Logo
শিরোনাম

মোড়েলগঞ্জে স্কাউটস্’র ‘করোনাযোদ্ধা সনদ’ নিয়ে বির্তকের ঝড়

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৯ আগস্ট ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ |
Image

এম.পলাশ শরীফ, নিজস্ব প্রতিবেদক বাগেরহাট :

বাংলাদেশ স্কাউটস্ বাগেরহাটের মোড়েলগঞ্জ উপজেলা শাখার উদ্যোগে ‘করোনাযোদ্ধা সনদ’ বিতরণ নিয়ে ফেজবুকে নিন্দার ঝড় বইছে। স্কাউটস্ এর ব্যানারে সনদ বিতরণ করা হলেও ওই সনদে স্কাউটস্ এর কোন কর্মকর্তার স্বাক্ষর নেই। নেই স্কাউট লোগোও। স্কাউটিংয়ের সাথে কোনদিন যার সম্পর্ক ছিলোনা, নেই কোন অরিন্টেশন, বেসিককোর্স সনদ, দিক্ষা গ্রহন এমন ব্যাক্তিকেও সনদ দেওয়া হয়েছে ফটোসেশন করে।

ফলে, বিতর্কের মধ্যে পড়েছেন উপজেলা স্কাউটস্ সভাপতি ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. জাহাঙ্গীর আলম। প্রশ্নের মুখে পড়েছেন উপজেলা স্কাউটস্ কমিশনার মো. আবু সালেহ ও সাধারণ সম্পাদক প্রভাত কুমার মিস্ত্রীও। কাউকে খুশি করতে গোপন যোগাযোগের মাধ্যমে সনদ দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। করোণাযোদ্ধা সনদ থেকে বাদ পড়েছেন চিকিৎসক, নার্স, স্বাস্থ্যকর্মী, পুলিশ, সাংবাদিক, এনজিও, জনপ্রতিনিধি, স্বেচ্ছাসেবক, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, শিক্ষক, সামাজিক সংগঠন, সাংস্কৃতিককর্মী ও প্রশাসনিক কর্মকর্তারা।

জানা গেছে, উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয় থেকে ৮ আগষ্ট ৬০ জন স্কাউট লিডারের মাঝে আনুষ্ঠানিকভাবে নির্বাহী কর্মকর্তা মো. জাহাঙ্গীর আলম স্বাক্ষরিত করোনযোদ্ধা সনদ বিতরণ করা হয়। বলা হয়েছে এটি বাংলাদেশ স্কাউটস্ এর সনদ। অথচ সনদে স্কাউট কর্মকর্তা হিসেবে কারো স্বাক্ষর নেই। নেই স্কাউট মনোগ্রামও।

এ ধরণের সদন বিতরণের পর পরই নানা প্রশ্ন তুলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেজবুকে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন করোনাকালিন দু:সময়ে সম্মুখ সারিতে থাকা করোণাযোদ্ধারা। এ ঘটনায় প্রশ্নবিদ্ব হয়ে পড়েছেন সনদ বিতরণী কার্যক্রমের আয়োজক ও নিতি নির্ধারকরা। বির্তকিত এ সনদ বাতিলেরও দাবি জানিয়েছেন সুশিল সমাজ ও স্থানীয়রা।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. জাহাঙ্গীর আলম এ বিষয়ে বলেন, স্কাউটস্’র আয়োজনে শুধুমাত্র স্কাউটিংয়ের সাথে জড়িত যারা তাদের মধ্যে থেকে বাছাই করে ৬০ জনকে এ সনদ দেওয়া হয়েছে। যেহেতু বিষয়টি নিয়ে বিতর্ক উঠেছে খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও এ কর্মকর্তা জানান।

এ বিষয়ে উপজেলা স্কাউটস্ কমিশনার মো. আবু সালেহ বলেন, উপজেলা স্কাউটসের উদ্যোগে করোনাযোদ্ধা সনদ বিতরণে তালিকা নির্ধারনের ক্ষেত্রে কিছুটা  ত্রুটি হয়েছে। যাদেরকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছিলো তারা সঠিক দায়িত্ব পালন করেননি।

উপজেলা স্কাউটস্ কমিশনার ও সাধারণ সম্পাদক বিতরণকৃত ওই সনদে স্কাউটস্’র মনোগ্রাম আছে বলে দাবি করলেও তা তারা প্রমান করতে পারেননি। সম্পাদক প্রভাত কুমার মিস্ত্রী এক পর্যায়ে এ ঘটনার জন্য দু:খ প্রকাশ করেন। 


আরও খবর



কানাডার চলচ্চিত্র উৎসবে 'অন্যদিন'

