Logo
শিরোনাম

পদ্মা সেতু বাংলাদেশের গর্ব ও অহংকার : প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত:বুধবার ২২ জুন 20২২ | হালনাগাদ:রবিবার ০৩ জুলাই ২০২২ |
Image

আগামী ২৫ জুন উদ্বোধন হবে পদ্মা সেতু। এটি বাংলাদেশের গর্ব ও অহংকার বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বুধবার সকাল ১১টায় দেশের বর্তমান সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে এই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, “বন্যা একদিক থেকে আশীর্বাদ। কারণ এতে ভূগর্ভস্থ্য পানির স্তর উন্নত হয়। জমির উর্বরতাও বাড়ে।”

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা বন্যা পরিস্থিতি মোকাবিলায় সব ধরনের ব্যবস্থা নিয়েছে। তারপরও আমাদের মনে রাখতে হবে, আমাদের বন্যার সঙ্গে বসবাস করতে হবে। কেননা, এটি বন্যাপ্রবণ এলাকা।


আরও খবর



স্ত্রীকে আত্মহত্যায় প্ররোনার মামলায় এসআই গ্রেপ্তার

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৪ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০২ জুলাই 2০২2 |
Image

অনুপ সিংহ,নোয়াখালী প্রতিনিধিঃ

 নোয়াখালীর সদর উপজেলায় স্ত্রীকে আত্মহত্যায় প্ররোচনার মামলায় এক উপপরিদর্শক (এসআই) কে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।  

গ্রেপ্তারকৃত উপপরিদর্শক (এসআই) মিজানুর রহমান জাবেদ (৩৬) সদর উপজেলার বিনোদপুর ইউনিয়নের ৫নম্বর ওয়ার্ডের জামালপুর গ্রামের ফরাজি বাড়ির আবুল কাশেমের ছেলে।  সে চট্টগ্রাম জেলার আরআরএফ এ সংযুক্ত রয়েছে।

মঙ্গলবার (১৪ জুন) দুপুর ২টার দিকে সদর উপজেলার বিনোদপুর ইউনিয়নের জামালপুর গ্রামের মনতরাব ফরাজি বাড়ি থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।  

বিষয়টি নিশ্চিত করেন সুধারাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনোয়ারুল ইসলাম। তিনি আরো জানান, গ্রেপ্তারকৃত আসামির বিরুদ্ধে স্ত্রীকে আত্নহত্যায় প্ররোচনার অভিযোগে চট্রগ্রামের হালিশহর থানায় মামলা হয়েছে। ওই মামলায় তাকে নিজ বাড়ি থেকে গ্রেপ্তার করেছে সুধারাম থানার পুলিশ। গ্রেপ্তারকৃত আসামিকে হালিশহর থানার পুলিশের কাছে হস্তান্তরের বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।      

উল্লেখ্য,২০১৪ সালে পারিবারিক ভাবে সুধারাম থানার বিনোদপুর গ্রামের মৃত আবুল কাশেমের ছেলের সাথে বিয়ে হয় কলির। তারা স্বামী-স্ত্রী এক ছেলে এক মেয়েকে নিয়ে চট্রগ্রামের হালিশহরে একটি ভাড়া বাসায় বসবাস করত। তাঁর স্বামী বদ মেজাজী হওয়ায় কারণে-অকারণে স্ত্রীকে মারধর করত। এছাড়া তার স্বামীর সাথে তার বন্ধু বাদশার স্ত্রীর অবৈধ সম্পর্ক রয়েছে বলে সে তার পিতাকে জানায়। পরে গত ২৫ মার্চ শুক্রবার সকালের দিকে চট্টগ্রামের হালিশহরের শান্তিবাগের ৮ নং রোড়ের হক সাহেবের বাসায় এসআই স্বামীর প্ররোচনায় ফাতেমা আক্তার কলি (২৫) আত্মহত্যা করে। নিহত কলির নানা আব্দুল হক মেম্বার জানান, হাসপাতালের মর্গে থেকে লাশ আনতে গিয়ে নিহত কলির শরীরে আঘাতের চিহৃ রয়েছে। এ ঘটনায় ২৭ মার্চ সকালে নিহতের পিতা আহছান উল্যাহ বাদী হয়ে তাঁর মেয়ে আত্মহত্যায় প্ররোচনা ও সহায়তার দায়ে তাঁর স্বামী ও তাঁর বন্ধুসহ ৫ জনকে আসামি করে চট্রগ্রামের হালিশহর থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলা নং-৩০।


