Logo
শিরোনাম
সাংবাদিকের জরিমানার প্রস্তাব : ক্ষোভ-বিতর্ক

অন্যায় করলে তার শাস্তি হিসেবে ১০ লাখ টাকা

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৬ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ১০ আগস্ট ২০২২ |
Image

দেশে সাংবাদিকরা পেশাগত দায়িত্ব পালনের ক্ষেত্রে অসদাচরণ বা কোনও অন্যায় করলে তার শাস্তি হিসেবে ১০ লাখ টাকা পর্যন্ত জরিমানা করার বিধান রেখে পুরোনো আইন সংশোধনের উদ্যোগে বিভিন্ন মহলে ক্ষোভ ও বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছে। তবে প্রায় পাঁচ দশকের পুরোনো প্রেস কাউন্সিল আইনের সংশোধনী প্রস্তাব সম্পর্কিত বিলের খসড়া এখন মন্ত্রিসভার অনুমোদনের অপেক্ষায় রয়েছে।

প্রেস কাউন্সিলের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, বিলটি মন্ত্রিসভায় অনুমোদনের পর সংসদের আগামী অধিবেশনে পাস হতে পারে।

কর্তৃপক্ষ বলছে, আইন সংশোধনের মাধ্যমে প্রেস কাউন্সিলকে শক্তিশালী করা হবে। কিন্তু এর উদ্দেশ্য নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন সাংবাদিক নেতাদের অনেকে।

আওয়ামী লীগ ও বিএনপি সমর্থিত সাংবাদিক ইউনিয়ন দুটির নেতারা বলছেন, সাংবাদিকের বিরুদ্ধে জরিমানার বিধান আনার ব্যাপারে প্রেস কাউন্সিল কর্তৃপক্ষ কখনও আলোচনা করেনি।

তারা বলছেন, প্রেস কাউন্সিলের চেয়ারম্যান বিচারপতি মোহাম্মদ নিজামুল হক নাসিম যখন রাজশাহীতে এক অনুষ্ঠানে জরিমানার বিধান আনার উদ্যোগের কথা বলেছেন, তখনই তারা বিষয়টি সম্পর্কে জানতে পারেন।

প্রেস কাউন্সিলের চেয়ারম্যান বিচারপতি মোহাম্মদ নিজামুল হক নাসিম বলেছেন, আইনের একটি বিষয়েই সংশোধনীর প্রস্তাব করা হয়েছে। তিনি বলেছেন, সাংবাদিকরা কোনও অন্যায় করলে প্রেস কাউন্সিলে অভিযোগ করা যায় এবং কাউন্সিল সেই অভিযোগের বিচার করতে পারে। কিন্তু প্রেস কাউন্সিল আইনে তারা অভিযোগের বিচার করতে পারলেও, আইনের ১২ ধারায় তিরস্কার করা ছাড়া তাদের আর কোনও শাস্তি দেবার ক্ষমতা নাই।

তিনি উল্লেখ করেন, এখন এই তিরস্কারের পাশাপাশি সর্বোচ্চ ১০ লাখ টাকা পর্যন্ত জরিমানা করার ক্ষমতা প্রেস কাউন্সিলকে দেয়ার জন্য আইনে সংশোধনী আনার প্রস্তাব করা হয়েছে।

প্রেস কাউন্সিলের চেয়ারম্যান বলেন, ‘ঢাল নাই, তলোয়ার নাই, নিধিরাম সর্দার- প্রেস কাউন্সিল এরকম অবস্থায় রয়েছে। এর থেকে এই প্রতিষ্ঠানকে শক্তিশালী করার জন্য সরকার প্রেস কাউন্সিল আইনের ১২ ধারায় এই সংশোধনী আনার পদক্ষেপ নিয়েছে।’

সাংবাদিক নেতাদের অনেকে মনে করেন এই প্রস্তাব গৃহীত হলে মতপ্রকাশের স্বাধীনতা খর্ব হবে। কিন্তু প্রেস কাউন্সিলের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ নিজামুল হক নাসিম বলেছেন, এই সংশোধনী আনা হলে সাংবাদিকতার স্বাধীনতা খর্ব হবে না।

