Logo
শিরোনাম
রাজবাড়ীতে ট্রাকের সাথে সংঘর্ষে মোটর সাইকেল আরোহীর মৃত্যু রাজবাড়ীতে আবৃত্তি ও কথামালায় প্রকাশনা উৎসব নওগাঁয় মোটরসাইকেলের ধাক্কায় স্কুল ছাত্র নিহত-মা ও ছোট বোন আহত মোরেলগঞ্জে শ্রমীকদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ করলেন এমপি মিলন লালমনিরহাটে বিদ্যুৎ স্পৃষ্টে মারাগেছে স্কুলছাত্র নওগাঁয় বোরো ধান চাষের শুরুতেই বিদ্যুতের লোড শেডিং, দুঃশ্চিন্তায় কৃষকরা নওগাঁয় ৩৫ কোটি টাকা মূল্যের কষ্টিপাথরের মূর্তি উদ্ধার করেছে পুলিশ কুড়িগ্রামের শীতকাতর অসহায় মানুষের পাশে কেন্দ্রীয় যুবলীগ নেত্রকোনায় বিশ্ব জলাভূমি দিবস উপলক্ষে মানববন্ধন মোরেলগঞ্জে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দৈন্যদশা শিক্ষার্থী ৮ শিক্ষক ২

নওগাঁয় শিশু ইব্রাহিম হত্যায়, ঘাতককে আটক, মৃতদেহ উদ্ধার

প্রকাশিত:Thursday ০১ December ২০২২ | হালনাগাদ:Friday ০৩ February ২০২৩ |
Image

শহিদুল ইসলাম জি এম মিঠন, স্টাফ রিপোর্টারঃ


নওগাঁর আত্রাইয়ে নিখোঁজের ২১ দিন পর ইব্রাহিম (৬) নামে এক শিশু'র গলিত মৃতদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এঘটনায় বুলবুল সোনার (৩১) নামে "ঘাতক" এক যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। 

বৃহস্পতিবার ১ ডিসেম্বর ভোর ৪ টারদিকে গ্রেফতার বুলবুল সোনারের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে উপজেলার বিশা ইউনিয়নের শ্রীধরগুরনই গ্রামের পারাপার ঘাটের দক্ষিণ পার্শে থেকে ঐ শিশুর গলিত মৃতদেহ উদ্ধার করেন পুলিশ। বৃহষ্পতিবার ১ ডিসেম্বর বিকালে পুলিশ সুপার কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে নওগাঁ জেলা পুলিশ সুপার মুহাম্মদ রাশিদুল হক এসব কথা জানান। নিহত শিশু ইব্রাহিম নওগাঁর আত্রাই উপজেলার শ্রীধরগুড়নই গ্রামের হযরত আলীর ছেলে। গ্রেফতার বুলবুল সোনার একই গ্রামের আব্দুল জলিলের ছেলে।

সংবাদ সম্মেলনে পুলিশ সুপার জানান, গত ১০ নভেম্বর শিশুটি নিখোঁজ হলে তাকে খুঁজে না পেয়ে তার বাবা থানায় একটি নিখোঁজ ডাইরি করেন। এরপর পুলিশ বিষয়টি নিয়ে কাজ শুরু করে। এরই এক পর্যায়ে রাত্রিবেলা জানালা দিয়ে শিশুটির বাবার শয়ন কক্ষে একটি চিঠি ফেলে দিয়ে বলা হয় নতুন একটি সিম ও মোবাইল ক্রয় করে শিশুর বাবা যেন বাবুর দোকানের সামনে তুলার মধ্যে রেখে আসে এবং ৬ লাখ টাকা রেডি রাখে। এরপর ২৬ তারিখে ১০টার পর থেকে অজ্ঞাত মোবাইল নাম্বার থেকে শিশুটির বাবার মোবাইলে ফোন করে মুক্তিপণ দাবি করলে শিশু ইব্রাহিমের বাবার বক্তব্য, স্থানীয় সোর্স এবং প্রযুক্তির মাধ্যমে পুলিশ নিশ্চিত হয় যে একই গ্রামের আব্দুল জলিল সোনারের ছেলে বুলবুল সোনার এসব কান্ডগুলো ঘটাচ্ছে। পরেরদিন বিকালে থানা পুলিশ বুলবুল সোনারকে আটক করলে শিশুটির বাবা হযরত আলী বাদী হয়ে থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন একটি মামলা দায়ের করে। সেই মামলায় পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে।