আরও খবর



নোয়াখালীতে আ'লীগ নেতা রিপন হত্যা মামলার আসামি গ্রেপ্তার

প্রকাশিত:শনিবার ০২ জুলাই 2০২2 | হালনাগাদ:শনিবার ০২ জুলাই 2০২2 |
Image

নোয়াখালী জেলা প্রতিনিধি:

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জের পরিবহন ব্যবসায়ী ও আওয়ামী লীগ নেতা আবু ছায়েদ ভূঁঞা রিপন হত্যাকান্ডের মূল পরিকল্পনাকারী ও ২নং আসামি ইকবাল হোসেন সাইফুলকে(৩২) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। 

গ্রেপ্তারকৃত সাইফুল উপজেলার মীরওয়ারিশপুর ইউনিয়নের তালুয়া চাঁদপুর গ্রামের তবারক উল্যহার ছেলে।

 শুক্রবার সন্ধ্যায় বিদেশে পালিয়ে যাওয়ার সময় ঢাকার শাহ জালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দর এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।   

 বেগমগঞ্জ মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) মীর জাহিদুল হক রনি জানান, গত বছরের ২৮ অক্টোবর গভীর রাতে লাল সবুজ পরিবহনের বেগমগঞ্জের চৌরাস্তার কাউন্টারের ম্যানেজার ও উপজেলার মিরওয়ারিশ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ১নং যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আবু ছায়েদ রিপনকে কুপিয়ে হত্যা করে অজ্ঞাত সন্ত্রাসীরা। এ সময় তার সাথে থাকা নগদ আড়াই লাখ টাকাও লুট করে নিয়ে যায় হত্যাকারীরা। পর দিন পরিবারের পক্ষ থেকে থানায় অভিযোগ দিলে তদন্তে নামে পুলিশ। পুলিশ ঘটনাস্থল মিরওয়ারিশপুর ইউনিয়নের বারইয়ার হাটসংলগ্ন গাছতলা এলাকাসহ বিভিন্ন স্থানে প্রকাশ্যে ও গোপনে তদন্ত চালায়। এক পর্যায়ে ঘটনার সাথে সাইফুলের সম্পৃক্ততা পেলে সে এলাকা ছেড়ে গা ঢাকা দেয়। পরবর্তিতে সাইফুলকে হত্যাকান্ডের মাস্টার মাইন্ড ও মুল পরিকল্পকারী হিসেবে সনাক্ত করে ২নং আসামি করে মামলায় দায়ের করা হয়।

ওসি আরো জানান, শুক্রবার গোপন সংবাদের ভিত্তিতে আমরা জানতে পারি সাইফুল দেশে থেকে পালাতে বিমান বন্দর এলাকায় অবস্থান করছে, এমন সংবাদে শুক্রবার বিকালে বিমানবন্দর এলাকায় অভিযান চালিয়ে আমরা সাইফুলকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হই। তাকে থানায় রেখে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। বিকালে সাইফুলকে আদালতে পাঠানো হবে বলেও জানান ওসি মীর জাহিদুল হক রনি। এ হত্যাকান্ডটি চাঞ্চল্যকার চিহিৃত করে এর আগে পুলিশ অভিযান চালিয়ে আরো ৪ জনকে গ্রেপ্তার করে জেল হাজতে পাঠায়। বর্তমানে তারা জামিনে রয়েছে। 


আরও খবর



নারায়ণগঞ্জের চাষাড়ায় চলন্ত ট্রেনে থেকে পড়ে কলেজ ছাত্রের মৃত্যু

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৮ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০২ জুলাই 2০২2 |
Image

নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি ঃ

নারায়ণগঞ্জের চাষাড়ায় চলন্ত ট্রেনে থেকে পড়ে মারা গেছে সরকারি তোলারাম কলেজ এন্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের এইচ এসসির শিক্ষার্থী নূর হোসেন। মঙ্গলবার সকাল ১০ টায় ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ রেল পথের ইসদাইর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা সহপাঠীরা জানান, ফতুল্লা থেকে কলেজে যাওয়ার পথে ট্রেনের একটি বগির গেইটের সামনে দাঁড়ানো ছিল সে।  হঠাৎ  হাত ফসকে ট্রেনের নিচে চলে যায় নূর হোসেন।  মূহুর্তেই তার দেহ খন্ড বিখন্ড হয়ে যায়। 

একমাত্র ছেলেকে হারিয়ে দিশেহারা নূর হসেনের মা শাহীনূর হক। তিনি জানান  ছেলের ৫ মাস বয়সে তাদের ফেলে রেখে চলে যায় নূর হোসেনের বাবা। তিনি একজন গার্মেন্টস কর্মী। ছেলেকে আঁকড়ে ধরেই বেঁচে ছিলেন সে। ছেলেকে সু-শিক্ষায় শিক্ষিত করে গড়ে তুলে ভাগ্যের পরিবর্তন করবেন বলে আসায় বুক বেঁধেছিলেন। মুহর্তেই সব হারিয়ে পাগলের মতো বিলাপ করছে সে।

নিহত শিক্ষার্থীর নূর হোসেন সরকারি তোলারাম কলেজ  এন্ড বিশ্ব বিদ্যালয়ের এইচএসসির মানবিক বিভাগের শিক্ষার্থী ছিলেন। ফতুল্লার দাপা ইদ্রাকপুর এলাকায় ভাড়া বাসায় মায়ের সঙ্গে থাকতো সে। 

স্টেশন মাস্টার গয়েশ্বর মল্লিক জানান, পুলিশ খবর দিলে লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করেছে। এ ব্যাপারে মামলার প্রস্তুতি চলছে।


আরও খবর



নিত্যপণ্যের লাগাম টানতে বাজেটে কোন পদক্ষেপ নেই : সিপিডি

প্রকাশিত:শুক্রবার ১০ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০২ জুলাই 2০২2 |
Image

নিত্যপণ্যের দাম কমাতে বাজেটে পর্যাপ্ত পদক্ষেপ নেই বলে মনে করে বেসরকারি উন্নয়ন গবেষণা সংস্থা সেন্টার ফর পলিসি ডায়ালগ (সিপিডি)।

সংস্থাটির মতে, ২০২২-২৩ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটে চাল, ডালসহ ২৯টি নিত্যপণ্যের দাম কমানোর দরকার ছিল। কিন্তু তা করা হয়নি। সিপিডির পক্ষ থেকে নিত্যপণ্যের দাম কমাতে কর কমানোর সুপারিশ করা হয়েছিল। কিন্তু সেটা রাখা হয়নি।

শুক্রবার (১০ জুন) সকালে রাজধানীতে এক সংবাদ সম্মেলনে সংগঠনটির পক্ষ থেকে এ কথা বলা হয়।


আরও খবর

ছোট ও মাঝারি গরুর দাম বেশি

শুক্রবার ০১ জুলাই ২০২২




কু‌মিল্লা চৌদ্দগ্রামে স্ত্রীর হাতে স্বামী খুন

প্রকাশিত:রবিবার ০৫ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০২ জুলাই 2০২2 |
Image

কু‌মিল্লা জেলা প্রতিনিধি ঃ

কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে পারিবারিক কলহের জের ধরে শুক্কুর আলী(৪৮) নামে এক ব্যক্তিকে গলাকেটে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাঁর স্ত্রী খোদেজা আক্তার শিল্পী ও ছেলে শাহিনকে হেফাজতে নিয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে রোববার দুপুরে উপজেলার গুণবতী ইউনিয়নের গজারিয়া গ্রামের পূর্বপাড়ার ভুঁইয়া বাড়িতে। বিকেলে তথ্যটি নিশ্চিত করেছেন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শুভ রঞ্জন চাকমা। 

