Logo
শিরোনাম

তিন শর্তে জামিন পেলেন সম্রাট

প্রকাশিত:বুধবার ১১ মে ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ১৬ মে ২০২২ | ৫১জন দেখেছেন
Image

অস্ত্র, মাদক ও অর্থপাচারের মামলার পর এবার অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে করা দুদকের মামলায় জামিন পেলেন ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের বহিষ্কৃত সভাপতি ইসমাইল চৌধুরী সম্রাট।

তার বিরুদ্ধে আর কোনো মামলা না থাকায় মুক্তিতে বাধা নেই বলে জানিয়েছেন সম্রাটের আইনজীবী।

বুধবার (১১ মে) ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৬-এর বিচারক আল আসাদ মো. আসিফুজ্জামান শুনানি শেষে তার জামিন মঞ্জুর করেন।

আইনজীবী মাহবুবুল আলম দুলাল জানান, সম্রাটের বিরুদ্ধে চারটি মামলা করা হয়। অস্ত্র, মাদক ও অর্থপাচারের মামলায় ইতোমধ্যে জামিন পেয়েছেন তিনি। কারাগারে ছিলেন দুদকের মামলায়। এ মামলায় জামিন মঞ্জুর হওয়ায় তার কারামুক্ত হতে আর কোনো বাধা থাকল না।

সম্রাটের পক্ষের অপর আইনজীবী হাবিবুর রহমান জানান, তিন শর্তে দুদকের মামলায় সম্রাটের জামিন মঞ্জুর করেন আদালত। অসুস্থতা বিবেচনায়, বিদেশে না যাওয়া ও প্রতিটি ধার্য তারিখে হাজিরার শর্তে জামিন পেলেন ইসমাইল চৌধুরী সম্রাট।

প্রসঙ্গত, ক্যাসিনোকাণ্ডে ২০১৯ সালের ৭ অক্টোবর সম্রাটকে কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম থেকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব। তখন থেকে তিনি কারাগারে আছেন।


আরও খবর



লোভ দেখিয়ে সাত বছরের শিশু অপহরণ, গ্রেফতার ২

প্রকাশিত:সোমবার ০২ মে 2০২2 | হালনাগাদ:সোমবার ১৬ মে ২০২২ | ৮০জন দেখেছেন
Image

নুপ সিংহ,নোয়াখালী প্রতিনিধিঃ

নোয়াখালীর সোনাইমুড়ীতে পঞ্চাশ টাকার লোভ দেখিয়ে সাত বছর বয়সী এক শিশুকে অপহরণের ঘটনায় দুই আসামিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

অপহৃত মো. সামির ইসলাম ছিদ্দিক (৭) উপজেলার ৭নং বজরা ইউনিয়নের ৪নম্বর ওয়ার্ডের পূর্ব চাঁদপুর গ্রামের হাজী মনোহর আলী চৌধুরী বাড়ীর মো.মমিন উল্যার ছেলে।

সোমবার (২ মে) দুপুরে গ্রেফতারকৃত আসামিদের নোয়াখালী চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। এর আগে গতকাল রোববার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে অপহৃত শিশুকে তাঁর বাড়ির সামনে থেকে অপহরণ করা হয়। মৌখিক ভাবে অভিযোগ পেয়ে তাৎক্ষণিক একই দিন রাতে উপজেলার পূর্ব চাঁদপুর গ্রামের একটি বিলে অভিযান চালিয়ে দুই আসামিকে গ্রেফতার পুলিশ।  

গ্রেফতারকৃতরা হলো ৭নং বজরা ইউনিয়নের পূর্ব চাঁদপুর গ্রামের হামিদ উল্যাহ মু্ন্সি বাড়ির মো.নুর নবীর ছেলে মো. হৃদয় (১৫) ও তাঁর স্ত্রী বিউটি আক্তার (৩৮)।  

