Logo
শিরোনাম

ভালোবাসা কাকে বলে?

প্রকাশিত:শনিবার ৩০ জুলাই ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ |
Image

মাজহারুল ইসলাম মাসুম, সিনিয়র সাংবাদিক, লেখক, গবেষক


সত্যিকারের ভালোবাসা হলো আত্মার সাথে আত্মার সম্পর্ক
যা মনে মনে ভাবছেন আপনার ভালবাসার মানুষ তা অনুভব করে | বেশিরভাগ বিষয়ে আপনাকে ছাড় দেয় | আপনার ভালোলাগার বস্তুকে প্রাধান্য দেয় |

আপনার চিন্তাধারাকে রেসপেক্ট করে |সে কখনো চাইবে না আপনার মনে আঘাত দিতে।যদি সময়ের ব্যবধানে কাউকে তীব্র থেকে তীব্রতর ভাবে চাইতে থাকেন, যদি কারো অভাব কোনভাবেই আপনি কাউকে দিয়ে পূরন করতে না পারেন, যদি তার প্রত্যেকটা খুশিতে আপনার খুশি হয় তাহলে সেটা সত্যি ভালোবাসা।

সত্যিকারের ভালোবাসা মাপার জন্য আজ অবধি কনো লাভ মিটার আবিষ্কার হয় নাই, সত্যিকারে ভালবাসা বুঝতে হলে বোঝার মত মন থাকতে হয়। নিজের মনকে প্রশ্ন করে সঠিক উত্তর টি পেয়ে যাবেন
যদি আপনার ভালোবাসার মানুষটি আপানকে কষ্ট দেওয়ার পরেও আপনি তার সব কিছু মেনে নিয়ে আগের থেকে বেশি মিস করছেন তাহলে আপনার ভালোবাসা সত্যিকারের ভালোবাসা।
যার কষ্টে আপনি কষ্ট পাবেন, যাকে খুব বেসি মিস করবেন, দুরে থাকলে সারাক্ষণ তাকে নিয়েই ভাববেন, যার খুশিতে আপনার ভালো লাগে, যে আপনার পাসে আসলে আপনার সমস্ত কষ্ট চলে যায় , এবং একই কাজ যাকে নিয়ে ভাবেন তার মাঝেও হয়, এইটাই সত্যিকারের ভালবাসাআপনি যাকে চান সেকি আপনাকে চায়?

এই বিষয় টা প্রত্যেকটা রিলেশন এর মধ্যে দন্ড সৃষ্টি করে আসলে মানুষের মন বদলাতে সময় নেয় না আপনি যাকে ভালোবাসেন তার উপর বিশ্বাস ধরে না রাখতে পারলে ভালোবাসা কখনোই টিকবে না ভালোবাসতে শিখুন বিশ্বাস এর উপর পৃথিবী চলে তাই আপনার ভালোবাসার মানুষটি কস্ট পায় এমন কোন কাজ করবেন না
রিলেশন এ অনেক বাধা আসে তবে যদি তার হ্মুদ্র থেকে হ্মূদ্র তম অবহেলা গুলো মেনে নিতে না পারেন আপনি কখনো একটা ভালবাসার সম্পর্কে সুখি হতে পারবেন না কখনো এমন কিছুর আসা করবেন না যেটা তার স্বাধীনতা কে হ্মুন্ন করে । যে তোমাকে সত্যিকারের ভালোবাসবে, সে তার জীবনে তোমাকে সাথে পাওয়ার পর কখনো তোমাকে হারাতে চাইবে না

সত্যিকারের ভালোবাসার মানুষটি সর্বদা সৃষ্টিকর্তার কাছে তোমার জন্য ফরিয়াদ করবে লোক দেখানো ভালোবাসার নামে সুজোগ খুজবে না।


আরও খবর



আ.লীগের মনোনয়ন বোর্ডের যৌথসভা

প্রকাশিত:শনিবার ১০ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ |
Image

আওয়ামী লীগের সংসদীয় ও স্থানীয় সরকার জনপ্রতিনিধি মনোনয়ন বোর্ডের যৌথসভা আগামীকাল শনিবার অনুষ্ঠিত হবে। এদিন বিকেল ৪টায় প্রধানমন্ত্রীর শেখ হাসিনার সরকারি বাসভবন গণভবনে এ যৌথসভা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে।