পুলিশ সুপার আরও বলেন, গ্রেফতারের পর বুলবুল সোনার পুলিশকে জানাই সে একজন মুদি দোকানদার এবং স্থানীয় শ্রীধরগুরনই দাখিল মাদ্রাসার খন্ডকালীন শিক্ষকতা করেন। তার বিভিন্ন জায়গায় ঋণ ছিল। সে সব টাকার জন্য তাকে বারবার চাপ দেয়া হচ্ছিল এই ঋণ থেকে মুক্তি হওয়ার জন্যই সে শিশুর বাবার কাছ থেকে টাকা নেওয়ার পরিকল্পনা করে। কিন্তু পুলিশের কাছে কথাটি বিশ্বাস না হলে তাকে বিজ্ঞ আদালতে হাজির করে ১০ দিনের রিমান্ড চাইলে আদালত ৪ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করে।

তিনি আরো বলেন, রিমান্ডে থাকা অবস্থায় জিজ্ঞাসাবাদে সে স্বীকার করে শিশুটি গত ১০ তারিখ দুপুরে তার দোকানে গিয়ে পাঁচ-ছয়টি বেলুন ফাটায়। সে শিশু ইব্রাহিমকে দোকান থেকে চলে যেতে বলল সে চলে না গিয়ে আরও বেলুন চাইলে বুলবুল রাগ করে শিশুটিকে গলা টিপে হত্যা করে চা স্টলে পিছনে ছাইয়ের স্তুপের মধ্যে বস্তা বন্দী করে পুতে রাখে। পরবর্তীতে ১৮ তারিখে বালতিতে করে শিশুটির অর্ধ গলিত মৃতদেহ পাশে আত্রাই নদীর ভিতরে পুঁতে রেখে একটি বড় কংক্রিটের ক্লাব দিয়ে চাপা দিয়ে রাখে। পরে তার দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে এলাকার লোকজনের উপস্থিতিতে বুলবুলের দেখানো স্থান থেকে শিশুটির গলিত মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়। পুলিশ আসামিকে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দীর জন্য বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করবে বলেও জানানো হয় সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে।

এসময় সংবাদ সম্মেলনে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার গাজিউর রহমান, সদর সার্কেল রাকিবুল হাসান ইবনে রহমান, আত্রাই থানার ওসি তারেকুর রহমান সরকারসহ পুরিশের অন্যান্য কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন।


আরও খবর



সোনারগাঁয়ে মাসব্যাপী লোকজ মেলার উদ্বোধন করলেন ওবায়দুল কাদের

প্রকাশিত:Thursday ১৯ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Thursday ০২ February 2০২3 |
Image

সোনারগাঁ প্রতিনিধি :


সড়ক পরিবহন, সেতু মন্ত্রী ও বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, অসুস্থ রাজনীতি করতে করতে ফখরুল সাহেবরা নিজেরাই অসুস্থ হয়ে গেছে। আগামী নির্বাচন পর্যন্ত যারাই দেশে আন্দোলনের নামে জান মালের ক্ষতি ও বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করবে তাদের উপযুক্ত জবাব দেওয়া হবে। জঙ্গীবাদ সাম্প্রদায়িকতা সংস্কৃতি ও আমাদের শত্রু। মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের সকল শক্তি একত্রিত হয়ে সকল অপশক্তির বিরুদ্ধে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে রুখে দাঁড়ানোর আহবান জানিয়েছেন।


আজ বুধবার দুপুরে নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে অবস্থিত বাংলাদেশ লোক ও কারুশিল্প ফাউন্ডেশনের মাসব্যাপী লোকজ উৎসব উদ্বোধন কালে প্রধান অতিথির বক্তব্য তিনি এসব কথা বলেন।


সংস্কৃতি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ এমপি'র সভাপতিত্বে আরও উপস্থিত ছিলেন,স্থানীয় সাংসদ ও জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য লিয়াকত হোসেন খোকা,ফাউন্ডেশনের পরিচালক এসএম রেজাউল করিম,সাবেক এমপি কায়সার হাসনাত,জেলা প্রশাসক মঞ্জুর হাফিজ প্রমূখ।


