Logo
শিরোনাম

লোন দেয়ার কথা বলে প্রায় কুড়ি লাখ টাকা নিয়ে পালিয়েছে প্রতারক চক্র

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৫ মে ২০২৩ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২১ জুন ২০২৪ |

Image

নিজস্ব প্রতিনিধি,লালমনিরহাট :

জেলা সদরের থানা রোডে পূর্ব সাপটানা ভাতরি গ্রামে কাজীর বাড়ীর পাশে একটি নতুন বাড়ী মাত্র সাতদিন আগে ভাড়া নিয়ে চুক্তিপত্র করার কথা বলে সদরের কুলাঘাট, ঠাকুরের মাল্লি, মহেন্দ্রনগর সহ বিভিন্ন গ্রামের প্রায় ৩ শত মানুষকে মোটা অংকের লোন দেয়ার কথা বলে ৫ হাজার  থেকে ১০ লাখ টাকা দিতে চায় এবং এসকল গ্রাহকের নিকট থেকে সঞ্চয় বাবদ ২ শ থেকে সর্বোচ্চ ৮০ হাজার টাকা পর্যন্ত গ্রহন করে আজ দুপুরে কৌশলে আত্ম গোপনে যায় রফিকুল ইসলাম নামের প্রতারক সহ ওই চক্রের সদস্যরা।  সমবায় অফিস সূত্র জানান এই নম্বরে কোন নিবন্ধন দেয়া নাই।  

আজ লোন দিতে চাওয়া লোকজনদেরকে বেলা আড়াইটার পর অফিসে আসতে বললো তারা প্রয়োজনীয় কাগজপত্র নিয়ে অফিসে উপস্থিত হয়ে দেখতে পান তারা ওই অফিস কক্ষের মূল ফটকে তালা ঝুলিয়ে ফোন বন্ধ রেখে আত্মগোপনে চলে যায়।  কয়েকজন ভুক্তভোগী ওই প্রতারক চক্রের অপেক্ষায় অফিসের সামনে বসে থাকেন এবং মনে করেন হয়তো সংশ্লিষ্ট প্রতারক চক্র মাঠে সঞ্চয় আদায়ের জন্য গেছে ফিরতে হয়তো সন্ধ্যা লাগতে পারে তাই অপেক্ষায়।  কিন্তু না ওই বাড়ীর মালিক আসেন ভাড়াটিয়ার সাথে চুক্তি নামায় স্বাক্ষর নিতে কিন্তু প্রতারক রফিকুলের মোবাইল নম্বর বন্ধ পাওয়ায় বিষয়টি প্রতারণ বলে তার কাছে মনে হয় বলে জানান। 


এদিকে একাধিক ভুক্তভোগী জানান,সূর্যমুখী শ্রমজীবি সমবায় সমিতির লিঃ এর পরিচালক পরিচয় দেয়া রফিকুল ইসলামের সাথে অপর একজন পুরুষ সহ আরও দুজন নারী ওই অফিসে কাজ করতো। মোফা মিয়া জানান, আজকে লোন দেয়ার কথা বলে অফিসে ডাকছে কিন্তু আসার পর থেকে তার ফোন নম্বর  01317-684176 বন্ধ পাওয়া যাচ্ছে। তবে ওই বাড়ীর মালিক  জানান তার বাড়ী ভাড়ার চুক্তিপত্র আজকে হবার কথা ছিলো কিন্তু তাদের ফোন বন্ধ পাওয়ায় এসে দেখি অনেকে তাদের কাছে লোন পাওয়ার আসায় টাকা জমা দিয়েছে।  এর আগে কুলাঘাট ইউনিয়নের ওয়ার্ড সদস্য বাড়ীর মালিককে লোনের বিষয়ে জানায় কিন্তু সেটা আমলে নেননি ওই বাড়ীর  মালিক তাহের উদ্দিন।  এ ব্যাপারে একাধিক এলাকাবাসীরা জানান, তারা জানতোনা এই বাড়ীতে লোন দেয়া অফিস বা সমিতি আছে।  ঘটনাটি জানাজানি হলো পরে অনেকে বাড়ীর মালিকের উপস্থিতিতে অফিস প্রবেশ করে ছোট একটা সাইনবোর্ড, ৩/৪ টি চেয়ার ৩ টি টেবিল রশিদ বই,সদস্য ফরম  পাওয়া গেছে।  

