Logo
শিরোনাম
মেঘনা নদীতে গোসল করার সময় নিখোঁজ ছাত্রের মরদেহ উদ্ধার রাজবাড়ীতে ট্রাকের সাথে সংঘর্ষে মোটর সাইকেল আরোহীর মৃত্যু রাজবাড়ীতে আবৃত্তি ও কথামালায় প্রকাশনা উৎসব নওগাঁয় মোটরসাইকেলের ধাক্কায় স্কুল ছাত্র নিহত-মা ও ছোট বোন আহত মোরেলগঞ্জে শ্রমীকদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ করলেন এমপি মিলন লালমনিরহাটে বিদ্যুৎ স্পৃষ্টে মারাগেছে স্কুলছাত্র নওগাঁয় বোরো ধান চাষের শুরুতেই বিদ্যুতের লোড শেডিং, দুঃশ্চিন্তায় কৃষকরা নওগাঁয় ৩৫ কোটি টাকা মূল্যের কষ্টিপাথরের মূর্তি উদ্ধার করেছে পুলিশ কুড়িগ্রামের শীতকাতর অসহায় মানুষের পাশে কেন্দ্রীয় যুবলীগ নেত্রকোনায় বিশ্ব জলাভূমি দিবস উপলক্ষে মানববন্ধন

স্পেনে ইউক্রেন দূতাবাসে বোমা বিস্ফোরণ

প্রকাশিত:Thursday ০১ December ২০২২ | হালনাগাদ:Friday ০৩ February ২০২৩ |
Image

স্পেনের রাজধানী মাদ্রিদে ইউক্রেন দূতাবাসে কূটনৈতিক প্রতিনিধিদের সদর দপ্তরে একটি লেটার-বোমা বিস্ফোরণে একজন আহত হয়েছেন। স্পেনিশ পুলিশ বিস্ফোরণের ঘটনা তদন্ত করছে বলে দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে।

ইউক্রেনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র ওলেগ নিকোলেনকো বলেছেন, মাদ্রিদের ইউক্রেনের দূতাবাস মেইল বিতরণের অংশ হিসাবে একটি খাম পায়। একজন নিরাপত্তা প্রহরী খামটি চেক করার সময় বিস্ফোরিত হয়।

তিনি হালকা আঘাত পেয়েছেন, হাসপাতালে ভর্তি আছেন এবং প্রয়োজনীয় চিকিৎসা সহায়তা পাচ্ছেন। তার জীবন বিপন্ন নয়, স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যম এল পাইসকে বলেছেন কেনিকোলেনকো।

তিনি বলেন, দূতাবাসের অন্য কোনো কর্মী আহত হয়নি এবং স্প্যানিশ আইন প্রয়োগকারী এবং ফায়ার সার্ভিস সাইটে কাজ করছে।

স্পেনের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলেছে, আহত কর্মী কোনো সাহায্য ছাড়াই একটি স্বাস্থ্যকেন্দ্রে গিয়েছিলেন। স্প্যানিশ ন্যাশনাল টেলিভিশন জানিয়েছে, পরে তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।

ন্যাশনাল পুলিশ জানিয়েছে, তারা দুপুর ১টা ২০ মিনিটে ইউক্রেনীয় দূতাবাস থেকে একটি কল পায়। যে চিঠিটি একজন কর্মচারী দ্বারা পরিচালনা করার সময় বিস্ফোরিত হয়েছিল।

ন্যাশনাল পুলিশ দূতাবাসে অফিসারদের মোতায়েন করেছে, এলাকার চারপাশে একটি পরিধি স্থাপন করেছে এবং এর টেডাক্স বোমা স্কোয়াড মাদ্রিদের উত্তর-পূর্ব অংশে অবস্থিত সাইটে কাজ করছে।

স্পেনের রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা ইফি অজ্ঞাত পুলিশ সূত্রের বরাত দিয়ে বলেছে, চিঠিতে ঘরে তৈরি বিস্ফোরক রয়েছে এবং রাষ্ট্রদূতকে সম্বোধন করা হয়েছিল কিন্তু দূতাবাসের বাগানের একজন নিরাপত্তা প্রহরী এটি খুলেছিলেন।

