Logo
শিরোনাম

যেভাবে নিবন্ধন করবেন মালয়েশিয়ায় গমনেচ্ছুরা

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৪ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ১০ আগস্ট ২০২২ |
Image

মালয়েশিয়ায় গমনেচ্ছু কর্মীদের বিএমইটির ডাটাবেজে নিবন্ধন করতে হবে। বৈদেশিক কর্মসংস্থান ও অভিবাসী আইন, ২০১৩ অনুসারে বিএমইটি ডাটাবেজে নিবন্ধনকৃত কর্মীদের থেকে স্বয়ংক্রিয় পদ্ধতিতে কর্মী নির্বাচন করা হবে। এ জন্য বাংলাদেশ জনশক্তি কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরো মালয়েশিয়া গমনেচ্ছুদের নিবন্ধন করার আহ্বান জানিয়ে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে।

যেভাবে নিবন্ধন করবেন বিএমআইটি’র আওতাধীন সব জেলা কর্মসংস্থান ও জনশক্তি অফিস (ডিইএমও) অথবা নির্ধারিত কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র সরাসরি উপস্থিত হয়ে নিবন্ধন করা যাবে। প্রতিটি সফল নিবন্ধনের জন্য ২০০ টাকা সরকারি ফি প্রদান করতে হবে।

এছাড়াও সরকার কর্তৃক অনুমোদিত ‌‘আমি প্রবাসী’ অ্যাপ ব্যবহার করে নিবন্ধন করা যাবে। এ ক্ষেত্রে সফল নিবন্ধনের জন্য সরকারি নিবন্ধন ফি ২০০ টাকার অতিরিক্ত আরও ১০০ টাকা প্রদান করতে হবে।

নিবন্ধন নম্বর ও এর কার্যকারিতা নিবন্ধনের তারিখ থেকে ২ বছর পর্যন্ত বহাল থাকবে।

ডাটাবেজে নিবন্ধন করার যোগ্যতা

১। কর্মীর বয়স ১৮-৪৫ বছরের মধ্যে হতে হবে।

২। ইতোমধ্যে যারা নিবন্ধন করেছেন তাদের নতুন করে নিবন্ধন করার প্রয়োজন নেই। তবে পরবর্তীতে দেশ ও পেশার তথ্য আপডেট করতে পারবেন।

৩। এছাড়াও পাসপোর্ট, পাসপোর্ট সাইজের ছবি, নিজের মোবাইল নম্বর, ই-মেইল ও দক্ষতা সনদ থাকতে হবে।

‘আমি প্রবাসী’ অ্যাপের মাধ্যমে নিবন্ধন করবেন যেভাবে আমি প্রবাসী অ্যাপের মাধ্যমে গমনেচ্ছু কর্মীরা ঘরে বসেই বিএমইটির ডাটাবেজে রেজিস্ট্রেশন করতে পারবেন। অ্যাপটি ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে


আরও খবর

আন্তর্জাতিক আদিবাসী দিবস

মঙ্গলবার ০৯ আগস্ট ২০২২




ইউরোপে গরমে গলে যাচ্ছে রাস্তাঘাট !

প্রকাশিত:সোমবার ২৫ জুলাই ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৯ আগস্ট ২০২২ |
Image

ইউরোপের অনেক বাড়ি বা পথঘাটই পুরনো প্রযুক্তিতে তৈরি। এগুলি এই ভয়ানক তাপের সঙ্গে লড়তে পারছে না। গলে যাচ্ছে রাস্তাঘাট, বেঁকে যাচ্ছে রেললাইন, ফেটে যাচ্ছে বাড়িঘর।

ইউরোপের আবহাওয়ার ধীরে ধীরে অবনতি ঘটছে। গোটা ইউরোপের তাপপ্রবাহ ক্রমশ নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাচ্ছে। স্পেন, জার্মানি, ইংল্যান্ড, পর্তুগালে বাতাসে যেন আগুনের হলকা। যুক্তরাজ্যে এই প্রথম আবহাওয়ার রেড অ্যালার্ট ঘোষিত হল। তাপের জেরে নষ্ট হচ্ছে ভূ-সম্পত্তি, প্রাণিজ সম্পত্তি। যা সংশয়ে ফেলে দিয়েছে অর্থনীতিকেও।

গত কয়েক দিন থেকেই দক্ষিণ ইউরোপের দেশগুলিতে প্রচণ্ড গরম ও দাবানলের পর এখন মধ্য ও উত্তর ইউরোপের দেশগুলিতেও দাবদাহের প্রকোপ ছড়িয়ে পড়েছে। চরমভাবাপন্ন আবহাওয়ায় কয়েকশো ব্যক্তি মারা গেছেন।