আইনে যা আছে প্রেস কাউন্সিল আইন প্রণয়ন করা হয়েছিল ১৯৭৪ সালে। আইনটি প্রণয়নের পাঁচ বছর পর ১৯৭৯ সালে প্রতিষ্ঠা করা হয় প্রেস কাউন্সিল। এই আইনে প্রেস কাউন্সিলকে সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগের বিচার করার ক্ষমতা দেয়া হয়েছে।

কোনও সাংবাদিকের বিরুদ্ধে কেউ পেশাগত দায়িত্ব পালনের ক্ষেত্রে অসদাচরণ এবং সাংবাদিকতা-নীতির পরিপন্থী কর্মকাণ্ডের অভিযোগ করতে চাইলে তিনি প্রেস কাউন্সিলে অভিযোগ বা মামলা দায়ের করতে পারেন। এরপর আইন অনুযায়ী, প্রেস কাউন্সিল তাদের চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে ট্রাইব্যুনাল গঠন করে অভিযোগের বিচার করে থাকেন।

অভিযোগ প্রমাণিত হলে আইনটির ১২ ধারায় শাস্তির বিধান রয়েছে। এই ধারায় বলা হয়েছে, কোনও পত্রিকা বা কোনও সংবাদ সংস্থায় কোনও সংবাদ পরিবেশনের ক্ষেত্রে অসদাচরণ অথবা সাংবাদিকতার নীতি ভঙ্গ করেছে এবং কারও বিরুদ্ধে অন্যায় খবর প্রকাশ করেছে- এ ধরনের অভিযোগ বা মামলার বিচার করে প্রেস কাউন্সিল সংশ্লিষ্ট সাংবাদিক এবং পত্রিকা বা সংবাদ সংস্থার সম্পাদককে তিরস্কার, নিন্দা অথবা সতর্ক করতে পারে।

বর্তমান আইনে এর বাইরে আর কোনও শাস্তি দেয়ার ক্ষমতা প্রেস কাউন্সিলকে দেওয়া হয়নি। প্রেস কাউন্সিল মনে করছে, বর্তমান বাস্তবতায় তিরস্কার বা নিন্দা করার এই শাস্তি কার্যকর ভূমিকা রাখতে পারছে না। তাই শুধু তিরস্কার নয়, এখন ১০ লাখ টাকা পর্যন্ত জরিমানা করার প্রস্তাব করা হয়েছে।

তবে আইনে শুধু পত্রিকা বা প্রিন্ট মিডিয়া এবং সংবাদ সংস্থার সাংবাদিকের বিরুদ্ধে আনা অভিযোগের বিচার করার ক্ষমতা দেয়া আছে প্রেস কাউন্সিলকে। কিন্তু গত কয়েক দশকে বেসরকারি টেলিভিশন বা ইলেকট্রনিক মিডিয়া এবং অনলাইন বা ডিজিটাল মাধ্যমের অনেক প্রসার হয়েছে। অন্যায় করলে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার বিষয়ে প্রেস কাউন্সিলের কোনও ক্ষমতার কথা আইনে উল্লেখ করা নেই।

ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া সাংবাদিক নেতাদের ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ সমর্থক বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন বিএফইউজের সভাপতি ওমর ফারুক জরিমানার এমন প্রস্তাব নিয়ে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন। তিনি বলেছেন, এ ধরনের প্রস্তাব নিয়ে সরকার এবং প্রেস কাউন্সিলের পক্ষ থেকে তাদের সাথে কখনও আলোচনা করা হয়নি।

ওমর ফারুক বলেন, ‘আর্থিক জরিমানা করার প্রস্তাব গ্রহণযোগ্য নয়।’

একইভাবে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন বিএনপি সমর্থক বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন বিএফইউজের সভাপতি মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ। তিনি বলেছেন, গণমাধ্যম এবং মত প্রকাশের স্বাধীনতা খর্ব করতে একের পর এক কালো আইন করা হচ্ছে।