শুক্রবার আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে৷

এতে আরও বলা হয়, সভায় সভাপতিত্ব করবেন আওয়ামী লীগের সংসদীয় ও স্থানীয় সরকার জনপ্রতিনিধি মনোনয়ন বোর্ডের সভাপতি এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

সভায় আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের এমপি সংশ্লিষ্ট সকলকে স্বাস্থ্য সুরক্ষা বিধি মেনে যথাসময়ে উপস্থিত থাকার জন্য আহ্বান জানিয়েছেন।

সূত্র : বাসস


আরও খবর

পুলিশের পক্ষে বললেন খামেনি

মঙ্গলবার ০৪ অক্টোবর ২০২২




নাটরের লালপুরে বৃষ্টির পানি নিষ্কাশনকে কেন্দ্র করে যুবক গুলিবৃদ্ধ

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ |
Image

নিজস্ব প্রতিনিধি:  নাটরের লালপুরে বৃষ্টির পানি নিষ্কাশনকে কেন্দ্র করে ২ পক্ষের বাক বিতন্ডের এক র্পযায়ে প্রতিপক্ষের গুলিতে রজব সরদার নামে এক যুবক গুলিবৃদ্ধ সহ ৪জন আহত হয়েছেন।

মঙ্গলবার ১৩ই সেপ্টেম্বর দুপুরে উপজেলার বিলমারিয়া ইউনিয়নের নাগশোষা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। গুলিবৃদ্ধ যুবক রজব সরদার একই গ্রামের ফজর সরদারের ছেলে। এছাড়াও রেখা, ফরিদা,ও রাকিব, নামে আরো তিনজন আহত হয়েছে।

স্থায়ী ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার দুপুরে বৃষ্টির পানি নিষ্কাশনকে কেন্দ্র করে রজবের সাথে একই এলাকার শীর্ষ সন্তাসী ও মাদক ব্যবসায়ী সুমন,সবার,ও রুবেলের বাক বিতন্ড হয়। এক পর্যায়ে সন্তাসী সুমন তার কাছে থাকা অবৈধ অস্ত্র বের করে রজব সরদার ও তার ভাইদেরকে লক্ষ করে কয়েক রাউন্ড গুলি করে। এক পর্যায়ে রজব গুলিবৃদ্ধ হয়। স্বজনরা রবজকে উদ্ধার করে লালপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কতব্যরত চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন। হাসপাতালে খবর নিয়ে জানা যায় রজব সরদারের অবস্থা আশংকা জনক,এবং এখনও গুলি বের করা সম্ভব হয়নি।

পরে রজব সরদারের ভাই আনারুল সরদার বাদী হয়ে শীর্ষ সন্তাসী ও মাদক ব্যবসায়ী সুমন কে প্রধান আসামী করে  ৭জনের নামে লালপুর থানায় একটা হত্যা চেষ্টা মামলা দায়ের করে।

এবিষয়ে লালপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকতা মনুয়ারুজ জামান বলেন, পানি নামাকে কেন্দ্র করে এঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনা স্থল থেকে ১রাউড গুলির খোসা ও ১রাউড পিস্তলের তাজা গুলি উদ্ধার করে। এছারা ৫ জন আসামী আদালতে আত্বসমারপন করে জামিনে আছে। প্রধান আসামী সুমনকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।


আরও খবর



সাংবাদিকদের উপর হামলার প্রতিবাদে ডেমরায় সমাবেশ ও চার থানা কমিটি ঘোষণা

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৩ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ |
Image