বিষয়টি নিশ্চিত করে সোনাইমুড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. হারুন অর রশিদ বলেন, পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে রোববার সন্ধ্যায় ৫০ টাকার লোভ দেখিয়ে তাঁর বাড়ির সামনে থেকে ওই শিশুকে অপহরণ করা হয়। এরপর অপহরণকারীরা মুক্তিপণ আদায়ের উদ্দেশ্যে তাকে তাদের বাড়ির পশ্চিম পাশের বিলের মধ্যে আটকে রেখে মুক্তিপণ দেওয়ার জন্য দুটি বিকাশ নম্বর পাঠায় তাঁর মায়ের কাছে। খবর পেয়ে পুলিশ রাতেই অভিযান চালিয়ে অপহৃত শিশু উদ্ধার করে আসামিদের গ্রেফতার করে।  

ওসি আরো জানায়, এ ঘটনায় অপহৃত শিশুর দাদা চারজনকে আসামি করে একটি অপহরণ মামলা দায়ের করেছে। গ্রেফতারকৃত আসামিদের বিচারিক আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।  


আরও খবর



কুমিল্লা সিটি নির্বাচনের প্রতীক বরাদ্ধের আগে কোন প্রচার প্রচারনা করা যাবে না

প্রকাশিত:রবিবার ০৮ মে ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ১৫ মে ২০২২ | ৫৬জন দেখেছেন
Image

নিজস্ব প্রতিবেদক, কুমিল্লা।

কুমিল্লায় গণমাধ্যম কর্মীদের সাথে মতবিনিময় করেছেন কুমিল্লা সিটি নির্বাচনের দায়িত্বপ্রাপ্ত রিটার্নিং কর্মকর্তা মোঃ শাহেদুন্নবী চৌধুরী। 

রোববার সকালে কুমিল্লা জেলা নির্বাচন কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে এই মতবিনিময় সভায় রিটার্নিং কর্মকর্তা মোঃ শাহেদুন্নবী চৌধুরী, আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা দুলাল তালুকদার, জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মঞ্জুরুল আলমসহ সহকারি রিটার্নিং কর্মকর্তারা বক্তব্য রাখেন।

 মতবিনিময় কালে রিটার্নিং কর্মকর্তা মোঃ শাহেদুন্নবী চৌধুরী সাংবাদিকদের জানান,  প্রতীক বরাদ্ধের আগে কোন প্রচার প্রচারনা করা যাবে না। আচরণ বিধি লংঙ্খনের দায়ে ইতিমধ্যে ৫থেকে ৬জনকে নোটিশ প্রদান করা হয়েছে। ৪লক্ষ টাকা জরিমানাসহ বেশ কয়েকটি মটর সাইকেল জব্দ করা হয়েছে। আজ নগরের প্রার্থীদের বিলবোর্ড সরিয়ে নেয়া হবে। একটি সুন্দর নির্বাচন অনুষ্ঠিত করার লক্ষে সততা নিরপেক্ষতা দিয়ে সর্বাত্নাক চেষ্টা থাকবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন রিটানিং কর্মকতা।

 প্রধান নির্বাচন কমিশনারের বরাত দিয়ে রিটানিং কর্মকর্তা বলেন- সহিংসতা মুক্ত একটি ভালো নির্বাচন উপহার দেয়ার জন্যই কাজ করছেন নির্বাচন কমিশন। কোন ভোট কেন্দ্রে যেন কোন প্রকার অনাকাঙ্খিত ঘটনা যেন না ঘটে সেজন্য পযাপ্ত সংখ্যক আইনশৃঙ্খলাবাহিনী নিয়োজিত থাকবে। সুষ্ঠ ও নিরপেক্ষ নির্বাচন অনুষ্ঠিত করার লক্ষ্যে নির্বাচনের সার্বিক বিষয় নিয়ে ইতিমধ্যে সংশ্লিষ্ট প্রশাসনিক এবং আইনশৃঙ্খলাবাহিনীর কর্মকর্তাদের সাথে আলোচনা করা হয়েছে।

