Logo
শিরোনাম

মোরেলগঞ্জের পঞ্চকরনে জেলা পরিষদের সদস্য প্রার্থীর মতবিনিময় সভা

প্রকাশিত:বুধবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ |
Image

এম.পলাশ শরীফ, বাগেরহাট  :

বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে আসন্ন ১৭ অক্টোবর বাগেরহাট জেলা পরিষদ নির্বাচনকে ঘিরে সরগরম হয়ে উঠেছে মাঠ। প্রার্থীরা ছুটছেন ভোটারদের দ্বারে দ্বারে। বুধবার বিকেলে উপজেলার পঞ্চকরণ ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে নির্বাচনী এক মতবিনিময় সভা করেছেন জেলা পরিষদের সদস্য পদপ্রার্থী মোরেলগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এম এমদাদুল হক।  

পঞ্চকরণ ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি ইউপি চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রাজ্জাক মজুমদারের সভাপতিত্বে এ মতবিনিময় সভায় বক্তৃতা করেন উপজেলা আওয়ামীলীগ নেতা ইখতিয়ার হোসেন দিলাল, আবজাল হোসেন মাসুম, স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা মো. ইলিয়াস হোসেন দুলাল, শ্রমীক লীগ নেতা আলমঙ্গীর হোসেন বাদশা, উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি মো. মহিদুজ্জামান মহিদ।


অন্যান্যের মধ্যে ইউপি সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা সিদ্দিকুর রহমান, ইউপি সদস্য ডা. সোবাহান মিয়া, রোজিনা খানম, মো. শাহিন হাওলাদার, শামীমুল ইসলামসহ স্থানীয় বিভিন্ন নেতৃবৃন্দ। এ সময় জেলা পরিষদের সদস্য প্রার্থী উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক এম এমদাদুল হক বলেন, দীর্ঘদিনের দলের একজন নিবেদিত কর্মী হিসেবে ভোটারদের কাছে ১৭ অক্টোবর নির্বাচনে তাদের মূল্যবান ভোট দিয়ে তাকে বিজয় করার আহবান জানান একই সাথে সকলের কাছে দোয়া কামনা করেন। 


আরও খবর

পুলিশের পক্ষে বললেন খামেনি

মঙ্গলবার ০৪ অক্টোবর ২০২২




হতদরিদ্র শিশুর চিকিৎসার্থে

মির্জাগঞ্জ ফাউন্ডেশন" এর আর্থিক সহায়তা প্রদান

প্রকাশিত:বুধবার ০৭ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ |
Image

মির্জাগঞ্জ (পটুয়াখালী)প্রতিনিধিঃ

পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জের স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন "মির্জাগঞ্জ ফাউন্ডেশন" এর পক্ষ থেকে মির্জাগঞ্জ উপজেলার মির্জাগঞ্জ ইউনিয়নের এক হতদরিদ্র অসহায় অসুস্থ শিশু উম্মে হাবিবার (জন্ম থেকে দুই পা অচল) চিকিৎসার জন্য শিশু উম্মে হাবিবা ও তার পিতা আনোয়ার মোল্লার হাতে নগদ ১০হাজার টাকা প্রদান করা হয়েছে।

গতকাল মঙ্গলবার সকাল ১১টায় সংগঠনের প্রধান উপদেষ্টা ও মির্জাগঞ্জ উপজেলা পরিষদের উপজেলা চেয়ারম্যান খাঁন মোঃ আবু বকর সিদ্দিকী তাদের হাতে এ নগদ অর্থ তুলে দেন ও শিশুটির চিকিৎসার সার্বিক খোঁজ খবর নেন।

উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কার্য্যালয়ে আর্থিক সহায়তার অর্থ প্রদানকালে মির্জাগঞ্জ ফাউন্ডেশন এর সভাপতি দৈনিক আমার সংবাদ ও একাত্তর টেলিভিশন এর উপজেলা প্রতিনিধি  সাংবাদিক কামরুজ্জামান বাঁধন, সাধারন সম্পাদক মিজানুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক অর্জুন ঋষি, দপ্তর সম্পাদক রাব্বি মল্লিক,অর্থ বিষয়ক সম্পাদক ওলি উল্লাহ,সাংস্কৃতিক সম্পাদক জাহিদুল ইসলাম,ইব্রাহিম খলিলসহ স্থানীয় গণমাধ্যম কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য,শিশু উম্মে হাবিবার অপারেশনের জন্য ১লক্ষ টাকা প্রয়োজন, গত তিন বছর যাবত শিশুটির চিকিৎসায় সম্বল জমি ও গাছ বিক্রি করে ইতোমধ্যে দেড় লক্ষাধিক টাকা খরচ করে এখন নিঃস্ব হয়ে পড়েছেন। সবশেষ অস্রোপচারের জন্য ১লক্ষ টাকা প্রয়োজন হওয়ায় মির্জাগঞ্জ ফাউন্ডেশন থেকে প্রদেয় অর্থসহ এলাকার বিভিন্ন হাট-বাজার ও উপজেলার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের থেকে উত্তোলিত অর্থসহ ৯০ হাজার টাকা সংগৃহীত হয়েছে। অবশিষ্ট ১০হাজার টাকা পেলে উম্মে হাবিবার অপারেশন শেষে সুস্থ হয়ে শিশু উম্মে হাবিবার স্কুলে যাওয়ার স্বপ্ন বাস্তবায়নে "মির্জাগঞ্জ ফাউন্ডেশন" কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। শিশুটির পিতা আনোয়ার মোল্লা সমাজের বিত্তশালী ব্যক্তিদের নিকট আর্থিক সহায়তা কামনা করেছেন। উম্মে হাবিবার পিতা আনোয়ার মোল্লার বিকাশ নাম্বার  ০১৯৩৮-৫৪৯৮৮৬


আরও খবর



বিক্রামপুর ভূইয়া মেডিকেল কলেজ শিক্ষার্থীদের নবীনববণ

প্রকাশিত:বুধবার ০৭ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ |
Image

শ্রীনগর (মুন্সীগঞ্জ) প্রতিনিধিঃ

মুন্সীগঞ্জ শ্রীনগরে বিক্রামপুর ভূইয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে শিক্ষার্থীদের নবীনববণ (বিবিঃ ০৮) ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়েছে। মঙ্গলবার বেলা ১২ টা সময় প্রতিষ্ঠানে মাঠে নবীনববণ (বিবিঃ ০৮) ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়। ফোরেসিক মেডিসিন অধ্যাপক ডাঃ এ. কে. এম শামসুল ইসলাম এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্তিত ছিলেন বিক্রামপুর ভূইয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চেয়ারম্যান মোঃ আমিনুজ্জামান ভূইয়া। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্তিত ছিলেন বিক্রামপুর ভূইয়া মেডিকেল কলেজের ভাইস চেয়ারম্যান ও মুন্সীগঞ্জ বিক্রামপুর সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ডাঃ মনিরুজ্জামান ভূইয়া, বিক্রামপুর ভূইয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাবেক স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক অধ্যাপক ডাঃ বদিউজ্জামান ভূইয়া, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় অধ্যাপক ডাঃ আবিদা সুলতানা। ।এ ছাড়া আরও বক্তব্য রাখেন অধ্যাপক ডাঃ শরীফ হাসান (সার্জারী), সহযোগী অধ্যাপক ডাঃ রোকসানা আফরোজ, সহকারী অধ্যাপক ডাঃ আবিদ হাসান, সহকারী অধ্যাপক ডাঃ সামাওয়াত নায়ের শহিদসহ অন্যান্য ডাক্তরবৃন্ধ ও সকল ছাত্রছাত্রী,কর্মকর্তা -কর্মচারী উপস্থিত ছিল।


আরও খবর

১১০০ শিক্ষকের সনদ জাল

শনিবার ০১ অক্টোবর ২০২২




ইরানে বিক্ষোভে নিহত ৩১

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ |
Image

ইরানে নৈতিকতা পুলিশের হেফাজতে তরুণী মাশা আমিনির মৃত্যুর প্রতিবাদে বিক্ষোভের ষষ্ঠ দিনেও উত্তাল ইরান। বিক্ষোভ নিয়ন্ত্রণে দেশজুড়ে ইন্টারনেট সেবা বন্ধ রেখেছে দেশটির সরকার। ক্রমবর্ধমান বিক্ষোভে এখনো পর্যন্ত অন্তত ৩১ জনের মৃত্যু হয়েছে বলে দাবি করেছে ইরানের মানবাধিকার সংগঠন ইরান হিউম্যান রাইটস। বার্তা সংস্থা এএফপির এক প্রতিবেদন থেকে এই তথ্য জানা গেছে।

