Logo
শিরোনাম

স্থূলকায় নারীদের সৌন্দর্য প্রতিযোগিতা

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৩ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ |
Image

মিস অ্যান্ড মিসেস প্লাস বাংলাদেশ প্রতিযোগিতায় বিজয়ী হয়েছেন তাসনুভা তাবাচ্ছুম। সম্প্রতি রাজধানীর এক হোটেল অনুষ্ঠিত হয় গ্র্যান্ড ফিনালে। এ সময় বিজয়ীর মাথায় মুকুট পরিয়ে দেন অভিনয়শিল্পী ও প্রতিযোগিতার বিচারক দিলারা জামান।

বাংলাদেশে প্রথমবার আয়োজন করা হয় ভিন্ন ঘরানার এই সৌন্দর্য প্রতিযোগিতার। স্থূলকায় নারীদের নিয়ে আয়োজিত এই প্রতিযোগিতার আয়োজন করে রিয়েল হিরোজ এক্স প্রো অ্যান্ড কমিউনিকেশনস। এ প্রতিযোগিতায় প্রথম রানারআপ হয়েছেন নির্জন মোমিন ও দ্বিতীয় রানারআপ হয়েছেন রুমানা।

অনুভূতি প্রকাশ করে তাসনুভা তাবাচ্ছুম বলেন— টপ ফাইভে যাওয়ার পর আমার মনে হচ্ছিল আমি বিজয়ী হব। আমার নাম ঘোষণার পর বাকরুদ্ধ হয়ে যাই। প্রথমবারের মতো এত বড় একটি জায়গায় বিজয়ের মুকুট পরব—এটা অন্যরকম এক অনুভূতি। 

প্রতিযোগিতার বিচারকের দায়িত্ব পালন করেন—দিলারা জামান, আবিদা সুলতানা, চয়নিকা চৌধুরী, রোজিনা, আফরান নিশোসহ অনেকে।


আরও খবর

ঋতুপর্ণা-প্রসেনজিতের বিয়ে

শুক্রবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২




মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় সেপ্টেম্বরে নিহত ১৬৯

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৪ অক্টোবর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ |
Image

লতি বছরের সেপ্টেম্বর মাসে দেশে সড়ক দুর্ঘটনা হয়েছে ৪০৭টি। এর মধ্যে ১৮২টিই মোটরসাইকেলের দুর্ঘটনা। আবার মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছেন ১৬৯ জন, যা মোট নিহতের ৩৫ দশমিক ৫০ শতাংশ। সড়ক দুর্ঘটনা নিয়ে রোড সেফটি ফাউন্ডেশনের করা এক প্রতিবেদনে এ তথ্য উঠে আসে।৯টি জাতীয় দৈনিক, ৭টি অনলাইন নিউজ পোর্টাল এবং ইলেকট্রনিক গণমাধ্যমের তথ্যের ভিত্তিতে তৈরি করা হয় প্রতিবেদনটি।

এতে বলা হয়, সেপ্টেম্বরে দেশে সড়ক দুর্ঘটনা ঘটেছে ৪০৭টি। এতে নিহত হয়েছেন ৪৭৬ জন, আর ৭৯৪ জন আহত হয়েছেন। নিহতের মধ্যে নারী ৬২ ও শিশু ৭৭ জন। এছাড়া মোটরসাইকেল দুর্ঘটনার হার ৪৪ দশমিক ৭১ শতাংশ। সড়ক দুর্ঘটনায় ১০৩ পথচারী নিহত হয়েছেন, যা মোট নিহতের ২১ দশমিক ৬৩ শতাংশ। যানবাহনের চালক ও সহকারী নিহত হয়েছেন ৬৩ জন, অর্থাৎ ১৩ দশমিক ২৩ শতাংশ। এছাড়া ঢাকায় ২৯টি দুর্ঘটনায় ২৩ জন নিহত ও ৩৭ জন আহত হয়েছেন।