হাসিবুল ইসলাম: সোমবার বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরামের রাজধানীর ওয়ারী জোনের আওতাধীন ডেমরা স্টাফ কোয়ার্টার মাঠে আয়োজিত সাংবাদিক নির্যাতন ও সুরক্ষা আইন প্রণয়নের দাবিতে আয়োজিত আলোচনা সভায় আয়োজন করা হয়। বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরামের ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান আহমেদ আবু জাফর। তিনি সরকারকে সাংবাদিক সুরক্ষা আইন প্রণয়ণসহ ১৪ দফা দাবি বাস্তবায়ন করতে জোড়ালো আহবান জানান। দেশে অহরহ সাংবাদিক নির্যাতন ঘটনা যেন থামছেইনা। সাংবাদিক সুরক্ষা আইন না থাকায় এমন পরিস্থিতির সৃষ্টি হচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন। 

উদ্বোধনী বক্তব্যে রাখেন অনুষ্ঠান উদযাপন কমিটির আহ্বায়ক মো. শফিকুল ইসলাম সাদ্দাম যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক, বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম, কেন্দ্রীয় কমিটি। সদস্য সচিব সেলিম নিজামির সভাপতিত্বে, প্রধান অতিথি ছিলেন এশিয়ান টিভির চেয়ারম্যান আলহাজ্ব হারুন অর রশিদ (সিআইপি)। বিশেষ অতিথি ছিলেন ডেমরা থানার অফিসার ইনচার্জ মো: শফিকুর রহমান, ঢাকা সিটি কর্পোরেশনের ৬৮ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মাহমুদুল হাসান পলিন, চিত্রনায়ক যুবরাজ খান, বিএমএসএফের কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আবুল খায়ের খান, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ খায়রুল আলম,সদস্য আমির হোসেন, পূর্বাঞ্চল সাংবাদিক ইউনিটির সভাপতি ওমর ফারুক জালাল, স্বাস্থ্য এন্ড পরিবেশ মানবাধিকার সাংবাদিক সোসাইটির চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলম খান, শরিফুল ইসলাম বিপ্লব।


অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সাংবাদিক মুন্সি মোঃ আল ইমরান, রফিকুল ইসলাম, রেজাউল করিম,  মোঃ সাইফুল ইসলাম পারভেজ, রেভা খান, সুমন খান,  মনির হোসেন, সভায় নেতৃবৃন্দ সারাদেশে সাংবাদিকদের ওপর অব্যাহত হামলা, নির্যাতন, জেল জরিমানার নীল নকশার কালো আইন বাতিল, সাংবাদিক সুরক্ষা আইন প্রণয়নসহ ১৪ দফা দাবি বাস্তবায়নে সরকার এবং গণমাধ্যম মালিকদেরকে আন্তরিক হওয়ার আহবান জানানো হয়। সমাবেশে ওয়ারী জোনের ৪টি থানার কমিটি ঘোষণার মধ্য দিয়ে সাংবাদিকদের মাঝে একটি বৃহৎ ঐক্যের সুচনা করা হয়। যাত্রাবাড়ী থানা কমিটির সর্বসম্মতিক্রমে সভাপতি  মোঃ সাইফুল ইসলাম পারভেজ ও সাধারণ সম্পাদক মুন্সি আল ইমরান নির্বাচিত হন, শ্যামপুর থানার সভাপতি মোঃ সহিদুল ইসলাম জনি সাধারণ মোঃ মনির নির্বাচিত হন। ডেমরা থানার সভাপতি সেলিম নিজামী ও সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম, কদমতলী থানার সভাপতি অ্যাডভোকেট মহিউদ্দিন  ও ইঞ্জিনিয়ার হাসান সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন।

সমাবেশ শেষে বিভিন্ন শিল্পীর অংশগ্রহনে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।


আরও খবর



মোরেলগঞ্জে সমাজকর্ম দিবসে আলোচনা সভা

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ০৫ অক্টোবর ২০২২ |
Image

এম.পলাশ শরীফ, নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে সমাজকর্ম দিবস ২০২২ উপলক্ষে র‌্যালী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলা সমাজ সেবা অফিসের আয়োজনে সিএসপিবি প্রকল্প, ফেইজ-২ সমাজ সেবা অধিদপ্তরের সহযোগিতায় উপজেলা প্রশাসনিক চত্ত¡র  র‌্যালী শেষে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. জাহাঙ্গীর আলম।