এবারের লোকজ মেলায় দেশীয় সংস্কৃতির পুনরুজ্জীবনে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে ছড়িয়ে থাকা কারুশিল্পীদের প্রদর্শনী, লোক জীবন প্রদর্শনী, পুতুল নাচ, বায়স্কোপ, নাগর দোলা, গ্রামীন খেলা প্রদর্শন করা হবে। এ বছর কর্মরত কারুশিল্পীদের প্রদর্শনীর ৩২টি স্টল সহ ১০০টি স্টল রয়েছে। ফাউন্ডেশনের ভেতরে শিল্পাচার্য জয়নুল লোক ও কারুশিল্প যাদুঘর এবং লোক ও কারুশিল্প যাদুঘর। এ দুটি যাদুঘরে স্থান পেয়েছে প্রায় পাচঁ হাজার প্রাচীন লোক ও কারুশিল্প। লোক ও কারুশিল্প যাদুঘর এশিয়ার অন্যতম বৃহত্তম কারুশিল্প যাদুঘর। গ্রাম বাংলার ইতিহাস ও ঐতিহ্যের ধারক ও বাহক। 


এছাড়া এ বছর  মুন্সিগঞ্জ ও মৌলভী বাজারের শীতল পাটি, মাগুরা ও ঝিনাইদহের শোলা শিল্প, রাজশাহীর শখের হাড়ি ও মুখোশ। চট্টগ্রামের তালপাতার হাতপাখা, রংপুরের শতরঞ্জি, সোনারগাঁয়ের জামদানী, বগুড়ার লোকজ খেলনা, প্রতিদিন সন্ধ্যায় লোকজ মঞ্চে পালাগান, বাউল গান, জারিসারি গান, হাছন রাজার গান, গ্রামীন খেলা হা-ডু-ডু, কানামাছি খেলা অনুষ্ঠিত হবে।  যাদুঘরে রয়েছে গ্রামীন লোক জীবনের নানান উপাদান যেমন, কৃষক পরিবারের ঢেঁকিতে ধান ভানার দৃশ্য, লাঙ্গল কাধে মাঠে যাওয়া ও পালকিতে নববধুর আগমনের দৃশ্য পটচিত্র ও মুখোশ গ্যালারি নদী মাতৃক বাংলাদেশের সাম্পান আর বজরা সহ বৈচিত্রময় নৌকার মডেল। কাঠ খোদাইয়ের বিভিন্ন উপাদান পালকিতে জমিদার সহ গ্রাম বাংলার কারিগরদের নানা কারুশিল্প।


আগামী ১৬ ফেব্রুয়ারী পর্যন্ত প্রতিদিন সকাল ৯টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত চলবে এ মেলা। 


আরও খবর



নওগাঁয় ৪০ গ্রামের হাজারো মানুষের ভরসা খেয়াঘাটের নৌকা

প্রকাশিত:Monday ২৩ January 20২৩ | হালনাগাদ:Friday ০৩ February ২০২৩ |
Image

শহিদুল ইসলাম জি এম মিঠন :

নওগাঁর রাণীনগর ও বগুড়ার আদমদীঘি এ দুই উপজেলার সীমানায় অবস্থিত শত বছরের ঐতিহাসিক রক্তদহ বিল। এ বিলের আশেপাশে ৪০টি গ্রামে মানুষের বসবাস। এ ৪০ টি গ্রামের মানুষদের চলাচলের একমাত্র ভরসা মেঠোপথের শেষে খেয়াঘাট এর নৌকা। বিলে পানি যতদিন থাকে ততদিন নৌকায় পারাপার আর যখন পানি থাকে না তখন প্রয়োজনীয় কর্ম সমাধান করতে ৪০/ ৫০কিমি রাস্তা ঘুরে নওগাঁ, বগুড়া, রাণীনগর, আদমদীঘিতে যেতে হয়। এতে করে বছরের পর বছর চরম দুর্ভোগের শিকারের মধ্যদিয়ে জীবন-যাপন করে আসছে ঐ এলাকার লক্ষাধিক মানুষ। কৃষকরা নায্যমূল্য পাওয়া থেকে বঞ্চিত হয়ে আসছে যুগের পর যুগ। খেয়াঘাটে একটি ব্রিজ জোটেনি যার ফলে আধুনিক যোগাযোগ ব্যবস্থার সুফল থেকেও বঞ্চিত এই কৃষি প্রধান অঞ্চলটি।