সাংবাদিকদের ১০ লাখ টাকা পর্যন্ত জরিমানা করার প্রস্তাবকে তিনি নিবর্তনমূলক বলে মনে করেন এবং এ ধরনের উদ্যোগ নিয়ে তারা উদ্বিগ্ন। তার মতে, এ ধরনের জরিমানার বিধান করা হলে তা সাংবাদিকরা মেনে নেবে না।

তবে প্রেস কাউন্সিলের কর্মকর্তারা বলেছেন, সাংবাদিক প্রতিনিধিদের সাথে আলোচনা করেই অনেক আগে এই সংশোধনী প্রস্তাব তৈরি করা হয়েছে। প্রেস কাউন্সিলের চেয়ারম্যান বিচারপতি নিজামুল হক নাসিম জানিয়েছেন, তিনি দায়িত্ব পাওয়ার আগে এই প্রস্তাব তৈরি করা হয়েছে। তিনি এই দায়িত্ব পেয়েছেন ২০২১ সালের আক্টোবরে। তিনি বলেন, গণমাধ্যমের স্বাধীনতা খর্ব করা তাদের উদ্দেশ্য নয়। জরিমানা করার ব্যাপারে আইনের সংশোধনী প্রস্তাব বড় কোনও বিষয় নয়। বর্তমান বাস্তবতায় এটি একটি ছোট পরিবর্তন।

সাংবাদিকদের ডাটাবেজ সারা দেশে সাংবাদিকদের ডাটাবেজ তৈরি করারও উদ্যোগ নিয়েছে প্রেস কাউন্সিল। কাউন্সিলের চেয়ারম্যান বলেছেন, পত্রিকাগুলোর কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে তাদের স্ব স্ব প্রতিষ্ঠানের এবং সারা দেশে জেলা প্রশাসনের মাধ্যমে সাংবাদিকদের তালিকা সংগ্রহ করা হবে। সেই তালিকা প্রেস কাউন্সিল যাচাই-বাছাই করে একটি ডাটাবেজ করবে।

এ ছাড়াও বেসরকারি টেলিভিশন এবং ডিজিটাল মাধ্যমের সাংবাদিকদের ডাটাবেজ একইভাবে তৈরি করবে প্রেস ইনস্টিটিউট বা পিআইবি। সাংবাদিক যারা তালিকাভূক্ত হবেন, ছয় মাস পর পর তাদের কর্মকাণ্ড সরকারের ওই প্রতিষ্ঠানগুলো পর্যালোচনা করবে বলেও কর্মকর্তারা জানিয়েছেন। এই উদ্যোগের উদ্দেশ্য নিয়েও প্রশ্ন রয়েছে সাংবাদিক নেতাদের অনেকের।


সূত্র : বিবিসি


আরও খবর

আন্তর্জাতিক আদিবাসী দিবস

মঙ্গলবার ০৯ আগস্ট ২০২২




পোশাক কর্মীকে দল বেঁধে ধর্ষণ

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৫ আগস্ট ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ১০ আগস্ট ২০২২ |
Image

চট্টগ্রামের পটিয়ায় এক পোশাক কর্মীকে দল বেঁধে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় ধর্ষিতার বাবা বাদী হয়ে থানায় ৫ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন। পুলিশ হৃদয় হোসেন সাগর (৩০) নামে এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে। তিনি কোলাগাঁও চাপড়া গ্রামের মো. জাহাঙ্গীরের ছেলে। বৃহস্পতিবার (৪ আগস্ট) ভোরে নগরীর কোতোয়ালী থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

জানা গেছে, উপজেলার কুসুমপুরা ইউনিয়নের ওই তরুণী পটিয়া পৌর সদরের আমজুরহাট এলাকার একটি পোশাক করাখানায় দীর্ঘদিন কাজ করছেন। সোমবার সকালে কাজ শেষ করে বাড়ি ফেরার পথে কুসুমপুরা গাজী মসজিদ এলাকা থেকে তাকে ৫জন যুবক জোর করে একটি অটোরিকশায় তুলে নিয়ে যায়। পরে চাপড়া গ্রামের নির্জ্জন এলাকায় নিয়ে রাত সাড়ে ৮টার দিকে দল বেঁধে ধর্ষণ করে। ঘটনার পর তার বাবা থানা পুলিশকে লিখিত অভিযোগ দেন। পুলিশ ধর্ষণের শিকার তরুণীকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজের ওসিসিতে ভর্তি করেছে।