এব্যাপারে থনায় অভিযোগ করবেন মর্মে জানান, মোফা মিয়া সহ একাধিক ভুক্তভোগী৷


আরও খবর



৬ই জুন বাজেট : শিক্ষায় বাড়ছে বরাদ্দ

প্রকাশিত:শনিবার ০১ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২০ জুন ২০24 |

Image

সদরুল আইন:

আগামী ৬ জুন প্রথম বাজেট দিতে যাচ্ছেন অর্থমন্ত্রী। বাজেটে শিক্ষার দুই মন্ত্রণালয়ের প্রায় ৯৪ হাজার কোটি টাকার বাজেট বরাদ্দের প্রস্তাব রাখা হয়েছে। 


শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা এবং কারিগরি শিক্ষায় বরাদ্দ থাকছে প্রায় ৫৫ হাজার কোটি টাকা। অন্যদিকে প্রাথমিক ও গণশিক্ষায় ৩৮ হাজার কোটি টাকার কিছু বেশি বরাদ্দ আসছে।


 তবে শিক্ষাবিদরা বলছেন, বাজেটের আকারের সাথে বরাদ্দ বাড়লেও ইউনেস্কোর হিসেবে এখনও জিডিপির ৪ শতাংশে পৌঁছাতে পারেনি বাংলাদেশ।



শিক্ষামন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল বলেন, বরাদ্দর চেয়ে গুণগত বাস্তবায়নে এবার জোর দেয়া হবে। আসছে অর্থবছরে গুরুত্ব পাবে শিক্ষকদের প্রশিক্ষক ও কারিকুলাম বাস্তবায়ন। সেইসাথে গুরুত্বের তালিকায় থাকবে কারিগরি ও বৃত্তিমূলক খাত।


শিক্ষামন্ত্রী অবশ্য বলছেন, বরাদ্দ যায় হোক বাস্তবায়নের গুরুত্ব দিতে হবে। এবার শিক্ষক প্রশিক্ষণসহ নতুন কারিকুলাম গুরুত্ব পাচ্ছে। গবেষণাও থাকবে অগ্রাধিকারে।


তিনি বলেন, বাজেট বাড়ালেই হবে না, সেটা কর্মমুখী করতে হবে। কর্মসংস্থান সংশ্লিষ্ট যে সব দক্ষতা আছে, সেগুলো তৈরি করতে হবে। শিক্ষকদের প্রশিক্ষণ, কারিকুলামের মান উন্নয়ন, উচ্চ শিক্ষায় জোর দেয়া হচ্ছে।   


প্রশ্ন ছিলো শিক্ষার সাথে বিভিন্ন মন্ত্রণালয়কে জুড়ে দিয়ে টাকার অঙ্ক বড় করে দেখানো হয়। মন্ত্রীর জবাবও ২২ মন্ত্রণালয় শিক্ষার সাথে কাজ করছে। 


শিক্ষামন্ত্রী বলেন, আমাদের অনেক প্রতিষ্ঠান আছে যেগুলো পাট ও বস্ত্র মন্ত্রণালয়ের অধীনে। সেগুলো কিন্তু এ হিসেবে দেখানো হয় না। আমাদের সাথে ২২টি মন্ত্রণালয় জড়িত। যেহেতু ২২টি মন্ত্রণালয় জড়িত সেখানে যথাযথ বাজেট বরাদ্দ হয়ে থাকে। 


