Logo
শিরোনাম

সাড়ে ১২ লাখ ড্রাইভিং লাইসেন্স প্রদান বাকি

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০১ ডিসেম্বর ২০২২ |
Image

রোকসানা মনোয়ার :  বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআরটিএ) চেয়ারম্যান নূর মোহাম্মদ মজুমদার জানিয়েছেন প্রায় সাড়ে ১২ লাখ ড্রাইভিং লাইসেন্স প্রদান বাকি রয়েছে। করোনাভাইরাসের সময় স্মার্ট ড্রাইভিং কার্ডের জন্য ৩ বার দরপত্র আহ্বান করা হয়েছে এবং মামলার কারণে লাইসেন্স বিতরণে দীর্ঘসূত্রিতা হয়েছে বলে তিনি জানান।


স্মার্ট ড্রাইভিং লাইসেন্সে যাবতীয় তথ্য অন্তর্ভুক্ত থাকলে বিদেশে চাকরি বা ভ্রমণের ক্ষেত্রে খুবই কাজে লাগবে। তিনি দ্রুত সময়ের মধ্যে এ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করার বিষয়ে গুরুত্বারোপ করেন। শুধুমাত্র যানবাহনের অতিরিক্ত গতির কারণে দুর্ঘটনা ঘটছে না, সড়কে শৃঙ্খলার অভাবে সবকিছু প্রশ্নবিদ্ধ হয়ে যাচ্ছে। সড়কে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনার বিষয়ে বিদ্যমান আইন রয়েছে, যা যথাযথভাবে প্রয়োগের অভাবে কোন রাস্তায় কোন যানবাহন চলাচল করবে, সে ব্যাপারে তদন্ত সলিসি নির্ধারণের প্রয়োজন রয়েছে।

তিনি ১৯৮০ সালে নির্মিত গাড়ি ঢাকা শহরে চলাচল করার বিষয়ে প্রশ্ন তুলেন আরও বলেন, এক্ষেত্রে গাড়ির ফিটনেন্স দেওয়ার ক্ষেত্রে আরও সতকর্তা অবলম্বন করার প্রতি বিশেষ গুরুত্বারোপ করেন। ঢাকা শহরে ফিটনেসবিহীন গাড়ি বন্ধের লক্ষ্যে কার্যকর উদ্যোগ গ্রহণের প্রস্তাব করেন।


সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি বলেন, বিআরটিএ থেকে দীর্ঘদিন যাবত স্মার্ট ড্রাইভিং লাইসেন্স প্রাপ্তির ক্ষেত্রে গ্রাহকরা চরম ভোগান্তির মধ্যে রয়েছে এবং যে কোনো সেবা প্রাপ্তির ক্ষেত্রে দালালের মাধ্যমে নিতে হয়। ১২ লাখ ড্রাইভিং লাইসেন্স এবং নবায়নযোগ্য ২৫ লাখ লাইসেন্স ছাপানোর অপেক্ষায় রয়েছে। দীর্ঘদিন যাবত স্মার্ট ড্রাইভিং লাইসেন্স ছাপানোর কার্যক্রম ধীর গতিতে হওয়ায় সাধারণ মানুষ ভোগান্তির শিকার হচ্ছে। ফলে তাদের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হচ্ছে। বিষয়টি নিরসন হওয়া দরকার বলে তিনি মনে করেন। ড্রাইভিং লাইলেন্স প্রদানে বিলম্ব হওয়ায় পেশাদার ও অপেশাদার ড্রাইভারগণ গাড়ি চালাচ্ছে। এ সুযোগে অপেশাদার ব্যক্তি গাড়ি চালানোর ফলে প্রতিনিয়ত দূর্ঘটনা বাড়ছে ফলে মানুষের মৃত্যুর মিছিলও বৃদ্ধি পাচ্ছে।


এ বিষয়ে সভাপতি সভায় অবহিত করেন প্রধানমন্ত্রী, সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী মহোদয় বরাবর একটি আবেদন করা হয়েছে, যার কপি সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতিকে দেওয়া হয়েছে। যা পর্যালোচনা করলে দেখা যায় এটি একটি উন্নত প্রযুক্তি সম্বলিত সমাধান। যা জার্মান প্রযুক্তির মাধ্যমে পরিকল্পনা করা হয়েছে। এটি অত্যন্ত কম খরচে গ্রাহক পর্যায়ে পৌঁছানো সম্ভব। এতে সরকারের কোনো আর্থিক সংশ্লিষ্ঠ বিষয় থাকবে না। এটির সাথে গাড়ি এবং চালক সম্পর্কিত বিস্তারিত তথ্যাবলি থাকবে। ইহা ছাড়াও এ প্রযুক্তিতে আইডি কার্ড জন্ম নিবন্ধনসহ ড্রাইভিং লাইসেন্স সংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্যসমূহ থাকবে। এটি কোনোক্রমেই নকল করা সম্ভব হবে না। এ প্রযুক্তিটি পরবর্তীতে ডিজিটাল প্রেডেনশিয়াল তৈরিতে সহায়তা করবে।