দুর্ঘটনায় দেশের বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ৬২ শিক্ষার্থী নিহত হয়েছেন। শিক্ষক নিহত হয়েছেন ১৪ জন। এছাড়া দুর্ঘটনায় ১৯ থেকে ৬৫ বছর বয়সি কর্মক্ষম মানুষ নিহত হয়েছেন ৩৮৪ জন, অর্থাৎ ৮০ দশমিক ৬৭ শতাংশ।

একই সময়ে ৯টি নৌ-দুর্ঘটনায় ৭৮ জন নিহত এবং তিনজন নিখোঁজ রয়েছেন। ২১টি রেলপথ দুর্ঘটনায় ১৯ জন নিহত এবং ছয়জন আহত হয়েছেন।


আরও খবর

শিগগিরই বাড়ছে বিদ্যুতের দাম

মঙ্গলবার ০৪ অক্টোবর ২০২২




মোরেলগঞ্জে পলিথিনের ছাপড়া ঘরে হাঁটু পানিতে শিক্ষার্থীদের পাঠদান

প্রকাশিত:রবিবার ১১ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ |
Image

এম. পলাশ শরীফ, নিজস্ব প্রতিবেদকঃ 

বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে একটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পলিথিনের ছাপড়া ঘরে হাঁটু পানিতে শিক্ষার্থীরা নিচ্ছেন পাঠদান। ঝুঁকিপূর্ন ভবনে দুর্ঘটনার আশংকায় ছাত্র-ছাত্রীর উপস্থিতি ক্রমান্বয়ে কমছে। স্থানীয় অভিভাবকদের দাবি একটি সাইক্লোন-কাম স্কুল ভবন নির্মাণের।

রোববার সরেজমিনে দেখাগেছে, উপজেলার প্রত্যান্ত অঞ্চলের অজোপাড়াগায়ে চিংড়াখালী ইউনিয়নের সিংজোড় গ্রামে ১৪৪নং গাজী আজিজুল হক সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়। ১৯৪৯ সালে স্থাপিত হয় এ বিদ্যালয়টি। শিক্ষার্থী রয়েছে ৬৮ জন। ৩য়, ৪র্থ ও ৫ম শ্রেনীতে ক্লাশ চলছিলো মাঠের মধ্যে পলিথিন টাঙ্গানো ছাপড়া ঘরে হাঁটু পানিতে।  

একদিকে পূর্নিমার অতিরিক্ত জোয়ারের পানি। অস্থায়ী শ্রেণীকক্ষের ঘরে ছাত্র-ছাত্রীদের হাঁটু পানিতে ভিজে পাঠদান দিচ্ছেন শিক্ষকরা। মাঠের চারদিকে পানি থৈ থৈ করছে। তবুও থেমে নেই পাঠদান। বৈরি আবহাওয়াও মধ্যেও শিক্ষার্থীর উপস্থিতি চোখে পড়ারমত। ৫ম শ্রেনীর শিক্ষার্থী সৈকত হাজরা, অরুন চন্দ্র মিন্ত্রী সহ একাধিক শিক্ষার্থীরা বলেন, কবে হবে আমাদের বিদ্যালয়ের নতুন ভবন? এভাবে পানিতে ভিজে ক্লাশ করতে খুবই কষ্ট হয়। বড় স্যাররা আমাদের এ কষ্টের কথা কি জানতে পারবেন। এ রকম নানা প্রশ্ন তুললেন সংবাদকর্মীদের কাছে  কোমলমতি শিশু শিক্ষার্থীরা।

ক্লাশে পাঠদানকারি শিক্ষক মো. ইসমাইল হোসেন বলেন, রোদে পুড়ে, বৃষ্টিতে ভিজে এরকম দিনের পর দিন পার করছি। শিক্ষার্থীদের দুর্ভোগ লাঘবের জন্য নতুন ভবন দরকার।

