Logo
শিরোনাম

সাম্প্রদায়িকতা ও বিএনপির মিথ্যাচারের বিরুদ্ধে আওয়ামী লীগ

প্রকাশিত:রবিবার ১২ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০২ জুলাই 2০২2 |
Image

বিএনপিকে আগুন নিয়ে না খেলতে সতর্ক করেছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। সীতাকুণ্ডসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে সাম্প্রতিক অগ্নিকাণ্ডের ঘটনার প্রেক্ষাপটে বিএনপি নেতাদের উদ্দেশে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে তিনি বলেন, আগুন নিয়ে খেললে সে আগুনে পুড়ে আপনাদের পরিণতি হবে ভয়াবহ।

রবিবার (১২ জুন) সকালে রাজধানীর মোহাম্মদপুর টাউন হল মাঠে মোহাম্মদপুর থানা ও ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

‘আওয়ামী লীগ জনগণের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছে’, বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের এ মন্তব্যের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, জনগণ নয়, সাম্প্রদায়িকতা ও বিএনপির মিথ্যাচারের বিরুদ্ধে আওয়ামী লীগের অবস্থান। আওয়ামী লীগের জন্ম রাজপথে, রাজপথেই থাকবে, রাজপথ কখনো ছাড়বে না।

সীতাকুণ্ডে সাম্প্রতিক অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, এটা নাশকতা নাকি দুর্ঘটনা সব তথ্য গোয়েন্দাদের কাছে রয়েছে। তদন্তের মাধ্যম সঠিক তথ্য বের হয়ে আসবে।



আরও খবর



আলোচিত সেই ম্যাচে সেপ্টেম্বরে মুখোমুখি হচ্ছে ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা?

প্রকাশিত:বুধবার ২২ জুন 20২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০২ জুলাই 2০২2 |
Image

তথ্য গোপনের অভিযোগে করোনা মহামারী সময় মাঠে খেলা শুরু হওয়ার পরও তা বন্ধ বন্ধ করে দেয় ব্রাজিল ফুটবল কর্তৃপক্ষ। ম্যাচটি পরবর্তী খেলার  ঘোষণা দিয়ে তা বাতিল করে ফিফা কর্তৃপক্ষ। পরে সেই ম্যাচটি দুই পক্ষকে খেলানোর অনেক চেষ্টা করা হয়। কিন্তু আর্জেন্টিনা তাতে রাজি হচ্ছিল না। ফিফার নির্দেশ, নির্ধারিত সময়ই খেলতে হবে ‘পরিত্যাক্ত’ হওয়া সেই ম্যাচ। সেজন্য আগামী বুধবারের মধ্যে ব্রাজিলকে ম্যাচের ভেন্যুর ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে হবে।

সাও পাওলোতে গত বছর সেপ্টেম্বরে বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের অগ্নিগর্ভ ম্যাচে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ব্রাজিলের মুখোমুখি হয়েছিল আর্জেন্টিনা।  ম্যাচের ৭ মিনিটের মাথায় কোভিড বিধিনিষেধ ভাঙার অভিযোগে আর্জেন্টিনার চার খেলোয়াড়কে ধরতে মাঠে ঢুকে পড়েন ব্রাজিলের স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মকর্তারা। এতে বেধে যায় লংকাকাণ্ড। স্থগিত হয়ে যায় ম্যাচ। 

আর্জেন্টিনা আশায় ছিল, পণ্ড ম্যাচের পুরো তিন পয়েন্ট তাদের ঝুলিতে যাবে। কিন্তু পাঁচ মাসের বেশি সময় পর  গত ফেব্রুয়ারি ফিফা সেই ম্যাচ ফের আয়োজনের নির্দেশ দেয়। পাশাপাশি মিথ্যা তথ্য দিয়ে ব্রাজিলে প্রবেশের অভিযোগে আর্জেন্টিনার চার ফুটবলার রোমেরো, এমিলিয়ানো মার্তিনেজ, এমিলিয়ানো বুয়েন্দিয়া ও জিওভান্নি লো সেলসোকে দুই ম্যাচ করে নিষিদ্ধ করে ফিফা।

কিন্তু এরইমধ্যে ম্যাচটি দুই দলের কাছেই গুরুত্বহীন হয়ে পড়ে। কারণ ইতোমধ্যে কাতার বিশ্বকাপের টিকিট নিশ্চিত করে ফেলে লাতিন আমেরিকার দুই পরাশক্তি। যে কারণে যেকোনও উপায়ে ম্যাচটি এড়িয়ে যেতে চাচ্ছিল ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনা।

