Logo
শিরোনাম

ভালো ঘুমের জন্য যা প্রয়োজন

প্রকাশিত:সোমবার ২০ জুন ২০22 | হালনাগাদ:শনিবার ০২ জুলাই 2০২2 |
Image

আমাদের দৈহিক মানসিক সুস্থতার জন্য ঘুম অপরিহার্য। পর্যাপ্ত আরামদায়ক ঘুম আমাদেরকে সক্রিয় সতেজ করে তোলে। সাধারণভাবে স্বাস্থ্যকর ঘুম বলতে প্রতি রাতে একটি নির্দিষ্ট সময় ঘুমকে বুঝানো হয়। একে অনেকে ঘুমের পরিমাণ হিসাবে ধরে নেয়। যদিও ঘুমের পরিমাণ অবশ্যই গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। একটি ভালো ঘুমের জন্য এর পরিমাণ যেমন গুরুত্বপূর্ণ, তেমনি গুরুত্বপূর্ণ হলো গুণগত মান। নিয়মিত আরামদায়ক সামঞ্জস্যপূর্ণ ঘুম আমাদের সামগ্রিক সুস্বাস্থ্য বজায় রাখার জন্য প্রয়োজন। বিষয়ে বিস্তারিত লিখেছেন রাজধানীর ইনজিনিয়াস পালমো ফিটের স্লিপ কনস্যালট্যান্ট ডা. ফাতেমা ইয়াসমিন

ঘুমের পরিমাণ কী?

ঘুমের পরিমাণ বলতে বোঝায় আপনি প্রতি রাতে কত ঘণ্টা ঘুমান। বয়সভেদে মানুষের ঘুমের সময় তারতম্য হয়।

* বয়স : ঘুমের চাহিদা (২৪ ঘণ্টায়)

* নবজাতক (- মাস) : ১৪-১৭ ঘণ্টা

* শিশু (-১২ মাস) : ১২-১৬ ঘণ্টা

* বাচ্চা (- বছর) : ১১-১৪ ঘণ্টা

* প্রি-স্কুল (- বছর) : ১০-১৩ ঘণ্টা

* স্কুল বয়সের শিশু (-১২ বছর) : -১২ ঘণ্টা

* কিশোর (১৩-১৮ বছর) : -১০ ঘণ্টা

* প্রাপ্তবয়স্ক (১৮-৬৪ বছর) : প্রতি রাতে - ঘণ্টা

* প্রাপ্তবয়স্ক (৬৫+ বছর) : প্রতি রাতে - ঘণ্টা

এটি একটি সাধারণ নির্দেশিকা করা হয়েছে। এমন অনেক লোক রয়েছে যাদের তাদের বয়সের জন্য প্রস্তাবিত পরিমাণের চেয়ে বেশি বা কম ঘুমের প্রয়োজন। এমনকি কিছু নিয়মের ব্যতিক্রমগুলো বিবেচনা করেও এমন অনেক লোক রয়েছে যারা নিয়মিত তাদের প্রয়োজনীয় পরিমাণ ঘুমায় না। পরিসংখ্যানে দেখা যায়, ৫০ থেকে ৭০ মিলিয়ন আমেরিকানরা কোনো না কোনো ধরনের ঘুমের রোগে ভুগছেন এবং প্রায় ৩৫ শতাংশ আমেরিকান প্রাপ্তবয়স্করা প্রতি রাতে প্রয়োজনীয় সাত ঘণ্টার চেয়ে কম ঘুমায়। অপর্যাপ্ত ঘুমে সড়ক দুর্ঘটনা, কর্মক্ষেত্রে দুর্ঘটনা এবং জটিল রোগের ঝুঁকিগুলোও দেখা যায়। অপর্যাপ্ত ঘুমের প্রভাব আমাদের মস্তিষ্কের উপর সরাসরি পড়ে। হার্ভার্ড মেডিকেলের গবেষণায় দেখা গেছে যারা পাঁচ ঘণ্টা ঘুমান তাদের মৃত্যুর ঝুঁকি শতকরা ১৫ ভাগ বৃদ্ধি পায়। অপর্যাপ্ত ঘুমের কারণে আমাদের শরীরে কর্টিসল নামক একটি হরমোনের পরিমাণ বেড়ে যায়। যার প্রভাব পড়ে আমাদের উচ্চ রক্তচাপ রক্তের উচ্চ মাত্রার গ্লুকোজের উপর। অপর্যাপ্ত ঘুমের প্রভাবে মেজাজ খিটখিটে হয়ে যায় এবং দ্রুত মুড পরিবর্তন হয়।

