Logo
শিরোনাম

মোরেলগঞ্জে নারী ইউপি সদস্য’র জমি দখল, পিটিয়ে আহত

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০১ ডিসেম্বর ২০২২ |
Image

এম.পলাশ শরীফ, নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

 বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে সংরক্ষিত নারী ইউপি সদস্য জাহানারা বেগম (৪৮) কে পিটিয়ে আহত করে জমি দখলের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার দুপুরে পশুরবুনিয়া গ্রামে। আহত ওই ইউপি সদস্যকে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

অভিযোগে জানাগেছে, খাউলিয়া ইউনিয়নের ১,২ ও ৩ নং সংরক্ষিত আসনের ইউপি সদস্য পশুরবুনিয়া গ্রামের মো. ফকরুল ইসলাম ফকিরের স্ত্রী জাহানারা বেগম দীর্ঘদিন ধরে ক্রয়সূত্রে বসতবাড়ি সংলগ্ন ১৭ শতক জমি ভোগ দখল করে আসছে।

উক্ত জমি জোরপূর্বক দখলের জন্য দু’দফা হামলা চালায় একই গ্রামের প্রভাবশালী আব্দুল খালেক হাওলাদারের নেতৃত্বে বহিরাগত ২০/২৫ জন লোক জমিতে ঘেরাবেড়া দিয়ে দখলে নেয়। এ সময় হামলাকারিদের বাঁধা দিলে ইউপি সদস্য জাহানারা ও তার ছোট ছেলে জহিরুল ইসলাম ফকিরকে বেধড়ক মারপিট করে আহত করে। গুরুত্বর জখমী জাহানারা বেগমকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসারত মেম্বার জাহানারা বলেন, চিকিৎসা নিতে আসার পথিমধ্যে ওরা বাঁধা প্রদান করেছে। বিষয়টি চেয়ারম্যান সাহেব ও ফাঁড়ি পুলিশকে অবহিত করা হয়েছে।  

এ বিষয়ে ইউপি চেয়ারম্যান মাষ্টার মো. সাইদুর রহমান বলেন, ইউপি সদস্যকে মারপিটের ঘটনা শুনে তাৎক্ষনিক পুলিশকে অবহিত করা হয়েছে। পরিষদে একটি লিখিত অভিযোগও দিয়েছেন। শনিবার উভয় পক্ষকে ডাকা হয়েছে।

সন্ন্যাসী ফাঁড়ি ইনচার্জ এসআই অনুপ রায় বলেন, পশুরবুনিয়া গ্রামে ইউপি মেম্বারের ওপর হামলা ঘটনা শুনে ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করা হয়েছে। মেম্বার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। লিখিত কোন অভিযোগ পাওয়া যায়নি। 


আরও খবর



খেলাপির ঝুঁকিতে বিশ্বের ৫৪ দেশ

প্রকাশিত:শনিবার ১২ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০১ ডিসেম্বর ২০২২ |
Image

বিশ্বের ৫০টিরও বেশি উন্নয়নশীল দেশ ঋণ খেলাপির ঝুঁকিতে আছে বলে জানিয়েছেন জাতিসংঘের উন্নয়ন কর্মসূচি সংস্থা (ইউএনডিপি) প্রধান আচিম স্টেইনার। তিনি হুঁশিয়ারি দিয়েছেন, যদি উন্নত বিশ্বের দেশগুলো সহায়তা না করে তাহলে ঝুঁকিতে থাকা এসব দেশ দেউলিয়া হয়ে যেতে পারে। বৃহস্পতিবার মিসরে কপ-২৭ জলবায়ু সম্মেলনে এমন তথ্য জানান আচিম। খবর দ্য গার্ডিয়ানের।

আচিম স্টেইনার জানিয়েছেন, মুদ্রাস্ফীতি, জ্বালানি সংকট এবং ক্রমবর্ধমান সুদ হার এমন পরিস্থিতির সৃষ্টি করছে যেখানে বেশ কয়েকটি দেশ ঋণ খেলাপির ঝুঁকিতে পড়েছে। যার মারাত্মক প্রভাব সাধারণ মানুষের ওপর পড়বে।

তিনি বলেন, আমাদের তালিকায় এখন ৫৪টি দেশ রয়েছে যেগুলো ঋণ খেলাপির ঝুঁকিতে পড়তে পারে। যদি আমরা আরও ধাক্কা খাই, সুদের হার বাড়ে, ঋণ গ্রহণ আরও ব্যয়বহুল হয়ে যায়, জ্বালানির মুল্য, খাদ্যের মুল্য বাড়ে তাহলে আমরা দেখব এ দেশগুলো আর ঋণ পরিশোধ করতে পারছে না।