এএফপির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ইরানের মানবাধিকার সংগঠন ইরান হিউম্যান রাইটসের (আইএইচআর) পরিচালক মোহাম্মদ আমিরি–মোগাদ্দাম স্থানীয় সময় আজ বৃহস্পতিবার এক বিবৃতিতে বলেছেন, ‘ইরানের জনগণ তাদের মৌলিক অধিকার এবং মানবিক মর্যাদার দাবি আদায়ে রাস্তায় নেমে এসেছে এবং সরকার তাদের শান্তিপূর্ণ প্রতিবাদের জবাব দিচ্ছে বুলেট দিয়ে।’

আইএইচআর জানিয়েছে, তাঁরা দেশের অন্তত ৩০টি শহর, একাধিক গ্রামীণ এলাকায় বিক্ষোভ–প্রতিবাদ ছড়িয়ে পড়েছে। একই সঙ্গে বিক্ষোভ দমনে সাধারণ মানুষের পাশাপাশি নাগরিক অধিকারকর্মীদের ব্যাপক হারে গ্রেপ্তার করছে।

আইএইচআর জানিয়েছে, ইরানের নৈতিকতা পুলিশের হেফাজতে মাশা আমিনির মৃত্যুর পর তাঁর জন্মস্থান কুর্দিস্তান থেকেই বিক্ষোভের সূত্রপাত হয়। কিন্তু এখন তা কেবল কুর্দিস্তানে সীমাবদ্ধ নেই, ছড়িয়ে পড়েছে সারা দেশে। প্রতিষ্ঠানটি আরও জানিয়েছে, নিহতদের মধ্যে গত বুধবার রাতেই ১১ জন মারা যান। দেশের উত্তরাঞ্চলের মাজান্দারান প্রদেশের আমল শহরে তাদের মৃত্যু হয়। একই দিনে একই প্রদেশের বাবল শহরে মারা যান আরও ৬ জন।

উল্লেখ্য, গত সপ্তাহে ইরানের নৈতিকতা পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার হওয়ার পর তেহরানে মারা যাওয়া ২২ বছরের তরুণী মাশা আমিনির মৃত্যুর পরে দেশটিতে বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে। দেশটির কর্মকর্তারা জানিয়েছিলেন, গত সপ্তাহের মঙ্গলবার গ্রেপ্তার হওয়ার পর মাশা আমিনি ‘হৃদ্রোগে’ আক্রান্ত হয়ে কোমায় চলে যান এবং পরে গত শুক্রবার মারা যান। তবে মাশা আমিনির পরিবার বলেছে, তাঁর আগে থেকে হৃদ্রোগ ছিল না।


আরও খবর

চিকিৎসাবিজ্ঞানের নোবেল ঘোষণা

মঙ্গলবার ০৪ অক্টোবর ২০২২




১১০০ শিক্ষকের সনদ জাল

প্রকাশিত:শনিবার ০১ অক্টোবর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ |
Image

রোকসানা মনোয়ার : দেশের বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান পরিদর্শন করে ১ হাজার ১০৮ জন শিক্ষকের জাল সনদ শনাক্ত হয়েছে। এই সনদধারী শিক্ষকদের পেছনে সরকারি কোষাগার থেকে ব্যয় হয়েছে ৪৯ কোটি ৮২ লাখ ৪৫ হাজার ৩৬০ টাকা। আর অবৈধ নিয়োগ, প্রাপ্যতার অতিরিক্ত গ্রহণ ও অন্যান্য খাতে ব্যয় হয়েছে আরো ২৬৮ কোটি ৩৫ লাখ ৯১ হাজার ৪৬৯ টাকা। এসব অর্থ সরকারি কোষাগারে ফেরত নেওয়ার সুপারিশসহ সম্প্রতি শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে প্রতিবেদন পাঠিয়েছে পরিদর্শন ও নিরীক্ষা অধিদপ্তর ।

