Logo
শিরোনাম

মিরপুরে স্বামীর ছুরিকাঘাতে স্ত্রী নিহত

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৫ আগস্ট ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ |
Image

রাজধানীর মিরপুরের পল্লবীতে পরকিয়া সন্দেহে স্ত্রীর গলায় ছুরি চালিয়ে হত্যা করেছে স্বামী। এ ঘটনায় মেয়েটির স্বামী আব্দুল হান্নানকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

পুলিশ জানায়, দুদিন আগে খুলনা থেকে ঢাকায় এসে গার্মেন্টেসে চাকরি নেন গৃহবধূ সাথী। কিন্তু কারো প্রেমে পড়ে ঘর ছেড়েছে এমন সন্দেহে হান্নান ঢাকায় এসে তাকে খুঁজে বের করেন। বৃহস্পতিবার রাত ৮ টার দিকে, গার্মেন্টেস থেকে ফেরার পথে সাথীকে পল্লবীর সাত নম্বর সেকশনের রাস্তায় থামায় হান্নান। সেখানেই তিনি সাথীর ওপর চড়াও হয়ে গলায় ছুরি চালিয়ে দেন। এলাকার লোকজন সাথীকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যায়। চিকিৎসকরা জানান অতিরিক্ত রক্ত ক্ষরণে হাসপাতালে পৌঁছার আগেই মারা গেছেন সাথী 


আরও খবর

কল্যাণপুরে ভবনে ফাটল

রবিবার ০২ অক্টোবর 2০২2

কিশোর গ্যাং আতঙ্কে রাজধানী

শনিবার ০১ অক্টোবর ২০২২




যাত্রাবাড়ি'র ৪৮নং ওয়ার্ডে

সাধারণ সম্পাদক পদে আলোচনায় হাজী আতিকুর রহমান

প্রকাশিত:শনিবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ |
Image

স্টাফ রিপোর্টারঃ 

ঢাকা মহানগর দক্ষিণের যাত্রাবাড়ি থানা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে আসছে ১৩ ই অক্টোবর। যাত্রাবাড়ি থানা আওয়ামীলীগের সম্মেলন কে কেন্দ্র করে নেতাকর্মীদের মাঝে ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনা বিরাজ করছে। এছাড়াও যাত্রাবাড়ি থানা অন্তর্ভুক্ত গুরুত্বপূর্ণ কয়েকটি ওয়ার্ড যেমনঃ ৪৮, ৪৯, ৫০, ৬২, ৬৩ ও ৬৫ নং ওয়ার্ডের সম্মেলন হবে। 

এদিকে আসন্ন সম্মেলনে থানা ও ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের নতুন কমিটির সভাপতি এবং সাধারণ সম্পাদক সহ গুরুত্বপূর্ণ পদ কারা পাচ্ছেন এ নিয়ে চলছে নানান গুঞ্জন। তবে অধিকাংশ নেতাকর্মীই মনে করেন, ভিন্ন দল থেকে উড়ে এসে জুড়ে বসা নেতৃত্ব বাদ দিয়ে দলের ত্যাগি ও পরীক্ষিত নেতাদের মধ্যে থেকে নবীন প্রবীণের সমন্বয়ে নতুন নেতৃত্বের হাতে দলের দায়িত্ব তুলে দিতে হবে। তাহলে দলের দুঃসময়ে তারা মাঠের কর্মীদের পাশে থাকবেন বলে তাদের প্রত্যাশা 

যাত্রাবাড়ি থানার ৪৮ নং ওয়ার্ডে সাধারণ সম্পাদক পদে আলোচনার শীর্ষে আ,লীগ নেতা হাজী আতিকুর রহমান সুমন। দলের এবং নেতাকর্মীদের প্রিয়মুখ হিসেবে পরিচিত হাজী আতিকুর রহমান সুমন দক্ষিণ সায়েদাবাদ এলাকায় ইতিমধ্যে মানবিক নেতা হিসেবে পরিচিতি লাভ করেছেন।তিনি সায়েদাবাদ এলাকার শত শত অসহায়, দারিদ্র্যপীড়িত মানুষের মাঝে নিজ অর্থায়নে শীতের সময় শীতবস্ত্র এবং বছরে দুই ঈদে জামা -কাপড় উপহার বিতরণ করে থাকেন। 