এসবের উত্তরে বিআরটিএ আরও বলেন, তবে যারা মাঠপর্যায়ে পরীক্ষা দিচ্ছে তারা যথাসময়ে লাইসেন্স পেয়ে যাচ্ছে। যাদের লাইসেন্স রয়েছে, তাদের অস্থায়ীভাবে লাইসেন্স দেওয়া হয়েছে বলে জানান। ডিপিএম পদ্ধতি লাইসেন্স তৈরি করার জন্য বাংলাদেশ সেনাবাহিনীকে দেওয়া হয়েছে, এক্ষেত্রে কোভিডের কারণে জার্মান থেকে মেশিন সরবরাহে বিলম্ব হচ্ছে। ১২ লাখ ৪৫ হাজার লাইসেন্সের মধ্যে ৪ লাখ ইতোমধ্যে প্রিন্ট সম্পন্ন হয়েছে। গ্রাহকের ভোগান্তি দূর করার লক্ষ্যে প্রায় ৭০ শতাংশ কাজ ডিজিটালাইজড হয়েছে। কিন্তু ডিজিটালাইজডের বিষয়টি অনেকে অবহিত নয়, এক্ষেত্রে প্রায় গ্রাহক দালালের শরণাপন্ন হয়ে থাকে।


বৈঠকে মানুষের জীবন নিরাপত্তা নিশ্চিত করে সকল প্রকার অবকাঠামো নির্মাণ এবং মহাসড়কে জনগণের জীবনের নিরাপত্তা বিধান ও নিরাপদ রাখা লক্ষ্যে নসিমন, করিমন, সিএনজি চালিত অটোরিকশা, ইঞ্জিনচালিত রিকশা চলাচল বন্ধ করার ব্যপারে ৮টি বিভাগের বিভাগীয় কমিশনার, ডিআইজি, অতিরিক্ত আইজিপি (হাইওয়ে) এর সমন্বয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য মন্ত্রণালয়কে পুনরায় সুপারিশ করা হয়।


বৈঠকে স্মার্ট ড্রাইভিং লাইসেন্স ছাপানো ও বিতরণে দীর্ঘসূত্রিতায় অসন্তোষ প্রকাশ করে এবং আবেদনকারীদের নিকট দ্রুত বিতরণের ব্যবস্থা নেওয়া হবে সে বিষয়ে প্রয়োজনীয় তথ্য জানানোর জন্য কমিটি সুপারিশ করে।


 


আরও খবর

নওগাঁয় বেগুন গাছে টমেটো চাষে সফল কৃষক বাদল

বৃহস্পতিবার ০১ ডিসেম্বর ২০২২

কাগজ সংকটে বই প্রকাশ অনিশ্চিত

বৃহস্পতিবার ০১ ডিসেম্বর ২০২২




এশিয়ান টেলিভিশনের ফতুল্লা প্রতিনিধি

বদিউজ্জামানে উপর সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে বিক্ষোভ

প্রকাশিত:সোমবার ১৪ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৯ নভেম্বর ২০২২ |
Image

বুলবুল আহমেদ সোহেল ঃ

পেশাগত দায়িত্ব পালনকালে এশিয়ান টেলিভিশনের ফতুল্লা প্রতিনিধি বদিউজ্জামানে ওপর সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে ফতুল্লা প্রেসক্লাব। দুপরে ফতুল্লা প্রেসক্লাবের সামনে এ বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

সমাবেশে বক্তারা বলেন,  নিউজ কাভার করতে গিয়ে এশিয়ান টেলিভিশনের ফতুল্লা প্রতিনিধি বদিউজ্জামান, ও ক্যামেরাম্যান এর ওপর বক্তাবলি এলাকার সন্ত্রাসী জাকির ফতুল্লা থানা গেট এলাকায় হামলা করে। হামলাকারী জাকিরকে ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে আইনের আওতায় এনে শাস্তির দাবি জানায় সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ। সাধারন ডায়েরী করার ৪ দিন পার হলেও এখন পর্যন্ত হামলাকারীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হয় ক্ষোভ প্রকাশ করেন তারা।