ইউক্রেনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী দিমিত্রো কুলেবা সব ইউক্রেনীয় দূতাবাসের নিরাপত্তা দ্রুত জোরদার করার নির্দেশ দিয়েছেন এবং স্পেনকে বিস্ফোরণের জরুরি তদন্ত করতে বলেছেন।


আরও খবর



সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে ওয়ান স্টপ সার্ভিস

প্রকাশিত:Monday ২৩ January 20২৩ | হালনাগাদ:Friday ০৩ February ২০২৩ |
Image

রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ওয়ান স্টপ ইমার্জেন্সি সার্ভিস চালুর পর থেকে রোগীদের মৃত্যুঝুঁকি কমতে শুরু করেছে। হাসপাতাল পরিচালক বলছেন, জরুরি রোগীর সেবায় ল্যাব সাপোর্ট, আলট্রাসনোগ্রাম, পোর্টেবল এক্সরেসহ প্রায় সব ধরনের সুবিধা রয়েছে। সেবা চলমান রাখতে চিকিৎসক, সেবিকা ও মেডিক্যাল টেকনোলজিস্ট প্রয়োজন।

সোহরাওয়ার্দী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ওয়ান স্টপ ইমার্জেন্সি সার্ভিস চালুর পর থেকে জরুরী রোগীদের ভীড় বেড়েই চলেছে ।

প্রথমে একজন রোগী এলেই শুরু হয় ডাটা এন্ট্রি।এরপর রোগের উপসর্গ ভেদে শুরু হয় চিকিৎসা।সামান্য রোগ নিয়ে আসা রোগীদের প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে বাড়ী ফেরত পাঠানো হয় ।আর, রোগী জটিল হলে শুরু হয় চুড়ান্ত চিকিৎসা।সহজে সেবা পেয়ে খুশি সাধারণ মানুস

সোহরাওয়ার্দী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক বলছেন, যে কোনও রোগী দিন-রাত ২৪ ঘণ্টা চিকিৎসা নিতে পারবেন। জরুরি রোগীর সেবায় অত্যাধুনিক ল্যাব সাপোর্ট, আলট্রাসনোগ্রাম, ইসিজি, পোর্টেবল এক্সরেসহ প্রায় সব ধরনের ডায়াগনস্টিক সুবিধা রয়েছে এই সার্ভিসে। প্রয়োজনে জরুরি অপারেশনের সুবিধাও মিলবে। আছে আইসিইউ সাপোর্টও।

পরিচালক বলছেন, এই মুহুর্তে জরুরী ভাবে হাসপাতালে রোগীর চাহিদা অনুযায়ী আরো বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক, সেবিকা ও স্বাস্থ্যকর্মী প্রয়োজন। সেই চাহিদা পত্র নিয়ে অধিদপ্তর ও মন্ত্রণালয়ে আলোচনা চলছে

 


আরও খবর



সড়ক দুর্ঘটনায় অ্যাম্বুলেন্সের ছয়জন নিহত

প্রকাশিত:Tuesday ১৭ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Friday ০৩ February ২০২৩ |
Image

শরীয়তপুরের জাজিরা এলাকায় ট্রাকের সঙ্গে অ্যাম্বুলেন্সের সংঘর্ষে ছয়জন নিহত হয়েছেন। শরীয়তপুরের পদ্মাসেতুর দক্ষিণ থানা এলাকায় টোলপ্লাজার কাছে এ দুর্ঘটনা ঘটে। 

শরীয়তপুর ফায়ার সার্ভিস-এর সহকারী উপ-পরিচালক সেলিম মিয়া জানান, মঙ্গলবার ভোরে বরিশাল থেকে অসুস্থ্ মা জাহানারা বেগমকে নিয়ে ঢাকা যাচ্ছিলেন তার মেয়ে লুৎফুন নাহার লিমা, স্বাস্থ্যকর্মী ফজলে রাব্বি, সাংবাদিক মাসুদ রানা, গাড়ি চালক জিলানি ও গাড়ির সহকারি রবিউল ইসলাম। এসময় জাজিরায় পদ্মা সেতুর টোল প্লাজার কাছে গতিরোধক পার হবার সময়, নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে দাঁড়িয়ে থাকা গ্যাস সিলিন্ডার ভর্তি একটি ট্রাকে ধাক্কা দেয়। এতে অ্যাম্বুলেন্সটি দুমড়ে মুচড়ে ঘটনাস্থলেই নিহত হন অ্যাম্বুলেন্সের ছয় যাত্রী।