মানবিক নেতা হাজী আতিকুর রহমান সুমন'র ছাত্রলীগের মাধ্যমে রাজনীতি জীবনের যাত্রা শুরু। উল্লেখ যে, সাবেক ডেমরা থানা অন্তর্ভুক্ত ৮৪ নং ওয়ার্ড যা কিনা এখন যাত্রাবাড়ী থানা ৪৮ নং ওয়ার্ড। তিনি সাবেক ডেমরা থানা ৪৮নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগের জসিম-আজিজ কমিটির একনিষ্ঠ ছাত্রলীগ কর্মী ছিলেন। সাবেক ডেমরা থানা ৪৮নং ওয়ার্ড আওয়ামী সেচ্ছাসেবকলীগের বাতেন-আব্বাস আলী'র কমিটির যুগ্ম সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। সাবেক ডেমরা থানা ৪৮নং ওয়ার্ড যুবলীগের মোঃ ওসমান-আবুল কালাম (অনু) কমিটির ত্রাণ বিষয়ক সম্পাদক ছিলেন। এছাড়াও যাত্রাবাড়ি থানা ৪৮নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের একনিষ্ঠ কর্মী হিসেবে আওয়ামীলীগের হাত কে শক্তিশালী করার জন্য কাজ করে যাচ্ছেন। তিনি সায়দাবাদ বাস টার্মিনাল শ্রমিক কমিটির সিনিয়র সহ সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। সায়দাবাদ বাইতুল জান্নাহ জামে মসজিদ ও আল হেরা মাদ্রাসার কমিটির সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন। বর্তমানে বীর মুক্তিযোদ্ধা ঢাকা-৫ আসনের সংসদ সদস্য এবং যাত্রাবাড়ি থানা আওয়ামীলীগের সভাপতি কাজী মনুরুল ইসলাম মনু'র রাজনৈতিক জীবনের বিশ্বস্ত কর্মী হিসেবে কাজ করে যাচ্ছেন। 

ঢাকা দক্ষিণ সিটি নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী বর্তমান মেয়র ব্যারিষ্টার শেখ ফজলে নুর তাপসকে বিজয়ী করার লক্ষ্য তিনি ৪৮নং ওয়ার্ডে দায়িত্ব পালন করেছেন এছাড়া ও তিনি বিগত জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ৪৮ নং ওয়ার্ডের বিভিন্ন কেন্দ্রে থেকে অগ্রনী ভুমিকা পালন করেন। 

এছাড়াও তৃণমূলের কর্মী বান্ধব জননেতা হাজী আতিকুর রহমান সুমন বিভিন্ন সামাজিক ও ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের সাথে ও জড়িত রয়েছেন। বিভিন্ন সামাজিক ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের উপদেষ্টা হিসেবে সততার সহিত দায়িত্ব পালন করে আসছেন। 

যাত্রাবাড়ি'র ৪৮ নং ওয়ার্ডে কর্মীবান্ধব এ নেতাকে সাধারণ সম্পাদক করার লক্ষ্যে নেতাকর্মীদের বেশ তৎপরতা লক্ষ করা যাচ্ছে। তাকে ঘিরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকেও সরব রয়েছে। ৪৮ নং ওয়ার্ডের বেশির ভাগ নেতাকর্মীই আ,লীগ নেতা হাজী আতিকুর রহমান সুমন কে সাধারণ সম্পাদক হিসেবে পদায়নের জন্য মতামত ব্যক্ত করতে পারেন বলে শোনা যাচ্ছে। 

সায়েদাবাদ এলাকার জনগণ জানান, রাজপথের ত্যাগী নেতা আ,লীগ নেতা হাজী আতিকুর রহমান সুমন যোগ্য 'সাধারণ সম্পাদক' প্রার্থী। আ,লীগ নেতা হাজী আতিকুর রহমান সুমন ৪৮নং ওয়ার্ডের নেতা কর্মীদের সাথে সমন্বয় করে দলের ভাবমূর্তি সূদরপ্রসারী করছেন। এবারের সম্মেলনে তাকে সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত করলে দল ও তৃনমূল কর্মীদের অনেক উপকৃত হবে। 