স্থানীয় আক্তার হো‌সেন ও পু‌লিশ জানায়, খোদেজা আক্তার শিল্পীর বাবার বাড়ি ফেনী সদর উপজেলার মঠবাড়িয়ায় এবং স্বামী শুক্কুর আলীর বাড়ি ময়মনসিংহ জেলায়। প্রায় ২০ বছর আগে তারা জায়গা ক্রয় করে গজারিয়া গ্রামে বসবাস শুরু করে। তাদের ঘরে দুই ছেলে ও এক মেয়ে রয়েছে। প্রায় সময় পারিবারিক কলহ নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর ঝগড়া ও মারামারি লেগে থাকতো। রোববার দুপুরে হঠাৎ করে তাদের ঘরে চিৎকার শুনতে পায় প্রতিবেশীরা। এ সময় খোদেজা আক্তার শিল্পী পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। পরে এলাকাবাসী তাদের টয়লেটে গিয়ে গলাকাটা রক্তাক্ত মরদেহ দেখতে পায়। এ সময় এলাকাবাসী শিল্পীকে আটক করে কনকাপৈত পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে খবর দেয়। খবর পেয়ে উপ-পরিদর্শক রেজাউল করিম ঘটনাস্থলে গিয়ে সুরতহাল রিপোর্ট তৈরি করে লাশ উদ্ধার শেষে থানায় নিয়ে আসে।

নিহতের শ্বশুড়ি আয়েশা বেগম বলেন, শুক্কুর আলী অনেকটা মানসিকভাবে অসুস্থ্য ছিলেন। আমি দুইদিন আগে তার বাড়িতে আসলে সে আমাকে দেখে ভয় পায় এবং অসলগ্ন কথাবার্তা বলে। আমি রোববার সকালে পাশ^বর্তী লক্ষীপুরে আমার বাবার বাড়িতে বেড়াতে যাই। পরবর্তীতে আমার মেয়ে খোদেজা আক্তার শিল্পী খবর পাঠিয়ে বলে-শুক্কুর আলী ব্রেইন স্ট্রক করেছে। আমি এসে তার রক্তাক্ত মরদেহ দেখতে পাই। 

স্থানীয় ইউপি সদস্য সাহাব উদ্দিন বলেন, শুক্কুর আলীর মৃত্যুর খবর পেয়ে আমি ঘটনাস্থলে এসে দেখি তার রক্তাক্ত মরদেহ পড়ে আছে। স্থানীয়রা আমাকে জানায়-প্রায় সময় তাদের স্বামী-স্ত্রীর ঝগড়া লেগে থাকতো। আমি মৃত্যুর কারণ জানতে চাইলে তার স্ত্রী খোদেজা আক্তার শিল্পী আমাকে বলে-সেভ করতে গিয়ে বেলেটে গলা কেটে শুক্কুর আলীর মৃত্যু হয়েছে।  

চৌদ্দগ্রাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শুভ রঞ্জন চাকমা বলেন, ‘খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে শুক্কুর আলী রক্তাক্ত মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। তাঁর স্ত্রী খোদেজা আক্তার শিল্পী, ছেলে শাহীন ও প্রতিবেশীদের সাথে কথা বলে শুক্কুর আলীর মৃত্যু সম্পর্কে তথ্য নেয়া হচ্ছে। তদন্ত শেষে জানা যাবে-শুক্কুর আলী কি আত্মহত্যা করেছে, নাকি হত্যা করা হয়েছে। এজন্য জিজ্ঞাসাবাদ করতে স্ত্রী খোদেজা আক্তার শিল্পী ও ছেলে শাহিনকে পুলিশি হেফাজতে নেয়া হয়েছে’।


আরও খবর