এলাকার বোদলা গ্রামের বাসিন্দা সাইদুর রহমান মুহরী জানান, কথিত আছে ব্রিটিশ বাহিনীর সঙ্গে এই অঞ্চলে রক্তক্ষয়ী যুদ্ধ হয় ফকির মজনু শাহর বাহিনীর সঙ্গে। এই বিলের মধ্যদিয়ে যুদ্ধে নিহত উভয় বাহিনীর সৈন্যের রক্ত একদিয়ে আরেক দিকদিয়ে পানি বয়ে যায় তখন থেকে এই বিলটি রক্তদহ বিল হিসেবে পরিচিত হয়ে ওঠে মানুষের কাছে। মাধ্যমিক পর্যায়ের একাধিক পাঠ্যবইয়েও এই বিলের ইতিহাস লিপিবদ্ধ আছে। কয়েক হাজার বিঘা জমি নিয়ে এই বিল অবস্থিত। বিলের পূর্বপাশে নওগাঁর রাণীনগর উপজেলার কৃষি প্রধান অঞ্চল বোদলা, পালশা, কৃষ্ণপুর, তেবাড়িয়াসহ ৪০টি গ্রাম অবস্থিত। এই মানুষদের সহজেই নওগাঁ, বগুড়া, রাণীনগর, আদমদীঘি, সান্তাহারে চলাচলের সহজ পথ হচ্ছে বিলের মধ্যদিয়ে রাস্তা। বিলের মধ্য একটি ব্রিজ না হওয়ার কারণে মেঠোপথ দিয়েই খেয়াঘাটে পারাপার হতে হয় এলাকার মানুষদের। পারাপারের জন্য খেয়াঘাটে এসে ঘন্টার পর ঘন্টা অপেক্ষা করতে হয় নৌকার জন্য।

এই অঞ্চলের মানুষ কোথাও যেতে চাইলে বাড়ি বা বাসা থেকে নির্ধারিত সময়ের থেকে দুই থেকে তিন ঘন্টা সময় হাতে বেশি নিয়ে বের হতে হয়। একটি ব্রিজের অভাবে এখনোও এই অঞ্চলের মানুষদের প্রাচীন যুগে বসবাস করতে হচ্ছে। দিনের বেলায় ঘাটে এসে নৌকা পাওয়া গেলেও রাতের বেলায় ৪০/ ৫০কিমি রাস্তা ঘুরে এই অঞ্চলের মানুষদের নিজের বাড়িতে ফিরতে হয়। সবচেয়ে বেশি দুর্ভোগ পোহাতে হয় শিক্ষার্থী ও জরুরী রোগীদের। অনেক প্রসুতিদের হাসপাতালে নেয়ার পথে এই খেয়াঘাটে এসেই প্রসব হয়ে যায়। অনেক জটিলতা শেষে ২০১৯ ইং সালে এই ঘাটে একটি ব্রিজ নির্মাণের প্রস্তাব একনেকে অনুমোদন পেলেও পরবর্তিতে সেই কার্যক্রম রহস্যজনক কারণে আর আলোর মুখ দেখেনি। সহজেই নিজেদের উৎপাদিত ফসল বাজারজাত করতে না পারার কারণে নায্যমূল্য থেকে বঞ্চিত হয়ে আসছে এই অঞ্চলের হাজারো কৃষক। দ্রুত এই ঘাটে একটি ব্রিজ নির্মাণ বর্তমানে সময়ের দাবী হয়ে দাঁড়িয়েছে।

নওগাঁ এলজিইডির নির্বাহী প্রকৌশলী তোফায়েল আহমেদ বলেন, আমার জানা মতে ব্রিজ নির্মাণের সকল প্রক্রিয়া প্রায় শেষের দিকে। সকল বিভাগীয় প্রক্রিয়া শেষে অর্থ বরাদ্দ পেলেই ব্রিজ নির্মাণের কাজ শুরু করা হবে। আমি আশাবাদি অতিদ্রুতই এই অঞ্চলের মানুষদের শত বছরের স্বপ্নের ব্রিজ নির্মাণের সুখবর দ্রুতই পাওয়া যাবে।