তিনি আরও বলেন, এটি ভয়ঙ্কর পরিস্থিতি সৃষ্টি করবে- শ্রীলঙ্কার দিকে তাকান। যেটি এখন নিজের সঙ্গে সামাজিক, অর্থনৈতিক ও রাজনৈতিক সমস্যা নিয়ে চলছে।

কপ-২৭ জলবায়ু সম্মেলনে জাতিসংঘের এ জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা জানিয়েছেন, ঋণ খেলাপির ঝুঁকির বিষয়টি জলবায়ু মোকাবেলার ওপরও মারাত্মক প্রভাব ফেলবে। তিনি বলেছেন, ‘এরকম ঋণ খেলাপির ঝুঁকি জলবায়ু সমস্যা সমাধান আরও জটিল করে তুলবে। এটি অবশ্যই জলবায়ু কার্যক্রমকে সহায়তা করবে না।’

তিনি হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেছেন, উন্নত দেশগুলোর সহায়তা ছাড়া অনুন্নত দেশগুলো জলবায়ু সমস্যার সমাধান করতে পারবে না।

জাতিসংঘের ইউএনডিপির প্রধান আরও বলেছেন, জলবায়ুর সমস্যার কারণে উন্নয়নশীল ও অনুন্নত দেশগুলোর অর্থনৈতিক সমস্যা আরও বাড়ছে। তিনি হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেছেন, এসব দেশ ইতোমধ্যে জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে কঠিন পরিস্থিতির সম্মুখীন হচ্ছে। উন্নয়নশীল দেশগুলোকে উন্নত দেশগুলো যে সহায়তার প্রতিশ্রতি দিয়েছিল সেগুলো তারা পূরণ করেনি। কিন্তু এরমধ্যে ঝড়, বন্যা, খরা এবং তাপপ্রবাহের মতো সমস্যাগুলোর ঝুঁকি বাড়ছে।

তাছাড়া বৈশ্বিক পরিবর্তিত জলবায়ুর সঙ্গে মানিয়ে নিতে এবং গ্রিনহাউজ গ্যাসের নির্মগণ মাত্রা কমিয়ে আনতে উন্নয়নশীল দেশগুলোকে উন্নত দেশগুলো বার্ষিক যে ১০০ বিলিয়ন ডলার সহায়তার প্রতিশ্রতি দিয়েছিল, সেটি যদি তারা না রাখে তাহলে এসব দেশ জাতিসংঘের জলবায়ু কার্যক্রম থেকে দূরে সরে যেতে পারে বলেও হুঁশিয়ারি দিয়েছেন তিনি।


সূত্র: দ্য গার্ডিয়ান


আরও খবর

স্পেনে ইউক্রেন দূতাবাসে বোমা বিস্ফোরণ

বৃহস্পতিবার ০১ ডিসেম্বর ২০২২

থাইল্যান্ডে গাড়িবোমা বিস্ফোরণ

মঙ্গলবার ২২ নভেম্বর 20২২




৮ ডিসেম্বর ছাত্রলীগের সম্মেলন

প্রকাশিত:শনিবার ১৯ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০১ ডিসেম্বর ২০২২ |
Image

বাংলাদেশ ছাত্রলীগের ৩০তম কেন্দ্রীয় সম্মেলন আগামী ৮ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হবে। আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক দলীয় সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের বরাত দিয়ে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এছাড়া আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠন আওয়ামী যুব মহিলা লীগের সমাবেশ ১৫ ডিসেম্বর পুনঃনির্ধারিত হয়েছে।

এর আগে গত মঙ্গলবার সকালে গণভবনে সিলেট জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ডিসেম্বরের ৩ তারিখের পরিবর্তে ওই মাসের অন্য কোনো তারিখে সম্মেলনের প্রস্তুতি নেয়ার নির্দেশনা দেন।

আগামী ২৯ নভেম্বর রাষ্ট্রীয় সফরে জাপান যাবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ৩ ডিসেম্বর দেশে ফিরবেন। এ কারণে ৩ ডিসেম্বরের পরিবর্তে ওই মাসের অন্য কোনো দিন সম্মেলনের প্রস্তুতি নেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। একই কারণে ৯ ডিসেম্বর অনুষ্ঠেয় যুব মহিলা লীগের সম্মেলনও পেছানো হয়।


আরও খবর



মোরেলগঞ্জে বিএনপির সংহতি দিবসে আলোচনা

প্রকাশিত:সোমবার ০৭ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০১ ডিসেম্বর ২০২২ |
Image