ঘুমের গুণগত মান কী

ঘুমের গুণমান বলতে বোঝায় আপনি কতটা ভালো ঘুমান।

সঠিক মানের ঘুমের জন্য রয়েছে ৫টি উপকরণ :

* ঘুমিয়ে পড়ার সময় : আপনি কত দ্রুত এবং কত সহজেই ঘুমিয়ে পড়তে পারেন। সাধারণত বেশিরভাগ মানুষ বিছানায় যাওয়ার ২০-২৫ মিনিটের মধ্যে ঘুমিয়ে পড়তে সক্ষম হয়।

* ঘুমের ধারাবাহিকতা বজায় : একবার ঘুমিয়ে পড়লে একটানা আপনার ঘুমিয়ে থাকার ক্ষমতা। ভালো মানের ঘুম হয় ক্রমাগত, রাতে বারবার ঘুম ভেঙে যায় না।

* ঘুমের কার্যকারিতা : ঘুমের কার্যকারিতা মানে আপনি কতটা সময় ঘুমিয়েছেন বনাম আপনি কতটা সময় ঘুমানোর জন্য বিছানায় কাটিয়েছেন। সঠিক মানের ঘুমের জন্য ঘুমের কার্যকারিতা মোট সময়ের অন্তত ৮৫ শতাংশ মানদণ্ড হিসাবে ধরা হয়।

* ঘুমের সময় : ঘুমের সময় বলতে বোঝায় যখন প্রতিদিন একটি নির্দিষ্ট সময় ঘুমানো। আমাদের শরীরের অভ্যন্তরীণ ঘড়ি নির্দেশ করে প্রতিদিন একই সময়ে ঘুমানো এবং জেগে ওঠা।

* ঘুমের তৃপ্তি : ঘুম থেকে উঠে ফ্রেশ লাগা সারা দিন উদ্যমী থাকা। এভাবে ঘুমের পরিতৃপ্তি পরিমাপ করা হয়।

খারাপ মানের ঘুমের ক্ষতি কী?

খারাপ মানের ঘুমের স্বল্পমেয়াদি এবং দীর্ঘমেয়াদি উভয় ক্ষেত্রেই গুরুতর স্বাস্থ্য ঘাটতি দেখা যায়। যেমন-কর্মক্ষমতা কমে যাওয়া, ভুলে যাওয়া প্রবণতা, মনোযোগ কমে যাওয়া, মানসিক চাপ বৃদ্ধি, বিষণ্নতা এবং উদ্বেগ দেখা দেয়। সকালে ঘুম থেকে উঠতে সমস্যা হচ্ছে অথবা খিটখিটে মেজাজ নিয়ে ঘুম থেকে ওঠা, সারা দিন ক্লান্তি ভাব থাকা, দিনের বেলা ঘুমানো, দিনে অনেক বেশি ঘুমানো। ছাড়া ওজন বৃদ্ধি এবং স্থূলতা, ডায়াবেটিস এবং উচ্চ রক্তচাপ, উচ্চ কলস্টেরল, হৃদরোগ এবং স্ট্রোক হয়।

