Logo
শিরোনাম

প্রাথমিক বিদ্যালয়ে আরও ৩০ হাজার শিক্ষক নিয়োগ হবে

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ৩০ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ১০ আগস্ট ২০২২ |
Image

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে আরও ৩০ হাজার শিক্ষক নিয়োগের প্রক্রিয়া শুরু করা হবে বলে জানিয়েছেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেন।

বুধবার (২৯ জুন) গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলায় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের অনলাইনে বদলির (পাইলটিং) কার্যক্রম উদ্বোধন অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা জানান।

এ সময় প্রতিমন্ত্রী বলেন, প্রাথমিক শিক্ষকদের হাতে আগামীর বাংলাদেশ। এ বাংলাদেশ যাতে মেধা ও জ্ঞাননির্ভর হয়ে গড়ে ওঠে সে জন্য সবাইকে সচেষ্ট হতে হবে।

তিনি বলেন, চলমান ৪৫ হাজার সহকারী শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়া দ্রুততম সময়ের মধ্যে সম্পন্ন করে আরও ৩০ হাজার শিক্ষক নিয়োগের প্রক্রিয়া শুরু করবে মন্ত্রণালয়।

মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আকম মোজাম্মেল হক ও প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী আনুষ্ঠানিকভাবে এ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব আমিনুল ইসলাম খান, প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক (অতিরিক্ত দায়িত্ব) মহিবুর রহমান, অধিদপ্তরের পরিচালক বদিয়ার রহমান, গাজীপুর জেলা প্রশাসক আনিছুর রহমান প্রমুখ।


আরও খবর

আন্তর্জাতিক আদিবাসী দিবস

মঙ্গলবার ০৯ আগস্ট ২০২২




গরমে অতিষ্ঠ জনজীবন

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৫ জুলাই ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ১০ আগস্ট ২০২২ |
Image

মইনুল ইসলাম মিতুল : আজ সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৭.৬ ডিগ্রী সেলসিয়াস। তীব্র গরমে অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে রংপুরবাসীর জনজীবন। একটু প্রশান্তির জন্য ফুটপাতে ঠান্ডা শরবত পান করছে সাধারণ মানুষ। গাছের ছায়া কিংবা শীতল কোনো স্থানে ছুটতে দেখা গেছে অনেককে।

বৃহস্পতিবার (১৪ জুলাই) নগরীর বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, ভ্যাপসা গরমে অল্পতেই ক্লান্ত হয়ে পড়ছে কর্মজীবী মানুষজন। এতে ব্যাহত হচ্ছে স্বাভাবিক জীবনযাত্রা।

গাছের ছায়াতলে বিশ্রাম নিতে নিতে রিকশাচালক আব্দুর রহিম বলেন, গরমে রিকশা নিয়ে বের হয়ে মহাবিপদে। যাত্রীও নাই ভাড়াও নাই। তাই রিকশা বন্ধ করে গাছের নিচে আশ্রয় নিচ্ছি।

পথচারী গোলাম মাওলা বলেন, ভ্যাপসা গরমে বাজার করতে এসে বাজার না করেই বাড়ি ফিরতে ইচ্ছে করছে। সূর্য উঠার পর থেকে রোদের তাপ অনেক বেড়ে গেছে। রোদের তাপে বের হওয়া বড়ই দুষ্কর।

এদিকে তাপদাহ বেড়ে যাওয়ায় নগরীতে বেড়েছে ঠান্ডা পানীয়র চাহিদা। ফুটপাতে বিক্রি করা লেবুর শরবত, আখের রস ও ফলমূল কিনে খাচ্ছেন অনেকে। একইসঙ্গে চাহিদা বেড়েছে ডাব ও কোমল পানীয়র।

কনফেকশনারী দোকানদাররা জানান, তীব্র গরমে কোমলপানীয়, জুস ও আইসক্রিম খুব চলছে। এছাড়া শহরের ইলেক্ট্রনিক্স দোকানগুলোতে পাখা বিক্রির ধুম লেগেছে।