নওগাঁ-৬ (আত্রাই-রাণীনগর) আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব মোঃ আনোয়ার হোসেন হেলাল বলেন, চীনের হুয়াংহু নদীর মতো এই রক্তদহ বিলও এই অঞ্চলের মানুষের জন্য একটি দুঃখ। এই ঘাটে একটি ব্রিজ এই অঞ্চলটিকে আমুল বদলে দিতে পারে। আমিও সংশ্লিষ্ট বিভাগকে একাধিকবার ব্রিজ নির্মাণের জন্য যাবতীয় পদক্ষেপ গ্রহনের জন্য তাগাদা দিয়েছি। আমি আশাবাদি জননেত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়নের ছোঁয়া হিসেবে এই ঘাটে দ্রুত একটি আধুনিকমানের ব্রিজ নির্মাণের সুখবর পাওয়া যাবে।


আরও খবর



ফুলবাড়িতে,২৫ কেজি গাঁজাসহ-এক মাদক কারবারি আটক

প্রকাশিত:Monday ২৩ January 20২৩ | হালনাগাদ:Friday ০৩ February ২০২৩ |
Image

উত্তম কুমার মোহন্ত,ফুলবাড়ী (কুড়িগ্রাম) :

কুড়িগ্রাম জেলা পুলিশ সুপার এর নির্দেশ ক্রমে চলমান মাদক বিরোধী অভিযানের ধারাবাহিকতার অংশ হিসেবে ফুলবাড়ি থানা পুলিশের বিশেষ অভিযানে ২৫কেজি গাঁজা সহ-এক মাদক কারবারি কে আটক করে।

জানাযায় ফুলবাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি)ফজলুর রহমানের নেতৃত্বে,থানা পুলিশের মাদক উদ্ধারকারী একটি চৌকস টিম ২২(জানুয়ারি) রবিবার রাত একটার দিকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে উপজেলার শিমুলবাড়ি ইউনিয়নের মিয়াপাড়া জাকলাটারী এলাকায় অভিযান চালিয়ে নাওডাঙ্গা ইউনিয়নের খালিশা কোটাল গ্রামের মোঃ আব্দুল জলিলের ছেলে কুখ্যাত মাদক কারবারি মোঃ রশিদুল ইসলাম (৩৩)কে ২৫ কেজি গাঁজা সহ-হাতেনাতে আটক করে।

এব্যাপারে ফুলবাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি ফজলুর রহমান জানান আটক ওই মাদক কারবারির বিরুদ্ধে নিয়মিত মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা রুজু করে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। 


আরও খবর



কুমিল্লায় মেয়র মোঃ আতিকুল ইসলাম

স্মার্ট শিক্ষার্থীরাই স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ে তুলবে

প্রকাশিত:Friday ০৩ February ২০২৩ | হালনাগাদ:Friday ০৩ February ২০২৩ |
Image

কু‌মিল্লা ব্যুরো :

স্মার্ট শিক্ষার্থীরাই স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ে তুলবে বলে মন্তব্য করেছেন ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র মোঃ আতিকুল ইসলাম। 

ডিএনসিসি মেয়র বলেন, 'দেশজুড়ে শহরের পাশাপাশি গ্রাম পর্যায়ের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর উন্নয়ন হয়েছে। গ্রামের স্কুলের ছাত্র-ছাত্রীরা এখন দেশ-বিদেশে সুনামের সাথে কাজ করছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ে তোলার ঘোষণা দিয়েছেন। স্মার্ট শিক্ষার্থীরাই স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ে তুলবে।'

 শুক্রবার (০৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৩) সকালে কুমিল্লার তিতাস উপজেলার লালপুর নজরুল ইসলাম উচ্চ বিদ্যালয়ের চার তলা ভবনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তৃতায় ডিএনসিসি মেয়র মোঃ আতিকুল ইসলাম এসব কথা বলেন।  