এ সময়  উপস্থিত ছিলেন, ফতুল্লা প্রেসক্লাবের সভাপতি আঃ রহিম, সাধারণ সম্পাদক নিয়াজ মোঃ মাসুম, সাংগঠনিক সম্পাদক লিটন, রিপোর্টার্স ক্লাবের সাবেক সভাপতি রনজিৎ মোদক, নারায়ণগঞ্জ সিটি প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক সিফাত আল লিঙ্কন এশিয়ান টেলিভিশনের নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি  হাবিবুর রহমান, এশিয়ান টেলিভিশনের সিদ্ধিরগঞ্জ প্রতিনিধি মোঃ ফারুক হোসেন, ও অন্যান্য সাংবাদিকবৃন্দ।


আরও খবর



সুনামগঞ্জের তাহিরপুরে রক্তি নদীতে বাল্কহেড ডুবি

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০১ ডিসেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০১ ডিসেম্বর ২০২২ |
Image

শফিউল আলম স্টাফ রিপোর্টার :


সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলার বালিজুরী ইউনিয়নে রক্তি নদীতে ৯ হাজার ফুট বালি সহ বাল্কহেড ডুবেছে।৩০ নভেম্বর বিকেলে আনোয়ারপুর বাজার সংলগ্ন স্থানে স্টীল বডি খালি নৌকার সাথে সরাসরি সংঘর্ষ হলে বাল্কহেড নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ব্রীজের পিলারে ধাক্কা লাগলে ডুবে যায়। স্থানীয় সূত্রে জানা যায় আনোয়ারপুর গ্রামের চিতু দাশ স্টীলবডি খালি নৌকাটি ভাড়ায় পরিচালনা করছে। এক্সিডেন্টের সময় চিতু দাশ নৌকায় ছিল না এমনকি সে শশুড় বাড়ীতে বেড়াতে গেছে অনেকেই একথা বলেছেন। তবে নৌকায় যারা ছিল তারা ঘটনার পরপরই পালিয়ে যায়। কেউ তাদের পরিচয় প্রকাশ করেনি।এদিকে কিশোরগঞ্জের বাজিতপুরের এমবি রহমতুল্লাহ বাল্কহেড এর চালক (সুকানি) স্বাধীন মিয়া জানান তারা রাইট ছিল বাল্কহেডে মানুষ চারজন। সবাই পানিতে ঝাপ দিয়ে নদীর তীরে এসে পৌঁছেছে এখানে কেউ হতাহত হয়নি।বাল্কহেড এর মালিক তারেক ডালি জানান ৫-৬ মাস পূর্বে ৩৫ লক্ষ টাকায় বাল্কহেড ক্রয় করেছেন আংশিক অংশীদার চালক স্বাধীন মিয়া রয়েছেন।এদূর্ঘটনায় তারা বিরাট ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছেন। বালিজুরী গ্রামের বাসিন্দা ফেরদৌস আলম জানান,আনোয়ারপুরে নির্মিত হয় ২০১১ সালে ১২৫ মিটার দীর্ঘ এ সেতু আর এই সেতুটি ‘আনোয়ারপুর ব্রীজ’ নামে পরিচিত।দেখা যায় (মালবাহী বড় নৌযান) চলাচলের সময় খুঁটিতে ধাক্কা লাগে এতে করে ঝুঁকিতে পড়েছে সেতুটি।এলাকাবাসী সেতুটির নীচ দিয়ে বাল্কহেড চলাচল বন্ধের দাবি জানিয়েছেন।তাহিরপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করেও বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।  ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আজাদ হোসেন জানান বর্ষার সময় বড় নৌ যান চলাচলে সমস্যা হয় তাই সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ ব্রীজ উঁচু করতে উদ্যোগ নিয়েছেন বরাদ্দ হয়েছে টেন্ডার হবে অতিশীঘ্রই কাজ আরম্ভ হবে আশাবাদী।


আরও খবর



ভার্জিন পাল্প আমদানি বন্ধ

কাগজ সংকটে বই প্রকাশ অনিশ্চিত

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০১ ডিসেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০১ ডিসেম্বর ২০২২ |
Image