 শিশু সুরক্ষায় সমজকর্মীর গুরুত্ব আলোচ্য বিষয়ের ওপর স্বাগত বক্তাব্য রাখেন উপজেলা সমাজ সেবা অফিসার গৌতম কুমার বিশ্বাস। অন্যান্যের মধ্যে আলোচনা করেন মোরেলগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ফজলুল হক খোকনসহ বিভিন্ন ভাতাভোগীরা।

সভায় বক্তারা বাল্য বিবাহ প্রতিরোধ, কিশোর-কিশোরিদের মাদকাসক্ত থেকে রক্ষা করা, ধর্ষিতদের আইনের সহায়তা প্রদানে ভুমিকা রাখা ১০৯৮ নম্বরে ফোন দিয়ে অভিযোগ জানানোর অনুরোধ জানান। 


আরও খবর



১০ কোটি টাকা চেয়ে আদালতে সেই জজ মিয়া

প্রকাশিত:সোমবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ |
Image

২০০৪ সালের ২১ আগস্ট ঢাকার বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে তৎকালীন বিরোধীদলীয় নেতা শেখ হাসিনার সমাবেশে গ্রেনেড হামলা মামলায় ফাঁসানো আসামি জজ মিয়া ১০ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ চেয়ে এবার হাইকোর্টে রিট করেছেন। গত (১২ সেপ্টেম্বর) বিচারপতি মো. মজিবুর রহমান মিয়া ও বিচারপতি মো. রিয়াজ উদ্দিন খানের হাইকোর্ট বেঞ্চ থেকে তার আইনজীবী মোহাম্মদ হুমায়ন কবির পল্লব এ বিষয়ে রিট করার অনুমতি নেন।

এর আগে ১১ আগস্ট জজ মিয়ার পক্ষে আইনজীবী মোহাম্মদ হুমায়ন কবির পল্লব ও আইনজীবী মোহাম্মদ কাউছার স্বরাষ্ট্র সচিব, আইজিপি, তৎকালীন স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী লুৎফুজ্জামান বাবরসহ ১১ জন বরাবরে এ বিষয়ে আইনি নোটিশ দেন। আরো যাদের কাছে নোটিশ পাঠানো হয়েছে, তারা হলেন- ঢাকার জেলা প্রশাসক, মতিঝিল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি), নোয়াখালীর সেনবাগ থানার ওসি, পুলিশের অপরাধ ও তদন্ত বিভাগ (সিআইডি), তৎকালীন আইজিপি খোদা বক্স চৌধুরী, তৎকালীন এএসপি আব্দুর রশিদ, তৎকালীন এএসপি মুনশি আতিকুর রহমান এবং তৎকালীন বিশেষ পুলিশ সুপার মো. রুহুল আমিন।

নোটিশে ওই ঘটনার জন্য জড়িত ব্যক্তিদের দায় নির্ধারণের অনুসন্ধান কমিটি গঠন করতে বলা হয়েছে। যাদের দায় পাওয়া যাবে তাদের কাছ থেকে ওই ক্ষতিপূরণ আদায় করে জজ মিয়াকে দিতে বলা হয়েছে। পাশাপাশি লুৎফুজ্জামান বাবরসহ জড়িত ব্যক্তিদের স্থাবর সম্পত্তি জব্দের আইনগত পদক্ষেপের উদ্যোগ নিতে বলা হয়েছে। নোটিশে এ বিষয়ে পদক্ষেপ নিতে ১৫ দিন সময় দেওয়া হয়েছে, অন্যথায় হাইকোর্টের রিট করা হবে বলে জানিয়েছেন আইনজীবী। তবে নোটিশে কোনো সাড়া না পেয়ে এবার হাইকোর্টে রিট করছেন জজ মিয়া।

২০০৪ সালের ২১ আগস্ট ঢাকার বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে তৎকালীন বিরোধীদলীয় নেত্রী শেখ হাসিনার সমাবেশে গ্রেনেড হামলা চালানো হয়। এতে দলের নেতাকর্মীসহ ২২ জন নিহত হন।


আরও খবর

শিগগিরই বাড়ছে বিদ্যুতের দাম

মঙ্গলবার ০৪ অক্টোবর ২০২২