কিন্তু তা আর হচ্ছে না। তাদের বাতিল হওয়া সেই ম্যাচটি আগামী ২২ সেপ্টেম্বরের মধ্যে ম্যাচ আয়োজনের নির্দেশ দিয়েছে ফিফা। আর বুধবারের মধ্যে সেই ম্যাচের ভেন্যু ঠিক করে ফিফাকে জানাতে হবে ব্রাজিলকে। 

এদিকে ম্যাচ আয়োজনের জন্য তিনটি ভেন্যুর বিষয় পর্যালোচনা করছে ব্রাজিলিয়ান ফুটবল ফেডারেশন - ইউরোপ, যুক্তরাষ্ট্র কিংবা ব্রাজিলে।

ইউরোপে আর্জেন্টিনার বিপক্ষে ম্যাচটি খেলার পর একটি আফ্রিকান দলের বিপক্ষে প্রীতি ম্যাচ খেলার পরিকল্পনা রয়েছে ব্রাজিলের। 

এদিকে যুক্তরাষ্ট্র ব্রাজিল-আর্জেন্টিনার দ্বৈরথ আয়োজনে আগ্রহী অনেকদিন ধরেই। তাদের কথাও মাথায় রেখেছে ব্রাজিল। এই দুটির কোনোটি না হলে ব্রাজিল ঘরের মাঠেই আর্জেন্টিনাকে আতিথেয়তা দিতে চায়।

 সূত্র: এমএসসি ফুটবল, ওলেডটকম, আর্জেন্টিনা


আরও খবর



বন্যার প্রভাব কাঁচা বাজারে

প্রকাশিত:শুক্রবার ০১ জুলাই ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০২ জুলাই 2০২2 |
Image

বিভিন্ন অঞ্চলে ভয়াবহ বন্যা বিপর্যস্ত দেশ। তারই প্রভাব পড়েছে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের বাজারে। দাম বেড়েছে সবজি এবং পেয়াজের।

শুক্রবার সকালে রাজধানীর মিরপুরের বিভিন্ন এলাকার বাজার ঘুরে এমনটাই দেখা গেছে।

বিভিন্ন বাজারে দেখা গেছে সবজির মূল্য বৃদ্ধির বিষয়টি। বিক্রেতারা বলছেন, বন্যার কারণে সরবরাহ কম থাকায় গত ৩-৪ ধরেই শাক-সবজির দাম বৃদ্ধি পেয়েছে। সরবরাহ বাড়লে দাম কমবে।

শুক্রবার এসব বাজারে শসা প্রতিকেজি বিক্রি হচ্ছে ৮০ টাকা। লম্বা বেগুনের কেজি বিক্রি হচ্ছে ৮০ টাকা। টমেটো বিক্রি হচ্ছে ১৫০ টাকা, করলা ৭০, চাল কুমড়া পিস ৪০, প্রতি পিস লাউ আকার ভেদে বিক্রি হচ্ছে ৬০ টাকায়, মিষ্টি কুমড়ার কেজি ৪০, চিচিঙ্গা ৫০, পটল ৫০, ঢেঁড়স ৫০, কচুর লতি ৬০, পেঁপের কেজি ৫০, বটবটির কেজি ‌৬০, ধুনধুলের কেজি বিক্রি হচ্ছে ৫০ টাকা।

এছাড়া এসব বাজারে কাঁচামরিচ প্রতিকেজি বিক্রি হচ্ছে ৯০ টাকা। কাঁচা কলার হালি বিক্রি হচ্ছে ৪০ টাকায়। লেবুর হালি বিক্রি হচ্ছে ১০ থেকে ২০ টাকা। শুকনা মরিচের কেজি ৪০০ টাকা।

বাজারে আলুর কেজি বিক্রি হচ্ছে ২৫ থেকে ৩০ টাকায়। পেঁয়াজের দাম বেড়েছে। কেজি বিক্রি হচ্ছে ৪৫ টাকা। আর একটু ভালো মানের পেঁয়াজের কেজি বিক্রি হচ্ছে ৫০ টাকা। বাজারে রসুনের দাম কমেছে। এসব বাজারে রসুনের কেজি ৪০ থেকে ৪৫ টাকা। বাজারে চায়না রসুন বিক্রি হচ্ছে ১৪০ থেকে ১৪৫ টাকা।

অন্যদিকে বাজারে প্রতি কেজি চিনি বিক্রি হচ্ছে ৮৫ টাকায়। এছাড়া প্যাকেট চিনির কেজি বিক্রি হচ্ছে ৯০ টাকায়। এসব বাজারে দেশি মুশুরের ডালের কেজি ১৩০ থেকে ১৪০ টাকা। ইন্ডিয়ান মুশুরের ডাল বিক্রি হচ্ছে ১১০ টাকায়। প্যাকেট আটার কেজি ৪৮ থেকে ৫০ টাকা। খোলা আটার কেজি বিক্রি হচ্ছে ৫০ টাকা। বাজারে ভোজ্য তেলের লিটার ২০৫ টাকা। লাল ডিমের ডজন বিক্রি হচ্ছে ১২০ টাকা। হাঁসের ডিমের ডজন ১৬০ ও দেশি মুরগির ডিমের ডজন ১৯০ টাকা।

