ত্র দেখে আশপাশের লোকজন আতঙ্কে এদিক-সেদিক ছোটাছুটি শুরু করে। এ সময় কলেজছাত্রী ইসরাত জাহানকে তুলে নেয়ার চেষ্টা করলে তার মা বাঁধা দেয়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে অপহরণকারীরা ভিকটিমের মাকে অস্ত্র ঠেকিয়ে মারধর করেন বলে অভিযোগ করা হয়। এ সময় ওই কলেজছাত্রীকে অস্ত্র ঠেকিয়ে সন্ত্রাসীরা একটি প্রাইভেটকারে তুলে নিয়ে যায়। পরে অপহৃত ছাত্রীর মায়ের চিৎকারে আশপাশের লোকজন একত্রিত হয়। খবর পেয়ে মুরাদনগর থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

অপহৃত কলেজছাত্রীর মা সুলতানা বেগম বলেন, ১ জন এসে দরজা নক করলে আমি ভাড়াটিয়া মনে করে দরজা খুলি, পরে মুহূর্তের মধ্যেই কয়েকজন মাস্ক পরিহিত আমার বাসায় ঢুকে আমার মেয়েকে টানাহেঁচড়া শুরু করেন, আমি তাদেরকে বাঁধা দিলে তারা আমাকে অস্ত্র ঠেকিয়ে মারধর করে আমার মেয়েকে তুলে নিয়ে যায়। আমি ঘটনায় জড়িতদের বিচার দাবি করছি এবং দ্রুত আমার মেয়েকে উদ্ধারে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সহযোগিতা কামনা করছি।

এবিষয়ে মুরাদনগর থানার ওসি আবুল হাশিম বলেন, বিষয়টি আমরা মৌখিকভাবে শুনেছি, এখনো লিখিত কোন অভিযোগ পাইনি, আমরা অবশ্যই ঘটনার রহস্য উদঘাটন এবং ওই ছাত্রীকে উদ্ধার তৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছি। 


আরও খবর



জয়ার দাম্পত্য ভাঙার গোপন কাহিনি

প্রকাশিত:বুধবার ০৮ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০২ জুলাই 2০২2 |
Image

নেটমাধ্যমে তার অনুরাগীর সংখ্যা বিপুল।দুই বাংলা তার প্রেমে বানভাসি।  তিনি কী করছেন, কোন পোশাক পরছেন, কার সঙ্গে কথা বলছেন, এই নিয়ে চর্চার শেষ নেই। তবে তার থেকেও বেশি কৌতূহল তার ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে। জয়া আহসানের ‘গুডবুক’-এ থাকতে চান এমন বিখ্যাত ব্যক্তিত্বের সংখ্যাও নেহাত কম নয়।

৫০ ছুঁই ছুঁই নায়িকা এই মুহূর্তে কোনও সম্পর্কে আছেন কি না, তা নিয়ে বিতর্ক থাকলেও তিনি যে একসময় গভীর প্রেমে ছিলেন, তা নিয়ে কোনও সন্দেহ নেই।

জয়ার প্রথম স্বামী ফয়সাল মাসুদ। ফয়সালকে ভালোবেসে বিয়ে করেছিলেন জয়া। জমিদার পরিবারের ছেলে ফয়সাল ছিলেন বিত্তবান। জয়ার সঙ্গে ফয়সালের দেখা হয়েছিল ১৯৯৮-এ। সেই প্রথম দেখার কথা ফয়সাল বলেছিলেন এক সাক্ষাৎকারে। একটি বিজ্ঞাপনের শুটিংয়ে জয়ার সঙ্গে ফয়সালের প্রথম দেখা। শুরুটা হয়েছিল তিক্ততা দিয়ে। সময়ে আসতে পারেননি ফয়সাল, মেক-আপের পর এক ঘণ্টা অপেক্ষা করতে হয়েছিল জয়াকে। রেগে গিয়ে কথা শোনাতে ছাড়েননি জয়া। এই রাগই আবার অনুরাগে বদলাতে বেশি সময় লাগেনি। ফোনে কথা বলতে বলতেই একে অপরের প্রতি ঘনিষ্ঠ হয়ে পড়েন। গভীর প্রেমে পড়েই ফয়সালকে বিয়ে করেছিলেন জয়া।