১৯৯৫ সালে সরকারিভাবে ৪ কক্ষ বিশিষ্ট নতুন ভবন হলেও সে ভবনটি এখন ঝুঁকিপূর্ন। সম্প্রতি শ্রেণীকক্ষের পলেস্তরা খসে পড়ে দুর্ঘটনার শিকার হয়েছেন দুই শিক্ষার্থী। অভিভাবকরা আতংকে স্কুলে পাঠাতে চাচ্ছে না ছেলে মেয়েদের।


ছাদে দেখা দিয়েছে ফাটল। শ্রেনীকক্ষের গ্রেড ভিম ভেঙ্গে পড়ে বেড়িয়ে এসেছে রড। দুর্ঘটনার শিকার হয়েছে দুই শিক্ষার্থী। ঝুঁকিপূর্ন এ ভবনটিতে পাঠদান না করার জন্য সংশ্লিষ্ট ক্লাষ্টার সহকারি শিক্ষা অফিসার পরিদর্শন করে লিখিতভাবে নির্দেশনা দিয়েছেন। এখন শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের আতঙ্কের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে বিদ্যালয়টি।  


বিদ্যালয়ের অভিভাবক সদস্য ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ নেতা মো. আব্দুল মালেক হাওলাদার, ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি  মো. ওয়ালিউর রহমান গাজী, সাবেক সভাপতি সন্তোষ কুমার রায় বলেন, গত কয়েক সপ্তাহ ধরে অস্থায়ী পলিথিনের ঘরে এভাবে ছাত্র-ছাত্রীদের ক্লাশ হচ্ছে। একটি সাইক্লোন কাম-স্কুল ভবন নির্মাণ হলে শিক্ষার্থীদের সমস্যা সমাধান পাশাপাশি প্রাকৃতিক দুর্যোগে বলেশ্বর নদীর তীরবর্তী ইউনিয়নের ৩ গ্রামের প্রায় ১৫ হাজার মানুষ আশ্রয় নিতে পারবে। নতুন ভবন নির্মাণের জন্য প্রধানমন্ত্রীসহ সংশ্লিষ্ট দপ্তরের উর্দ্ধতন কর্মকর্তাদের প্রতি জোর দাবি জানিয়েছেন।

এ বিষয়ে প্রধান শিক্ষক সমীর কুমার চক্রবর্তী বলেন, বিদ্যালয়ের শ্রেণীকক্ষের পলেস্তরা খসে পড়ে দুর্ঘটনার পরপরই। সহকারি শিক্ষা অফিসার পরিদর্শনে এসে ভবনটির শ্রেণীকক্ষে পাঠদান না করার জন্য লিখিত নির্দেশনা দিয়েছেন। বিষয়টি উপজেলা শিক্ষা অফিসার সহ নির্বাহী প্রকৌশলী দপ্তরে লিখিতভাবে অবহিত করা হয়েছে।

এ সর্ম্পকে উপজেলা শিক্ষা অফিসার মো. জালাল উদ্দিন খান বলেন, বিদ্যালয়টি পরিত্যাক্ত ঘোষনার জন্য আবেদনে সুপারিশ প্রেরণ করা হয়েছে। নতুন ভবনের জন্য তালিকায় নাম অর্ন্তভূক্ত করে অধিদপ্তরে প্রেরণ করা হবে।  

উপজেলা নির্বাহী প্রকৌশলী মো. আরিফুল ইসলাম বলেন, ঝুঁকিপূর্ন এরকম একটি বিদ্যালয়ের বিষয়ে তিনি অবহিত নন। তবে, সরেজমিনে গিয়ে বিদ্যালয়টি পরিত্যাক্ত ঘোষণা করে নতুন ভবনের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য উর্দ্ধতন কর্মকর্তাদের অবহিত করা হবে জানিয়েছেন এ কর্মকর্তা।  


আরও খবর



সিলেট সিটিতে ১০৪০ কোটি টাকার বাজেট ঘোষণা

প্রকাশিত:সোমবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ |
Image

সিলেট সিটি করপোরেশন (সিসিক) ২০২২-২২ অর্থবছরের জন্য ১০৪০ কোটি ২০ লাখ ৪৩ হাজার টাকা আয় ও সমপরিমাণ টাকা ব্যয় ধরে বাজেট প্রণয়ন করা হয়েছে।