মেয়র আরও বলেন, 'গ্রামের একটি স্কুলের সফলতার জন্য সবার সম্মিলিত প্রচেষ্টা থাকতে হবে। লালপুর গ্রামের এই স্কুলটি শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও গ্রামবাসীর সহযোগিতায় এগিয়ে চলেছে। জেলা পর্যায়ে ও উপজেলা পর্যায়ে স্কুলের শিক্ষার্থীর ভালো করছে। মাননীয় স্থানীয় সরকার মন্ত্রী আজ নিজে এসে স্কুলের চার তলা ভবন উদ্বোধন করেছেন। আশা করছি স্কুলটির সুনাম ও সফলতা অব্যাহত থাকবে।

উল্লেখ্য, লালপুর নজরুল ইসলাম উচ্চ বিদ্যালয়ের চার তলা ভবনের নির্মাণ কাজ বাস্তবায়ন করে কুমিল্লা জেলার শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তর।

এসময় ডিএনসিসি মেয়র বিদ্যালয়টিতে আসা যাওয়ার সুবিধার জন্য বিদ্যালয় থেকে আশেপাশের গ্রামগুলোতে যাওয়ার রাস্তা নির্মাণের জন্য স্থানীয় সরকার মন্ত্রীর নিকট আহবান জানান।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন স্হানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মোঃ তাজুল ইসলাম এমপি। 

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ২০৪১ সালের স্মার্ট ও উন্নত  বাংলাদেশ গড়তে শিক্ষার্থীদের জ্ঞান অর্জনের মাধ্যমে সক্ষমতা ও দক্ষতা লাভের উপর গুরুত্ব আরোপ করেছেন স্হানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মোঃ তাজুল ইসলাম। 


প্রধান অতিথির বক্তৃতায় স্থানীয় সরকার মন্ত্রী বলেন, 'বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান শিক্ষার উন্নয়নে প্রাইমারি স্কুলের জাতীয়করণ করেছিলেন যাতে শিক্ষকরা নিয়মিত বেতন পান। তাঁর সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা স্কুলে শতভাগ এনরোলমেন্ট নিশ্চিত করেছেন। জনগণের দ্বারগোড়ায় স্বাস্থ্যসেবা পৌঁছে দিতে শেখ হাসিনা কমিউনিটি ক্লিনিক চালু করেছেন। উন্নয়নের এ ধারা অব্যাহত রাখতে মন্ত্রী শিক্ষার্থীদের আইটি শিক্ষায় গুরুত্ব দেবার আহবান জানান। 

মন্ত্রী আরও বলেন, 'কৃষকের সন্তানও সক্ষমতা ও দক্ষতা অর্জন করে দেশের উন্নয়নে ভূমিকা রাখতে পারে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সবার জন্য সমান সুযোগ সৃষ্টি করতে অবিরাম কাজ করে যাচ্ছেন। নারী শিক্ষা ও ক্ষমতায়নে বাংলাদেশে বৈপ্লবিক পরিবর্তন এসেছে। যে বাংলাদেশের উন্নয়ন নিয়ে এক সময় উন্নত বিশ্ব সন্দেহ পোষণ করত, তারাই আজ বাংলাদেশকে উন্নয়নের রোল মডেল হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বগুণেই আজ তা সম্ভব হয়েছে।'

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন কুমিল্লা-৬ আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা জনাব আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহার ,কুমিল্লা  জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ শামীম আলম।


আরও খবর



ধামরাইয়ে প্রায় দুই একর খাস জমি উদ্ধার করে খেলার মাঠ নির্মান

প্রকাশিত:Wednesday ০১ February ২০২৩ | হালনাগাদ:Friday ০৩ February ২০২৩ |
Image

মাহবুবুল আলম রিপন(স্টাফ রিপোর্টার)

ঢাকার ধামরাইয়ে অবৈধ দখলদারদের হাত থেকে প্রায় দুই একর খাস জমি উদ্ধার করে খেলার মাঠ তৈরির উদ্যোগ নিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার হোসাইন মোহাম্মদ হাই জকী।