আরও খবর



বিশ্বে করোনায় শনাক্ত ছাড়াল ৬৭ কোটি

প্রকাশিত:Friday ১৩ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Friday ০৩ February ২০২৩ |
Image

রোকসানা মনোয়ার :করোনা মহামারিতে বিশ্বজুড়ে দৈনিক মৃত্যুর সংখ্যা আরো বেড়েছে। তবে আগের দিনের তুলনায় কমেছে নতুন শনাক্ত রোগী। গত এক দিনে বিশ্বে করোনায় মারা গেছেন প্রায় দেড় হাজার মানুষ। একই সময়ে ভাইরাসটিতে নতুন করে আক্রান্তের সংখ্যা নেমে এসেছে প্রায় সাড়ে তিন লাখে।

এদিকে গত ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বজুড়ে সবচেয়ে বেশি সংক্রমণ ও প্রাণহানির ঘটনা ঘটেছে জাপানে। অন্যদিকে দৈনিক প্রাণহানির তালিকায় দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। প্রাণহানির তালিকায় এরপরই রয়েছে ব্রাজিল, দক্ষিণ কোরিয়া, মেক্সিকো ও হংকং। এতে বিশ্বব্যাপী করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ৬৭ কোটি ২ লাখের ঘর। অন্যদিকে মৃতের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ৬৭ লাখ ২৩ হাজার।

শুক্রবার সকালে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত, মৃত্যু ও সুস্থতার হিসাব রাখা ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডওমিটারসের তথ্য অনুযায়ী, গত এক দিনে সারা বিশ্বে করোনায় মারা গেছেন ১ হাজার ৪৫৩ জন। অর্থাৎ আগের দিনের তুলনায় মৃত্যুর সংখ্যা বেড়েছে শতাধিক। এতে বিশ্বজুড়ে মৃতের সংখ্যা পৌঁছেছে ৬৭ লাখ ২৩ হাজার ৫৫২ জনে।

একই সময়ে ভাইরাসটিতে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৩ লাখ ৫২ হাজার ৩১৪ জন। অর্থাৎ আগের দিনের তুলনায় নতুন শনাক্ত রোগীর সংখ্যা কমেছে ২০ হাজার। এতে মহামারির শুরু থেকে এ পর্যন্ত ভাইরাসে আক্রান্ত মোট রোগীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৬৭ কোটি ২ লাখ ৭৬ হাজার ৭৫৩ জনে।

এদিকে গত ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বে করোনায় সবচেয়ে বেশি সংক্রমণ ও প্রাণহানির ঘটনা ঘটেছে জাপানে। এই সময়ে দেশটিতে নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ১ লাখ ৮৫ হাজার ৪৭২ জন এবং মারা গেছেন ৪৮৯ জন। করোনা মহামারির শুরু থেকে পূর্ব এশিয়ার এই দেশটিতে এখন পর্যন্ত ৩ কোটি ১০ লাখ ৩২ হাজার ২০৪ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন এবং ৬১ হাজার ২৮১ জন মারা গেছেন।


আরও খবর



দশমিনায় গ্রামীন সড়কের বেহাল দশা

প্রকাশিত:Monday ২৩ January 20২৩ | হালনাগাদ:Friday ০৩ February ২০২৩ |
Image

মোঃ নাঈম হোসাইন ,দশমিনা (পটুয়াখালী):

পটুয়াখালীর দশমিনায় পাতারচর-চরঘূর্নী সংযোগ সড়কের একঅংশ ভেঙ্গে বড় গর্তের সৃষ্টি হওয়ায় নদী গর্ভে বিলীন হবার সম্ভাবনা রয়েছে।