সোমবার দুপুর ১২টায় নগরীর আরামবাগ এলাকার আমানউল্লাহ কনভেনশন সেন্টারে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে বাজেট ঘোষণা করেন সিলেট সিটি করপোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী।

বাজেট ঘোষণার সময় মেয়র বলেন- সিলেট নগরের নাগরিকবৃন্দকে অধিকতর সুযোগ সুবিধা ও সেবা প্রদান নিশ্চিত করার লক্ষ্যকে সামনে রেখে এবার সর্বমোট ১০৪০ কোটি ২০ লাখ ৪৩ হাজার টাকা আয় ও সমপরিমাণ টাকা ব্যয় ধরে বাজেট প্রণয়ন করা হয়েছে।

বাজেটে উল্লেখযোগ্য আয়ের খাত গুলো হলো- হোল্ডিং ট্যাক্স ৪৫ কোটি ২ লাখ ২৮ হাজার টাকা, স্থাবর সম্পত্তি হস্থান্তরের ওপর কর ১৬ কোটি টাকা, ইমারত নির্মাণ ও পুনর্নির্মাণের ওপর কর ২ দুই কোটি টাকা, পেশা ব্যবসার ওপর কর ৮ কোটি ৫০ লাখ টাকা, বিজ্ঞাপনের ওপর কর ১ কোটি ২০ লাখ টাকা, বিভিন্ন মার্কেটের দোকান গ্রহীতার নাম পরিবর্তনের ফি ও নবায়ন ফিস বাবদ ৮০ লাখ টাকা, ঠিকাদারি তালিকাভূক্তি ও নবায়ন ফি বাবদ ৩০ লাখ টাকা, ল্যাব টেস্ট ফিস বাবদ ৬০ লাখ টাকা, বাস টার্মিনাল ইজারা বাবদ আয় ১ কোটি ৭০ লাখ টাকা, ট্রাক টার্মিনাল ইজারা বাবদ আয় ৮ লাখ ৫০ হাজার টাকা, খেয়াঘাট ইজারা বাবদ ১৮ লাখ ৫০ হাজার টাকা, সিটি কর্পোরেশনের সম্পত্তি ও দোকান ভাড়া বাবদ ৪ কোটি ৫০ হাজার টাকা, রোড রোলার ভাড়া বাবদ আয় ৫০ লাখ টাকা, রাস্তা কাটার ক্ষতিপূরণ বাবদ আয় ৩০ লাখ টাকা, বর্জ্য ব্যবস্থাপনা খাতে আয় ১ কোটি ২০ লাখ টাকা, দক্ষিণ সুরমা শেখ হাসিনা শিশু পার্কের টিকিট বিক্রয় থেকে আয় ৮০ লাখ টাকা, পানির সংযোগ লাইনের মাসিক চার্জ বাবদ ৬ কোটি ৫০ লাখ টাকা, পানির লাইনের সংযোগ ও পুনঃসংযোগ ফিস বাবদ ১ কোটি টাকা, নলকুপ স্থাপনের অনুমোদন ও নবায়ন ফি বাবদ ২ কোটি টাকা।