ধর্ষিতার বাবা জানিয়েছেন, তার মেয়েকে ৫ যুবক ধর্ষণ করেছে। এর মধ্যে সাগর, এমরান, মহিউদ্দিন, রনির নাম পাওয়া গেছে।


আরও খবর



শীতে জ্বালানি সংকট নিয়ে ইরানের হুশিয়ারি

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৫ আগস্ট ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ১০ আগস্ট ২০২২ |
Image

আসন্ন শীতে বিশ্বব্যাপী জ্বালানি তেলের সংকটের ব্যাপারে হুশিয়ারি উচ্চারণ করে ইরানের তেলমন্ত্রী জাওয়াদ ওউজি বলেছেন, এই সংকট মেটানোর জন্য তেহরান আরো বেশি তেল উৎপাদন করতে প্রস্তুত। তবে এজন্য ইরানের ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করে নিতে হবে।

তেল রপ্তানিকারক দেশগুলোর সংগঠন ওপেকের বৈঠকে বক্তৃতা দেয়ার সময় এসব কথা বলেন জাওয়াদ ওইজি। তিনি আবারও বলেন, ইরান তার অধিকারের ২৮ লাখ ব্যারেল তেল উত্তোলনে শিগগিরই ফিরে যাবে।

২০১৮ সালে আমেরিকা পরমাণু সমঝোতা থেকে বেরিয়ে গিয়ে ইরানের ওপর আবার নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে এবং সে সময় ইরানের তেল উৎপাদন যাতে শূন্যের কোটায় নেমে আসে সেজন্য তৎকালীন ট্রাম্প সরকার নিষেধাজ্ঞা কঠোরভাবে বাস্তবায়নের চেষ্টা চালায়। তবে ইরানের তেল রপ্তানি বন্ধ করতে পারেনি মার্কিন সরকার।

বৃহস্পতিবার ওপেকের বৈঠকে জাওয়াদ ওউজি আরও বলেন, তেল ও গ্যাসের সম্মিলিত মজুদের দিক দিয়ে ইরান বিশ্বের সবচেয়ে বেশি জ্বালানির অধিকারী দেশ। এই বিশাল মজুদ থেকে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব শীত মোকাবিলার জন্য বেশি তেল সরবরাহ করতে ইরান প্রস্তুত। ইরান শিগগিরি নিষেধাজ্ঞা-পূর্ব সময়ের উৎপাদনে যেতে চায়।


সূত্র : পার্সটুডে।


আরও খবর



দায়িত্ব অবহেলায় বিমানের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৪ আগস্ট ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ১০ আগস্ট ২০২২ |
Image

মইনুল ইসলাম মিতুল ঃ

যার দায়িত্ব সে দায়িত্ব পালন না করে অন্যকে দিয়ে সেই কাজ করানোর কারণে হ্যাঙ্গার ও পার্কিং বেতে বাংলাদেশ বিমানের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে।  বলে জানিয়েছেন বিমানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক।  

নতুন ব্যবস্থাপনা পরিচালক দায়িত্ব নেয়ার পর আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলনে জানান, তদন্তে বেরিয়ে এসেছে বিমানকে পার্কিং বে তে নিয়ে আসার জন্য পুশাকটের নির্দেশনা একজন সুইপার করছিলেন। যারা দায়িত্ব পালন করেননি তাদের সবাইকে বরখাস্ত করা হয়েছে। 

নতুন ব্যবস্থাপনা পরিচালক জানান, তার লক্ষ্য বিমানের বার্ষিক আয় ৭০০ মিলিয়ন থেকে ১ বিলিয়ন ডলারে উন্নিত করা।