৪৮নং ওয়ার্ড যুবলীগ, ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা বলেন, এই ওয়ার্ডে আ,লীগ নেতা হাজী আতিকুর রহমান সুমন দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন রাজনৈতিক মিছিল, মিটিং ও সমাবেশে স্বতঃস্ফূর্তভাবে অংশগ্রহণ করে আসছেন। তাই সাধারন সম্পাদক পদটি তারই একমাত্র পাওয়ার যোগ্য। 

৪৮ নং ওয়ার্ডের সাধারন সম্পাদক পদপ্রার্থী আ,লীগ নেতা হাজী আতিকুর রহমান সুমন বলেন, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়তে কাজ করবো। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে ও রুপকল্প ভিশন-২০৪১ বাস্তবায়নের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করার লক্ষ্যে কাজ করবো। দলের দূঃসময়ে রাজপথে ছিলাম। 

গত ঢাকা-৫ আসনের উপনির্বাচনে নৌকার প্রার্থী কাজী মনুরুল ইসলাম মনুকে বিজয়ী করার লক্ষে দলের হয়ে গুরুত্বপূর্ন ভূমিকা পালন করে বলে জানান। করোনা মহামারীর সময়ে ৪৮নং ওয়ার্ডে যাত্রাবাড়ি থানা আওয়ামীলীগের সভাপতি কাজী মনুরুল ইসলাম মনু(এমপি) সার্বিক সহযোগিতায় ও নির্দেশে ঘরে ঘরে ত্রান বিতরণ ও স্বাস্থ্য সুরক্ষায় কাজে সর্বদা নিয়োজিত ছিলেন বলে জানান


আরও খবর

পুলিশের পক্ষে বললেন খামেনি

মঙ্গলবার ০৪ অক্টোবর ২০২২




বিসিক কেমিক্যাল পল্লী কাজে ধীর গতি

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৪ অক্টোবর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ |
Image

এক যুগ পেরিয়ে গেছে নিমতলী ট্র্যাজেডির। তবু ঢাকার মধ্যে ছড়িয়ে-ছিটিয়ে গড়ে ওঠা কেমিক্যাল গোডাউন সরেনি। ২০১০ সালের ৩ জুন পুরান ঢাকার নবাব কাটরার নিমতলীতে কেমিক্যাল গোডাউনে সংঘটিত দুর্ঘটনায় বহু হতাহতসহ সম্পদের ব্যাপক ক্ষতি হয়। এ ধরনের দুর্ঘটনা রোধসহ আবাসিক এলাকা থেকে কেমিক্যাল কারখানা-গোডাউন সরাতে ঢাকার কেরানীগঞ্জে ‘বিসিক কেমিক্যালপল্লী’ গড়ার প্রকল্প গ্রহণ করা হয়। পরে বৃহৎ পরিসরে ও অধিক উপযোগী স্থান হিসেবে মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখান উপজেলা নির্ধারণ করে ১ম সংশোধন আনা হয়।

জুলাই ২০১৮ থেকে শুরু হয়ে জুন ২০২২ পর্যন্ত ৫ বছরে প্রকল্পের বাস্তবায়ন অগ্রগতি মাত্র ৪৪ দশমিক ২৬ শতাংশ। এখন আবার ভূমি অধিগ্রহণে ১১০ কোটি ১৩ লাখ টাকা বৃদ্ধির প্রস্তাব করা হয়েছে পরিকল্পনা কমিশনে।

এরই পরিপ্রেক্ষিতে জমির কাজ সম্পন্ন করতে প্রকল্প মেয়াদ এক বছর অর্থাৎ জুন ২০২৩ পর্যন্ত বৃদ্ধি বাস্তবসম্মত কি না—এ বিষয়ে শিল্প মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন এক কর্মকর্তা জানান, অনুমোদিত ডিপিপি (উন্নয়ন প্রকল্প প্রস্তাবনা) অনুসারে ভূমি উন্নয়ন কার্যক্রম প্রায় ৭০ শতাংশ পর্যন্ত সম্পন্ন হয়েছে। কিন্তু বন্যার সর্বোচ্চ লেভেল পর্যন্ত মাটি ভরাট করে সব পূর্ত কাজ সম্পন্ন করতে আরো দেড় বছর লাগবে। সেই পরিপ্রেক্ষিতে প্রকল্পের বাস্তবায়ন মেয়াদ জুন ২০২৪ পর্যন্ত হলে ভালো হয়।