আবহাওয়া অফিসের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা একেএম কামরুল হাসান বলেন, এবছরের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৭.৬ ডিগ্রী সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয়েছে। এটি আরও বাড়ার সম্ভাবনা রয়েছে। আগামী দুদিন তাপমাত্রা উঠানামা করবে। তবে শিগগিরই বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। বৃষ্টি হলেই গরম কমে যাবে।


আরও খবর

আন্তর্জাতিক আদিবাসী দিবস

মঙ্গলবার ০৯ আগস্ট ২০২২




মোবাইল ব্যাংকিং এ আসা টাকা মুহূর্তে আত্মসাত

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৯ জুলাই ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৯ আগস্ট ২০২২ |
Image

রিফাত আহমেদ রাসেল, নেত্রকোনা

মোবাইল ব্যাংকিংয়ে আসা স্কুলের শিক্ষার্থী উপবৃত্তি, বিধবা ভাতা, প্রতিবন্ধী ভাতা, বয়স্ক ভাতা অভিনব কায়দায় আত্মসাৎর  অভিযোগ উঠেছে নেত্রকোনার দুর্গাপুর। উপজেলার গাঁওকান্দিয়া ইউনিয়নের প্রত্যন্ত বন্দঊষান গ্রামের দীর্ঘদিন ধরে নানা কৌশলে মানুষের এই অর্থ হাতিয়ে নিচ্ছেন মাদ্রাসার শিক্ষক ও মোবাইল ব্যাংকিং ব্যবসায়ী মোঃ নিজাম উদ্দিন (৪৪)। 

লিখিত এক অভিযোগ পত্রে প্রতারিত চিত্র তুলে ধরেছেন একই গ্রামের বাসিন্দা মোঃ বিল্লাল মিয়া। তবে লিখিত সকল অভিযোগ মিথ্যা ও বানান বলে দাবি অভিযুক্ত নিজাম উদ্দিনের। 

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, বন্দঊষান রেজিঃ স্বতন্ত্র ইবতেদায়ী মাদ্রাসার সহকারী শিক্ষক মোঃ নিজাম উদ্দিন। শিক্ষকতার পাশাপাশি বন্দউষান বাজারে ঔষধ বিক্রির দোকান ও বিকাশ- নগদ মোবাইল ব্যাংকিং এর ব্যবসা করে আসছেন। প্রত্যন্ত গ্রাম হাওয়ায় গ্রামের বেশিরভাগ মানুষ মোবাইল ব্যাংকিং এ আসা টাকা উত্তোলনে শরণাপন্ন হন তার। 

এই সুযোগে কাজে লাগিয়ে রমরমা প্রতারণা জাল বিছিয়েছেন বলে অভিযোগ স্থানীয়দের। 

স্থানীয়রা জানান, ডিজিটাল পদ্ধতিতে শিক্ষার্থীদের মোবাইলে আসা উপবৃত্তির টাকা, বিধবা নারীদের ভাতা, পঙ্গু ভাতার নিয়মিত নিজাম উদ্দিনের দোকানে উত্তোলন করেও সঠিক হিসাব পাচ্ছেন না তারা। তবে গ্রাহকের মোবাইল ফোন থেকে অগোচরে এবং নানা কৌশল অবলম্বন করে নানা সময় টাকা হাতিয়ে নিতেন বলে অভিযোগ স্থানীয়দের। প্রায় সময় মোবাইল ব্যাংকিং এ থাকা আসলেও অর্ধেক টাকা গ্রাহককে দিয়ে বাকি অর্ধেক নানা কৌশলে হাতে নিতেন অভিযুক্ত নিজাম উদ্দিন। 