জানা যায়, ২০১৭-২০১৮ সালে উপজেলা এলজিইডি ১ কিলোমিটার পাকা সড়ক নির্মান করেন। উপজেলার রণগোপালদী ইউনিয়নের রনগোপালদী বাজার-একমাত্র নদী বেষ্টিত চরবোরহান ইউনিয়নসহ পাতারচর ও চরঘুর্নী এলাকায় যাতায়াতের একমাত্র সড়ক পথ। রণগোপালদী ইউনিয়ন ছাড়াও উপজেলার বিভিন্ন এলাকার মানুষ কাজের জন্য এ সড়কটি দিয়ে চলাচল করে থাকে। সড়কটি ভেঙ্গে যাওয়ায় যানবাহন চলাচল করতে পারছে না।

উপজেলার রণগোপালদী ইউনিয়নের স্থানীয় বাসিন্দা ও ৮ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. অধুদ মাতব্বর বলেন, ভেঙ্গে যাওয়া সড়কটিতে গর্তের কারনে কোন যানবাহন চলাচল করতে পারছে না। সড়কের দুই পাশে যানবাহন রেখে যাত্রীদেরকে চলাচল করতে হয়। সড়কটি সংস্কার করা না হলে এপার-ওপার যাওয়া আসা বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়বে। 

রনগোপালদী ইউনিয়ন শ্রমিক লীগের সভাপতি বশির খান বলেন, ভেঙ্গে যাওয়া সড়কটি নিজেদের অর্থায়নে মাটি কেটে ভরাট করে দিয়েছি। কিন্তু বর্তমানে ধীরে ধীরে ভেঙ্গে গিয়ে বড় গর্তের সৃষ্টি হচ্ছে। এতে এলাকাবাসীসহ সাধারন যাত্রীরা ভোগান্তির সম্মুখিন হচ্ছে। বিগত ৩ বছর আগে ঘূর্নীঝড় আম্ফান ও ইজিগেট দিয়ে নেমে যাওয়া পানির চাপে সড়কটিতে বার বার গর্ত সৃষ্টি হয়। 

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী  প্রকৌশলী মো. মকবুল হোসেন জানান, সড়কটিতে গর্তের ব্যাপারে অতি শীর্ঘই খোঁজ খবর নিয়ে চলতি বছরেই সংস্কার করা হবে।


আরও খবর



মালয়েশিয়ায় কর্মসংস্থান আইন সংশোধন

প্রকাশিত:Wednesday ১১ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Friday ০৩ February ২০২৩ |
Image

রোকসানা মনোয়ার :মালয়েশিয়া এমপ্লয়মেন্ট (কর্মসংস্থান) আইন সংশোধন করেছে। যা ১ জানুয়ারি থেকে কার্যকর করা হয়েছে। সংশ্লিষ্ট আইনের ৬০ ধারা সংশোধন করে লেবারের ডিরেক্টর জেনারেলের কাছ থেকে পূর্বানুমতি নেওয়া বাধ্যতামূলক করা হয়েছে।

এজন্য নিয়োগকর্তা বা নিয়োগকারী প্রতিষ্ঠানের জন্য কিছু বাধ্যতামূলক শর্ত রয়েছে; যেমন—এমপ্লয়মেন্ট আইনের সঙ্গে সম্পর্কিত কোনো ইস্যু পেন্ডিং থাকা যাবে না; এমপ্লয়মেন্ট আইনের অধীনে প্রদত্ত কোনো সিদ্ধান্ত বা আদেশ বা নির্দেশনা বাস্তবায়ন করা; সকসো, মিনিমাম বেতন এবং মিনিমাম আবাসনের শর্ত প্রতিপালন না করার কারণে নিয়োগ কর্তাকে কোনো দণ্ড আরোপ করলে এবং সে মোতাবেক অবস্থার উন্নয়ন না করলে; মানবপাচার ও জবরদস্তিমূলক শ্রমের জন্য নিয়োগকর্তা শাস্তি পেলে নিয়োগের অনুমতি পাবে না।

বর্তমান আইন অনুযায়ী বিদেশিকর্মী নিয়োগের জন্য অনলাইনে আবেদন করতে হবে নিয়োগকর্তাদের এবং অবশ্যই কোন পদে বা কোন কাজের জন্য নিয়োগ করবে তা স্পষ্ট উল্লেখ করা; কর্মরত স্থানীয় কর্মীর সংখ্যা; কর্মরত বিদেশি কর্মীর সংখ্যা, কোম্পানির নাম, রেজিস্ট্রেশন নম্বর, কোম্পানির ঠিকানা ও অবস্থান; কোম্পানির যোগাযোগের তথ্যাদি; সেক্টর; কোম্পানি বা ব্যবসা শুরুর তারিখ; কোম্পানির বর্তমান অবস্থা; সকসো নম্বর তথ্য দিতে হবে।