জার্মানির একটি পত্রিকা ‘এই গ্রীষ্মে ইউরোপে আগুন’ শীর্ষক এক প্রতিবেদন ছেপেছে। বলেছে, দক্ষিণ ইউরোপে ফ্রান্স, স্পেন, ইতালি, ক্রোয়েশিয়া, পর্তুগাল, গ্রিসের বনভূমিতে দাবানল চলছে। এতে যে পরিমাণ ক্ষতি হচ্ছে তা পুনরুদ্ধার করতে কয়েক বছর সময় লাগবে। দাবানলের জেরে এসব দেশের কৃষিকাজ ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। বনভূমিতে অগ্নিকাণ্ডের কারণে বহু মানুষকে বাড়িঘর ছাড়তে হয়েছে।

খবর : জিনিউজ ডিজিটাল ব্যুরোর।


আরও খবর



বিদ্যুৎ চালিত অবৈধ যানবাহন বন্ধ করলে অনেকখানি বিদ্যুৎ সাশ্রয় করা সম্ভব

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৯ জুলাই ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৯ আগস্ট ২০২২ |
Image

মইনুল ইসলাম মিতুল : রাজধানীর মূল সড়কে না চললেও স্থানীয় সড়কগুলোতে বেশ বেপরোয়া ভাবেই চলছে ব্যাটারি চালিত রিক্সা। ২০১৭ সালে রাজধানীতে ব্যাটারিচালিত রিক্সা বন্ধে হাইকোর্টের নির্দেশনা থাকলেও তা উপেক্ষা করে বিভিন্ন অলিতে-গলিতে এখনো চলছে এই ব্যাটারিচালিত রিক্সা। যার ফলে যানজট লোডশেডিংয়ের পাশাপাশি ছোট-বড় দুর্ঘটনাও ঘটছে অহরহ।

 

অলিতে-গলিতে চলাচল থাকলেও শুধু ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনেই এই ধরণের রিক্সার সংখ্যা দুই লাখের বেশি। আর রাজধানী জুড়ে ধরণের ব্যাটারি চালিত রিক্সার সংখ্যা চার লাখেরও বেশি।  এবং সারাদেশে ষাট লাখেরও বেশি। 

চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের সঙ্গে তাল মিলিয়ে এগিয়ে যাওয়া বাংলাদেশে যন্ত্রের প্রতি  নির্ভরযোগ্যতা বেড়েছে। কিন্তু টমটম বা পঙ্খিরাজ নামে পরিচিত ধরণের অটোরিক্সা মানুষের জীবনকে সহজ করার বদলে কোন কোন ক্ষেত্রে আরো জটিল সমস্যার সৃষ্টি করছে। নিয়ন্ত্রণহীন গতি এবং চালকদের বেপরোয়া আচরণ এবং হর্নের মাধ্যমে শব্দ দূষণের কারণে বেশ সমালোচিত এই যানবাহনের কদর বেড়েছে দ্রুতযান ভাড়া কম হবার কারণে।

আদালতের নিষেধাজ্ঞা থাকলেও স্থানীয় ক্ষমতাসীন রাজনৈতিক নেতাকর্মী আইন প্রয়োগকারী সংস্থার ছত্র ছায়ায় এখনো চলমান এই রিক্সাগুলোর নিয়ন্ত্রণ মহাজনদের হাতে।

এই সকল রিক্সাগুলো ব্যাটারি চালিত হওয়ায়, এতে বৈদ্যুতিক খরচ বাবদ মাস প্রতি গুনতে হয় ১৫০০-২০০০ টাকা। আর এই সকল বৈদ্যুতিক লাইন অবৈধ হওয়ায় লোডশেডিংয়ে ভুগতে হয় নিয়মিত বিদ্যুৎ বিল প্রদান করা গ্রাহকদের । যার ফলে প্রতি মাসে বিপুল পরিমান বিদ্যুৎ বিল থেকে বঞ্চিত হচ্ছে সরকার  ।

বিদ্যুৎ সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানগুলোর মতে, বর্তমানে চাহিদা অনুসারে বিদ্যুৎ সরবরাহে কোন ঘাটতি ছিলনা। কিন্তু তারপরও মাঝে মধ্যে লোডশেডিং ছিল, যার মূল কারণ অবৈধ সংযোগ। নিয়মিত অভিযান চালিয়ে অবৈধ সংযোগ বন্ধ করা হলেও আবারো তা চালু হয়ে যায়।