সোমবার সরেজমিন এলাকাটি ঘুরে ভুক্তভোগিদের কথা জানা যায়, প্রতারণার আশ্রয় নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে গ্রামের সহজ সরল মানুষদের ঠকিয়ে আসছেন বলে অভিযোগ। এমনকি সুবিধাভোগীদের মোবাইল ব্যাংকিং সেবা বিকাশ, রকেট, নগদ একাউন্টের পিন নাম্বার গ্রাহকদের কাছে গোপন রাখার অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। ফলে টাকা উত্তোলনে শুধু তার কাছেই আসতে হয় গ্রাহকদের। সেই সুযোগে অভিনব কায়দায় অর্থ হাতিয়ে নেন তিনি। তবে গেল কিছুদিন আগে প্রতারণার বিষয়টি জানাজানি হলে অভিযুক্ত নিজাম উদ্দিন অনেকেই টাকা ফিরিয়ে দিয়েছেন বলে জানা যায়। 

ভুক্তভোগী আব্দুল হানিফ বলেন, আমরা গরীব মানুষ। আমরা লেখাপড়া জানি না। মোবাইলের বিষয়ে তো একদম বুঝি না। আমার সন্তানের উপবৃত্তির টাকা তুলতে দোকানে যায় পরে ১ হাজার টাকা আমাকে দেয়। কিছুদিন পর জানতে পারি আমার ১৫ শত টাকা আসছে পরে এলাকাবাসীদের সাথে নিয়ে দোকানে গিয়ে বললে তারপর ৫ শত টাকা দেয়। 

অপর দিকে বিল্লাহ হোসেন এক ব্যাক্তি বলেন, গত ১০-১২ বছর ধরে গ্রামের মানুষের সাথে প্রতারণা ও আসছে এতোদিন আমরা বোঝতে পারেনি যে আমাদের এভাবেই ঠকিয়ে যাচ্ছেন। দীর্ঘ সময় পর তার এই প্রতারণার বিষয়টি ধরতে পেরেছি। এই প্রতারকের বিরুদ্ধে যথাযথ আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ দাবী জানায় আমরা। 

গ্রাহকদের টাকা প্রতিনিয়ত হিসাব মতো বুঝিয়ে দিয়েছি বলে জানা নিজাম উদ্দিন। তিনি বলেন, কতিপয় কিছু ব্যক্তি আমাকে হেও প্রতিবর্ণ করার জন্য এবং সমাজে খাটো করার জন্য মিথ্যা একটি অভিযোগ সাজিয়ে প্রচার করে বেড়াচ্ছে। আমি বাজারে ছোট্ট একটি ব্যবসা করি। মোবাইল ব্যাংকিংয়ের ব্যবসাও রয়েছে অনেক গ্রাহক আমার কাছে তাদের উপবৃত্তি ও বিভিন্ন ভাতার টাকা উত্তোলন করেন যার আইডি পাই হিসাব তাদের বুঝিয়ে দিতেই। 

এ ব্যাপারে ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুর রাজ্জাক সরকার বলেন, প্রাথমিকভাবে অভিযোগটির সত্যতা রয়েছে। অনেক মানুষ ইতিমধ্যে আমাকে এই অভিযোগের ব্যাপারে অবগত করেছেন। আমি তাদের উর্ধ্বতন প্রশাসনের কাছে লিখিত অভিযোগ জানানোর জন্য বলেছি। লোকটি এলাকার মানুষের সাথে প্রতারণা আসছে। এ বিষয়ে আইনগত পদক্ষেপ নিতে উর্ধতন কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি। 

এ নিয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ রাজীব উল আহসান বলেন, অভিযোগটি পেয়েছি। বিষয়টি খতিয়ে দেখছি।




আরও খবর



জলবায়ু পরিবর্তনে হুমকির মুখে কৃষি

প্রকাশিত:সোমবার ২৫ জুলাই ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ১০ আগস্ট ২০২২ |
Image