রাতের আরামদায়ক ঘুমের পাশাপাশি স্বাস্থ্যকর ঘুমের কিছু চিহ্ন আছে। যেমন-

* সকালে ঘুম থেকে উঠেই সতেজ অনুভূতি

* সারা দিন সতেজ থাকা

* ভালো মেজাজে থাকা

* পরিষ্কার-মাথা অনুভব করা

কীভাবে ঘুমের পরিমাণ এবং গুণগত মান উন্নত করা যায়

ভালো স্বাস্থ্যকর ঘুম পেতে আপনি যে পদক্ষেপগুলো নিতে পারেন তার মধ্যে রয়েছে-

* ঘুমের সমস্যা নির্ণয় করা : আপনি যদি মনে করেন যে আপনার ঘুমের সমস্যা আছে যা আপনার ঘুমকে প্রভাবিত করছে, তাহলে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব আপনার ডাক্তারের সঙ্গে আলোচনা করা উচিত।

* জীবনযাত্রায় পরিবর্তন করুন : যদিও আপনার জীবনের কিছু অংশ অন্যদের তুলনায় পরিবর্তন করা কঠিন হতে পারে, আপনি কিছু পদক্ষেপ নিতে পারেন যা সম্ভবত আপনার ক্ষমতার মধ্যে রয়েছে এবং আপনার ঘুমকে ব্যাপকভাবে উন্নত করতে পারে। যেমন-নিয়মিত ব্যায়াম করা, ধূমপান, অ্যালকোহল এবং ক্যাফেইন বাদ দিন।

* ঘুমের পরিবেশ নিশ্চিত করুন : বেশিরভাগ লোক তাদের ঘুমের পরিবেশের গুরুত্বকে অবমূল্যায়ন করেন। যদিও প্রত্যেকেরই নিজস্ব পছন্দ রয়েছে, মানুষ সাধারণত অন্ধকার, শান্ত, আরামদায়ক পরিবেশে ঘুমাতে পছন্দ করে।

* ফোন ট্যাব বন্ধ : গবেষণায় দেখা গেছে শোওয়ার সময় ফোনের ব্যবহার ঘুমের ব্যাঘাত হয়। বিছানায় ফোন এবং অন্যান্য ডিভাইস ব্যবহার করায়, ঘুমের সময়ের গতি হারাতে পারেন এবং আপনার প্রকৃত শোওয়ার সময় উল্লেখযোগ্যভাবে দেরি হতে পারে।

স্বাস্থ্যকর ঘুমের অভ্যাস কীভাবে প্রয়োগ করবেন তা আপনি নিশ্চিত না হলে, আপনার ডাক্তারের সঙ্গে পরামর্শ করুন।

 


আরও খবর

রসুনের গুণেই মেদ ঝরবে

শনিবার ১১ জুন ২০২২




লিসিচানস্কে ইউক্রেন সেনাদের ঘিরে রেখেছে রাশিয়া

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৩ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০২ জুলাই 2০২2 |
Image

স্বঘোষিত লুহানস্ক পিপলস রিপাবলিকের (এলপিআর) মস্কো সমর্থিত সেনারা লিসিচানস্কের দক্ষিণে ইউক্রেন সেনাদের ঘিরে রেখেছে। বুধবার স্বঘোষিত লুহানস্ক পিপলস রিপাবলিক এ তথ্য জানিয়েছে। রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা তাসের খবরে এ তথ্য উঠে এসেছে। 

এলপিআর বলেছে, প্রায় এক হাজার ৩০০ ইউক্রেনীয় সেনা এবং বিদেশি ভাড়াটে সেনা লিসিচানস্কের দক্ষিণে অবস্থিত হিরস্কে এবং জোলোট এলাকায় রাশিয়ান বাহিনীর আঁটসাঁট বলয়ে পড়েছে।

তাসের এলপিআর থেকে একটি সূত্রকে উদ্ধৃত করে বলেছে, তার বাহিনী লিসিচানস্কের প্রায় ১২ কিলোমিটার (৭.৫ মাইল) দক্ষিণ-পশ্চিমে ভলচেয়ারভকা গ্রাম দখল করেছে।