এ বিষয়ে ডিআইএর যুগ্ম পরিচালক বিপুল চন্দ্র সরকার বলেছেন, বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন করে আমরা শিক্ষক নিবন্ধন সনদ জাল শনাক্ত করেছি। ২০২১ সালের মার্চ থেকে ২০২২ সালের আগস্ট পর্যন্ত জমি বেহাত হওয়ার তথ্য পেয়েছি। অবৈধ নিয়োগের কারণে এবং প্রাপ্যতার অতিরিক্ত নেওয়া অর্থ ফেরতের সুপারিশ করা হয়েছে। মন্ত্রণালয়ের কাছে সুপারিশ করা হয়েছে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে।

বিপুল চন্দ্র সরকার জানান, গত ১০ বছরে দেশের ২৪ হাজার ৯৭৫টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন করা হয়েছে। পরিদর্শন প্রতিবেদনও পাঠানো হয়েছে মন্ত্রণালয়ে।

গত ২৪ জুন ডিআইএর পরিচালক অধ্যাপক অলিউল্লাহ মো. আজমতগীরের সই করা প্রতিবেদনে জানানা হয়, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগ এবং কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগের মোট জাল সনদ শনাক্ত হয়েছে এক হাজার ১০৮টি। এর মধ্যে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের ৮২৪টি এবং কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগের ২৮৪টি।

মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের ২০১২ থেকে ২০২২ সাল পর্যন্ত শুধু শিক্ষক নিবন্ধন জাল শনাক্ত হয়েছে ৬১৫টি। নেকটারের কম্পিউটার সনদ জাল শনাক্ত হয়েছে ১৬০টি। অন্যান্য সনদ জাল শনাক্ত হয়েছে ৪৯টি। সর্বমোট ৮২৪টি।

আর কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগের ২০১২ থেকে ২০২২ সাল পর্যন্ত শিক্ষক নিবন্ধন জাল শনাক্ত হয়েছে ১৮৪টি। নেকটারের কম্পিউটার সনদ জাল শনাক্ত হয়েছে ৮৯টি। অন্যান্য সনদ জাল শনাক্ত হয়েছে ১১টি। সর্বমোট ২৮৪টি।

এসব জাল সনদের বিপরীতে শিক্ষকদের গ্রহণ করা অর্থ ৪৯ কোটি ৮২ লাখ ৪৫ হাজার ৩৬০ টাকা। এর মধ্যে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের ৩৬ কোটি ১০ লাখ, ৬৮ হাজার ৪৭৪ টাকা এবং কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগের ১৩ কোটি ৭১ লাখ ৭৬ হাজার ৮৮৬ টাকা।



আরও খবর



পাকিস্তানে বন্যায় নিহত সংখ্যা বেড়ে প্রায় ১৫০০

প্রকাশিত:শনিবার ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ |
Image

পাকিস্তানের নজিরবিহীন বন্যায় এখন পর্যন্ত ১৫০০ মানুষের মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার দেশটির দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা বিভাগ এ তথ্য জানিয়েছে।

কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, বিভিন্ন স্থানে বন্যার পানি কমতে শুরু করলেও এখনও হাজার হাজার মানুষ খোলা আকাশের নিচে রাত্রিযাপন করছে। দেশটির জাতীয় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, দেশজুড়ে বন্যায় ৫৩০ শিশুসহ মৃতের সংখ্যা ১৪৮৬ জনে দাঁড়িয়েছে। বন্যার তাণ্ডবে সিন্ধু প্রদেশে প্রায় লাখো মানুষ ঘরবাড়ি হারিয়েছে। ঘরহারা এসব মানুষের জন্য তাঁবু কেনা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন, সিন্ধুর মুখ্যমন্ত্রী সৈয়দ মুরাদ আলী শাহ। দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার সংযুক্ত আরব আমিরাত ও যুক্তরাষ্ট্র থেকে ত্রাণবাহী বিমান এসেছে।  


আরও খবর

চিকিৎসাবিজ্ঞানের নোবেল ঘোষণা

মঙ্গলবার ০৪ অক্টোবর ২০২২