মতবিনিময় সভায় 

এসময় কুমিল্লায় কর্মরত প্রিন্ট ও ইলেট্রনিকস্ মিডিয়ায় কর্মরত সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন। কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার পর সাংবাদিকদের সাথে রিটার্নিং কর্মকর্তা এই প্রথম মতবিনিময় অনুষ্ঠিত হয়।


আরও খবর



রেদোয়ান আহমেদ গ্রেফতার

চান্দিনায় এলডিপি মহাসচিব ড. রেদোয়ান আহমেদ এর গুলিতে গুলিবিদ্ধ ২

প্রকাশিত:সোমবার ০৯ মে ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ১৬ মে ২০২২ | ৬৭জন দেখেছেন
Image

নিজস্ব প্রতিবেদক, কুমিল্লা 

কুমিল্লার চান্দিনায় লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টি (এলডিপি) মহাসচিব ড. রেদোয়ান আহমেদ এর গুলিতে ছাত্রলীগ ও স্বেচ্ছাসেবকবলীগ দুই নেতা-ক গুলিবিদ্ধ হয়। এ ঘটনায় রেদোয়ান আহমেদকে আটক করেছে পুলিশ। 

সোমবার (৯ মে) দুপুর আড়াইটায় চান্দিনা উপজেলা সদরের রেদোয়ান আহমেদ কলেজ ক্যাম্পাস-২ মমতাজ আহমেদ ভবনের সামনের সড়কে এলডিপি ও ছাত্রলীগ-স্বেচ্ছাসেবকলীগের পাল্টাপাল্টি ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানকে কেন্দ্রে করে ওই ঘটনা ঘটে। ঘটনার পরপর রেদোয়ান আহমেদ থানায় আশ্রয় নিলে উত্তেজিত ছাত্রলীগ, যুবলীগ ও স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা-কর্মীরা চান্দিনা থানার প্রধান ফটক ঘেড়াও করে। 

আহতরা হলেন- চান্দিনা পৌরসভার ৫নং ওয়ার্ডের আওয়ামী লীগ নেতা রূপনগর এলাকার বাসিন্দা জাহাঙ্গীর আলম সরকারের ছেলে মাহমুদুল হাসান জনি সরকার (২২)। পৌর ছাত্রলীগ নেতা জনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী। অপরজন হলেন চান্দিয়ারা গ্রামের নূরুল ইসলাম এর ছেলে নাজমূল হোসেন নাঈম (২৮)। সে উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগ কর্মী।  

প্রত্যক্ষদর্শী শরীফ জানান, চান্দিনা পৌরসভা রোডের রেদোয়ান আহমেদ কলেজ ক্যাম্পাস-২ মমতাজ আহমেদ ভবন এর ছাত্রলীগ ও স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা-কর্মীরা অবস্থান করছিল। দুপুর ২টা ২০ মিনিটের দিকে রেদোয়ান আহমেদ গাড়ি নিয়ে ক্যাম্পাসের সামনে আসার পর কলেজ গেইটে ছাত্রলীগ ও স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতারা রেদোয়ান আহমেদ এর গাড়ি থামিয়ে কথা বলে। কিছুক্ষণ পর রেদোয়ান আহমেদ গাড়ি ঘুরে চলে যাওয়ার সময় স্বেচ্ছাসেবকলীগ ও ছাত্রলীগ কর্মীরা ওই গাড়িতে তরমুজ দিয়ে ঢিল মারে। এসময় রেদোয়ান আহমেদ গাড়ি থেকে পরপর দুইটি গুলি ছুড়ে। 

উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক সামিরুল খন্দকার রবি জানান, চান্দিনা রেদোয়ান আহমেদ কলেজ ছাত্রলীগ ঈদের পূর্ব থেকে আজ (৯ মে) ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠান করতে প্রস্তুতি নিয়েছে। এরই মধ্যে পৌর এলডিপিও একই দিন একই স্থানে ঈদ পুনর্মিলনীর আয়োজন করে। সোমবার দুপুর থেকে ছাত্রলীগের আয়োজনে যুবলীগ ও স্বেচ্ছাসেবক লীগের নেতা-কর্মীরা যখন মমতাজ আহমেদ ক্যাম্পাসে আসতে শুরু করে ঠিক দুপুর আড়াইটায় দিকে রেদোয়ান আহমেদ গাড়ি নিয়ে ওই ক্যাম্পাসের সামনে এসে গাড়ি থেকে ২টি গুলি করে দ্রæত স্থান ত্যাগ করে থানায় গিয়ে আশ্রয় নেয়। রেদোয়ান আহমেদ এর গুলিতে জনি ও নাজমুল গুলিবিদ্ধ হয়। তাদেরকে চান্দিনা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে থেকে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। 

পৌর স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা কাজী আখলাকুর রহমান জুয়েল জানান, রেদোয়ান আহমেদ রাজনৈতিক আধিপত্য বিস্তার করতে আমাদের নেতা-কর্মীদের উপর অমানবিক ভাবে গুলি চালায়। 

সাবেক প্রতিমন্ত্রী ড. রেদোয়ান আহমেদ জানান, আমাদের পূর্ব নির্ধারিত প্রোগ্রাম ছিল। আমাকে প্রধান অতিথি করে চিঠির মাধ্যমে পৌর এলডিপি কার্যক্রম পরিচালনা করে। এরই মধ্যে আমাদের প্রধান ক্যাম্পাসে ছাত্রলীগকে প্রোগ্রাম করার জন্য অনুমতি দেওয়া হয়। আমরা ক্যাম্পাস-২ মমতাজ আহমেদ ভবনে পুর্ব নির্ধারিত প্রোগ্রাম করার কথা। দুপুরে আমি ক্যাম্পাস-২ এর সামনে গেলে ছাত্রলীগ, যুবলীগ ও স্বেচ্ছাসেবকলীগের লোকজন আমার গাড়িতে হামলা করে। আমি আত্মরক্ষার্থে আমার লাইসেন্স করার সর্টগানে গুলি চালাই। কার গায়ে গুলি লেগেছে আমি বলতে পারবো না। পরে আমি থানায় এসে আশ্রয় নেই। 

সিনিয়র সহকারি পুলিশ সুপার (দাউদকান্দি সার্কেল) মো. ফয়েজ ইকবাল জানান, পাবলিক রোষানলে রেদোয়ান আহমেদ থানায় আশ্রয় নিতে আসলে আমরা তাকে আটক করি। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আমাদের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। এ ঘটনায় মামলা দায়ের করার প্রস্তুতি চলছে। 

বিকাল পযন্ত উপজেলা সদরসহ থানা এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। এছাড়া ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। অনলাইনের জন্য।


আরও খবর



ইন্টারনেট ডাটার মেয়াদ এখন এক বছর

প্রকাশিত:বুধবার ০৪ মে ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ১৬ মে ২০২২ | ৯৯জন দেখেছেন
Image

ইন্টারনেটের ডাটা প্যাকেজের মেয়াদ নিয়ে অসন্তোষ ছিল গ্রাহকদের মধ্যে। দীর্ঘদিন ধরে দাবি ছিল ডাটার মেয়াদ অনির্দিষ্ট করার। সম্প্রতি রাষ্ট্রায়ত্ত¡ মোবাইল ফোন অপারেটর টেলিটক তাদের ইন্টারনেট ডাটার মেয়াদ অনির্দিষ্ট মেয়াদে ঘোষণা করে। এবার তাদের সাথে একই পথে হাটলো অন্য অপারেটরগুলোও। ইন্টারনেট ডেটা প্যাকেজ অল্প কয়েক দিনে শেষ করার সীমাবদ্ধতা থেকে বেরিয়ে এসে ডেটার মেয়াদ বাড়াচ্ছে মোবাইলফোন অপারেটরগুলো। মেয়াদ এক বছর পর্যন্ত নির্ধারণ করে দিয়েছে বিটিআরসি। গতকাল বৃহস্পতিবার নতুন এ ডেটা প্যাকেজগুলোর উদ্বোধন করে টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ সংস্থা (বিটিআরসি)।