করোনাকালীন ধাক্কা পুরোপুরি কাটিয়ে উঠেনি শিক্ষা খাত। সেই সাথে আরো কিছু চ্যালেঞ্জ ছিলো সব উৎরে বাজেটের সঠিক বাস্তবায়ন গুরুত্ব পাবে বলছেন শিক্ষামন্ত্রী।


আরও খবর



ভাড়া করা ফ্ল্যাটে খুন হন এমপি আনার

প্রকাশিত:বুধবার ২২ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২১ জুন ২০২৪ |

Image

ভারতে চিকিৎসা করাতে গিয়ে নিখোঁজ ঝিনাইদহ-৪ আসনের সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজিম আনারের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

বুধবার (২২ মে) কলকাতার নিউটাউন থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয় বলে স্থানীয় পুলিশ নিশ্চিত করেছে। এ ঘটনায় দুজনকে আটক করেছে তারা।

গত ১২ মে চিকিৎসার জন্য কলকাতায় গিয়ে উত্তরের বরানগরে বন্ধুর বাড়িতে ছিলেন আনার। ১৩ মে তিনি কারও সঙ্গে দেখা করতে গিয়েছিলেন, কিন্তু আর ফেরেননি।

পুলিশের বরাত দিয়ে স্থানীয় গণমাধ্যম কলকাতা২৪ জানিয়েছে, আনারের শেষ মোবাইল লোকেশন মিলেছিল বিহারে। গত ১৪ মে থেকে তার ফোন বন্ধ হয়ে যায়। গত আট দিন ধরে নিখোঁজ থাকলেও তার ফোন থেকে পরিবারের সদস্যদের কাছে মেসেজ পাঠানো হয় যে তিনি নয়াদিল্লি চলে গেছেন।

সংবাদমাধ্যমটির প্রতিবেদনে বলা হয়, ১৩ মে নিউটাউনের একটি বাড়িতে যান এমপি আনার। সেই বাড়িতেই খুন করা হয় তাকে।

পুলিশের বরাতে কলকাতা২৪ জানিয়েছে, নিউটাউনে যে বাড়িতে তিনি গিয়েছিলেন সেটা একজন এক্সাইজ অফিসারের। ভাড়া নেয়া বাড়িতে খুন করা হয়েছে এমপি আনারকে। খুনের দিন এই বাড়িতে নাকি নারীসহ একাধিক লোকজন ছিলেন। কিন্তু আনারের রহস্যজনক মৃত্যুর পর সবাই ভারত থেকে পালিয়ে গেছেন।

মো. আনোয়ারুল আজিম আনারের জন্ম ৩ জানুয়ারি ১৯৬৮ সালে। পেশায় ব্যবসায়ী আনার বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কালীগঞ্জ উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক। দ্বাদশ জাতীয় নির্বাচনে তিনি তৃতীয় বারের মতো সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।

ঝিনাইদহ-৪ আসন থেকে তিনবার (২০১৪, ২০১৮ ও ২০২৪) নির্বাচিত সাংসদ আনোয়ারুল আজিম আনার একজন ক্রীড়া সংগঠক এবং এক সময়ের জনপ্রিয় ফুটবল খেলোয়াড়। ছাত্রজীবনে আন্তঃস্কুল ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় ফুটবলে তার নেতৃত্বাধীন দল কালীগঞ্জ সরকারি ভূষণ পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয় জাতীয় চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করে।

ছাত্রজীবন থেকে তিনি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শ নিয়ে রাজনীতিতে পা রাখেন। স্থানীয় পৌর নির্বাচনে কাউন্সিলর নির্বাচন দিয়ে ভোটের রাজনীতি শুরু করেন তিনি। এর আগে বিশাল ভোটের ব্যবধানে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে জয়ী হয়ে দায়িত্ব পালন করেন। জাতীয় নির্বাচনগুলোতেও তিনি জয়ের ব্যবধান দিয়ে একই জনপ্রিয়তার স্বাক্ষর রাখেন।