তবে অপরিবর্তিত রয়েছে বাজারে গরুর মাংসর দাম, প্রতি কেজি বিক্রি হচ্ছে ৭০০ টাকা করে। এছাড়া খাসির মাংসের কেজি বিক্রি হচ্ছে ৯০০ টাকায়। বয়লার মুরগির কেজি ১৫০ থেকে ১৬০ টাকা। সোনালি মুরগির কেজি বিক্রি হচ্ছে ২৯০ থেকে ৩০০ টাকা। লেয়ার মুরগির কেজি বিক্রি হচ্ছে ২৭০ থেকে ২৮০ টাকায়।


আরও খবর



নাটোরের মাদক কারবারি ৬০ কেজি গাঁজা সহ লালমনিরহাটে আটক

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৬ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০২ জুলাই 2০২2 |
Image

লালমনিরহাট জেলা প্রতিনিধি ঃ

জেলার  মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতর অভিযান চালিয়ে ৬০ কেজি গাঁজাসহ দু'জন মাদক কারবারিকে আটক করেছে। এসময় গাঁজা পরিবহন করা একটি পিকআপ ভ্যান জব্দ করেছে সংস্থাটি।

 লালমনিরহাট জেলা সদরের কুলাঘাট এলাকা থেকে  মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতর অভিযান চালিয়ে ৬০ কেজি গাঁজাসহ দু'জন মাদক কারবারি ও  একটি পিকআপ ভ্যান জব্দ করেছে সংস্থাটি মাদকদ্রব্য উদ্ধার করা হয়।আটককৃতরা  নাটোর জেলা সদরের রামাইগাছি এলাকার আমির আলী প্রামাণিকের ছেলে জনি প্রামাণিক (২৩) ও একই এলাকার মৃত মিন্টু মোল্লার ছেলে আশিক (২২)।,লালমনিরহাট জেলা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের সহকারী পরিচালল খায়রুল বাশারের সার্বিক তত্ত্বাবধায়নে বিভাগীয় স্টাফদের সমন্বয়ে গঠিত রেইডিং টিম গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সদর উপজেলার কুলাঘাট এলাকায় অভিযান পরিচালনা করেন। এসময় একটি পিকআপ ভ্যান করে এসব গাঁজা অন্যত্র নিয়ে যাচ্ছিল।  মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের লোকজন পিকআপ ভ্যানটি আটক করে তল্লাশী চালান। এসময় পিকআপ ভ্যান থেকে ৬০ কেজি গাঁজা উদ্ধার করেন তারা। জেলা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক খায়রুল বাশার জানান,  জিজ্ঞাসাবাদে তারা গাঁজা ব্যবসার কথা স্বীকার করেছেন। আটক দুজন মাদক কারবারির বিরুদ্ধে সদর থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে একটি মামলা করে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।


আরও খবর



ছোট ও মাঝারি গরুর দাম বেশি

প্রকাশিত:শুক্রবার ০১ জুলাই ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০২ জুলাই 2০২2 |
Image

কোরবানি ঈদকে সামনে রেখে পশুর হাট জমে উঠছে। ইতোমধ্যেই জেলার হাটগুলোতে পশু আসতে শুরু করেছে। জেলার কালিয়া কান্দাপাড়া, তালগাছী, রতনকান্দি, কামারখন্দ, এনায়েতপুর, সলঙ্গা, জনতার হাট, গ্যাস লাইন, শমেশপুর সহ বড় বড় হাটগুলোতে ঢাকা-চট্টগ্রামসহ দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে পাইকার আসতে শুরু করেছে।

করোনাকালীন গত দুই বছরের তুলনায় এবছর গবাদি পশুর দাম ভালো পাবেন বলে আশা করছেন খামারিরা। তবে এখনো স্থানীয় কোরবানিদাতারা পশু কিনতে নামেননি। তারা হাটে আসতে শুরু করলে দাম আরো কিছুটা বাড়তে পারে বলে খামারিরা আশা প্রকাশ করেন।

কয়েকজন খামারি জানান, দেশের বাইরে থেকে গবাদি পশু না এলে এবছর তারা ভালো লাভের আশা করছেন। গত কয়েক দিনে বিভিন্ন হাট ও ক্রেতা বিক্রেতা সূত্রে জানা গেছে, বড় গরুর তুলনায় ছোট ও মাঝারি গরুর দাম তুলনামূলক বেশি। বৃহস্পতিবার (৩০ জুন) কালিয়া কান্দাপাড়া হাটে গরু কিনতে আসা ফরিদুল ইসলাম জানান, ৭০ হাজার টাকায় গরু কেনা হয়েছে। এবারে গরুর দাম একটু বেশি। তার দাবি, বাইরের গরু না আসায় গরুর ভালো চাহিদা রয়েছে। তবে বড় আকারের তুলনায় মাঝারি ও ছোট সাইজের গরুর দাম বেশি।