দায়িত্বরত কর্মকর্তাদের গাফিলতিতেই একের পর এক এয়ারক্রাফটে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে বিমানবন্দরে। স্বীকার করলেন খোদ বিমান এমডি ই। বলাকায় সংবাদ সম্মেলনে তিনি দাবি করেন, এখন পর্যন্ত যে কটি ঘটনা ঘটেছে সবগুলোতেই দোষী সবাইকেই বরখাস্ত করা হয়েছে। এসময় বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান হিসেবে বিমানের লাভ করা উচিত ছিলো জানিয়ে বিমান এমডি বলেন, চলতি বছর স্বাধীনতার পর সবচেয়ে বেশি লাভের মুখ দেখবে সংস্থাটি।

কখনো হ্যাঙ্গারে, কখনো থেমে থাকা এয়ারক্রাফটে, শেষ ৫ মাসে ৫টি দুর্ঘটনা ঘটেছে শাহজালাল বিমানবন্দরে। সবশেষ গত ৩ জুলাই রাতে বিমানবন্দরের হ্যাঙ্গারে সংঘর্ষ ঘটে দুটি বোয়িং বিমানের মধ্যে। ফলে প্রশ্ন উঠেছে, বার বার এমন ঘটনা কি নিছক ই দুর্ঘটনা নাকি ইচ্ছাকৃত অবহেলা, তা নিয়ে।

এবার এই ইস্যুতে বেশ খোলামেলা বিমানের নতুন এমডি। বলাকায় সংবাদ সম্মেলনে তিনি সরাসরি দায়ী করলেন, দুর্ঘটনার সময় দায়িত্বরত কর্মকর্তাদের। দোষী সবাইকেই বহিস্কার করা হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, দক্ষ জনবলের অভাবে ভুগছে বিমান।

সংবাদ সম্মেলনে বিমানবন্দরের লাগেজ ব্যবস্থাপনায় দুর্বলতা, সেবার নিম্ন মান, আর ধারাবাহিক লোকসানের অভিযোগ স্বীকার করেন বিমান এমডি। এসময় বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান হিসেবে লাভের মুখ দেখতে না পারার ব্যর্থতা মেনে নিয়ে সংস্থাটির দাবি, চলতি বছর রেকর্ড পরিমাণ অর্থ উপার্জন করবে বিমান।

বিমানে যার যে কাজ করার কথা, এর আগে কেউ তা করেনি। পরিচালনায় নিয়োজিত কর্মকর্তাদের ব্যর্থতা ছিলো বলেও সংবাদ সম্মেলনে জানায় সংস্থাটি।


আরও খবর

আন্তর্জাতিক আদিবাসী দিবস

মঙ্গলবার ০৯ আগস্ট ২০২২




নাদিয়া ডোরার গানে বলিউডের ‘শেফালী জারিওয়ালা’

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৯ জুলাই ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৯ আগস্ট ২০২২ |
Image

বৈচিত্র্যময় গান ও গানের চিত্রায়ণে একের পর এক চমক নিয়ে হাজির হচ্ছে সংগীত প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান টিএম রেকর্ডস। তারই ধারাবাহিকতায় ঈদ উৎসবে এলো নতুন গান ‘পীরিতির কারবার’।তাপসের কথা সুর ও সংগীতায়োজনে গানটিতে কণ্ঠ দিয়েছেন তরুণ প্রজন্মের সংগীতশিল্পী নাদিয়া ডোরা।

সম্প্রতি প্রকাশিত হল গানটির টিজার। টিজারে চমক হিসেবে মডেল হয়ে হাজির হয়েছেন বলিউডের ‘কাঁটা লাগা’খ্যাত অভিনেত্রী শেফালী জারিওয়ালা। ক্যারিয়ারের দীর্ঘ বিরতির পর নতুন আত্মপ্রকাশেই টিএম রেকর্ডসের গানে সঙ্গী হলেন তিনি। ফারজানা মুন্নীর প্রযোজনা ও স্টাইলিংয়ে গানটি নির্মাণ করেছেন বলিউড নির্মাতা আদিল শেখ। এ গানের মধ্য দিয়ে এই প্রথম মৌলিক গানে শ্রোতাদের সামনে হাজির হচ্ছেন সময়ের ব্যতিক্রমী কণ্ঠস্বর নাদিয়া ডোরা।