সোমবার (৩০ জানুয়ারি) সকাল ৯টার দিকে উপজেলার যাদবপুর ইউনিয়নের আমছিমুর গ্রামে দুই একর খাস জমি উদ্ধার করা হয়। স্থানীয় সূত্রে জানা যায়- দীর্ঘদিন ধরে আমছিমুর এলাকার প্রভাবশালী দুটি পরিবার প্রায় দুই একর খাস জমি অবৈধভাবে ভোগ দখল করে আসছে। পরে খাস জমি উদ্ধারের জন্য আমছিমুর বনলতা স্পোর্টিং ক্লাবের সভাপতি মোহাম্মদ মাহফুযুল হক শাহীন উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর একটি আবেদন করেন। পরে ইউএনও এই অবৈধ দখলদারদের হাত থেকে খাস জমি উদ্ধার করে খেলার মাঠ নির্মাণের জন্য উদ্যোগ নেন। বনলতা স্পোর্টিং ক্লাবের সভাপতি মোহাম্মদ মাহফুযুল হক শাহীন বলেন- আমাদের স্কুলের পিছনে প্রায় দুই একর সরকারি খাস জমি রয়েছে। তা অবৈধ ভোগ দখল করে আসছে এলাকার কিছু লোকজন। আমাদের এলাকার বীর মুক্তিযোদ্ধা ও যুবকরা বিষয়টি আমাকে জানায়। মুক্তিযোদ্ধারা বলেন আমাদের এখানে স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় প্রথম ফায়ারিং হয়। আমরা চাই এই জায়গাটাতে যেন মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতিস্তম্ভ, মুক্তিযোদ্ধা জাদুঘর ও মুক্তিযোদ্ধা মাঠ নির্মাণ হয়। পরে মুক্তিযোদ্ধাদের দাবি অনুযায়ী আমি স্থানীয় সংসদ সদস্য ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর আবেদন করি এই খাস জমি উদ্ধার করে মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতিস্তম্ভ, মুক্তিযোদ্ধা জাদুঘর ও মুক্তিযোদ্ধা মাঠ নির্মাণের জন্য। আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে উপজেলা ভূমি অফিস থেকে সরজমিনে তদন্ত করে দখলদারদের উক্ত জমির মালিকানার কাগজপত্র দাখিল করতে বলা হয়। নির্ধারিত সময়ের মধ্যে কোন কাগজপত্র দাখিল করতে পারেনি দখলদাররা। যার ফলে আজ অবৈধ দখলের কবল থেকে প্রায় দুই একর খাস জমি উদ্ধার করে খেলার মাঠ নির্মাণের উদ্যোগ নেন ইউএনও।


বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল লতিফ বলেন- আমরা দেশ ও দেশের মানুষের অধিকার আদায়ের জন্য লড়াই করেছি। পরাধীনতার চাদর থেকে স্বাধীনতা লাভ করার জন্য প্রাণপণ যুদ্ধ করেছি। আমরা নিজেদের স্বার্থ কখনো দেখিনি। তাই আমরা আমাদের গ্রামে একটা মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতিস্তম্ভ, মুক্তিযোদ্ধা জাদুঘর ও মুক্তিযোদ্ধা পার্ক চাই। এজন্য উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর একটি আবেদন করেছি। তাছাড়া আমাদের অভিভাবক ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বিষয়ক সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ঢাকা-২০ আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা বেনজির আহমদকে বিষয়টি জানালে সম্মতি দেন। আজ অবৈধ দখলদারদের হাত থেকে খাস জমি উদ্ধার করে মাঠ নির্মাণের উদ্যোগ নেওয়ায় ইউএনও সাহেবকে অনেক ধন্যবাদ।


ধামরাই উপজেলা নির্বাহী অফিসার হোসাইন মোহাম্মদ হাই জকী বলেন- অবৈধভাবে কেউ খাস জমি ভোগ দখল করতে পারবে না। আজ যে জমিটি উদ্ধার করা হয়েছে এটি খাস জমি। দীর্ঘদিন অবৈধ ভোগ দখল করে আসছিলো। এখানে প্রায় দুই একর খাস জমি উদ্ধার করা হয়েছে। জমিটিতে আমরা একটি খেলার মাঠ তৈরির উদ্যোগ নিয়েছি। আগামী এক মাসের মধ্যে এটিকে খেলার উপযোগী মাঠে রুপান্তর করা হবে।


আরও খবর