সংসদ সদস্য নির্বাচিত হওয়ার পর এলাকায় কখনও তাকে পুলিশি প্রটোকল ব্যবহার করতে দেখা যায়নি। তিনি নিজেই মোটরসাইকেল চালিয়ে দিন অথবা রাতে যখন প্রয়োজন তখনই নির্বাচনী এলাকার প্রত্যন্ত অঞ্চলের যে কোনও গ্রামে পৌঁছে যেতেন।


আরও খবর

শেখ হাসিনার প্রশংসায় জয়শঙ্কর

শুক্রবার ২১ জুন ২০২৪




লোকসভা নির্বাচনের শেষ ধাপের ভোটগ্রহণ চলছে

প্রকাশিত:শনিবার ০১ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৯ জুন ২০২৪ |

Image

 ডিজিটাল ডেস্ক:

ভারতের ১৮তম লোকসভা নির্বাচনের সপ্তম ও শেষ দফার ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে। 


শনিবার (১ জুন) সকাল সাতটায় দেশটির আটটি রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের ৫৭টি লোকসভা আসনে ভোটগ্রহণ শুরু হয়। চলবে সন্ধ্যা ছয়টা পর্যন্ত।


গত ১৯ এপ্রিল শুরু হয় বিশ্বের সর্ববৃহৎ গণতান্ত্রিক দেশ ভারতের লোকসভা নির্বাচন। সাত ধাপের মধ্যে এ পর্যন্ত ছয় ধাপে ৫৪৩ আসনের মধ্যে ভোটগ্রহণ হয়েছে ৪৮৬ আসনে। 


শনিবার সপ্তম ও শেষ ধাপে ৭ রাজ্য ও একটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের ৫৭ আসনে ভোট। এই দফায় প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ৯০৪ জন প্রার্থী।


শেষ দফায় মোট ভোটারের সংখ্যা প্রায় ১০ কোটি ৬ লাখ। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ৫ কোটি ২৪ লাখ, নারী ভোটার রয়েছে ৪ কোটি ৮২ লাখ। আর তৃতীয় লিঙ্গের ভোটার রয়েছেন ৩ হাজার ৫৭৪ জন। ভোটগ্রহণ হচ্ছে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম)।


শেষ দফায় ভোটগ্রহণ হচ্ছে উত্তর প্রদেশ ও পাঞ্জাবে ১৩টি করে আসনে। এ ছাড়া পশ্চিমবঙ্গের ৯টি, বিহারে ৮টি, ওড়িশায় ৬টি, হিমাচল প্রদেশে ৪টি, ঝাড়খন্ডে ৩টি এবং চন্ডিগড়ের একটি আসনে ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে।


পশ্চিমবঙ্গের ৪২টি লোকসভা আসনের মধ্যে এই দফায় ভোট হচ্ছে শেষ ৯টি আসনে। দমদম, বারাসাত, বসিরহাট, জয়নগর, মথুরাপুর, ডায়মন্ড হারবার, যাদবপুর, কলকাতা উত্তর এবং কলকাতা দক্ষিণ কেন্দ্রে হবে ভোটগ্রহণ।




আরও খবর

যুদ্ধে জড়িয়ে পড়তে পারে ইইউ

বৃহস্পতিবার ২০ জুন ২০24




প্রাথমিকে ঢাকা-চট্টগ্রাম বিভাগের উত্তীর্ণ প্রার্থীদের মৌখিক পরীক্ষা গ্রহণে বাধা নেই

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ৩০ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৯ জুন ২০২৪ |

Image

সদরুল আইন:

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক নিয়োগে তৃতীয় ধাপে ঢাকা-চট্টগ্রাম বিভাগের উত্তীর্ণ প্রার্থীদের মৌখিক পরীক্ষা গ্রহণে হাইকোর্টের দেওয়া আদেশ স্থগিত করেছেন আপিল বিভাগের চেম্বার জজ আদালত। 