তাদের ১৩ বছরের দাম্পত্য কেন টিকল না, তা আজও রহস্য। জমিদার ঘরণি হয়ে জয়ার গুছিয়ে সংসার করা, একে অপরের প্রতি কতটা অনুরক্ত ছিলেন তারা? তাদের কাছের মানুষরা জানেন সব। এত কিছুর পরেও কেন ভেঙে গিয়েছিল তাদের সাজানো সংসার? প্রচ্ছন্ন ইঙ্গিত পাওয়া যায় ফয়সালের কাছে। ঠিক কী কারণে ভেঙে গিয়েছিল সেই সংসার, এতদিন পর তার পর্দা ফাঁস করলেন ফয়সাল নিজেই।

বিয়ের পরেও একসঙ্গে কাজ করছিলেন জয়া-ফয়সাল। জনপ্রিয় তারকা জুটিও হয়ে উঠেছিলেন। এরপরই ছন্দপতন।

কোথাও যেন জনপ্রিয়তা বাড়ছিল জয়ার। তুলনায় কিছুটা পিছিয়ে ছিলেন ফয়সাল। এই সাফল্যই হয়তো তাদের দাম্পত্যের অসাফল্যের কারণ হয়ে দাঁড়ায়। তাদের মধ্যে বাড়তে থাকে মনোমালিন্য। দূরত্ব ক্রমশ বাড়তেই থাকে। চেষ্টা করেও যা ঠিক করতে পারেননি ফয়সাল। যার পরিণতি বিবাহ বিচ্ছেদ। ২০১১ সালে পাকাপাকিভাবে আলাদা হয়ে যান তারা। পরে দুজনের কেউই আর বিয়ে করেননি।


আরও খবর

শিশুদের সিনেমায় মিথিলা

শুক্রবার ০১ জুলাই ২০২২




শ্রীনগরে উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যানকে হুমকির প্রতিবাদে মানববন্ধন

প্রকাশিত:সোমবার ২০ জুন ২০22 | হালনাগাদ:শনিবার ০২ জুলাই 2০২2 |
Image

শ্রীনগর সংবাদদাতাঃ

মুন্সীগঞ্জ শ্রীনগর উপজেলা পরিষদের নারী ভাইরাস চেয়ারম্যান ও উপজেলা মহিলা  আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি রেহানা বেগকে প্রকাশ্যে হত্যার হুমকি ও হাত পা ভেঙ্গে দিবে বলে লাঞ্চিত করার অভিযোগে শ্রীনগর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদকের বিরুদ্ধে মানববন্ধন, প্রতিবাদ সমাবেশ ও বিক্ষোভ মিছিল করা হয়েছে। গতকাল রবিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে শ্রীনগর উপজেলা পরিষদের সামনের সড়কে ‘শ্রীনগর উপজেলা মহিলা আওয়ামীলীগ’-এর ব্যানারে এসব কর্মসূচি পালন করা হয়। বিক্ষোভ মিছিলটি উপজেলা পরিষদ সড়ক  থেকে বের হয়ে বিভিন্ন এলাকা প্রদক্ষিণ করে উপজেলা পরিষদের সামনে এসে শেষ হয়। 

মানবন্ধনে নারো নেত্রীরা বলেন,  শ্রীনগর উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগ এর মতবিনিময় সভার নামে পকেট কমিটি করার প্রতিবাদ করি। এসময় আমাদের নেত্রী 

শ্রীনগর উপজেলা মহিলা  আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি রেহানা বেগম আমাদের সাথে পকেট কমিটির প্রতিবাদ জানায়। সেই প্রতিবাদ কে কেন্দ্র করে শ্রীনগর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক হাজী তোফাজ্জল হোসেন প্রকাশ্যে তাকে হত্যার হুমকি, হাত পা ভেঙ্গে দিবে ও লাঞ্চিত করায় আমরা নিন্দা ও ঘৃনা জনাচ্ছি। 