জেলা পশু সম্পদ অফিস সূত্র জানায়, এবছর জেলায় কোরবানির জন্য পশুর চাহিদা রয়েছে ২ লাখ ৫০ হাজার। সে তুলনায় প্রস্তুত রাখা হয়েছে ৩ লাখ ৯১ হাজার পশু। সেক্ষেত্রে জেলার চাহিদা মিটানোর পর বাকি পশু রাজধানীসহ বিভিন্ন জেলায় বিক্রির জন্য পাঠানো হবে।

সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার পাইকপাড়া গ্রামের খামারি বলেন, এবছর তিনি ১২টি গরু মোটাতাজা করেছেন। ইতোমধ্যে হাটেও তুলেছিলেন কয়েকটি, কিন্তু পছন্দমতো দাম না হওয়ায় বিক্রি করেননি। তিনি বলেন, কোরবানির এখনও ৯/১০ দিন বাকি আছে। স্থানীয়রা পশু কেনা শুরু করেনি। তারা হাটে এলে আরো ভালো দাম পাওয়া যাবে।

কালিয়া গ্রামের খামারি ছামাদ জানান, খাবারের দাম বেশি হওয়ায় তার গবাদি পশু মোটাতাজা করতে খরচ বেশি পড়েছে। সরকারিভাবে যদি খামারিদের মধ্যে ন্যায্যমূল্যে খাবার সরবরাহ করা হতো তাহলে তারা আরো লাভবান হতে পারতেন।

জেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ গৌরাঙ্গ কুমার তালুকদার জানান, সিরাজগঞ্জের গো-খামারিরা পশু পালনে সচেতন। এক্ষেত্রে কোনো প্রকার ওষুধ ব্যবহার না করে তারা প্রাকৃতিক উপায়ে পশু মোটাতাজা করছেন। এ ব্যাপারে প্রাণী সম্পদ অফিস থেকে খামারিদের প্রশিক্ষণ দেয়া হয়েছে। নিয়মিত মনিটরিং করা হচ্ছে।

তিনি আরো বলেন, সরকারি উদ্যোগে বিভিন্ন ব্যবস্থা নেওয়ায় খামারিরা এখন অনেক সচেতন এবং প্রাকৃতিক পদ্ধতিতেই পশু মোটাতাজা করে লাভবান হচ্ছেন।


আরও খবর



যাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ সিএনজি চালকের বিরুদ্ধে

প্রকাশিত:শনিবার ১৮ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০২ জুলাই 2০২2 |
Image

সোনারগাঁ (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধিঃ

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলার এক সিএনজি’র যাত্রী (২৮) কে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে মোঃ বিজয় (৩৫) নামের এক সিএনজি চালকের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় ধর্ষক বিজয়কে গ্রেফতার করেছে তালতলা তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ। শনিবার সকালে মাঝেরচর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

গ্রেফতাকৃত ধর্ষক সোনারগাঁ উপজেলার জামপুর ইউনিয়নের মাঝেরচর পূর্বপাড়া গ্রামের রাজা মিয়ার ছেলে। এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের প্রস্তুতি চলচ্ছে।

পুলিশ জানায়, শনিবার সকাল ৭ টা দিকে আড়াইহাজার থানার ফেরিঘাট হইতে সিএনজি যোগে গৃহকর্মী এক নারী মদনপুর যাচ্ছিলেন। সিএনজি চালক বিজয় মাঝেরচার এলাকায় পৌছালে ওই নারীকে গাড়িতে একা পেয়ে রাস্তার পাশে বাবুল মিয়ার মুরগির খামারের জংগলে নিয়ে ধর্ষন করে। খবর পেয়ে তালতলা তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ মোঃ জাকির রব্বানীর নেতৃত্বে একদল পুলিশ সদস্য অভিযান চালিয়ে দুপুর ১২ টার দিকে ধর্ষক বিজয়কে মাঝেরচর এলাকা থেকে গ্রেফতার করেন।

তালতলা তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ মোঃ জাকির রব্বানী বলেন, সিএনজি’র যাত্রীকে জোরপূর্বক ধর্ষন করা হয়েছে এমন খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে অভিযান পরিচালনা করি। পরে গোপন সুত্রে ধর্ষক বিজয়ের তথ্য সংগ্রহ করে মাঝেরচর এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে থানায় ধর্ষন মামলার প্রস্তুতি চলচ্ছে।


আরও খবর