কাগজ সংকট থেকে উদ্ভূত পরিস্থিতি ক্রমেই আরো জটিল হচ্ছে। ডলার সংকটে বিদেশ থেকে ভার্জিন পাল্প আমদানি বন্ধ। রিসাইকেল পাল্পে তৈরি কাগজের মাধ্যমে বই মুদ্রণ ও স্কুল-কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ের লেখার খাতার প্রয়োজন মেটানোর কথা। কিন্তু পুরোনো কাগজের দামও বাড়িয়ে দিয়েছে একটি চক্র। এতে থমকে যাওয়ার উপক্রম হয়েছে শিক্ষাকার্যক্রম। ঘোর অনিশ্চয়তায় পড়েছে প্রকাশনাশিল্প। সৃজনশীল বই প্রকাশের অন্যতম উপলক্ষ একুশে বইমেলাও জৌলুশ হারানোর আশঙ্কায়।

কয়েকটি মিল, পাইকারি কাগজ ব্যবসায়ী এবং নোট-গাইড প্রকাশকরা হাজার হাজার টন কাগজ কিনে মজুদ করে ফেলেছেন বলে অভিযোগ। ফলে বাজারে দেখা দিয়েছে কাগজ সংকট। এ অবস্থায় শুধু পাঠ্যবই নয়, ফেব্রুয়ারিতে একুশে বইমেলায় সৃজনশীল বই, ছোট ছোট প্রকাশনীর গাইড, বই ও লেখার খাতা তৈরি পড়েছে অনিশ্চয়তার মধ্যে। এ অবস্থায় সরকারি হস্তক্ষেপ ছাড়া কাউকে সংকট থেকে উত্তরণের উপায় নেই বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

একুশে বইমেলায় প্রতিটি প্রকাশনী থেকে ২০ থেকে ১৫০টি পর্যন্ত বই প্রকাশ করা হয়। এ ক্ষেত্রে নামি-দামি লেখকের চেয়ে নতুন লেখকদের বই প্রকাশ হয় সংখ্যায় বেশি। নতুন লেখকরা বইমেলার মাধ্যমেই বই প্রকাশের সুযোগ পান।

গত বছর জানুয়ারিতে ৮০-১০০ গ্রাম অপসেট কাজ ১৪৫০-১৫০০ টাকায় বিক্রি হলেও বর্তমানে তা ৩৩০০ থেকে ৩৫০০ টাকা। ১০০ গ্রাম অপসেট কাগজ ১৭০০-১৭৫০ টাকার জায়গায় এবার ৪২০০-৪৩০০ টাকা নেওয়া হচ্ছে। প্রকাশকদের এমনিতে পুঁজির স্বল্পতা, তার ওপর কাগজের দাম বেড়ে যাওয়ায় মেলায় বইয়ের দাম দেড় গুণ হয়ে যাবে। বইয়ের দাম বাড়লে পাঠকের ক্রয়ক্ষমতা কমবে। পরিচিত লেখক ছাড়া নতুন লেখকদের বই প্রকাশনা পড়বে ঝুঁকিতে।

জানা যায়, নিউজপ্রিন্ট কাগজের দাম ৪৫-৫০ থেকে বেড়ে ১০৮ টাকা কেজিতে বিক্রি হচ্ছে। এ কারণে বছরের শুরুতে সহায়ক বই ছাপানো থেকেও পিছিয়ে যাচ্ছেন অনেক প্রকাশক। বড় প্রকাশনীগুলো কিছু সহায়ক ছাপালেও তা দ্বিগুণ মূল্যে শিক্ষার্থীদের কিনতে হবে। বাড়তি দামে প্রকাশকরা বই ছাপবেন। মূল্য কতটা বাড়ানো হবে সেটি নিয়ে পুস্তক প্রকাশনা ও বিক্রেতা সমিতির বৈঠক হয়েছে। সেখানে ফর্মাপ্রতি ২৫ শতাংশ মূল্য বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। যে বইয়ের দাম ৬৫০ টাকা ছিল তা এখন ৮০০-৮৫০ টাকায় বিক্রি হবে।

এখন টাকা থাকলেও প্রয়োজনীয় কাগজ পাওয়া যাচ্ছে না অ্যাকাডেমিক ও সৃজনশীল বই ছাপানোয় প্রকাশকদের ওপর বড় ধরনের ধাক্কা এসেছে। অনেক প্রকাশক নিঃস্ব হয়ে পড়েছেন। কিছু কাগজ ব্যবসায়ী কারসাজি করে মজুদ করে রেখেছেন। তারা ইচ্ছামতো দাম হাঁকছেন। বিশ্ববাজারে যে পরিমাণে পাল্পের দাম তার দ্বিগুণ দামে কাগজ বিক্রি করছে মিলগুলো। সিন্ডিকেট করে সবাই সুযোগ নিচ্ছে। প্রকাশকদের পক্ষে বলার কেউ নেই।