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নুর তাপস বলেছিলেন ব্যাটারি চালিত কোনো যান আর সড়কে চলবে না। ঢাকা দক্ষিণ সিটির সড়ক গুলোতে এই সকল যান পাওয়া গেলে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আইন করা হলেও আইনি ভাবে তেমন পদক্ষেপ না নেয়ার ফলে ঢাকা দক্ষিণ সিটির আওতায় খিলগাঁও, বাসাবো, রামপুরা, বনশ্রী, মাদারটেক, যাত্রাবাড়ী, মান্ডা, ডেমরা, পুড়ান ঢাকা সহ বিভিন্ন এলাকাতে চলছে এই ব্যাটারি চালিত রিক্সা। উত্তর সিটি করপোরেশন ভুক্ত মিরপুরের বেশ কিছু এলাকায়, ভাটারা, আশকোনা উত্তরার কিছু স্থানেও বিনা বাঁধায় চলছে ব্যাটারি চালিত রিক্সা।

প্রাথমিক পর্যায়ে দরিদ্র প্রতিবন্ধীদের আয়ের উৎস হিসাবে এই সকল রিক্সা চলতে দেওয়া হলেও বর্তমানে তা ব্যবহার করছে সকলে। এই যান চালাতে সহজ হওয়ায় অনেক সুস্থ মানুষ প্যাডেল চালিত রিক্সা ছেড়ে বেছে নিচ্ছে এই ব্যাটারি চালিত রিক্সা।

অনেক যাত্রী সময় বাঁচাতে বা সাশ্রয়ী হওয়ায় ব্যাটারি রিক্সা ব্যবহারে আগ্রহী হয়, আবার অনেকে ধরণের রিক্সার বেপরোয়া গতি দেখে অনিচ্ছাও প্রকাশ করে।

অনেকে এদের বলে বিপদজনক। অজস্র দুর্ঘটনার জন্য দায়ী এরা। বেশ গতিমান এবং কাঠ ও লোহার তৈরি দেহের কারণে ভরবেগও এদের মন্দ না। অন্যদিকে এদের গতিনিয়ন্ত্রণের ব্যবস্থা খুবই খারাপ, আধুনিক বাহনের বৈশিষ্ট্য সুলভ অন্যান্য নিরাপত্তা বন্দোবস্ত এই গাড়িগুলোতে নেই বললেই চলে। দেশের বহু অঞ্চলে বাস-ট্রাক-লরিসহ সকল প্রকার পরিবহণ মালিক ও শ্রমিকরা বেশ কয়েকবার ধর্মঘট করেছেন মহাসড়কে এদের চলাচলের বিরুদ্ধে। বহু স্থানে কঠোর পুলিশী বন্দোবস্ত করেও এদের নিয়ন্ত্রণ করা যায়নি। 

 

 

 


আরও খবর

আন্তর্জাতিক আদিবাসী দিবস

মঙ্গলবার ০৯ আগস্ট ২০২২




চুল পড়া বন্ধে কাজে লাগাতে পারেন তুলসী পাতা

প্রকাশিত:শনিবার ০৬ আগস্ট ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ১০ আগস্ট ২০২২ |
Image

মাথায় চিরুনি দিলেই পড়ছে চুল? চুল পড়া বন্ধে কাজে লাগাতে পারেন তুলসী পাতা। এই ভেষজ যেমন চুলের গোড়া মজবুত করবে, তেমনি খুশকি দূর করে চুল করবে ঝলমলে ও মসৃণ। বিভিন্নভাবে চুলের যতœ নেওয়ার পরেও যদি চুল পড়া না কমে, তবে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে।

তুলসী পাতা সামান্য পানি দিয়ে বেটে চুলে লাগান। শুকিয়ে গেলে শ্যাম্পু দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে একবার ব্যবহার করলে ফল পাবেন দ্রুত।

নারিকেল তেলের সঙ্গে তুলসী পাতা মিশিয়ে ফুটিয়ে নিন। ঠান্ডা হলে এই তেল ম্যাসাজ করুন চুলে। সারারাত রেখে পরদিন সকালে মাইল্ড শ্যাম্পু দিয়ে ধুয়ে নিন। এটি চুল পড়া কমানোর পাশাপাশি অকালে চুল পাকা রোধ করবে।

আমলকী গুঁড়ার সঙ্গে তুলসী পাতার গুঁড়া মিশিয়ে নিন। মিশ্রণটি পানিতে ভিজিয়ে রাখুন ৮ ঘণ্টা। এরপর চুলের আগা থেকে গোড়া পর্যন্ত লাগান। শুকিয়ে গেলে ধুয়ে ফেলুন। টক দইয়ের সঙ্গে মেশান তুলসী পাতার রস। মিশ্রণটি চুলের গোড়ায় লাগাতে দূর হবে খুশকি। মেহেদি গুঁড়ার সঙ্গে তুলসী পাতার গুঁড়া মিশিয়ে নিন। চায়ের লিকার দিয়ে মিশ্রণটি ভিজিয়ে রাখুন সারারাত। পরদিন চুলে লাগিয়ে ২০ মিনিট অপেক্ষা করে ধুয়ে ফেলুন। চুল কালো ও ঝলমলে হবে।