বাজেটে উল্লেখযোগ্য ব্যয় খাত গুলো হলো- নির্মাণ ও সংস্কার, ঢাকায় সিটি কর্পোরেশনের নিজস্ব লিয়াজো অফিসের জন্য ফ্ল্যাট ক্রয়, কসাই খানা নির্মাণ/ময়লা আবর্জনা ফেলার জায়গা উন্নয়ন, সিটি কর্পোরেশনের যানবাহন রক্ষায় গ্যারেজ নির্মাণ, সিটি কর্পোরেশনের যানবাহন, রক্ষণাবেক্ষনে ওয়ার্কসপ নির্মাণ, হাট বাজার উন্নয়ন, বাস টার্মিনাল সংস্কার ও উন্নয়ন, সিলেট সিটি কর্পোরেশন এলাকায় পাঠাগার নির্মাণ, নাগরিক নিরাপত্তার জন্য গুরুত্বপূর্ণ রাস্তায় সিসি ক্যামেরা স্থাপন, গভীর নলকুপ স্থাপন, এমজিএসপি প্রকল্পের রক্ষনাবেক্ষন কাজের নিজস্ব অর্থ ব্যয়, সিটি কর্পোরেশনের জন্য জীপ গাড়ী ও ২টি আধুনিক এ্যাম্বুলেন্স ক্রয় এবং নারীদের উন্নয়নে প্রকল্প গ্রহন ব্যয়সহ ইত্যাদি ব্যয় উল্লেখযোগ্য।


আরও খবর



খালেদা ,তারেককে বাদ দিয়েই বিএনপি নির্বাচনে আসবে

প্রকাশিত:বুধবার ০৭ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ |
Image

বুলবুল আহমেদ সোহেলঃ

বিএনপিতে মিটিং হচ্ছে খালেদা জিয়া, তারেক জিয়াকে বাদ দিয়েই বিএনপি নির্বাচনে আসবে। বিএনপির নেতা কে ? খালেদা জিয়া এতিমের টাকা আত্মসাত করে সাজাপ্রাপ্ত আর তারেক জিয়া ২১ আগষ্টের গ্রেনেড হামলা মামলায় সাজাপ্রাপ্ত হয়ে বিদেশে পালিয়ে আছে। তাই তারা পরাজয় নিশ্চিত জেনেই নির্বাচনে আসতে চাচ্ছে না। বিএনপি কোন দিনই সুষ্ঠু নির্বাচনে ক্ষমতায় আসতে পারেনি। সামরিক ক্যু ও দেশী-বিদেশী ষড়যন্ত্রের মাধ্যমেই তারা রাষ্ট্র ক্ষমতা দখল করেছে। 

মঙ্গলবার (৬সেপ্টেবর) সকালে নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেলা সদরের শহীদ মঞ্জুর ষ্টেডিয়ামে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ আড়াইহাজার উপজেলা শাখা ও সরকারী সফর আলী কলেজ শাখার বাষিক সম্মেলনে  প্রধান অতিথি হিসেবে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাবেক সাধারন সম্পাদক ও কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য আব্দুর রহমান উল্লেখিত বক্তব্য রাখেন। 

আড়াইহাজার উপজেলা ছাত্রলীগ এর আহবায়ক কাজী রাজিবুল ইসলাম জুয়েলের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি আরো বলেন, বঙ্গবন্ধু হত্যার নেপথ্য নায়ক ছিল খুনি জিয়াউর রহমান। ইতিহাস খুনিদের ক্ষমা করেনা। জিয়াউর রহমানের লাশের চিহ্ন বাংলাদেশের মানুষ দেখতে পারেনি। বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করার পর খুনিরা দম্ভ করে বলেছিল, এ এদেশে আর জয় বাংলার ধ্বনী উচ্চারিত হবেনা, শেখ মুজিবের নাম আর উচ্চারিত হবেনা। আজ বঙ্গবন্ধুর নাম আড়াইহাজার সহ সারা বিশ্বে ধ্বনিত হচ্ছে। তিনি বলেন শেখ হাসিনা বাংলাদেশে অভাবনীয় উন্নয়ন করেছেন। তিনি মানুষের মুখে অন্ন জুগিয়েছেন,গৃহহীনদের গৃহের ব্যবস্থা করেছেন,মুক্তিযোদ্ধা,বয়স্ক,বিধবা,স্বামী পরিত্যক্তাদের ভাতার ব্যবস্থা করেছেন। বিশ্বের সৎ তিনজন প্রধানমন্ত্রীর মধ্যে শেখ হাসিনা একজন। আজকে বাংলাদেশের ঈর্শনীয় অর্জনকে বিশ্বের বহুদেশ অনুকরন,অনুসরন করছে। তিনি বলেন,২০২৪ সালের প্রথম দিক দিয়ে জাতীয় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। সেই নির্বাচনকে ভন্ডুল করতে তারা ষড়যন্ত্র করছে। তারা আন্দোলনের নামে এদেশের জনগনের সহায় সম্পদ নষ্ট করছে। বাংলাদেশের ছাত্রলীগের একজন কর্মী বেঁচে থাকতে তাদের সেই ষড়যন্ত্র সফল হতে দেওয়া হবেনা।    