সত্য হলে, লিসিচানস্কে বিচ্ছিন্ন হওয়ার ঝুঁকিতে থাকবে।


সূত্র: আলজাজিরা


আরও খবর



নিম্নমানের সামগ্রী দিয়ে রাস্তা সংস্কার

প্রকাশিত:রবিবার ০৫ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০২ জুলাই 2০২2 |
Image

নওগাঁর মান্দায় নিম্নমানের ইট দিয়ে রাস্তা সংস্কার কাজের অভিযোগ উঠেছে। বারবার সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কর্মকর্তাদের অবগত করলেও মিলছে না প্রতিকার। যেন দেখার কেউ নেই।

অভিযোগ পেয়ে সরেজমিনে শনিবার (৪ জুন) সকালে রাস্তাটিতে গেলে, উপজেলার থানার মোড় থেকে কালামারা ব্রিজ পর্যন্ত এই রাস্তার সংস্কার কাজে অনিয়ম দেখা গেছে। রাস্তার দুই পাশ দিয়ে দুই ফিট বর্ধিত অংশে তিন নম্বর ইটের গুড়ির সাথে ধুলাবালি মিশ্রত নিম্নমানের খোয়া দিয়ে কাজ করতে দেখা গেছে শ্রমিকদের।

রাস্তার দুইধারে রেইজিং গাঁথুনিতেও দেখা মিলেছে নিম্নমানের ইটের। ইতোপূর্বে এই রাস্তা সংস্কারে অনিয়ম হওয়ায় স্থানীয়দের তোপের মুখে বন্ধ হয়েছিল। উপজেলা প্রকৌশলী পদে রদবদল হলে আবার শুরু হয়েছে রাস্তার কাজ। দীর্ঘদিন পর চালুর করে আবারও রাস্তা সংস্কার কাজে অনিয়ম করছে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান।

স্থানীয়দের অভিযোগ, সংশিষ্ট কর্তৃপক্ষেকে ম্যানেজ করে এমন নিম্নমানের ইট দিয়ে কাজ করছে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান। আমরা বারবার অফিসে জানালেও ব্যবস্থা নিচ্ছে না তারা। তাই দেদাচ্ছে নিম্নমানের ইট দিয়ে কাজ করে যাচ্ছে।

তারা আরও বলেন, এভাবে রাস্তা সংস্কার কাজ হলে অচিরেই ভোগান্তি বাড়বে পথচারীদের। রাস্তার দুই পাশে সেফটি ওয়ালেও নিম্নমানের ইট দিয়ে কাজ করছে তারা।

এ ব্যাপারে স্থানীয় প্রকৌশলী শাইদুর রহমান মিঞার সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি গতানুগতিক বক্তব্য দিয়ে বলেন, জরুরি ব্যবস্থা নিচ্ছি। যোগাযোগের কয়েক দিন পেরিয়ে গেলেও নেওয়া হয়নি কোনো ব্যবস্থা।


আরও খবর



হজ ইসলামের অন্যতম স্তম্ভ

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৬ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০২ জুলাই 2০২2 |
Image

হজ ইসলামের পঞ্চম রুকন বা স্তম্ভ। হজ শব্দের অর্থ কোনো পবিত্র স্থান দর্শনের সংকল্প করা। ইসলামী পরিভাষায় হজ অর্থ আল্লাহ রব্বুল আলামিনের সন্তুষ্টিলাভের উদ্দেশ্যে নির্দিষ্ট স্থানগুলো এবং খানায়ে কাবা তাওয়াফ, ৯ জিলহজ আরাফাতের ময়দানে উপস্থিত থাকা এবং অন্য কয়েকটি স্থানে আল্লাহ ও রসুলের নির্দেশিত অনুষ্ঠান পালন। আল্লাহ রব্বুল আলামিন ইরশাদ করছেন, ‘আর তোমরা আল্লাহর উদ্দেশ্যে হজ ও ওমরাহ পরিপূর্ণভাবে পালন কর।’ (সুরা বাকারা আয়াত ১৯৬)