মইনুল ইসলাম মিতুল : জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে হুমকির মুখে পড়েছে উত্তরাঞ্চলের আউশ ও রোপা আমন ধানের চাষাবাদ।

এই সময়ের মধ্যে সিংহভাগ জমিতে আমনের চারা রোপণ হওয়ার কথা। কিন্তু বৃষ্টির পানির অভাবে অধিকাংশ জমিতে চারা লাগানো যাচ্ছে না। প্রকৃতির এমন বিরুপ আচরণে চাষিদের কপালে পড়েছে চিন্তার ভাঁজ। কখনো টিপটিপ, কখনো একপশলা বৃষ্টি হলেও বর্ষানির্ভর আউশ-আমন চাষের জন্য তা যথেষ্ট নয়। রোদের তীব্রতার চেয়ে বাড়তি সেচ খরচের ধকলে পুড়ছেন এই অঞ্চলের কৃষকরা।

আবহাওয়াবিদরা বলছেন, বর্ষাকালে যে পুঞ্জিভূত মেঘ বাংলাদেশে অবস্থান করার কথা সেটা এখন ভারতের পশ্চিমবঙ্গে আছে। এজন্য বর্ষাকালেও মুষলধারে বৃষ্টি হচ্ছে না। গত এক দশক ধরেই আবহাওয়ায় এমন অস্বাভাবিক পরিস্থিতি দেখা যাচ্ছে। জলবায়ু পরিবর্তন ও বৈশ্বিক উষ্ণতার প্রভাবে ঋতু পরিক্রমায় এই পরিবর্তন বলে জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা বলছেন, এখনই উদ্বিগ্ন হওয়ার কিছু নেই। সামনে ভারী বর্ষনের সম্ভাবনা রয়েছে। ভাদ্র মাসের প্রথম সপ্তাহ পর্যন্ত চারা রোপণ করা যাবে। চাষিদের সম্পূরক সেচ দিয়ে চাষাবাদ করার পরামর্শ দিচ্ছেন তারা।

বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট এর তথ্যমতে, বরেন্দ্র অঞ্চলে গড় বৃষ্টিপাত প্রায় এক হাজার ১০০ মিলিমিটার। ১০ বছর আগে রাজশাহীতে বছরে গড় বৃষ্টি হতো এক হাজার ৫০০ মিলিমিটার। রাজশাহী আবহাওয়া অফিসের তথ্যমতে, গত বছর আষাঢ় মাসে রাজশাহীতে বৃষ্টি হয়েছিল ২৫ দিন। আর এ বছর আষাঢ়ে বৃষ্টি হয়েছে মাত্র আটদিন। গত বছর ৩৫৪ মিলিমিটার বৃষ্টি হলেও এবার তা হয়েছে মাত্র ৩৯ দশমিক দুই মিলিমিটার। বৃষ্টিপাত কমেছে প্রায় ৮৯ শতাংশ। তবে এবার যেই পরিমাণ বৃষ্টি হয়েছে সেটাও বিক্ষিপ্তভাবে কিছু সময়ের জন্য। তাপমাত্রা ছিল গড়ে ৩৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, বর্তমানে তাপদাহের বিপর্যয় শুধু বাংলাদেশ নয় এটা বৈশ্বিক সংকট। এমন পরিস্থিতি থেকে উত্তোরণের জন্য প্রচুর পরিমাণে বৃক্ষ রোপন করতে হবে। ফলদ ও ফুলের পাশাপাশি পশু-পাখির উপযোগী বৃক্ষরোপন অপরিহার্য।

বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর-বিবিএস আউশ ফসলের প্রাক্কলিত হিসাব শীর্ষক প্রতিবেদন অনুযায়ী, এ বছর দেশে আউশের আবাদ হয়েছে ১১ লাখ ৫৯ হাজার ৮০ হেক্টর জমিতে।