এর আগে সম্মেলন উদ্বোধন করে বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয়। সম্মেলনে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, নারায়ণগঞ্জ-২ (আড়াইহাজার) আসনের এমপি নজরুল ইসলাম বাবু , প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সাধারন সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য্য, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আর এ এফ রহমান হলের সাবেক জিএস আব্দুর রহিম, উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সম্পাদক মোজাম্মেল হক জুয়েল, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম, সরকারী সফর আলী কলেজের ভিপি রাজু।

অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন,ছাত্রলীগের যুগ্ম আহবায়ক জসীমউদ্দিন। 


আরও খবর

পুলিশের পক্ষে বললেন খামেনি

মঙ্গলবার ০৪ অক্টোবর ২০২২




মোংলায় হাঁস-মুরগির খোপে মিললো বিশাল অজগর

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৮ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ০৫ অক্টোবর ২০২২ |
Image

এম.পলাশ শরীফ, নিজস্ব প্রতিবেদকঃ 

মোংলায় হাঁস-মুরগির খোপ থেকে ১৫ ফুট লম্বা একটি অজগর উদ্ধার করেছেন বনবিভাগের সদস্যরা।

বৃহস্পতিবার (৮ আগষ্ট) সকালে উপজেলার সুন্দরবন ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের খরমা কাটাখালি গ্রামের মোঃ রুহুল আমিন এর বাড়ি থেকে অজগরটি উদ্ধার করা হয়। ধারনা করা হচ্ছে খাবারের সন্ধানে লোকালয়ে এসেছে সাপটি।

রুহুল আমিন বলেন, ‘সকালে হাঁস-মুরগির অস্বাভাবিক ডাকাডাকি শুনে খোপের মুখ খুলে দেখি একটি অজগর শুয়ে আছে। ভয়ে দূরে সরে গিয়ে বনবিভাগকে খবর দিই। তারা এসে অজগরটি ধরে নিয়ে যায়।’

তিনি আরও বলেন, খোপে থাকা দুটি মুরগি ও দুটি হাসও খেয়ে ফেলে এই অজগরটি।

পূর্ব সুন্দরবন বিভাগের জিউধারা স্টেশন কর্মকর্তা মো. শাহজাহান মোক্তাদির জানান, উপজেলার সুন্দরবন ইউনিয়নের খরমা কাটাখালি গ্রামের রুহুল আমিনের বাড়ির মুরগির খোপে অজগর সাপটি দেখতে পেয়ে আমাদের খবর দিলে সেখান থেকে সাপটি উদ্ধার করি আমরা। উদ্ধার হওয়া অজগরটি আমরা সুন্দরবনের গহিনে অবমুক্ত করি।

লোকালয় থেকে উদ্ধার হওয়া অজগরটি লম্বায় প্রায় ১৫ ফুট এবং ওজন প্রায় ২৭ কেজি। অজগরটিকে সুন্দরবনে অবমুক্ত করা হয়েছে।

তিনি আরো বলেন, ধারণা করা হচ্ছে খাবারের সন্ধানে লোকালয়ে যেয়ে থাকতে পারে সাপটি।

কোন বন্যপ্রাণী লোকালয়ে চলে আসলে তার ক্ষতি না করে আমাদেরকে খবর দিলে আমরা সেটিকে উদ্ধার করে তার সঠিক নিরাপদ আবাসে ফিরে দিবো। 


আরও খবর