সংকট মোকাবিলায় এ মুহূর্তে শুল্কমুক্ত কাগজ আমদানির অনুমোদন প্রয়োজন। একই সঙ্গে এই খাতকে নিত্যপ্রয়োজনীয় ঘোষণা করে বাংলাদেশ ব্যাংককে পদক্ষেপ নিতে সরকারের পক্ষ থেকে সহযোগিতা করার আহ্বান জানাতে হবে ।


আরও খবর

নওগাঁয় বেগুন গাছে টমেটো চাষে সফল কৃষক বাদল

বৃহস্পতিবার ০১ ডিসেম্বর ২০২২

বিনম্র শ্রদ্ধায় জাতীয় বীরদের স্মরণ

বৃহস্পতিবার ০১ ডিসেম্বর ২০২২




মা হলেন বিশাপা বসু

প্রকাশিত:সোমবার ১৪ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০১ ডিসেম্বর ২০২২ |
Image

বলিউড পাড়ায় বইছে সুসংবাদের বাতাস। আলিয়া-রণবীরের কন্যা সন্তান জন্মের ঠিক ছয় দিনের মাথায় এবার কন্যা সন্তানের বাবা-মা হলেন বলিউডের আরেক সুপারস্টার দম্পতি করণ সিংহ -বিশাপা বসু।

১২ নভেম্বর মুম্বাইয়ের খারের হিন্দুজা হাসপাতালে কন্যা সন্তানের জন্ম দিয়েছেন বলিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী বিপাশা বসু।

চলতি বছরের আগস্ট মাসে বিপাশা-করণ দম্পতি জানান, তাদের ঘরে নতুন অতিথি আসছে। বিপাশা বসু এরপর বিভিন্ন ফটোশুটের মাধ্যমে ভক্তদের সামনে নিজেকে উপস্থাপন করেন। বিপাশা বসু ৪৩ বছরে মা হয়েছেন এই খবরে ভীষণ আনন্দিত তার ভক্তরা।

বিপাশার মা হওয়ার সংবাদ ছড়িয়ে পড়ার সঙ্গে সঙ্গে ভক্তরা প্রিয় তারকাকে অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানাচ্ছেন। সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় বিপাশার বেবি বাম্পের ছবি রীতিমতো ভাইরাল হয়।

এ ছবি নিয়ে তুমুল আলোচনা ও সমালোচনা হয়। কিন্তু বিপাশা ও করণ ভক্তরা এটিকে ইতিবাচকভাবেই নিয়েছেন।

বিপাশা বসু ও করণ সিং গ্রোভার বলিউডের অন্যতম আলোচিত দম্পতি। তাদের ব্যক্তিজীবন নিয়েও সিনমোপ্রেমীদের মাঝে তুমুল আগ্রহ রয়েছে। ২০১৬ সালের ৩০ এপ্রিল মুম্বাইয়ে সাত পাকে বাঁধা পড়েন দুই তারকা।


আরও খবর

নোরাকে অশালীনভাবে স্পর্শ !

বৃহস্পতিবার ০১ ডিসেম্বর ২০২২




চনপাড়া পূনর্বাসন কেন্দ্রের মাদক সম্রাট ইউপি সদস্য বজলুর গ্রেপ্তার

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৮ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০১ ডিসেম্বর ২০২২ |
Image

বুলবুল আহমেদ সোহেল ঃ

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জের চনপাড়া পূনর্বাসন কেন্দ্রের মাদক সম্রাট হিসেবে পরিচিত ইউপি সদস্য বজলুর রহমানকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব। শুক্রবার বিকেলে তাকে পূর্বগ্রাম থেকে র‌্যাব-১-এর একটি দল তাকে গ্রেপ্তার করে। 

র‌্যাব–১–এর অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল আবদুল্লাহ আল মোমেন  বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, গত ২৭ সেপ্টেম্বর রাতে র‌্যাবের উপর হামলার ঘটনায় করা একটি মামলায় তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এবিষয়ে পরে বিস্তারিত জানানো হবে। 

বজলুর রহমান চনপাড়া পুনর্বাসন কেন্দ্রের ৬ নম্বর ওয়ার্ড এলাকার নাদের বক্সের ছেলে। পুলিশের হিসাবে তিনি হত্যাসহ অন্তত ১০টি মামলার আসামি। তাঁর বিরুদ্ধে পুলিশ ও র‌্যাবের ওপর হামলার অভিযোগও রয়েছে। স্থানীয়ভাবে তাকে চনপাড়া পুসর্বাসন কেন্দ্রের অপরাধ সাম্রাজ্যের নিয়ন্ত্রক হিসেবে পরিচিত তিনি।


আরও খবর