এম.পলাশ শরীফ, নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে বিএনপির উদ্যোগে জাতীয় বিপ্লব ও সংহতি দিবস পালন করা হয়েছে। দিবসটি উপলক্ষে সোমবার বেলা সাড়ে ৭টায় বিএনপি নেতা কাজী খায়রুজ্জামান শিপনের বাসভবনে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। 

সভায় সভাপতিত্ব করেন পৌর বিএনপির সহসভাপতি জামাল হোসেন শিকদার। অন্যান্যের মধ্যে আলোচনা করেন পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক শিকদার ফরিদুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক মো. ফারুক হোসেন সামাদ।

এ ছাড়াও মহিলা দলের আহ্বায়ক মাহমুদা আক্তার

পৌর বিএনপির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বদিউজ্জামান মহারাজ, শ্রমিক দলের সভাপতি মাসুদ খান চুন্নু ও পল্লী চিকিৎসক দলের সভাপতি মো. রমিজ উদ্দিন শেখ উপস্থিত ছিলেন। 


আরও খবর



২৯ নভেম্বর নারায়ণনারায়ণগঞ্জের বক্তাবলী গণহত্যা দিবস

প্রকাশিত:সোমবার ২৮ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০১ ডিসেম্বর ২০২২ |
Image

বুলবুল আহমেদ সোহেল ঃ


আজ ২৯ নভেম্বর বক্তাবলী গণহত্যা দিবস। ১৯৭১ সালের এই দিনে নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার বক্তাবলীতে নিরস্ত্র ১৩৯ জনকে গুলি করে হত্যা করে হানাদার বাহিনী। একই সঙ্গে গানপাউডার ছিটিয়ে পুড়িয়ে দেয় ২২টি গ্রাম। বক্তাবলী পরিণত হয় ধ্বংসস্তূপে। স্বজন হারানোর ব্যথা ও কষ্ট নিয়েও শ্রদ্ধার সঙ্গে প্রতি বছরই পালিত হয় এই দিবসটি। ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারসহ নারায়ণগঞ্জ বাসীর দাবি শহীদ মুক্তিযোদ্ধা স্বীকৃতি সহ গণ কবরগুলোকে বদ্ধভূমি হিসেবে চিহ্নিত করে তা রক্ষণাবেক্ষণে সরকারি উদ্যোগ নেয়া হোক। সরকারি সূযোগ সুবিধার আওতায় নেয়া হউক ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার গুলোকে । 

বুড়িগঙ্গা-ধলেশ্বরী নদীবেষ্টিত চরাঞ্চল বক্তাবলী। মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় এই জায়গাটি নিরাপদ হিসেবে বেছে নেন অনেক মুক্তিযোদ্ধা। এখানে ঘাঁটি বানিয়ে চলে প্রশিক্ষণের কাজ। এখান থেকেই বিভিন্ন স্থানে চালানো হয় অভিযান। গ্রামবাসী স্বতঃস্ফূর্তভাবে মুক্তিযোদ্ধাদের থাকা-খাওয়ার ব্যবস্থা করেন। রাজাকাররা এ খবর পৌঁছে দেয় হানাদার বাহিনীর কাছে। ১৯৭১ সালের এই দিন ভোরে হানাদার বাহিনী ঘিরে ফেলে বক্তাবলী। মুক্তিযোদ্ধারাও গড়ে তোলেন প্রতিরোধ। চার ঘণ্টা চলে সম্মুখযুদ্ধ। একপর্যায়ে হানাদার বাহিনী বক্তাবলী পরগনার ২২টি গ্রামের ঘরবাড়ি পুড়িয়ে দেয়। নদীর পারে সারী বেঁধে বেঁধে দাড় করিয়ে ব্রাস ফায়ারসহ বেয়নেট দিয়ে খুঁচিয়ে খুঁচিয়ে হত্যা করে।

দিনটি স্মরণ করে আজও আঁতকে ওঠে প্রতক্ষদর্শী পরিবার গুলো। তাদের আক্ষেপ যুদ্ধ পরবর্তি বঙ্গবন্ধু মুজিব সরকারের সময় তারা আর্থিক সহযোগিতা পেয়েছেন। এর পর আর কোন সরকারই তাদের খবর রাখেননি। 

গণহত্যার শিকার শহীদদের পরিবার ও স্থানীয়দের দাবি ১৩৯ জনকে শহীদ মুক্তিযোদ্ধা স্বীকৃতি দিয়ে তাদের পরিবারের খোঁজ খবর নিয়ে দুঃস্থদের আর্থিক সহযোগীতা দেয়া হউক। তাদের পরিবারের সদস্যদের মুক্তিযোদ্ধা কোঠার সুযোগ সুবিধা দেয়া হউক। 