জি-টু-জি প্লাসের নিয়োগের সময় বাংলাদেশ হাইকমিশনের শ্রম উইং ডিমান্ড এটেস্টেশন করার পূর্বে সরেজমিন নিয়োগকর্তা বা কোম্পানির উপযুক্ততা নির্ণয়ের জন্য যেসব বিষয়াদি যাচাই করেছিল ঠিক সে বিষয়গুলো মালয়েশিয়া সংশোধিত এমপ্লয়মেন্ট আইনের অধীনে এনেছে।

হাইকমিশনের শক্ত অবস্থানের কারণে জি-টু-জি প্লাসের সময় তুলনামূলক ভালো এবং শতভাগ কর্মসংস্থান হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে মালয়েশিয়ার সংসদেও ইতিবাচক আলোচনা হয়েছে। সিন্ডিকেট এবং অতিরিক্ত অভিবাসন খরচের ইস্যুর ভিড়ে ভালো কর্মসংস্থানের ইস্যুটি চাপা রয়ে গেছে।

এমন কি কোম্পানির পরিচালকের সাক্ষাৎ এবং লিখিত ঘোষণাও নিয়েছিল যেন বাংলাদেশি কর্মীরা ভালো থাকে। উপযুক্ততা না থাকায় অনেক কোম্পানির এটেস্টেশন করেনি এবং পদ্ধতি অনুসরণ না করায় মালয়েশিয়ার বিমান বন্দরে আগত কর্মীকে নিয়োগকর্তা নিজ খরচে ফেরত পাঠিয়ে এবং পুনরায় যথা নিয়মে মালয়েশিয়ায় আনয়ন করেছিল।

সে সময়ের লেবার কাউন্সিলর সরকারের অবসরপ্রাপ্ত সচিব মো. সায়েদুল ইসলাম বলেন, বাংলাদেশের কর্মীদের যৌক্তিক এবং নিরাপদ মাইগ্রেশন অর্থাৎ সঠিক কোম্পানিতে কাজ পাওয়া এবং ভালোভাবে থাকার বিষয়টি ছিল চ্যালেঞ্জের এবং অত্যাধিক গুরুত্বারোপ করা হয়েছিল। ফলে অনেক চাপ ও বিরোধিতা এবং নেতিবাচক প্রপাগান্ডা সত্ত্বেও আমরা নিয়োগকর্তার ও কোম্পানির অবস্থা যাচাই না করে এটেস্টেশন করিনি। এতে দীর্ঘদিনের কাজ না পাওয়া, অমানবিক অবস্থার শিকার হওয়ার যে দুর্নাম ছিল সেখান থেকে উত্তরণ ঘটানো সম্ভব হয়েছে।

করোনার আগে মালয়েশিয়ায় আগমনে বিদেশি কর্মীদের উচ্চ অভিবাসন খরচ এবং কর্মীদের মানহীন আবাসনের কারণে আমেরিকা ও ইউরোপ মালয়েশিয়ায় উৎপাদিত পণ্য গ্রহণ না করে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে।

আন্তর্জাতিকভাবে এ দুটিকে মানবপাচার এবং জবরদস্তিমূলক শ্রম অপরাধ হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। এ দুটি অভিযোগ মালয়েশিয়ার উন্নত দেশের স্বীকৃতি লাভের ক্ষেত্রে অন্যতম বাধা। এসব সমস্যা কাটিয়ে ওঠার জন্য মালয়েশিয়া সরকার জাতিসংঘের আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থা এবং দেশীয় এনজিওদের সঙ্গে কাজ করছে।

এরই মধ্যে মালয়েশিয়া সরকার আইএলও কনভেনশনে সই করেছে। বর্তমান সরকার বিদেশি কর্মী নিয়োজন প্রক্রিয়া বেশি সহজ ও সংক্ষিপ্ত করার কাজ করছে।


আরও খবর