অন্যত্র ইরশাদ কচ্ছে, ‘আর প্রত্যেক মানুষের ওপর ফরজ এ ঘরের হজ করা, যে এ ঘর পর্যন্ত যাতায়াতের (দৈহিক ও আর্থিক) সামর্থ্য রাখে। আর যে ব্যক্তি তা অস্বীকার করে তবে আল্লাহ সমগ্র সৃষ্টিজগতের মুখাপেক্ষী নন।’ (সুরা আলে ইমরান, আয়াত ৯৭)

আবদুল্লাহ ইবনে ওমর (রা.) থেকে বর্ণিত। রসুলুল্লাহ (সা.) বলেছেন, ‘পাঁচটি বিষয়ের প্রতি ইসলামের ভিত্তি স্থাপন করা হয়েছে- এ কথার সাক্ষ্য দেওয়া যে আল্লাহ ছাড়া আর কোনো উপাস্য নেই এবং মুহাম্মদ আল্লাহর রসুল, নামাজ কায়েম, জাকাত আদায়, বায়তুল্লাহর হজ ও রমজানের রোজা রাখা।’ (বুখারি, মুসলিম)

হজ সম্পর্কে বিপুলসংখ্যক হাদিস রয়েছে। আবু হুরায়রা (রা.) বলেন, ‘নবী আমাদের উপস্থিতিতে বললেন, হে লোকেরা! আল্লাহ তোমাদের ওপর হজ ফরজ করেছেন। কাজেই তোমরা হজ কর। উপস্থিত জনৈক ব্যক্তি জিজ্ঞাসা করলেন, হে আল্লাহর রসুল! প্রতি বছরই কি হজ? তিনি নিরুত্তর রইলেন। অগত্যা ওই ব্যক্তি এ প্রশ্নটি পরপর তিনবার করলেন। তখন রসুলুল্লাহ বললেন, উত্তরে যদি আমি হ্যাঁ বলতাম, তাহলে তোমাদের ওপর প্রতি বছর হজ ফরজ হয়ে যেত, অথচ তা পালন করার সামর্থ্য তোমাদের থাকত না। এরপর তিনি বললেন, যতক্ষণ আমি তোমাদের ছেড়ে দিই, তোমরাও আমাকে ছেড়ে রেখ। কারণ, তোমাদের পূর্ববর্তী যারা ছিল তারা অতিরিক্ত প্রশ্ন করার ও নিজেদের নবীদের ব্যাপারে মতবিরোধের কারণে ধ্বংস হয়ে গেছে। কাজেই যখন আমি তোমাদের কোনো কিছুর হুকুম দিই, তোমাদের সামর্থ্য অনুযায়ী পালন কর। আর যখন কোনো কাজ থেকে বারণ করি, তা থেকে বিরত থেক।’ (মুসলিম) করোনাভাইরাসের কারণে এ বছর হজ পালন সীমিত করা হয়েছে। আমরা আল্লাহর দরবারে মিনতি জানাব, এ মুসিবত থেকে তিনি যেন আমাদের সবাইকে মাফ করেন। আল্লাহ আমাদের সবাইকে হজ পালনের তৌফিক দান করুন।


আরও খবর

১০ জুলাই পবিত্র ঈদুল আযহা

শুক্রবার ০১ জুলাই ২০২২




কাপ্তাই পানি বিদ্যুৎ কেন্দ্রে উৎপাদন বেড়েছেঃ চালু হলো ৩নং ইউনিট

প্রকাশিত:রবিবার ১৯ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০২ জুলাই 2০২2 |
Image

উচিংছা রাখাইন,রাঙ্গামাটি প্রতিনিধি 

গত কয়েকদিনের টানা বর্ষণে উজান হতে নেমে আসা পাহাড়ী ঢলের ফলে কাপ্তাই হ্রদের পানির পরিমান কিছুটা বৃদ্ধি পেয়েছে। যার ফলে পানির উপর নির্ভরশীল দেশের একমাত্র পানি বিদ্যুৎ কেন্দ্র রাঙ্গামাটির কাপ্তাই পানি বিদ্যুৎ কেন্দ্রে উৎপাদন কিছুটা বেড়েছে।