আরও খবর

মুখে ব্রণের দাগ দূর করতে

শনিবার ২৩ জুলাই ২০২২

যেভাবে কানের যত্ন নেবেন বর্ষা মৌসুমে

বৃহস্পতিবার ০৭ জুলাই ২০২২




শিশুদের আগস্ট মাসে টিকাদান শুরু হবে

প্রকাশিত:রবিবার ৩১ জুলাই ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৯ আগস্ট ২০২২ |
Image

৫ থেকে ১১ বছর বয়সী শিশুদের টিকাদানের উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। এ জন্য ১৫ লাখের বেশি ডোজ টিকা আমদানি করা হয়েছে। ইতোমধ্যে ঢাকায় পৌঁছেছে শিশুদের করোনা টিকা। আগস্ট মাসে টিকাদান শুরু হবে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সম্প্রসারিত টিকাদান কর্মসূচি (ইপিআই) জানিয়েছে, শনিবার (৩০ জুলাই) সকালে ঢাকায় পৌঁছেছে ৫ বছরের বেশি বয়সী শিশুদের জন্য বিশেষভাবে তৈরি ফাইজারের ১৫ লাখ ২ হাজার ৪০০ ডোজ টিকা।

সরকারের টিকা বিতরণ কর্মসূচির সদস্যসচিব ডা. সামসুল হক বলেন, চলতি মাসে টিকাদানের কথা থাকলেও নানা জটিলতায় তা সম্ভব হয়নি। এ জন্য আগস্টে টিকাদান শুরু হবে। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে কথা বলে পরে দিনক্ষণ ঠিক করা হবে।

উল্লেখ্য, দেশের ৮০ শতাংশ মানুষকে টিকার আওতায় আনতে প্রায় দেড় বছর আগে টিকাদান শুরু করে সরকার। পরে সেটি কমিয়ে ৭০ শতাংশে নামিয়ে আনা হয়। ইতোমধ্যে প্রায় ১৩ কোটি মানুষকে টিকার আওতায় আনা হয়েছে। পরিধি বাড়াতে প্রাপ্ত বয়স্কদের পাশাপাশি ১২ থেকে ১৭ বছর বয়সী শিশু-কিশোরদের পর এবার ৫ থেকে ১১ বছর বয়সীদেরও টিকা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার।

সরকারের জাতীয় ভ্যাকসিন ডেপ্লয়মেন্ট কমিটির প্রধান ও স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (পরিকল্পনা ও গবেষণা) অধ্যাপক ডা. সেব্রিনা ফ্লোরা বলেন, আমরা মাধ্যমিকের শিক্ষার্থীদের টিকা দিয়েছি। এবার ৫-১১ বছরের তথা প্রাইমারির শিক্ষার্থীদের টিকা দেওয়ারও সিদ্ধান্ত নিয়েছি। তাদের ক্ষেত্রেও ফাইজারের টিকা ব্যবহার করা হবে। জন্মনিবন্ধন দিয়ে সুরক্ষা অ্যাপে নিবন্ধনের মাধ্যমে টিকা নিতে হবে।


আরও খবর

আজ কলেরার দ্বিতীয় ডোজের টিকা

বুধবার ০৩ আগস্ট ২০২২




নোয়াখালীতে চিংড়িতে জেলি: দুই মাছ ব্যবসায়ীকে কারাদন্ড

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৪ আগস্ট ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৯ আগস্ট ২০২২ |
Image

নোয়াখালী প্রতিনিধিঃ

 নোয়াখালীর সদর উপজেলার পৌরবাজারে অভিযান চালিয়ে ১২০ কেজি চিংড়ি মাছ জব্দ করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। এ সময় চিংড়ি মাছে জেলি মিশিয়ে ওজন বাড়ানোর অপরাধে দুই মাছ ব্যবসায়ীকে সাত দিনের কারাদন্ড দেওয়া হয়।    

বৃহস্পতিবার  দুপুরে  ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ও সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নিজাম উদ্দিন আহমেদ এ অভিযান পরিচালনা করেন। 

ভ্রাম্যমাণ আদালত সূত্রে জানা যায়, দীর্ঘদিন থেকে মাইজদী পৌর বাজারে চিংড়ি মাছের মধ্যে ওজন বাড়ানোর জন্য জেলি মিশিয়ে বিক্রি করে আসছে কিছু অসাধু ব্যবসায়ী। এমন অভিযোগ পেয়ে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে দুই মাছ ব্যবসায়ীকে আটক করে তাদের সাত  দিনের কারাদন্ড দেওয়া হয়েছে এবং মাছ গুলো জব্দ করা হয়েছে। এ সময় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনায় সহযোগিতা করেন সুধারাম মডেল থানার পুলিশ।          পরে জব্দকৃত মাছগুলো মাটিতে পুতে ফেলা হয়।        


আরও খবর