ফলে মৌখিক পরীক্ষা গ্রহণে আর কোনো বাধা নেই।


প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের দায়ের করা আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে শুনানি নিয়ে বৃহস্পতিবার (৩০ মে) আপিল বিভাগের বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিমের চেম্বার জজ আদালত এ আদেশ দেন। 


তবে প্রশ্নফাঁসের ঘটনায় হাইকোর্টের দেওয়া তদন্ত আদেশ চলবে। গোয়েন্দা সংস্থা ডিবির সঙ্গে সিআইডিকে অন্তর্ভুক্ত করতে বলেছেন আদালত।


প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের জ্যেষ্ঠ তথ্য কর্মকর্তা মাহবুবুর রহমান তুহিনের পাঠানো সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক নিয়োগে তৃতীয় ধাপের (ঢাকা ও চট্টগ্রাম বিভাগ) মৌখিক পরীক্ষা গ্রহণ সংক্রান্ত হাইকোর্ট যে স্থগিতাদেশ দিয়েছিলেন, আপিল বিভাগ তাতে স্টে অর্ডার ভ্যাকেন্ট করে দিয়েছেন। 


এর পরিপ্রেক্ষিতে তৃতীয় ধাপে লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণদের মৌখিক পরীক্ষা গ্রহণে আর বাধা নেই।


আরও খবর



আদালতে দণ্ডপ্রাপ্ত তারেককে এ বছর দেশে ফেরত এনে রায় বাস্তবায়ন করা হবে: শেখ হাসিনা

প্রকাশিত:সোমবার ২৭ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৯ জুন ২০২৪ |

Image



সদরুল আইন:


আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান এবং বিভিন্ন মামলায় দণ্ডপ্রাপ্ত পলাতক আসামি তারেক রহমানকে এ বছর এই দেশে ফিরিয়ে আনা হবে।


 তিনি বলেন, এখন একটাই কাজ, ঐ কুলাঙ্গারটাকে ফেরত নিয়ে এসে রায় বাস্তবায়ন করা।


গতকাল রবিবার গণভবনে কোটালীপাড়া উপজেলার নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান, কাউন্সিলর ও আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের উদ্দেশে দেওয়া এক বক্তব্যে তিনি এই কথা বলেন। এ সময় নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান ও কাউন্সিলররা প্রধানমন্ত্রীকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান।



প্রধানমন্ত্রী বলেন, তারেক রহমানকে দেশে ফিরিয়ে আনার ব্যবস্থা আমরা সরকারের পক্ষ থেকে নিব। ১০ ট্রাক অস্ত্র মামলার আসামি, সাজাপ্রাপ্ত আসামি, গ্রেনেড হামলার আসামি সাজাপ্রাপ্ত, দুর্নীতিতে চ্যাম্পিয়ন সাজাপ্রাপ্ত আসামি সেজন্য আমরা নিয়ে আসব ব্রিটিশ গভর্নমেন্টের কাছ থেকে। 


সেই আবেদন করব আমরা সরকারের পক্ষ থেকে।’সরকারবিরোধী আন্দোলনের নামে বিএনপি-জামায়াতের অগ্নিসন্ত্রাসের প্রসঙ্গ তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘মানুষ অগ্নিসন্ত্রাসের হাত থেকে মুক্তি পাবে। 


জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের যে সব খুনি বাইরে আছে আমরা তাদের খোঁজ করছি। তাদের দেশে ফিরিয়ে এনে শাস্তিটা কার্যকর করা হবে।’


 প্রধানমন্ত্রী বলেন, দেশের মানুষের শান্তি নিরাপত্তা নিশ্চিত করা, অর্থনৈতিক মুক্তি এবং অগ্রগতি অব্যাহত রাখা এটাই আমাদের লক্ষ্য। সেই লক্ষ্য নিয়ে আমাদের কাজ করতে হবে বলেও জানান প্রধানমন্ত্রী।


আরও খবর

শেখ হাসিনার প্রশংসায় জয়শঙ্কর

শুক্রবার ২১ জুন ২০২৪