প্রকাশিত:শনিবার ১০ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ |
Image

গুণী চলচ্চিত্র নির্মাতা কামার আহমাদ সাইমনের চলচ্চিত্র ‘অন্যদিন' এবার কানাডার ভ্যানকুভার আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে নির্বাচিত হয়েছে।

২৯ সেপ্টেম্বর থেকে ৯ অক্টোবর পর্যন্ত চলবে কানাডার এই উৎসবটি। এতে ৭৫টি দেশ থেকে ১৩৫টি পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ও ১০২টি স্বল্পদৈর্ঘ্য ছবি নির্বাচিত হয়েছে। উৎসবের একমাত্র বাংলাদেশি সিনেমা ‘অন্যদিন...’। এর আগে যুক্তরাষ্ট্রের ক্যামডেন আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব, ইন্টারন্যাশনাল ডকুমেন্টারি ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল আমস্টারডাম ইডফায় অংশ নেয় কামার আহমাদ সাইমনের ‘জল’ত্রয়ীর দ্বিতীয় ছবি ‘অন্যদিন...’।


আরও খবর

ঋতুপর্ণা-প্রসেনজিতের বিয়ে

শুক্রবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২




শেখ হাসিনা হেরে গেলে বাংলাদেশ হেরে যাবে : ওবায়দুল কাদের

প্রকাশিত:বুধবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৪ অক্টোবর ২০২২ |
Image

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘শেখ হাসিনা হেরে গেলে বাংলাদেশ হেরে যাবে’।

তিনি বলেন, ষড়যন্ত্রকারীরা এটা হয়তো জানে না বঙ্গবন্ধুর মতো শেখ হাসিনাও পিছু হটতে জানেন না, ভয় পান না। যদি শেখ হাসিনা ক্ষমতায় না থাকেন, বাংলাদেশ আর বাংলাদেশ থাকবে না। তিনি (শেখ হাসিনা) হেরে গেলে বাংলাদেশ হেরে যাবে। বাংলাদেশের স্বাধীনতা হেরে যাবে, মুক্তিযুদ্ধের চেতনা হেরে যাবে।

মঙ্গলবার (২০ সেপ্টেম্বর) বিকেলে রাজধানীর লালবাগের নবাবগঞ্জ পার্কে লালবাগ থানা ও ২৩, ২৪, ২৫ ও ২৬নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

‘রাজপথ এখন থেকে বিএনপির দখলে থাকবে’ মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের এমন বক্তব্যের জবাবে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, আন্দোলন করতে চাইলে শান্তিপূর্ণভাবে রাজপথে আন্দোলন করুন। আন্দোলনের নামে কোনো ধরনের নৈরাজ্য সৃষ্টি করবেন না। রাজপথ কাউকে ইজারা দেওয়া হয়নি। আপনারা ফাঁকা মাঠে আন্দোলন করবেন, আর আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা বসে বসে আঙুল চুষবে, তা তো হবে না।

দলের শৃঙ্খলা ভঙ্গ না করতে নেতাকর্মীদের হুঁশিয়ার করে তিনি বলেন, যারা বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করবেন, তাদেরকে শেখ হাসিনা ছাড় দেবেন না। স্লোগান দিয়ে, বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করে, শক্তি প্রদর্শন করে নেতা হতে পারবেন না। যে যার এলাকায় জনপ্রিয়, তিনিই সেখানে নেতা হবেন।


আরও খবর

পুলিশের পক্ষে বললেন খামেনি

মঙ্গলবার ০৪ অক্টোবর ২০২২




প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মদিন

প্রকাশিত:বুধবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ০৫ অক্টোবর ২০২২ |
Image

প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার জন্মদিন আজ। ৭৬ বছরে পা রাখলেন তিনি ।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের জ্যেষ্ঠ সন্তান শেখ হাসিনার জন্ম ১৯৪৭ সালের ২৮ সেপ্টেম্বর গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায়। তাঁর শৈশব-কৈশোর কেটেছে টুঙ্গিপাড়ার গ্রামীণ পরিবেশে। শেখ হাসিনা তাঁর জীবনের ৪১ বছরই আওয়ামী লীগকে নেতৃত্ব দিচ্ছেন। প্রতিকূল সময়ে দলের সভাপতির দায়িত্ব নিয়ে আওয়ামী লীগকে পুনর্গঠিত করেছেন, নিয়ে গেছেন রাষ্ট্রক্ষমতায়। বর্তমানে তিন মেয়াদে প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করছেন শেখ হাসিনা। নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে আজ দলীয় সভাপতির জন্মদিন উদযাপন করছে আওয়ামী লীগ এবং এর সহযোগী সংগঠনগুলো।