কাপ্তাই পানি বিদ্যুৎ কেন্দ্রের ব্যবস্থাপক এটিএম আব্দুজ্জাহের সাথে রবিবার (১৯ জুন)  সকালে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি এই প্রতিবেদককে জানান, রবিবার ৮টা পর্যন্ত কাপ্তাই পানি বিদ্যুৎ কেন্দ্রে ৫টি ইউনিট এর মধ্যে ৩টি ইউনিটে মোট ৯৮ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন হয়েছে। তৎমধ্যে ২নং ইউনিটে ৩৯ মেগাওয়াট, ৩নং ইউনিটে ২৯ মেগাওয়াট এবং ৫নং ইউনিটে ৩০ মেগাওয়াট উৎপাদন হচ্ছে। 

এছাড়া ১নং ইউনিট পুর্নবাসনের জন্য বন্ধ থাকলেও ৪নং ইউনিটটি হ্রদে পানির বৃদ্ধি পেলে প্রয়োজনে চালু করা হবে বলে তিনি জানান। 

কাপ্তাই পানি বিদ্যুৎ কেন্দ্রের কন্ট্রোল রুম সূত্রে জানা যায়, কাপ্তাই হ্রদে পানির ধারণ ক্ষমতা ১০৯ মিনস সি লেভেল (এমএসএল)। কাপ্তাই হ্রদে বর্তমানে ৮৯.৭৬ এমএসএল পানি থাকার কথা থাকলেও রবিবার সকাল ৯টা পর্যন্ত ৭৭.০৪ এমএসএল পানি রয়েছে।

কেন্দ্রের ব্যবস্থাপক আরোও জানান, এখন বর্ষা মৌসুম প্রচুর বৃষ্টিপাত হচ্ছে, যার ফলে ধীরে ধীরে কাপ্তাই হ্রদে পানি বাড়লে বিদ্যুৎ উৎপাদন আরোও বাড়বে।

উল্লেখ্য, কাপ্তাই পানি বিদ্যুৎ কেন্দ্রের ৫টি ইউনিটের বিদ্যুৎ উৎপাদন ক্ষমতা ২ শত ৩০ মেগাওয়াট।


আরও খবর



ভারতর কাছে ১০ লাখ টন গম চাইলো বাংলাদেশ

প্রকাশিত:শনিবার ১১ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০২ জুলাই 2০২2 |
Image

বাংলাদেশ সরকার দ্রুত ১০ লাখ টন গম রপ্তানির অনুমতি দিতে ভারতকে অনুরোধ জানিয়েছে। সেই সঙ্গে ভারতীয় সরকারকে জানানো হয়েছে, ভারত গম রপ্তানি নিষিদ্ধ করার আগেই বাংলাদেশি আমদানিকারকদের ঋণপত্র (এলসি) করা আছে।

ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে লেখা এক চিঠিতে নয়াদিল্লিতে বাংলাদেশ হাইকমিশন এসব কথা জানায়। এর একটি কপি ভারতীয় মন্ত্রণালয়টির হাতে আছে।

প্রতিবছর ভারত থেকে ৬৭ লাখ টন গম আমদানি করে বাংলাদেশ। এর মধ্যে ১২ থেকে ১৩ লাখ টন আন্তর্জাতিক দরপত্রের মাধ্যমে আমদানি করা হয়। আর ৫০ লাখ টনেরও বেশি দেশের বেসরকারি বাণিজ্যের মাধ্যমে করা হয়ে থাকে।

সূত্র : দ্য ইকোনমিক টাইমস


আরও খবর

ছোট ও মাঝারি গরুর দাম বেশি

শুক্রবার ০১ জুলাই ২০২২