প্রকল্প এলাকায় বন্যার পানির সর্বোচ্চ লেভেল পর্যন্ত মাটি ভরাট, লেক খনন ইত্যাদি কাজের জন্য প্রকল্পটির দ্বিতীয় সংশোধন প্রস্তাব করা হয়েছে। জুলাই ২০১৮ থেকে জুন ২০২২ পর্যন্ত সময়ে ব্যয় ৬৫৪ কোটি ৮২ লাখ টাকা, যা মোট প্রকল্প ব্যয়ের ৪০ দশমিক ৫৩ শতাংশ এবং এর বাস্তব অগ্রগতি ৪৪ দশমিক ২৬ শতাংশ। তবে শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ুন বলেছেন, মুন্সীগঞ্জ জেলায় বিসিক কেমিক্যাল শিল্পপার্ক, বিসিক মুদ্রণ শিল্পপার্ক, বিসিক হালকা প্রকৌকল ও বৈদ্যুতিক পণ্য উৎপাদন শিল্পপার্ক, বিসিক প্লাস্টিক শিল্পপার্ক বাস্তবায়িত হচ্ছে। ইতোমধ্যে বিসিক এপিআই শিল্পপার্ক বাস্তবায়িত হয়েছে। ফলে মুন্সীগঞ্জ জেলা মাল্টিসেক্টরাল শিল্প হাব হিসেবে গড়ে উঠবে।

পরিকল্পনা কমিশনের শিল্প ও শক্তি বিভাগের এক কর্মকর্তা জানান, ১ম সংশোধিত প্রকল্পটি জুন ২০২২ সালে শেষ হওয়া জন্য নির্ধারিত ছিল। কিন্তু প্রকল্পের বাস্তবায়ন মেয়াদ শেষ হওয়ার প্রায় দেড় মাস পর প্রকল্পটির দ্বিতীয় সংশোধন প্রস্তাব পরিকল্পনা কমিশনে এসেছে। প্রকল্প অনুমোদন প্রক্রিয়াকরণ-সংক্রান্ত পরিপত্র অনুসারে প্রকল্পের মেয়াদ শেষ হওয়ার কমপক্ষে তিন মাস আগে সংশোধন প্রস্তাব পরিকল্পনা কমিশনে পাঠানোর বাধ্যবাধকতা রয়েছে, যা প্রতিপালন করা হয়নি।

ওই কর্মকর্তা আরো বলেন, প্রকল্পের মূল অনুমোদিত ভূমি উন্নয়নব্যয় ১৩০ কোটি ১৭ লাখ টাকা টাকা থেকে ১১০ কোটি ১৩ লাখ টাকা বৃদ্ধি করে ২৪০ কোটি ৩০ লাখ টাকা প্রস্তাব করা হয়েছে, যা অত্যাধুনিক বলে মনে হয়েছে।

সময়-ব্যয় বৃদ্ধি প্রসঙ্গে প্রকল্পের পরিচালক মো. হাফিজুর রহমান বলেন, প্রকল্পের সময় ও ব্যয় বাড়ছে। সময় বৃদ্ধির অন্যতম কারণ প্রকল্পের স্থান পরিবর্তন। ঢাকা বিভাগের কেরানীগঞ্জের পরিবর্তে এখন মুন্সীগঞ্জে প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করা হবে।

ভূমি উন্নয়ন খাতে বিপুল পরিমাণ ব্যয়বৃদ্ধির কারণ সম্পর্কে জানতে চাইলে প্রকল্প পরিচালক জানান, মূল অনুমোদিত ডিপিপিতে ১০ ফুট পর্যন্ত মাটি ভরাটের সংস্থান ছিল। কিন্তু পরে জেলা প্রশাসকের কাছ থেকে যে ভূমি বরাদ্দ পাওয়া গেছে তা নিচু জমি। ভূমি উন্নয়নের জন্য বন্যার পানির সর্বোচ্চ লেভেল পর্যন্ত গড়ে ১৭ ফুট পর্যন্ত মাটি ভরাটের প্রয়োজনীয়তা দেখা দিয়েছে। যে কারণে জমি অধিগ্রহণ ব্যয় বাড়ছে। ফ্ল্যাড লেভেল হাই করা হচ্ছে। যাতে প্রকল্প এলাকায় বন্যার পানি প্রবেশ না করে।