বরেন্দ্র অঞ্চলের নওগাঁর মহাদেবপুর উপজেলার উত্তরগ্রাম গ্রামের কৃষক রেজাউল ইসলাম জানায়, আষাঢ়-শ্রাবণ মাসে বৃষ্টি নেই। কৃষকেরা এটা ভাবতেই পারছে না। এই রকম বৈরী আবহাওয়া আগে কখনই দেখেননি।

সাপাহার উপজেলার গোয়ালভিটা গ্রামের কৃষক ইব্রাহিম হোসেন বলেন, অনাবৃষ্টির কারণে গভীর নলকূপের পানি দিয়ে আমনের জমি রোপণ করতে গিয়ে শ্রমিক খরচ, হালচাষ ও সার-কীটনাশক দিয়ে বিঘাপ্রতি প্রায় ৪ হাজার টাকা করে খরচ হয়েছে। যদি বৃষ্টি না হয় তাহলে বোরোর আবাদ করতে যে ৯-১০ হাজার টাকার মতো খরচ হতো আমনেও তেমন খরচ হবে।

আবহাওয়ার এমন পরিবর্তন উত্তরের কৃষির জন্য অশনি সংকেত হিসেবে দেখছেন রংপুর আবহাওয়া অফিসের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা একেএম কামরুল হাসান। তিনি বলেন, স্বাভাবিক বৃষ্টি না হলে আমন চাষে তিন ধরনের ক্ষতির মুখে পড়েন কৃষকরা। প্রথমত সেচে বাড়তি খরচ, দ্বিতীয়ত খেতে আগাছা, রোগ বালাই ও পোকার আক্রমণ বেড়ে যায় এবং তৃতীয়ত উৎপাদিত ধানে ভালো মানের চাল পাওয়া যাবে না।

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূগোল ও পরিবেশবিদ্যা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ডক্টর আবদুল্যাহ আল মারুফ গণমাধ্যমে বলেন, রাজশাহী যে তাপমাত্রা বাড়ার প্রবণতা উর্দ্ধমুখী। আমরা গবেষণা করে যেটা পেয়েছি তা হলো, প্রতিবছর দশমিক ০০৩ করে তাপমাত্রা বাড়ছে। তিনি মনে করেন, রাজশাহী অঞ্চলে তাপমাত্রা বাড়ার কারণ জলাশয় ও পুকুর ভরাট, বৃক্ষ নিধন, বহুতল ভবন নির্মাণ। এজন্য রাজশাহীর তাপমাত্রা পরিস্থিতিকে আরও জটিল করে তুলছে। তিনি আরও বলেন, তাপপ্রবাহ মোকাবেলা করার জন্য এখন থেকে ব্যবস্থা নেয়া জরুরী। আমাদের সবাইকে গাছ লাগিয়ে আবার গ্রীন বলয়ে ফিরে আসতে হবে। নাহলে এই অঞ্চলে প্রতিবছর তাপমাত্রা বাড়তে থাকবে।


আরও খবর

আন্তর্জাতিক আদিবাসী দিবস

মঙ্গলবার ০৯ আগস্ট ২০২২




নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে

দুর্ধর্ষ কিশোর গ্যাং “টেনশন গ্রুপের ৭ সদস্যকে গ্রেফতার

প্রকাশিত:রবিবার ০৭ আগস্ট ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ১০ আগস্ট ২০২২ |
Image