আরও খবর

শিগগিরই বাড়ছে বিদ্যুতের দাম

মঙ্গলবার ০৪ অক্টোবর ২০২২




কারাগারে হাজতির বিয়ে

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০22 | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৪ অক্টোবর ২০২২ |
Image

সদরুল আইন : গাজীপুরের কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগারে এক হাজতির সঙ্গে এক নারীর বিয়ে সম্পন্ন হয়েছে। সোমবার (১৯ সেপ্টেম্বর) বিকালে এই বিয়ে সম্পন্ন হয়।

হাজতির নাম মো. সুজন। কারাগারে তার হাজতি নং ৯০৪/২২। তিনি ঢাকার খিলগাঁওয়ের চলদোগুলদি এলাকার মৃত নুরু মিয়ার ছেলে। তার গ্রামের বাড়ি নরসিংদীর মাদবদী থানার নয়াকান্দি এলাকায়। কনের নাম মোছা. রুমি আক্তার। তিনি ঠাকুরগাঁওয়ের মো. সফির মেয়ে।

হাই সিকিউরিটি কারাগারের সিনিয়র জেল সুপার আব্দুল জলিল জানান, ঢাকার খিলগাঁও থানার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের একটি মামলায় সুজন এ কারাগারে বন্দি রয়েছেন। মহামান্য হাইকোর্টের আদেশ মোতাবেক সোমবার কারাগারের অফিস কক্ষে হাজতি সুজন ও কনে রুমি আক্তারের বিয়ে সম্পন্ন হয়। বিয়েতে এক লাখ টাকা দেনমোহার ধরা হয়েছে। এ সময় ছেলের পিতা ও ভাই এবং কনের ভাই উপস্থিত ছিলেন।


আরও খবর



অনিবন্ধিত ক্লিনিক আর থাকছে না

প্রকাশিত:রবিবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ |
Image

দেশের কোথাও কোনো অনিবন্ধিত ক্লিনিক না রাখার ঘোষণা দিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। সংস্থাটির অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আহমেদুল কবির বলেছেন, আমাদের স্বাস্থ্য ব্যবস্থায় সরকারি বলেন আর বেসরকারি বলেন একটি ন্যূনতম স্বাস্থ্যসেবা যদি না থাকে, সেই প্রতিষ্ঠান মানুষের সঙ্গে প্রতারণা করবে সেটা আমরা সহ্য করতে পারব না।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সম্প্রসারিত টিকাদান কর্মসূচি (ইপিআই) ইউএসএআইডির ‘মামনি’ ও নবজাতক স্বাস্থ্যসেবা উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় (ইপিআই) এই কর্মশালায় তিনি একথা বলেন ।

অধ্যাপক ডা. আহমেদুল কবির বলেন, ‘অনিবন্ধিত ক্লিনিক এবং যারা প্রতারণা করছে স্বাস্থ্যসেবার নামে সেগুলো কিন্তু প্রায় সবই বন্ধ করে দিয়েছি এবং বলেছি যে অনিবন্ধিত কোনো ক্লিনিক বাংলাদেশে থাকতে পারবে না। এটি একটি খুবই প্রিমেটিভ কাজ, তবে তার মানে এই নয় আমরা খুব ভালো কাজ করে ফেলেছি। যদি কেউ নিবন্ধন নম্বর তাদের প্রতিষ্ঠানে না টাঙিয়ে রাখেন তাহলে অনিবন্ধিত হিসেবেই ধরে নেওয়া হবে।

ডা. আহমেদুল কবির আরো বলেন, আমরা আপনাদের খুব স্ট্রং মেসেজ দিতে চাই। আপনাদের জেলায় কোনো অনিবন্ধিত ক্লিনিক থাকতে পারবে না। এটি একটি পরিষ্কার বার্তা। অনিবন্ধিত ক্লিনিকের অস্তিত্ব বাংলাদেশের মাটিতে থাকতে পারবে না। প্রতিপক্ষ যত শক্তিশালী হোক। দ্বিতীয়ত নিবন্ধিত ক্লিনিক মানেই মানুষের সেবা করছে, সেটাও বলার সুযোগ নেই। এরই মধ্যে আমি হাসপাতাল শাখার পরিচালককে বলেছি, স্বাস্থ্যসেবার ক্যাটাগরাইজেশন করার জন্য একটি স্ট্যান্ডার্ড সেটআপ তৈরি করতে।


আরও খবর

শিগগিরই বাড়ছে বিদ্যুতের দাম

মঙ্গলবার ০৪ অক্টোবর ২০২২