পরিকল্পনা কমিশন জানায়, প্রকল্প এলাকাটি দুটি নদী ধলেশ্বরী ও ইছামতীর মিলনস্থলে অবস্থিত। এমন একটি স্থানে কেমিক্যালপল্লী স্থাপনে অবশ্যই পরিবেশগত ছাড়পত্র নিতে হবে। এ ছাড়া নদীতীর থেকে অন্তত ১০০ ফুট জায়গা ছেড়ে দিয়ে কেমিক্যালপল্লীর বাউন্ডারি নির্মাণ এবং সে আলোকে লে-আউটপ্ল্যান সংশোধন করার পরামর্শ দেওয়া হয়। প্রকল্প এলাকায় কেমিক্যাল শিল্প ও গোডাউন উভয় ধরনের স্থাপনাই থাকবে।

এ বিষয়ে অর্থ বিভাগের এক কর্মকর্তা বলেন, প্রকল্প এলাকায় যে সাততলা অফিস ভবন নির্মাণ করা হচ্ছে। সেখানেই মেডিকেল সেন্টার ও নামাজ পড়ার স্থানের ব্যবস্থা করা যেতে পারে। এতে আলাদা করে মেডিকেল সেন্টার ও মসজিদ নির্মাণ প্রয়োজন হবে না এবং সরকারি অর্থের সাশ্রয় হবে।


আরও খবর

শিগগিরই বাড়ছে বিদ্যুতের দাম

মঙ্গলবার ০৪ অক্টোবর ২০২২




১১০০ শিক্ষকের সনদ জাল

প্রকাশিত:শনিবার ০১ অক্টোবর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ |
Image

রোকসানা মনোয়ার : দেশের বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান পরিদর্শন করে ১ হাজার ১০৮ জন শিক্ষকের জাল সনদ শনাক্ত হয়েছে। এই সনদধারী শিক্ষকদের পেছনে সরকারি কোষাগার থেকে ব্যয় হয়েছে ৪৯ কোটি ৮২ লাখ ৪৫ হাজার ৩৬০ টাকা। আর অবৈধ নিয়োগ, প্রাপ্যতার অতিরিক্ত গ্রহণ ও অন্যান্য খাতে ব্যয় হয়েছে আরো ২৬৮ কোটি ৩৫ লাখ ৯১ হাজার ৪৬৯ টাকা। এসব অর্থ সরকারি কোষাগারে ফেরত নেওয়ার সুপারিশসহ সম্প্রতি শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে প্রতিবেদন পাঠিয়েছে পরিদর্শন ও নিরীক্ষা অধিদপ্তর ।

এ বিষয়ে ডিআইএর যুগ্ম পরিচালক বিপুল চন্দ্র সরকার বলেছেন, বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন করে আমরা শিক্ষক নিবন্ধন সনদ জাল শনাক্ত করেছি। ২০২১ সালের মার্চ থেকে ২০২২ সালের আগস্ট পর্যন্ত জমি বেহাত হওয়ার তথ্য পেয়েছি। অবৈধ নিয়োগের কারণে এবং প্রাপ্যতার অতিরিক্ত নেওয়া অর্থ ফেরতের সুপারিশ করা হয়েছে। মন্ত্রণালয়ের কাছে সুপারিশ করা হয়েছে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে।

বিপুল চন্দ্র সরকার জানান, গত ১০ বছরে দেশের ২৪ হাজার ৯৭৫টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন করা হয়েছে। পরিদর্শন প্রতিবেদনও পাঠানো হয়েছে মন্ত্রণালয়ে।

গত ২৪ জুন ডিআইএর পরিচালক অধ্যাপক অলিউল্লাহ মো. আজমতগীরের সই করা প্রতিবেদনে জানানা হয়, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগ এবং কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগের মোট জাল সনদ শনাক্ত হয়েছে এক হাজার ১০৮টি। এর মধ্যে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের ৮২৪টি এবং কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগের ২৮৪টি।

মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের ২০১২ থেকে ২০২২ সাল পর্যন্ত শুধু শিক্ষক নিবন্ধন জাল শনাক্ত হয়েছে ৬১৫টি। নেকটারের কম্পিউটার সনদ জাল শনাক্ত হয়েছে ১৬০টি। অন্যান্য সনদ জাল শনাক্ত হয়েছে ৪৯টি। সর্বমোট ৮২৪টি।

আর কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগের ২০১২ থেকে ২০২২ সাল পর্যন্ত শিক্ষক নিবন্ধন জাল শনাক্ত হয়েছে ১৮৪টি। নেকটারের কম্পিউটার সনদ জাল শনাক্ত হয়েছে ৮৯টি। অন্যান্য সনদ জাল শনাক্ত হয়েছে ১১টি। সর্বমোট ২৮৪টি।

এসব জাল সনদের বিপরীতে শিক্ষকদের গ্রহণ করা অর্থ ৪৯ কোটি ৮২ লাখ ৪৫ হাজার ৩৬০ টাকা। এর মধ্যে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের ৩৬ কোটি ১০ লাখ, ৬৮ হাজার ৪৭৪ টাকা এবং কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগের ১৩ কোটি ৭১ লাখ ৭৬ হাজার ৮৮৬ টাকা।



আরও খবর



লালমনিরহাটে বিপুল পরিমাণ মাদক সহ গ্রেফতার তিন

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০22 | হালনাগাদ:বুধবার ০৫ অক্টোবর ২০২২ |
Image

লালমনিরহাটে পৌরসভার ৫ নং ওয়ার্ডের আদর্শপাড়া গ্রামে মাদক সম্রাট এরশাদুলের নিজ বাড়ী থেকে বিপুল পরিমাণ মাদকাসক্তি সহ তিনজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।  গ্রেফতারকৃত আসামিরা হলেন,  এরশাদুল তার স্ত্রী রুনা ও এরশাদুলের ভাই  নুরুন্নবী।  আজ দুপুরে বিশেষ তথ্যমতে এস আই নুর আলম প্রথামে ওই বাড়ীতে উপস্থিত হয়ে নিশ্চিত হয়ে সদর থানার অফিসারইনচার্জ এরশাদুল আলমকে খবর দিলে পরে সার্কেল এসপি মারুফা জামান এর উপস্থিতিতে এরশাদুলের বাড়ীতে খোঁজা খুঁজি করে রয়াল স্টিজ ৪ বোতল,ফেন্সিডিল ৬৩ বোতল,গাজা ৩ কেজি ৬ শ গ্রাম,জেপিন ২ গ্রাম ও হিরোইন ১৪ গ্রাম সহ মাদকদ্রব্য মাপার আধুনিক যন্ত্র সহ তিনজনকে গ্রেফতার করে সদর থানায় নিয়ে আসে এবং মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামল করার প্রস্তুতি চলছে।  এরশাদুল ও নুরুন্নবীর বিরুদ্ধে এ পর্যন্ত একাধিক মাদক মামলা বিচারাধীন রয়েছে মর্মে পুলিশ কর্তারা জানান।


আরও খবর



প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মদিন

প্রকাশিত:বুধবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ০৫ অক্টোবর ২০২২ |
Image

প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার জন্মদিন আজ। ৭৬ বছরে পা রাখলেন তিনি ।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের জ্যেষ্ঠ সন্তান শেখ হাসিনার জন্ম ১৯৪৭ সালের ২৮ সেপ্টেম্বর গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায়। তাঁর শৈশব-কৈশোর কেটেছে টুঙ্গিপাড়ার গ্রামীণ পরিবেশে। শেখ হাসিনা তাঁর জীবনের ৪১ বছরই আওয়ামী লীগকে নেতৃত্ব দিচ্ছেন। প্রতিকূল সময়ে দলের সভাপতির দায়িত্ব নিয়ে আওয়ামী লীগকে পুনর্গঠিত করেছেন, নিয়ে গেছেন রাষ্ট্রক্ষমতায়। বর্তমানে তিন মেয়াদে প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করছেন শেখ হাসিনা। নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে আজ দলীয় সভাপতির জন্মদিন উদযাপন করছে আওয়ামী লীগ এবং এর সহযোগী সংগঠনগুলো।


আরও খবর

শিগগিরই বাড়ছে বিদ্যুতের দাম

মঙ্গলবার ০৪ অক্টোবর ২০২২