বুলবুল আহমেদ সোহেল; নারায়ণগঞ্জঃ 

নারায়ণগঞ্জ সিদ্ধিরগঞ্জের ত্রাস দুর্ধর্ষ কিশোরগ্যাং নেতাসহ টেনশন গ্রুপের সাত সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব-১১। তাদের কাছ থেকে উদ্ধার করা হয়েছে একটি গুপ্তি ছোরা, দুইটি গিয়ার সুইচযুক্ত ধাঁরালো চাকু, দুইটি ছোরা ও একটি ষ্টিলের পাইপ। গতকাল রোববার দুপুরে সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এতথ্য জানান র‌্যাবের মিডিয়া অফিসার সহকারী পরিচালক মো: রিজওয়ান সাঈদ জিকু। তার আগে শনিবার দিবাগত রাতে মিজমিজি এলাকা থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তাররা হলো- মিজমিজি এলাকার মো: শফিকুল ইসলামের ছেলে দলনেতা মোঃ রাইসুল ইসলাম সীমান্ত, মোঃ নজরুল মিয়ার ছেলে মোঃ নাঈম মিয়া, মোঃ আল আমিনের ছেলে মোঃ হাসান, মোঃ ইসলামের ছেলে মোঃ পারভেজ মিয়া, মোঃ আব্দুল হাকিমের ছেলে আবির বিন হাকিম, মোঃ আমান উল্লাহর ছেলে মোঃ রাহাত ও নুরুল ইসলামের ছেলে মোঃ রিয়াদুল ইসলাম। তাদের প্রত্যেকের বয়স ২১ থেকে ২৪ বছরের মধ্যে।

র‌্যাব জানায়, তারা পরিকল্পিতভাবে দলবদ্ধ হয়ে সংঘাত ও অস্ত্র প্রদর্শন করে জনমনে ভয়ভীতি দেখিয়ে এলাকায় ত্রাস সৃষ্টি করে আসছিল। তাদের সাত থেকে দশ জনের গ্রুপ সংঘবদ্ধ হয়ে এলাকায় বিশৃঙ্খলা ও অরাজকতা করে বেড়াত। জিজ্ঞাসাবাদ ও প্রথমিক অনুসন্ধানে জানা গেছে, প্রতিপক্ষ কিশোরগ্যাং সদস্যদের ঘায়েল করতে শক্তি প্রদর্শন করার জন্য ওইসব দেশিয় অস্ত্র নিয়ে তারা একত্রিত হয়েছিল। তাদের বিরুদ্ধে সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় আইনানুগ কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন।


আরও খবর



ময়মনসিংহে ৩ জনকে চাপা দেওয়া সেই ট্রাকচালক গ্রেপ্তার

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৯ জুলাই ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৯ আগস্ট ২০২২ |
Image

ময়মনসিংহের ত্রিশালে ট্রাকচাপায় শিশুসহ তিনজন নিহতের ঘটনায় রাজু আহমেদ শিপন নামের ওই চালককে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব। সোমবার (১৮ জুলাই) রাতে ঢাকার সাভার এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন র‌্যাব-১৪ ময়মনসিংহ সদর দপ্তরের কোম্পানি অধিনায়ক মেজর আখের মুহম্মদ জয় বলেন, ঘটনাটি এখন দেশজুড়ে আলোচনায়। ঘটনার পর থেকেই র‌্যাবের গোয়েন্দা শাখা নজরদারি বাড়ায়। এর ধারাবাহিকতায় রাতে ঢাকার সাভার এলাকায় অভিযান চালিয়ে ট্রাকচালক শিপনকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাবের একটি অভিযানিক দল।

মঙ্গলবার (১৯ জুলাই) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে রাজধানীর কারওয়ান বাজার র‌্যাব মিডিয়া সেন্টারে এ বিষয়ে সংবাদ সম্মেলন করে বিস্তারিত জানানো হবে।

এর আগে শনিবার বিকেলে তিনজনকে চাপা দেয়ার ঘটনায় পুলিশ ট্রাকটিকে জব্দ করতে পারলেও তাৎক্ষণিক পালিয়ে যায় চালক। নিহত জাহাঙ্গীর আলমের বাবা অজ্ঞাত আসামি করে মামলার পর পুলিশ চালককে খুঁজলেও পরিচয় শনাক্ত করতে পারেনি।


আরও খবর

আন্তর্জাতিক আদিবাসী দিবস

মঙ্গলবার ০৯ আগস্ট ২০২২