মানববন্ধনে মহিলা আওয়ামীলীগের   পক্ষে বক্তব্য রাখেন, বাড়ৈখালী ইউনিয়ন মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আফরোজা মোবারক,  কোলাপাড়া ইউনিয়ন মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মুন্নি বেগম, কুকুটিয়া ইউনিয়ন মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি  সেলিনা হোসেন, মহিলা নেত্রী আরমিনের ,  শেলিনা বেগম, আফরুজা মোবারক, আছিমন, নুরজাহান প্রমুখ।


আরও খবর



সোনারগাঁয়ে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ক্রীড়া প্রতিযোগীতা ও পুরষ্কার বিতরণ

প্রকাশিত:রবিবার ০৫ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০২ জুলাই 2০২2 |
Image

 সোনারগাঁ (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি:

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে পৌর এলাকার আদমপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ও পুরষ্কার বিতরণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল শনিবার সকালে বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে শ্রেষ্ঠ সফল জননী ২০২২, আসমা আখতারী ও হুরুন নেসাকে সম্মাননা স্মারক প্রদান করা হয়। আদমপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে তাদেরকে এ স্মারক প্রদান করা হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সোনারগাঁ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তৌহিদ এলাহি। বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মোহাম্মদ আসাদুজ্জামান মোল্লার সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা সহকারী শিক্ষা অফিসার শাহনাজ পারভিন, সমাজ সেবক মোতালেব মিয়া স্বপন ও সরকারি প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সভাপতি শফিকুল ইসলাম। আরও উপস্থিত ছিলেন, সোনারগাঁ জি.আর ইনস্টিটিউশনের শিক্ষক কামাল হোসেন, সমাজ সেবক খোকন মোল্লা, আব্দুর রব মোল্লা, বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সাবিনা সুলতানা প্রমূখ। 


আরও খবর



পদ্মা সেতু উদ্বোধন : দশ লক্ষাধিক লোক সমাগমের প্রত্যাশা

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৭ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০২ জুলাই 2০২2 |
Image

মুন্সী মো: আল ইমরান :  আগামী ২৫ জুন পদ্মা সেতু উদ্বোধনের পর সকাল ১১ টায় কাঠালবাড়ি প্রান্তে জনসভা করবে আওয়ামী লীগ। এতে দশ লক্ষাধিক লোকের জনসমাবেশের প্রত্যাশা করছে দলটি।

২৫ জুন পদ্মা সেতু উদ্বোধনে জনসভা সফল করতে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার ধানমন্ডিস্থ রাজনৈতিক কার্যালয়ে এক সমন্বয় বৈঠকে নেতারা এই আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

বৈঠক শেষে আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক কৃষিবিদ আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম বলেন, ‘আগামী ২৫ জুন স্বপ্নের পদ্মা সেতুর শুভ উদ্বোধন করতে যাচ্ছেন জাতির পিতার সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। পদ্মা সেতু নিয়ে দেশের মানুষের স্বপ্নের শেষ নেই। ২৫ জুন মানুষের স্বপ্ন বাস্তবায়ন হতে যাচ্ছে। এ দিনটি ঘিরে সারাদেশে মানুষের মধ্যে উৎসাহ-উদ্দীপনা ব্যাপক। এটি কীভাবে উদযাপিত হবে, তা নিয়ে আমরা আজ প্রাথমিক পরিকল্পনা করেছি।’

তিনি বলেন, ‘পদ্মা সেতুর উদ্বোধনের পর আওয়ামী লীগের জনসভা হওয়ার কথা রয়েছে। পদ্মাপাড়ের কাঁঠালবাড়ি ফেরিঘাটে বেলা ১১টায় এ সমাবেশ শুরু হবে। আমরা এ কর্মসূচি সফল করতে চাই। এ সমাবেশ ঘিরে দক্ষিণাঞ্চলের ২১ জেলা ও ঢাকার আশপাশের মানুষের ব্যাপক উপস্থিতি হবে। পদ্মা সেতু উদ্বোধন উপলক্ষে দিনব্যাপী অনুষ্ঠান হবে। এরপর সেখানে কালচারাল অনুষ্ঠান হবে। আশা করছি, পদ্মা সেতু উদ্বোধন উপলক্ষে যে জনসভা হবে, সেখানে কয়েক লাখ মানুষের উপস্থিতিতে বিশাল জনসমুদ্রে পরিণত হবে। এ জনসমুদ্র হবে উৎসবের জনসমুদ্র।’