এ ক্ষেত্রে মোবাইল ফোন অপারেটরগুলো দুই ধরনের সেবা চালু করছে- আনলিমিটেড (মেয়াদবিহীন) ডেটা প্যাকেজ ও নিরবচ্ছিন্ন মাসিক ইন্টারনেট প্যাকেজ। ডেটা প্যাকেজগুলোকে মেয়াদবিহীন বলা হলেও এগুলোর মেয়াদ মূলত এক বছর পর্যন্ত। বিটিআরসি কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার এসব প্যাকেজের উদ্বোধন করেন। নির্ধারিত কয়েকটি প্যাকেজসহ নতুন সেবার নানা দিক তুলে ধরেন বিটিআরসির সিস্টেমস অ্যান্ড সার্ভিস বিভাগের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. নাসিম পারভেজ।

মেয়াদবিহীন (এক বছর) ডেটা প্যাকেজের মধ্যে রয়েছে গ্রামীণফোনের ১ হাজার ৯৯ টাকায় ১৫ জিবি ও ৪৪৯ টাকায় ৫ জিবির প্যাকেজ। রবির ৩১৯ টাকায় ১০ জিবির প্যাক। বাংলালিংকের ৩০৬ টাকায় ৫ জিবির প্যাকেজ। টেলিটকের রয়েছে দুটি বার্ষিক অফার- ৩০৯ টাকায় ২৬ জিবি, ১২৭ টাকায় ৬ জিবি।
আর নিরবচ্ছিন্ন মাসিক ইন্টারনেট প্যাকেজের মধ্যে রয়েছে গ্রামীণফোনের ৩৯৯ টাকার (দৈনিক ১ জিবি পর্যন্ত) ও ৬৪৯ টাকার (দৈনিক ২ জিবি পর্যন্ত) প্যাকেজ। গ্রামীণফোনের ৩৬৫ দিনেরও (প্রতিদিন ১ জিবি পর্যন্ত) প্যাকেজ নির্ধারণ করা হয়েছে। এ ছাড়া রবির ৩০ দিন (দৈনিক সর্বোচ্চ ২ জিবি), বাংলালিংকের ৩০ দিনের (দৈনিক সর্বোচ্চ ২ জিবি) প্যাকেজ রয়েছে। টেলিটকের ৩০ দিনের চারটি প্যাকেজ রয়েছে, এগুলোর ব্যবহার দৈনিক যথাক্রমে ১, ২, ৩ ও ৫ জিবি পর্যন্ত।

শেষের প্যাকেজগুলোর কোনো মূল্য সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়নি। ৩১ মের মধ্যে এসব প্যাকেজ চালুর নির্দেশনা দিয়েছে বিটিআরসি। মো. নাসিম পারভেজ বলেন, এটি শুধু ডেটা সেবা প্রদানের একটি বিশেষ প্যাকেজ। এর অধীন কোনো অফার (ভয়েজ, এসএমএস, সোশ্যাল প্যাক) থাকবে না। তবে আগে মেয়াদ শেষ হওয়ার সময় ডেটা উদ্বৃত্ত থাকলে কিছু ক্ষেত্রে ডেটা ফরোয়ার্ডের (ডেটা ফেরত) সুবিধা থাকলেও নতুন প্যাকেজে সেটা থাকছে না।