মুক্তিযুদ্ধের গৌরবময় ইতিহাসে ২৯ নভেম্বর দিনটি নারায়ণগঞ্জবাসীর জন্য বেদনাবিধুর । স্বাধীনতাযুদ্ধে নারায়ণগঞ্জে একসঙ্গে এত মানুষ হত্যার ঘটনা দ্বিতীয়টি আর নেই। পাক বাহিনীর আত্মসমর্পণের মাত্র ১৭ দিন আগে ঘটে বক্তাবলীর হৃদয় বিদারক এ হত্যাযজ্ঞ। নারায়ণগঞ্জবাসীর দাবি শহীদদের পরিবার গুলোকে যথাযোগ্য মর্যাদাসহ সরকারি যে সহযোগিতা পাওয়ার কথা তা থেকে বঞ্চিত বক্তাবলী বাসী। 

সংসদ সদস্য একেএম শামীম বলেছেন, পাক হানাদার বাহিনীর হাতে ১৩৯ জন গণহত্যার শিকার হয়েছে।  শহীদ মুক্তিযুদ্ধা স্বীকৃতি ও তাদের পরিবারদের যথাযথ মর্যাদা দেয়ার জন্য জাতীয় সংসদ, প্রধানমন্ত্রী ও সংশ্লিষ্ট দপ্তরে উপস্থাপন করা হবে। 

স্থানীয়দের প্রত্যাশা এখানকার গণকবর গুলোকে বদ্ধ ভূমী স্বীকৃতি দিয়ে সরকারি ভাবে রক্ষণাবেক্ষণ করবে। যাতে ইতিহাসের সঙ্গে পরিচিত হতে পারে নবম প্রজন্ম। 

এদিকে দিনটি স্মরণে বিভিন্ন সংগঠন নানা কর্মসূচির আয়োজন করেছে আজ। সকালে বক্তাবলী কানাই নগর বিদ্যালয় সংলগ্ন শহীদদের স্মৃতি স্তম্ভে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ, স্মরণ সভা ও  দোয়ামাহফিলের মাধ্যমে দিনটি উদযাপন করা হবে। 


আরও খবর



মোরেলগঞ্জে নবজাতকের দায়িত্ব নিলেন নিঃসন্তান দম্পতি

প্রকাশিত:বুধবার ০২ নভেম্বর 2০২2 | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০১ ডিসেম্বর ২০২২ |
Image

এম.পলাশ শরীফ, নিজস্বপ্রতিবেদকঃ

বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে মানসিক ভারসাম্যহীন এক মায়ের গর্ভে জন্ম নেওয়া নবজাতক শিশু পুত্রকে অপর এক নিঃসন্তান মায়ের হেফাজতে দেওয়া হয়েছে। শিশুটি ভূমিষ্ট হওয়ার একদিন পরে আজ বুধবার বিকেল ৪টার দিকে পার্শ্ববর্তী দক্ষিণ চিংড়াখালী গ্রামের আকরাম কাজী ও তার স্ত্রী মালা বেগম শিশুটির দায়িত্ব নেন। 

উপজেলা চেয়ারম্যান অ্যাড. শাহ্-ই-আলম বাচ্চু, নির্বাহী কর্মকর্তা মো. জাহাঙ্গীর আলম ও সমাজ সেবা কর্মকর্তা গৌতম কুমার বিশ্বাস আকরম-মালা দম্পতির হাতে শিশুটিকে তুলে দেন। স্থানীয়রা শিশুটির নাম রেখেছেন আব্দুল্লাহ আনছারী।

জানা গেছে, গত মঙ্গলবার (১ ন‌ভেম্বর) রাতে রামচন্দ্রপুর ইউ‌নিয়‌নের কাটাখালী গ্রামের মানসিক ভারসাম্যহীন লা‌মিয়া বেগমের ঘ‌রে শিশু‌টির জন্ম হয়। লা‌মিয়া অন্তসত্তা থাকা অবস্থায় তার স্বামী মো. জাকা‌রিয়া প্রায়৭-৮ মাস পূর্বে নিখোঁজ হয়। 

বিষয় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. জাহাঙ্গীর আলম বলেন, নবজাতক শিশুটিকে দত্তক নিয়ে লালন-পালন করার জন্য আবেদন করেন নিঃসন্তান ওই দম্পতি। শিশুটির ভবিষ্যতের কথা ভেবে আবেদনের ভিত্তিতে অভিভাবক নির্ধারণ করা হয়। 


আরও খবর