বাহাউদ্দিন নাছিম বলেন, ‘এ জনসভা সফল করতে আমরা সবার সহযোগিতা চাই। সেখানে সবার অংশগ্রহণকে আমরা স্বাগত জানাবো। পদ্মা সেতু সারাদেশের মানুষের আকাঙ্ক্ষা। এটা নিয়ে যদি কেউ কোনো নীলনকশা করে, তাহলে দেশের জনগণই তাদের উপযুক্ত জবাব দেবে। ষড়যন্ত্রকারীদের প্রতিহত করবে।’

জাতীয় সংসদের চিফ হুইপ নূর-ই-আলম চৌধুরী লিটন বলেন, পদ্মা সেতুর উদ্বোধন আমাদের জন্য খুবই আনন্দের। এর গুরুত্ব ও তাৎপর্য দেশের সচেতন মানুষমাত্রই জানেন। পদ্মা সেতু দক্ষিণবঙ্গের মানুষের অর্থনৈতিক মুক্তির শেকড়। এতে আমাদের অর্থনৈতিতে পরিবর্তন আসবে। তাই পদ্মা সেতুর উদ্বোধনের দিনটি ইতিহাসে স্মরণীয় হয়ে থাকবে।’

আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম বলেন, পদ্মা সেতু উদ্বোধন উপলক্ষে মুন্সিগঞ্জ, ঢাকা ও এর আশপাশ থেকে সবচেয়ে বেশি মানুষ আসবে। এছাড়া বরিশাল বিভাগ থেকে লোকজন আসবে। আমরা মূল সমাবেশের আগে সেসব অঞ্চলের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকদের নিয়েও মিটিং করবো। চিফ হুইপের নির্বাচনী এলাকা শিবচরে এ মিটিংয়ের আয়োজন করা হবে।



আরও খবর



লালমনিরহাটে মাইক্রোবাসে,১৭ কেজি গাঁজাসহ

কুড়িগ্রামের ৪ মাদক কারবারি গ্রেফতার করেছে র‍্যব

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৭ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০২ জুলাই 2০২2 |
Image

নিজস্ব প্রতিনিধি, লালমনিরহাট: 

গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‍্যব-১৩) রংপুর,  লালমনিরহাটের কালীগঞ্জের কাকিনায় ১৭ কেজি গাঁজাসহ চারজন মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে।সোমবার (৬ জুন) দুপুরে এক প্রেস বিজ্ঞাপ্তিতে এ তথ্য নিশ্চিত করেন রংপুর র‍্যব ১৩ এর সিনিয়র সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) ফ্লাইট লেফটেন্যান্ট মাহমুদ বশির আহমদ।

 রোববার (৫ জুন) রাতে লালমনিরহাট-বুড়িমারী মহাসড়কের কাকিনা কবি শেখ ফজলুল করিমের ফলকের সামনে থেকে তাদের আটক করা হয়।আটককরা হলেন, কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ি উপজেলার ইকবাল হোসেন (৩৪), আজিমুল হক (৩৭), মুসা মিয়া (২২) ও সুমন মিয়া (১৫)।র‍্যাব জানায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে রোববার রাতে কাকিনা কবি শেখ ফজলুল করিমের নাম ফলক এলাকায় অভিযান চালায় রংপুর র‍্যাব ১৩ এর একটি দল। এসময় সন্দেহজনকভাবে রংপুরগামী একটি মাইক্রোবাস আটক করে তল্লাশী চালানো হলে ১৭ কেজি গাঁজা জব্দ করে র‍্যাব। সেই সঙ্গে চারজন মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করা হয়।

মাইক্রোবাসটি জব্দ করে মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে আটকদের বিরুদ্ধে কালীগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করে পুলিশে সোপর্দ করা হয়েছে বলেও জানান তিনি


আরও খবর