এমন বর্ণাঢ্য আয়োজনে নিজের আত্মপ্রকাশ নিয়ে উচ্ছ্বসিত শিল্পী। তিনি বলেন, এ গানটা আমার জন্য অনেক স্পেশাল। এ গানের সঙ্গে আমার অনেক ভালোবাসা ও আবেগ জড়িয়ে আছে, কেননা এটিই আমার প্রথম মৌলিক গান। তাপস ভাইয়ার কথা সুর ও অসাধারণ কম্পোজিশনে, মুন্নী ভাবির স্টাইলিং এ শেফালী জারিওয়ালার পারফরম্যান্সে গানটি অনবদ্য হয়েছে। আমি ভাইয়া-ভাবির প্রতি অনেক কৃতজ্ঞ আমার প্রতি বিশ্বাস রাখার জন্য। আশা করছি গানটি শ্রোতাদের ভালো লাগবে এবং শিগগিরই টিএম এর অন্যান্য গানগুলোর মতোই মাইলফলক অতিক্রম করবে।


আরও খবর

বিয়ে করছেন রিচা-ফজল

মঙ্গলবার ০৯ আগস্ট ২০২২

গুঞ্জন উড়িয়ে দিলেন আলিয়া!

বুধবার ০৩ আগস্ট ২০২২




মহেশপুরে মৎস্য ব্যবসায়ীকে অপহরণ

নারী দিয়ে ছবি তুলে চাঁদা দাবির ঘটনায় দু’জন আটক।

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৯ জুলাই ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ১০ আগস্ট ২০২২ |
Image

সুমন হোসেনঃ সন্ধ্যা রাতে বাড়ীর পাশ থেকে মৎস্য ব্যবসায়ী শাহাজাহান আলীকে (৬৭) অপহরণ করে পাট ক্ষেতে নিয়ে এক নারীর সাথে অশালীন ছবি তুলে ৫ লাখ টাকা চাঁদা আদায়ের ঘটনায় পুলিশ আলামিন (২১) ও মমিনুর রহমানকে (২৩) আটক করেছে। ঘটনার পর থেকে নারীসহ তিন জন পলাতক রয়েছে।

এ ঘটনাটি ঘটেছে সোমবার সন্ধ্যা রাতে ঝিনাইদহের মহেশপুর পৌর এলাকার পাতিবিলা গ্রামের বিলপাড়ায়।মামলার বাদী শাহাজাহান আলী জানান,পাতিবিলা গ্রামের মৎস্য ব্যবসায়ী শাহাজাহান আলীকে সোমবার সন্ধ্যা রাতে পাতিবিলা গ্রামের জহিরুল ইসলাম,মমিনুর রহমান,আলামিন,কাওছার আলী অপহরণ করে পাতিবিলা পাড়ার একটি পাট ক্ষেতে নিয়ে যায়। সেখানে আগে থেকে নিয়ে রাখা এক নারীকে দিয়ে উলুঙ্গ ছবি তুলে ও ভিডিও ধারণ করে। পরে শাহাজাহান আলীর কাছে ৫ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে। আমি এক টাকা দিতে রাজি না হওয়ার কথা বললে তারা শেষে ৪ লাখ দাবি করে।

মহেশপুর থানার অফিসার ইনর্চাজ (ওসি) সেলিম মিয়া জানান, পাতিবিলা গ্রামের মৎস্য ব্যবসায়ী শাহাজাহান আলীকে সোমবার সন্ধ্যা রাতে পাতিবিলা গ্রামের জহিরুল ইসলাম,মমিনুর রহমান,আলামিন,কাওছার আলী অপহরণ করে পাতিবিলা পাড়ার একটি পাট ক্ষেতে নিয়ে যায়। সেখানে আগে থেকে নিয়ে রাখা এক নারীকে দিয়ে উলুঙ্গ ছবি তুলে ও ভিডিও ধারণ করে। এঘটনায় আলামিন ও মমিনুর রহমানকে আটক করা হয়েছে। বাকিদের আটকের চেষ্টা চলছে।

আটক কৃতদেরকে ঝিনাইদহ আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। এঘটনায় মহেশপুর থানায় মামলা হয়েছে।


আরও খবর