প্যাকেজের নামকরণে আনলিমিটেড ও মেয়াদবিহীন শব্দগুলো থাকলেও কারিগরি সীমাবদ্ধতার কারণে সর্বোচ্চ মেয়াদকাল ১ বছর নির্ধারণ করা হয়েছে বলে জানান মো. নাসিম পারভেজ। তিনি বলেন, নির্দিষ্ট মেয়াদে ডেটা থাকলে তা অপচয় হওয়ার আশঙ্কা থাকে। দীর্ঘ মেয়াদে ব্যবহারের সুযোগ থাকলে এ সমস্যা হবে না।
ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেন, ইন্টারনেট ব্যবহারে সীমাবদ্ধতা তুলে নিলে ব্যবহারের স্বাধীনতা থাকে। ইন্টারনেট ব্যবহারে জনগণের স্বাধীনতাকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিতে হবে। শুধু সেবা স¤প্রসারণ নয়, গুণগত মান ঠিক করতে হবে। বর্তমান সেবায় মানুষ সন্তুষ্ট নয়।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের উত্তরে বিটিআরসি চেয়ারম্যান শ্যাম সুন্দর সিকদার বলেন, বিটিআরসি কখনো অপারেটরদের পক্ষে ছিল না, থাকবে না। জনগণ হচ্ছে বিটিআরসির সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার। মোবাইল ফোন অপারেটরদের প্রতি বিটিআরসি তৃপ্ত না, বিরক্ত। এর পর থেকে সেবার গুণগত মান ঠিক না হলে অপারেটরদের জরিমানা করা হবে। এখন তাদের চাপ দেওয়া হচ্ছে।

অনুষ্ঠানে মহাপরিচালক (স্পেকক্ট্রাম) ব্রিগে. জেনা. মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান জুয়েল, মহাপরিচালক (লিগ্যাল অ্যান্ড লাইসেন্সিং) আশীষ কুমার কুন্ডু মহাপরিচালক (অর্থ, হিসাব ও রাজস্ব) প্রকৌশলী মো. মেসবাহুজ্জামানসহ বিভিন্ন মুঠোফোন অপারেটরের ঊধ্বর্তন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।


আরও খবর



ইসলামাবাদে তারেক হত্যার খুনীদের গ্রেফতারের দাবীতে মানববন্ধন

প্রকাশিত:শুক্রবার ২২ এপ্রিল 20২২ | হালনাগাদ:সোমবার ১৬ মে ২০২২ | ৮২জন দেখেছেন
Image

ষ্টাফ রিপোর্টার,ঈদগাঁও  

কক্সবাজারের নবঘোষিত ঈদগাঁও উপজেলার ইসলামাবাদে দোকানদার তারেক হত্যার প্রতি বাদে এক বিশাল মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। 

২২ এপ্রিল বাদে জুমা চট্রগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের ইসলামাবাদ ইউনিয়নের ওয়াহেদের পাড়াবাসীর উদ্যোগে মরহুম ছগির আহমদের পূত্র মোহাম্মদ তারেক হত্যার প্রতিবাদে খুনীদের গ্রেফতার ও ফাঁসির দাবীতে দীর্ঘলাইন মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।  মানববন্ধনে ওয়াহেদের পাড়া থেকে আউলিয়াদ পযন্ত বিপুল সংখ্যক লোকজনের সমাগম ঘটে। 

স্থানীয় মেম্বার আবদু শুক্কুরের সভাপতিত্বে ছাত্রনেতা জাহেদের পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন, মুরব্বী এজাহার মিয়া,জসিম উদ্দিন, মাষ্টার আবদুল করিম, মেস্বার ও উপজেলা শ্রমিকলীগের আহবায়ক আবু বক্কর ছিদ্দিক বান্ডি,ঈদগাঁও উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি আবু হেনা বিশাদ, ওয়ার্ড় আ,লীগের সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন কবির,ড্রাইভার নুরুল আজিম,মোবারক,মিজান, আবদুল আজিজ সওদাগর,মসজিদের ইমাম ওসমান গনি, যুবনেতা করিম, সাদ্দাম হোসেন,আনচারুল করিম। এই মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশে সর্বস্তরের লোকজন অংশ নেন। 

প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তারা তারেক হত্যার খুনী দের দ্রুত গ্রেফতার পূর্বক দৃষ্টান্তমুলক শাস্থির দাবী জানান। 

উল্লেখ্য,বিগত ১১ এপ্রিল ইসলামাবাদের ঢালার দোয়ার নামক স্থানে নিজ ব্যবসায়ীক প্রতিষ্ঠানে  ছুরিকাঘাতে খুন করা হয় তারেক নামের এক তরুনকে।


আরও খবর